| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   রাজনীতি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বিএনপির মিথ্যাচারের জবাব অনিচ্ছা সত্ত্বেও দিতে হয়: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির অপপ্রচার ও মিথ্যাচারের জবাব অনিচ্ছা সত্ত্বেও দিতে হয়, তা না হলে জনগণ তাদের মিথ্যাচারকেই সত্য বলে ধরে নেবে।

শুক্রবার (৯ জুলাই) সকালে তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

 

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকার দিনরাত জনকল্যাণে কাজ করছে আর বিএনপি দেশ ও জাতির দুর্যোগকালে তাদের দায়িত্বশীলতা ভুলে গিয়ে প্রতিনিয়ত মিথ্যাচার করছে। আওয়ামী লীগ দোষারোপের রাজনীতিতে বিশ্বাসী নয় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দেওয়ার মানসিকতাও আওয়ামী লীগ পোষণ করে না।

 

সাধারণ সম্পাদক বলেন, এখন রাজনীতি হচ্ছে মানুষের সুরক্ষার পাশাপাশি অসহায় ও খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়ানো কিন্তু বিএনপি করোনাকালেও প্রতিদিন সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে যাচ্ছে।

 

নেতিবাচক রাজনীতির কারণে নির্বাচন ও আন্দোলনে বিএনপির ব্যর্থতা স্পষ্ট উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের মেরুদণ্ড ভেঙে গেছে এবং সংগঠন হয়ে গেছে দুর্বল, তাই অনেকেই মনে করেন বিএনপি শেষ হয়ে গেছে।

 

 
ওবায়দুল কাদের মনে করেন বিএনপি, আওয়ামী লীগ বিরোধী সব শক্তির অভিন্ন প্ল্যাটফর্ম এবং তারা স্বাধীনতা-স্বার্বভৌমত্ব ও উন্নয়নবিরোধী সব অপশক্তির মোহনা।

 

বিএনপি সাংগঠনিকভাবে দুর্বল হতে পারে কিন্তু আওয়ামী লীগ বিরোধী বলয় হিসেবে তারা মোটেই দুর্বল নয় উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, এ দেশের রাজনীতিকে কলুষিত করতে জনগণ ও দেশের সম্পদ ধ্বংস এবং লুণ্ঠনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন শক্তি এখনও সক্রিয়।

 

সেতুমন্ত্রী বলেন, যে কোনো দুর্যোগ ও সংকটে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করে মিডিয়ায় ঝড় তোলাই বিএনপির স্বভাব। করোনাকালেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি।

 

শেখ হাসিনা সরকার যখন বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে জনগণের জীবন-জীবিকার সুরক্ষায় অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন তখন বিএনপি জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে ঘরে বসে পাঁচ দফা প্রস্তাব দিয়েই তাদের দায়িত্ব শেষ করেছে বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

 

তিনি বলেন, বিএনপি এর পরে একদিন বলতে শুরু করবে, সরকার বিএনপির পাঁচ দফা প্রস্তাব মানলে পরিস্থিতির আরও উন্নতি ঘটত। ওবায়দুল কাদের বলেন, এসব প্রস্তাবের অধিকাংশই ইতোমধ্যেই বাস্তবায়ন হয়েছে এবং কিছু বাস্তবায়নাধীন আছে।

 

বিএনপির প্রস্তাব চর্বিতচর্বণ, যা সংকট উত্তরণের জন্য নতুন কিছু নেই জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, সরকারকে পরামর্শ দিলেও দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি নিজেদের দায়িত্ব কী, তা নিয়ে একটি কথাও বলেনি।

 

ওবায়দুল কাদের অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি দেশের এই সংকটে মানুষের পাশে তো দাঁড়ায়নি, স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে ন্যূনতম কোনো সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন করতেও দেখা যায়নি।

 

বিএনপি লোক-দেখানো প্রস্তাব দিয়েই তাদের দায়িত্ব শেষ করেছে বলেও মনে করেন তিনি।

 

দুর্যোগ কিংবা সংকটে জনগণ থেকে দূরে সরে উট পাখির মতো বালিতে মাথা গুঁজে রাখার নীতিই বিএনপির রাজনীতি উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনাকালেও তারা সেই নীতি অনুসরণ করছে। অপরদিকে শেখ হাসিনা সরকার জনগণের সঙ্গে ছিল, আছে এবং থাকবে।

 

দুর্যোগ ও সংকটের পরীক্ষিত নেতৃত্ব শেখ হাসিনা দেশবাসীর জন্য প্রয়োজনে জীবনবাজি রেখে হলেও সাধ্যের সর্বোচ্চটুকু উজাড় করবেন- এ বিশ্বাস এবং আস্থা জনগণের রয়েছে বলে দাবি করেন ওবায়দুল কাদের।

 

ওবায়দুল কাদের মহামারি থেকে উত্তরণ ও জনগণের জীবন-জীবিকার সুরক্ষায় দলমত-নির্বিশেষে সবাইকে ঐকবদ্ধ হয়ে অদৃশ্য শত্রু মোকাবিলায় সরকারকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।
বিএনপির মিথ্যাচারের জবাব অনিচ্ছা সত্ত্বেও দিতে হয়: কাদের
                                  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির অপপ্রচার ও মিথ্যাচারের জবাব অনিচ্ছা সত্ত্বেও দিতে হয়, তা না হলে জনগণ তাদের মিথ্যাচারকেই সত্য বলে ধরে নেবে।

শুক্রবার (৯ জুলাই) সকালে তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

 

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা সরকার দিনরাত জনকল্যাণে কাজ করছে আর বিএনপি দেশ ও জাতির দুর্যোগকালে তাদের দায়িত্বশীলতা ভুলে গিয়ে প্রতিনিয়ত মিথ্যাচার করছে। আওয়ামী লীগ দোষারোপের রাজনীতিতে বিশ্বাসী নয় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দেওয়ার মানসিকতাও আওয়ামী লীগ পোষণ করে না।

 

সাধারণ সম্পাদক বলেন, এখন রাজনীতি হচ্ছে মানুষের সুরক্ষার পাশাপাশি অসহায় ও খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়ানো কিন্তু বিএনপি করোনাকালেও প্রতিদিন সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে যাচ্ছে।

 

নেতিবাচক রাজনীতির কারণে নির্বাচন ও আন্দোলনে বিএনপির ব্যর্থতা স্পষ্ট উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের মেরুদণ্ড ভেঙে গেছে এবং সংগঠন হয়ে গেছে দুর্বল, তাই অনেকেই মনে করেন বিএনপি শেষ হয়ে গেছে।

 

 
ওবায়দুল কাদের মনে করেন বিএনপি, আওয়ামী লীগ বিরোধী সব শক্তির অভিন্ন প্ল্যাটফর্ম এবং তারা স্বাধীনতা-স্বার্বভৌমত্ব ও উন্নয়নবিরোধী সব অপশক্তির মোহনা।

 

বিএনপি সাংগঠনিকভাবে দুর্বল হতে পারে কিন্তু আওয়ামী লীগ বিরোধী বলয় হিসেবে তারা মোটেই দুর্বল নয় উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, এ দেশের রাজনীতিকে কলুষিত করতে জনগণ ও দেশের সম্পদ ধ্বংস এবং লুণ্ঠনে বিএনপি নেতৃত্বাধীন শক্তি এখনও সক্রিয়।

 

সেতুমন্ত্রী বলেন, যে কোনো দুর্যোগ ও সংকটে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করে মিডিয়ায় ঝড় তোলাই বিএনপির স্বভাব। করোনাকালেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি।

 

শেখ হাসিনা সরকার যখন বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে জনগণের জীবন-জীবিকার সুরক্ষায় অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন তখন বিএনপি জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে ঘরে বসে পাঁচ দফা প্রস্তাব দিয়েই তাদের দায়িত্ব শেষ করেছে বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

 

তিনি বলেন, বিএনপি এর পরে একদিন বলতে শুরু করবে, সরকার বিএনপির পাঁচ দফা প্রস্তাব মানলে পরিস্থিতির আরও উন্নতি ঘটত। ওবায়দুল কাদের বলেন, এসব প্রস্তাবের অধিকাংশই ইতোমধ্যেই বাস্তবায়ন হয়েছে এবং কিছু বাস্তবায়নাধীন আছে।

 

বিএনপির প্রস্তাব চর্বিতচর্বণ, যা সংকট উত্তরণের জন্য নতুন কিছু নেই জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, সরকারকে পরামর্শ দিলেও দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি নিজেদের দায়িত্ব কী, তা নিয়ে একটি কথাও বলেনি।

 

ওবায়দুল কাদের অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি দেশের এই সংকটে মানুষের পাশে তো দাঁড়ায়নি, স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে ন্যূনতম কোনো সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন করতেও দেখা যায়নি।

 

বিএনপি লোক-দেখানো প্রস্তাব দিয়েই তাদের দায়িত্ব শেষ করেছে বলেও মনে করেন তিনি।

 

দুর্যোগ কিংবা সংকটে জনগণ থেকে দূরে সরে উট পাখির মতো বালিতে মাথা গুঁজে রাখার নীতিই বিএনপির রাজনীতি উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনাকালেও তারা সেই নীতি অনুসরণ করছে। অপরদিকে শেখ হাসিনা সরকার জনগণের সঙ্গে ছিল, আছে এবং থাকবে।

 

দুর্যোগ ও সংকটের পরীক্ষিত নেতৃত্ব শেখ হাসিনা দেশবাসীর জন্য প্রয়োজনে জীবনবাজি রেখে হলেও সাধ্যের সর্বোচ্চটুকু উজাড় করবেন- এ বিশ্বাস এবং আস্থা জনগণের রয়েছে বলে দাবি করেন ওবায়দুল কাদের।

 

ওবায়দুল কাদের মহামারি থেকে উত্তরণ ও জনগণের জীবন-জীবিকার সুরক্ষায় দলমত-নির্বিশেষে সবাইকে ঐকবদ্ধ হয়ে অদৃশ্য শত্রু মোকাবিলায় সরকারকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।
টিকা আসছে, আসবে বলে মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে সরকার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
                                  

করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়ার ব্যাপারে নতুন করে কোনো চুক্তি করতে না পারলেও সরকার বলেই যাচ্ছে টিকা আসছে, আসবে। আদতে টিকা নিয়ে জনগণকে ধোঁকা দেওয়া হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) দুপুরে বিএনপি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন তিনি। এত পরিমাণ টিকা কেনার টাকা সরকারের কাছে নেই।

 

ড. মোশাররফ বলেন, পৃথিবীর যেসব দেশ ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ মানুষকে টিকা দিতে পেরেছে তারাই করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছে। ফলে টিকার কোনো বিকল্প নেই, এটা এখন প্রমাণিত। জাতিসংঘও একই কথা বলছে।

 

কিন্তু বাংলাদেশ সরকার এখন পর্যন্ত ৩ থেকে ৫ শতাংশ মানুষকেও টিকা দিতে পারেনি। সরকার বলছে, টিকার জন্য টাকার ব্যবস্থা রয়েছে, কিন্তু কোথা থেকে কোন মাসে কত টিকা আনা হবে, তা পরিষ্কার করা হচ্ছে না। আসলে তারা কোথাও কোনো চুক্তি করতে
পারেনি বলে জানান বিএনপির এই নেতা।

 

তিনি বলেন, সরকার যতই বলুক টিকার জন্য টাকার ব্যবস্থা আছে, আসলে এত পরিমাণ টিকা কেনার টাকা সরকারের কাছে নেই। যেসব মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন এখনই জরুরি নয়, সেই খাত থেকে টাকা এনে টিকা কিনতেও পরামর্শ দেন খন্দকার মোশাররফ।

 

 
বিএনপির এই প্রভাবশালী নেতা বলেন, এখন লাখ লাখ নয়, প্রতি মাসে কোটি কোটি টিকা আনার কথা শুনতে চায় মানুষ।

 

একই সংবাদ সম্মেলনে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও টিকা ব্যবস্থাপনার সমালোচনা করেন।
আ.লীগ ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে’
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি

আওয়ামী লীগকে নিয়ে অতীতে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে কিন্তু কোনো লাভ হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। উল্টো এই রাজনৈতিক দলটি ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে বলে উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের। বলেন, মাটি ও মানুষের হৃদয়ের গভীরে আওয়ামী লীগের স্থান।

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সকালে তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন।

 

ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হঠাৎ গজিয়ে উঠা কোনো ভুঁইফোড় রাজনৈতিক সংগঠন নয়, দেশের প্রতিটি অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরেই হয়েছে। এ দেশের মাটির অনেক গভীরে আওয়ামী লীগের শেকড়, শুধু ভৌগোলিক স্বাধীনতাই নয়, অর্থনৈতিক মুক্তিও এসেছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে।

 

সেতুমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের অস্তিত্বের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সম্পর্ক, এ সম্পর্ক চিরকালের, ইচ্ছে করলেই কেউ তা মুছে ফেলতে পারবে না। আওয়ামী লীগকে যারা নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র করেছিল বরং তারাই নিশ্চিহ্ন হয়েছে, জনগণ তাদেরকেই ইতিহাসের কাঠগড়ায় দাঁড় করেছে।

 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অদম্য গতিতে এগিয়ে যাওয়া আওয়ামী লীগকে যারা জনবিচ্ছিন্ন মনে করে, তারা নিজেরাই এখন জনবিচ্ছিন্ন ও জননিন্দিত।

 

 
বিএনপির রাজনীতি জনমানুষের জন্য নয় উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, তাদের রাজনীতিতে ত্যাগের কোনো মহিমা নেই, আছে শুধু ভোগের বাসনা।

 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবারও বিএনপি নেতাদের স্মরণ করে দিয়ে বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক আর ঘোষণার পাঠক এক নয়, এ সত্যটা বিএনপিকে অনুধাবন করতে হবে।

 

আওয়ামী লীগ নাকি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে, বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটা বিএনপি নেতাদের একধরনের ভ্রান্তিবিলাস, এ ভাবনা দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যর্থ বিরোধী দলের নেতাদের আত্মতুষ্টি লাভের সস্তা খোরাক মাত্র।

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ‘মুজিববর্ষ’ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা ও পরিকল্পনায় গৃহহীনদের জন্য বিনামূল্যে গৃহ নির্মাণ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে। জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা তথা সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অগ্রসরমাণ সংগ্রামের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী অর্থনৈতিকভাবে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবন-মানোন্নয়নে সময়োপযোগী কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন বলে জানান ওবায়দুল কাদের।
তিন আসনের উপনির্বাচনে আ.লীগের ৯৪ মনোনয়ন ফরম বিক্রি
                                  

জাতীয় সংসদের শূন্য ঘোষিত তিনটি আসনের উপ নির্বাচনের জন্য এ পর্যন্ত ৯৪টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

জাতীয় সংসদের শূন্য ঘোষিত তিনটি আসনের উপ নির্বাচনের জন্য এ পর্যন্ত ৯৪টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। 

 

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বিকেল ৫টা পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম বিতরণ ও জমা নেয়া হবে বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

 

ঢাকা-১৪ আসনে আওয়ামী লীগের ৩৪ জন, কুমিল্লা-৫ আসনে ৩৫ জন এবং সিলেট-৩ আসনে ২৫ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী দলীয় ফরম সংগ্রহ করেছেন। 

 

এদিকে, আইইডিসিআর ও স্থানীয় পর্যায়ে সুপারিশের প্রেক্ষিতে সিলেট-৩, ঢাকা-১৪ ও কুমিল্লা-৫ সংসদীয় তিন শূন্য আসনের উপ-নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করেছে নির্বাচন কমিশন। পরিবর্তিত তারিখ অনুযায়ী, আগামী ২৮ জুলাই এসব শূন্য আসনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
বৃহস্পতিবার (১০ জুন) প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে বৈঠক শেষে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানায় কমিশন। 

 

তফসিল অনুযায়ী, একাদশ জাতীয় সংসদের  সিলেট-৩, ঢাকা-১৪, কুমিল্লা-৫ আসনে ১৪ জুলাই ভোট হওয়ার কথা ছিল। তবে ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তন হলেও অন্যান্য কার্যক্রম তফসিল অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হবে। 

 

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, শূন্য হওয়া তিন আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন পত্র জমার শেষ তারিখ ১৫ জুন। ১৭ জুন যাচাই-বাছাইয়ের পর ২৩ জুন পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। 

 

ঢাকা-১৪ আসনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আসলামুল হক, কুমিল্লা-৫ এ দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু এবং সিলেট-৩ এ মাহমুদুস সামাদ চৌধুরীর মৃত্যুতে আসন ৩টি শূন্য হয়।
খালেদা জিয়ার কিডনি ও লিভার ঠিকমতো কাজ করছে না:
                                  

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠলেও করোনা-পরবর্তী জটিলতায় ভুগছেন খালেদা জিয়া। দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও এভার কেয়ার হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরতে পারছেন না বিএনপি চেয়ারপারসন।

বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বলেছেন, তার কিডনি ও লিভার ঠিকমতো কাজ করছে না। এ কারণে তিনি বারবার জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন সোমবার (১৪ জুন) রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আবারও সামনে আসে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের বিষয়টি।এ সময় মির্জা ফখরুল বলেন, করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠলেও করোনা-পরবর্তী জটিলতায় খালেদা জিয়া ভুগছেন। মাসখানেক ধরেই তা সংবাদমাধ্যমকে জানানো হচ্ছিল। সংগত কারণে দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও এভার কেয়ার হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরতে পারছেন না বিএনপি চেয়ারপারসন।সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়ার জন্মদিন ইস্যু নিয়েও কথা বলেন মির্জা ফখরুল। বলেন, আওয়ামী লীগ দেউলিয়া হয়ে গেছে বলেই খালেদা জিয়ার জন্মদিনের মতো বিষয়কে অযাচিতভাবে ইস্যু করছে।মাসখানেক আগে খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে আবেদন করা হলেও আইনি বাধ্যবাধকতায় তা আটকে যায়।
আ.লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলন শিগগিরই: কাদের
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি

শিগগিরই আওয়ামী লীগের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলন করে নতুন কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার (৪ জুন) বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের কাছে দলের প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন ফর্ম বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।ওবায়দুল কাদের বলেন, জেলা ও উপজেলার মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলন শিগগিরই শুরু করব।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সংগ্রহের জন্য ২৭টি টিম করা হয়েছে। স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি এবং সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজির সঙ্গে জড়িত বিতর্কিতদের সদস্য করা যাবে না। এমন কাউকে সদস্য করা হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঢাকা মহানগরের কমিটি করার ক্ষেত্রে স্থানীয়দের প্রাধান্য দেওয়া হবে বলেও জানান দলের সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকা-কুমিল্লা এবং সিলেট উপনির্বাচনে কে প্রার্থী হবেন, তা ১২ জুন মনোনয়নবোর্ডের সভায় চুড়ান্ত করা হবে। তিনি বলেন, ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতাদের মনোনয়ন দেওয়া হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, করোনার সংকটকালীন সময়ের বাস্তবমুখী, সময়োপযোগী, ব্যবসা ও বিনিয়োগ বান্ধব এবং সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের নিশ্চয়তা দিয়ে সময় উপযোগী বাজেট পেশ করা হয়েছে।

যারা দানবীয় আচরণ করেছিল তারাই এখন উসকানি দিচ্ছে: কাদের
                                  

যারা গণমাধ্যম ও মুক্ত সাংবাদিকতার বিরুদ্ধে দানবীয় আচরণ করেছিল তারাই এখন গণমাধ্যমের মুখোশ পরা বন্ধু সেজে সরকারবিরোধী উসকানি দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।তিনি বলেন, জনগণ বিএনপি নামক বর্ণচোরা দলটিকে ভালো করে চিনে।তাদের কোন অপকর্ম সফল হবে না।

ওবায়দুল কাদের শনিবার (২২ মে) তার সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে একথা জানান।

বিস্তারিত আসছে...

রিজভীকে দেখতে গেলেন মির্জা ফখরুল
                                  

অসুস্থ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিতে তার বাসায় গিয়েছিলেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শনিবার (২২ মে) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তিনি রিজভীর বাসায় যান। এ সময় মির্জা ফখরুলের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন দলটির স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডাক্তার রফিকুল ইসলাম।বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শাইরুল কবির খান জানান, মোহাম্মদপুরের হাউজিংয়ের বাসায় রিজভী শারীরিক খোঁজ নিতে যান মির্জা ফখরুল। এ সময় তিনি তার পাশে বেশ কিছুক্ষণ অবস্থান করেন এবং তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানেন।

গত ৯ মে স্কয়ার হাসপাতালে দুই মাস চিকিৎসাধীন থাকার পর ছাড়পত্র নিয়ে বাসায় ফেরেন বিএনপির এ নেতা। বাসায় ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধায়নে তার চিকিৎসা চলছে।

দলের কয়েকজন নেতা জানান, খালেদা জিয়া নিজে অসুস্থ হলেও বিভিন্ন সময়ে তার চিকিৎসকদের মাধ্যমে রিজভীর খোঁজ নিয়েছেন। আর দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান নিয়মিতই রিজভীর শারীরিক খোঁজ নিচ্ছেন।

ঈদের দিন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ঈদের পরের দিন মির্জা আব্বাস রিজভীর বাসায় গিয়ে তার শারীরিক খোঁজ নেন। এ ছাড়া রিজভীকে দেখতে বাসায় যান দলের যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। 

রুহুল কবির রিজভী গত ১৬ মার্চ করোনা টেস্ট করলে পজিটিভ রেজাল্ট নিয়ে পরদিন স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। ১ এপ্রিল শ্বাসকষ্ট অনুভব করলে তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। চেস্টের সিটি স্ক্যানে নানা জটিলতা ধরা পড়লে অক্সিজেন সহায়তা ছাড়া তিনি স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছিলেন না বলে আইসিইউতে রেখে তার চিকিৎসা করা হয় বেশকিছু দিন। গত ১৭ এপ্রিল রিজভীর করোনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসে। এর আগে তার চার দফা টেস্টে পজিটিভ আসে।

হেফাজত নেতাদের ওয়াজের ভিডিও খুঁজছে পুলিশ
                                  

বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া হেফাজতে ইসলামের সহিংসতা ও ওয়াজের ভিডিও মামলার ‘আলামত’ হিসেবে সংগ্রহ করছে পুলিশ। সাম্প্রতিক সময়ে দেশজুড়ে কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক সংগঠনটির সহিংসতা ও নাশকতার ঘটনায় শতাধিক মামলার তদন্তে নেমে পুলিশ এসব আলামতকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে।তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, বিভিন্ন স্থানে সহিংসতা ও তাণ্ডবে কারা জড়িত এবং ঘটনার পেছনের ‘মদদদাতাদের’ চিহ্নিত করতে ঘটনাস্থলের ভিডিও এবং ওয়াজ মাহফিলে দেওয়া বক্তৃতা বিশ্লেষণ করছেন তারা।

তবে এরই মধ্যে সামাজিক মাধ্যমগুলো থেকে কিছু ভিডিও সরিয়ে ফেলা হয়েছে। সে কারণে ‘ভিন্ন পথে’ এগোনোর কথা বলেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার অ্যান্ড স্পোশাল ক্রাইম ডিভিশনের উপকমিশনার মুহাম্মদ শরীফুল ইসলাম।

গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, কিছু কিছু কনটেন্ট ইউটিউব থেকে সরিয়ে ফেলা হচ্ছে, কিন্তু কোনো লাভ নেই। ডাউনলোড করে আর্কাইভ করে রাখা হচ্ছে। ফরেনসিক পরীক্ষা করে রাখার পর সেটা শক্ত আলামত হয়ে যাচ্ছে। কেউ ইউটিউব বা অন্য কোনো মাধ্যমে ছড়ালে কেউ না কেউ ডাউনলোড করে থাকে। ফলে অপরাধীর ছাড় পাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া, মানিকগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও কক্সবাজারে হেফাজতের নাশকতার ১৬টি মামলার তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এ তদন্ত সংস্থার প্রধান ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার গণমাধ্যমকে বলেন, ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহে মাঠে নেমেছেন তাদের তদন্তকারীরা। তদন্তের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় গাইডলাইন দেওয়া হয়েছে। ভিডিও, অডিও ক্লিপ সংগ্রহ করা হচ্ছে।

মামলার অজ্ঞাতনামা আসামিদের চিহ্নিত করতে ‘বিশেষ পদ্ধতিতে’ অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে জানিয়ে ঊর্ধ্বতন এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, মামলার আলামত হতে পারত এ রকম কিছু ভিডিও ক্লিপ এরই মধ্যে বিভিন্ন সাইট থেকে সরিয়ে ফেলেছে। সেগুলো বিভিন্নভাবে জোগাড় করার পাশপাশি বর্তমানে যেগুলো সাইটে আছে, সেগুলো আর্কাইভ করে রাখা হচ্ছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে মার্চে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক সহিংসতা ও তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা। চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে প্রাণহানিও ঘটে।

এসব ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে হেফাজতে ইসলামের বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতাকেও গত কয়েক দিনে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক এ দলটির নেতার বছরজুড়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে যেসব ওয়াজ মাহফিল করেন, তাতে অনেকেই উসকানিমূলক বক্তব্য দেন বলে অভিযোগ এসেছে বিভিন্ন সময়ে। তাদের সমর্থকরা ইন্টারনেটেও সেসব ওয়াজ ও বক্তৃতা শেয়ার করেন।

পুলিশের ডিআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড প্ল্যানিং) মো. হায়দার আলী গণমাধ্যমকে বলেন, সম্প্রতি হেফাজতের সহিংসতার ঘটনায় সারাদেশে ১৩০টির মতো মামলা হয়েছে। নাম উল্লেখ করা আসামির সংখ্যা প্রায় তিন হাজার। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়েছে প্রায় ৮০০ জন।

এসব মামলার মধ্যে ২৩টির তদন্ত করবে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এ সংস্থার প্রধান অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মাহবুবুর রহমান গত মঙ্গলবার এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনও করেন।

এদিকে র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, হেফাজতে ইসলামের কয়েকজন নেতাকে গ্রেপ্তারের পর দেখা গেছে, সংগঠনটির কর্মীরা ‘নাশকতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে’ পুরনো ভিডিও ‘লাইভ’ আকারে প্রচার করছে। সে জন্য তারা এক ধরনের অ্যাপ ব্যবহার করছে। এসব যারা করছে, তাদের শনাক্ত করা হচ্ছে। তাদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামবে র‌্যাব।

এ পর্যন্ত হেফাজতে ইসলামের ১২ জন নেতাকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করেছে জানিয়ে মঈন বলেন, তারা অধিকাংশই দেশের বিভিন্ন জেলায় নাশকতার সঙ্গে জড়িত। আবার কেউ কেউ ছিলেন নাশকতা সৃষ্টির জন্য উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন।

চট্টগ্রামে নুরুর বিরুদ্ধে আরেক মামলা
                                  

নতুন বাজার ৭১  ডেস্ক 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের লাইভে এসে ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাত করে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নূরের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে মামলা হয়েছে।মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) রাতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নগরীর কোতোয়ালী থানায় মামলাটি দায়ের করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আজিজ মিসির। 

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নূরের বিরুদ্ধে একটি এজাহার দেওয়া হয়েছে। আমরা তা গ্রহণ করেছি। অভিযোগ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

মামলার এজাহারে বাদি আজিজ মিসির নিজেকে চট্টগ্রাম মহানগর সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির অর্থ উপ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন।

বাদি আজিজ মিসির অভিযোগ করেছেন, নূর ব্যক্তিগত আইডি থেকে ফেইসবুক লাইভে এসে বাংলাদেশের অসংখ্য ধর্মপ্রাণ নেতাকর্মীদের ধর্মীয় মূল্যবোধ বা অনুভূতিতে উসকানি প্রদান, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোসহ মুসলমান নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মানহানিকর মন্তব্য প্রকাশ, আক্রমণাত্মক ও মিথ্যা তথ্য প্রদান করেন। বাদি কোতোয়ালী থানার কোর্ট হিলে আইনজীবী এনেক্স ভবনের-১ নিচতলায় অ্যাডভোকেট তসলিম উদ্দিনের চেম্বারে বসে নূরের এ বক্তব্য শোনেন বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত ১৪ এপ্রিল বিকেলে ফেইসবুক লাইভে এসে নূর বলেন, ‘কোনো মুসলমান আওয়ামী লীগ করতে পারে না। যারা এই আওয়ামী লীগ করে তারা চাঁদাবাজ, ধান্ধাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, চিটার-বাটপার এই ধরনের মুসলমান।’

এ বক্তব্যের পর নূরের বিরুদ্ধে ঢাকা ও সিলেটে ইতোমধ্যে মামলা হয়েছে।

মামলা হওয়ার পর নুরুল হক নূর তার আরেকটি ফেইসবুক পেইজ থেকে লাইভে এসে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চান এবং সেদিনের লাইভ ভিডিও ফেসবুক থেকে অপসারণের কথা জানান।

দুধ দিয়ে সাপ পুষলে তার ফল শুভ হয় না: ১৪ দল
                                  

নতুন বাজার ৭১  ডেস্ক 

কেন্দ্রীয় ১৪ দল আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তরা বলেছেন, বিএনপি, জামায়াত ও হেফাজত একই সূত্রে গাঁথা। এই সাম্প্রদায়িক অপশক্তি দমনে কোনো আপস নয়। দুধ দিয়ে সাপ পুষলে তার ফল কখনও শুভ হয় না।ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সকালে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তরা এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ১৭ এপ্রিল মুজিবনগর সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য উদিত হয়েছিল, আর বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুজিবনগর সরকারের অধীনেই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ পরিচালিত হয়েছিল।

তিনি বলেন, অসহযোগ আন্দোলনের সময় বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগের যে হাই কমান্ডকে জাতির সামনে উপস্থাপন করেছেন তাদের নিয়ে গঠন করা হয় মুজিবনগর সরকার। আর এই সরকারের অধীনেই কাজ করেছেন সকল সেক্টর ও সাবসেক্টর কমান্ডারসহ বিভিন্ন ফোর্স। আজ যে যত কথাই বলুক না কেন এরা সবাই ছিলেন মুজিবনগর সরকারের বেতনভুক্ত।

আমির হোসেন আমু বলেন, আজকে পত্রপত্রিকার আলোচনায় অনেকেই বলেছেন মুক্তিযুদ্ধে অনেকের আবদান ছিল, সহযোগিতা ছিল, এদেশের সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণ ছিল, তাদের বক্তব্য সব ঠিক কিন্তু এই অবদান, সহযোগিতা কার নেতৃত্বে, কার আহবানে হয়েছিল তারা সেই সত্যকে গোপন করতে চায়। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি ও বঙ্গবন্ধুকে খাটো করার এই অপপ্রয়াস কখনো সফল হবে না।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, নীতির প্রশ্নে শক্তভাবে দাঁড়ালে কোনো অশুভ শক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারে না। ২০১৩ সালের ৫ মে তাণ্ডবের পরই হেফাজত প্রশ্নে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত ছিল।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরি বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক, চেতনাবোধ ও দেশপ্রেম সঠিকভাবে জাতীয় জীবনে প্রতিফলনের মধ্য দিয়ে তাঁর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, বিএনপি, জামায়াত ও হেফাজত একই সূত্রে গাঁথা। সাম্প্রদায়িক অপশক্তি দমনে কোনো আপস নয়। দুধ দিয়ে সাপ পুষলে তার ফল কখনও শুভ হয় না।

আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাসের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় পার্টি-জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজ ভাণ্ডারি, গণ আজাদী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এস কে সিকদার, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, ন্যাপের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন প্রমুখ।

ইলিয়াসকে ‘গুমের পেছনে বিএনপির কেউ’, ইঙ্গিত মির্জা আব্বাসের
                                  

দীর্ঘ ৯ বছর পর এ ঘটনার বিষয়ে শনিবার এক আলোচনা সভায় তিনি এর সঙ্গে আওয়ামী লীগ বা সরকার জড়িত নয় বলে মন্তব্য করেন। ‘গুমের’ পেছনে নিজ দলের কারো সংশ্লিষ্টতার ইঙ্গিত দেন।

শনিবার বিকালে সিলেট বিভাগ জাতীয়তাবাদী সংহতি সম্মিলনীর উদ্যোগ এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় মির্জা আব্বাস এসব কথা বলেন।২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল ঢাকার বনানী থেকে গাড়িচালক আনসার আলীসহ নিখোঁজ হন ইলিয়াস আলী। বিএনপি অভিযোগ করে আসছে, তাকে সরকারই ‘গুম’ করে রেখেছে।

 

ভার্চুয়াল এই আলোচনা সভায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও বক্তব্য দেন।

 

কারো নাম উল্লেখ না করে মির্জা আব্বাস বলেন, “ইলিয়াস গুম হওয়ার আগের রাতে দলীয় অফিসে কোনো এক ব্যক্তির সঙ্গে তার বাকবিতন্ডা হয় মারাত্মক রকমের। ইলিয়াস তাদের খুব গালিগালাজ করেছিল। সেই যে পেছন থেকে দংশন করা সাপগুলো আমাদের দলে এখনো রয়ে গেছে।”

মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ্যে করে তিনি আরও বলেন, “যদি এদেরকে দল থেকে বিতাড়িত না করেন, তাহলে কোনো পরিস্থিতিতেই দল সামনে এগুতে পারবে না।”

“বাংলাদেশের স্বাধীন-সার্বভৌমত্ব যে ভুলন্ঠিত হতে যাচ্ছে এটার জ্বলন্ত প্রমাণ হলো ইলিয়াস আলীর গুম। আমি জানি, বাংলাদেশ সরকার বা আওয়ামী লীগ সরকার ইলিয়াসকে গুম করে নাই। কিন্তু গুমটা করলো কে? এই সরকারের কাছে আমি এটা জানতে চাই।”

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য আরও বলেন, “একজন জলজ্যান্ত তাজা রাজনৈতিক নেতা গুম হয়ে গেলো দেশের অভ্যন্তর থেকে, আমাদের একজন নেতা সালাহউদ্দিন আহমেদকে দেশ থেকে পাচার করে নিয়ে গেল, আমাদের চৌধুরী আলমকে গুম করে দেয়া হলো, আমাদের কত ছেলেকে গুম করে দেয়া হলো-আমি বুঝলাম এই সরকার করে না। করলো কারা? আমি বলতে চাই, যারা করেছে তারা এদেশের স্বাধীনতা চায় না, তারা এদেশটাকে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব থাকতে দেবে না।“

ইলিয়াস আলীকে বেশি স্নেহ করার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “ইলিয়াস ছিলেন একজন স্বাধীনচেতা দেশপ্রেমিক নেতা। আমি তাকে একুট বেশি স্নেহ করতাম।”

জাতীয়তাবাদী যুব দলের সাবেক সহ-সভাপতি কাইয়ুম চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপির অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, আসাদুজ্জামান রিপন, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, জহিরউদ্দিন স্বপন, কামরুজ্জামান রতন, আজিজুল বারী হেলাল, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু ও আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল এবং নিখোঁজ এম ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা বক্তব্য দেন।

লোক দেখানো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিএনপির
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ লোক দেখানো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিএনপির কাছে স্বার্থ হাসিলের হাতিয়ার বলে মনে  করছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সোমবার সকালে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি এই মন্তব্য করেছেন।

বিএনপির শাসনামলে হাওয়া ভবনের দুর্নীতি আর দলীয় নেতাকর্মীদের নানা অপকর্মের কারণে দেশের অর্থনীতি মুখ থুবড়ে পড়েছিল উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সেই ক্ষত মুছে দিয়ে দেশকে এখন উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

এ সময় তিনি আরও বলেছেন, অপরাজনীতির সকল উপাদানে ঠাসা বিএনপির রাজনীতি। মুখোশের আড়ালে তাদের দেশবিরোধী ও জনবিরোধী লুকানো মুখচ্ছবি দেশ ও জনগণের কাছে এখন স্পষ্ট বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ।

ছাত্রদল কেন্দ্রিয় সংসদ কর্তৃক ফুলবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত।
                                  

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি-এর অস্থায়ী কার্যালয়ে ছাত্র দল কেন্দ্রিয় সংসদ কর্তৃক ফুলবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল শনিবার সকাল ১১.০০ টায় ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির আয়োজনে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদ কর্তৃক ফুলবাড়ী উপজেলা ছাত্র দলের সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে দলীয় বিষয়ে বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করেন ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোস্তাক আহমেদ চৌধুরী খোকন, তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এর কাছে দলীয় অনিয়ম বিষয় তুলে ধরছি। ছাত্রদল কেদ্রীয় সংসদ থেকে সদ্য ঘোষিত ফুলবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের কমিটির বিষয়ে কিছু কথা না বললে নয়। গত ০৯/০৩/২০২১ইং দিবাগত রাত আনুমানিক ৩টায় অর্থ্যাৎ ১০/০৩/২০২১ ইং তারিখ ভোর তিনটায় দিনাজপুর জেলা ছাত্র দলের অধিনস্থ চারটি কমিটি ছাত্রদল কেন্দ্র থেকে প্রকাশ হয়। ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি গত ২৪/০২/২০২১ ইং তারিখে কেন্দ্র বরাবর আবেদন করে, কিন্তু কেন্দ্র ছাত্র সংসদ আমাদের মতামত উপেক্ষা করে কমিটি প্রকাশ করেন। যার মধ্যে ফুলবাড়ী উপজেলা ছাত্রদল কমিটিও রয়েছে। যাদেরকে আহŸায়ক ও সদস্য সচিব করে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। তারা কোনোভাবে যোগ্য বলে বিবেচিত নয়।

তাই ঘোষিত কমিটি আমরা উপজেলা বিএনপি, পৌর বিএনপির সভাপতি সাংগঠনিক সম্পাদক, সদ্য সাবেক ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ ঘৃণাভাবে প্রত্যাখান করছি। এই কমিটিতে প্রকৃত ছাত্র নেতাদের যোগ্যস্থান না দিয়ে, বিবাহিত, মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারী ছাত্রলীগের সাথে সম্পৃক্ত লেখাপড়ার সাথে কোনো ভাবে সম্পৃক্ত নয় এমন মটর সাইকেল মেকানিক, রংমিস্ত্রি, ট্রাক মিস্ত্রি ও অযোগ্য লোকজনকে কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে বলে তিনি সংবাদ সম্মেলনে লিখিতভাবে অভিযোগ তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ নবিউল ইসলাম, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহম্মেদ চৌধুরী খোকন, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবু ফরহাদ বাচ্চু, সহ-সভাপতি আব্দুল মজিত মন্ডল, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ তোফায়েল হোসেন চৌধুরী, পৌর বিএনপির সভাপতি মোঃ আবুল বাসার, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইদুর রহমান, উপজেলা বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা যুবদল সদস্য সচিব মোঃ মাহাবুব আলম মিলন, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহŸায়ক মোঃ জাকিউর রহমান ”ঞ্চল, উপজেলা সেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব মোঃ দেলোয়ার হোসেন, উপজেলা সেচ্ছাসেবক দলের আহŸায়ক মোঃ মকলেছার রহমান (নবাব)। এ সময় ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, সেচ্ছাসেবক দলের সকল নেতাকৃর্মী উপস্থিত ছিলেন। এ সময় প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন। আয়োজনে ছিলেন, ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি।

 

আমি জেলে যেতে প্রস্তুতঃ কাদের মির্জা
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ‘আমি চাই গণতন্ত্রের চর্চা। বাংলাদেশে আমরা যদি গণতান্ত্রিক চর্চা করি, আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত করতে পারব। শুধু নোয়াখালী নয়, সারা দেশেই অপরাজনীতির কারণে আজ গণতন্ত্রের চর্চা নেই। আজ ভালো মানুষের কোনো দাম নেই। যারা এই সংগঠনের জন্য জীবন-যৌবন দিয়েছে, তারা আজ ঘরে ঢুকে গেছে। তারা আজ অবহেলিত ও লাঞ্ছিত। আর ভোগ করছে সুবিধাভোগীরা।’

সাম্প্রতিক সময়ে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছে। বসুরহাট পৌর নির্বাচনের আগে থেকেই সেখানকার পরিস্থিতি ঘোলাটে হতে থাকে। এ পরিস্থিতির কেন্দ্রে রয়েছেন নির্বাচনে জয়ী মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। নিজের রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীকে নিয়ে তিনি একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। এমন পরিস্থিতিতে কোম্পানীগঞ্জে হামলা-পাল্টা হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সবশেষ ৯ মার্চ রাতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আলাউদ্দিন নামে এক সিএনজিচালক নিহত হন। ওই ঘটনায় বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জাকে প্রধান আসামি করে বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) রাতে একটি হত্যা মামলা করতে চেয়েছিলেন নিহতের ভাই এমদাদ হোসেন। এতে ১৬৪ জনের নাম উল্লেখ করেছিলেন তিনি। কিন্তু মামলাটি গ্রহণ না করে পর্যালোচনায় রেখেছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপকএমন পরিস্থিতিতে পুলিশ মামলা নিলে কাদের মির্জার গ্রেফতার হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন অনেকেই। তবে গ্রেফতার নিয়ে মোটেও শঙ্কিত নন তিনি। গ্রেফতারের গুঞ্জন নিয়ে জানতে চাইলে কাদের মির্জা বলেন, ‘গ্রেফতার হলে অসুবিধা কী? ১৯৮২ সালে এরশাদবিরোধী আন্দোলন করে গ্রেফতার হয়ে একমাস ডিটেনশনে ছিলাম। এর পরবর্তী পর্যায়ে আমি শত শত দিন জেলখানায় ছিলাম। আমি জেলে যাব মুক্তি পাওয়ার জন্য। সেল হলো রাজনীতিবিদদের জন্য সোনার হরিণ।’

‘সেখানে যেতে হবে। আমি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। যারা চুরি করে নির্বাচিত হয় তাদের সঙ্গে কি আমাদের শপথ নিতে হয় না? ষড়যন্ত্র করে মিথ্যা মামলা দিয়ে যদি আমাকে জেলখানায় খারাপ লোকজনের সঙ্গে রাখা হয়, তাহলে কী আর করার আছে? আর এই দেশে তো সেই বিচার নাই। অতীতেও ছিল না। কোনোকালেই কোনো সরকারের আমলেই ছিল না। অন্যায়ভাবে মানুষকে জেলে নিক্ষেপ করা হয়েছে। আমাকে অন্যায়ভাবে জেলে নিক্ষেপ করা হলে আমি মাথা পেতে নেব।’

জেলে গেলে সমর্থকদের উদ্দেশে কী বার্তা থাকবে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমার সমর্থকদের উদ্দেশে আমি বলব, তোমরা শান্ত থাকবে, তোমরা রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নেবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কিছু প্রোগ্রাম আমি আয়োজন করেছি, সেগুলো তারা করবে। আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন যেন শতভাগ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু হয় সে লক্ষ্যে তারা কাজ করবে।’

নোয়াখালীর বসুরহাটের পরিস্থিতির জন্য কারা দায়ী জানতে চাইলে কাদের মির্জা বলেন, ‘যারা অপরাজনীতি করে তারাই এর জন্য দায়ী। নিজাম হাজারী তো আমাদের জেলার লোক নয়। কিন্তু তথাকথিত সাধারণ সম্পাদক নুর নবী একটি সমাবেশে বলছেন নিজাম হাজারী উনাকে ফোন দিয়েছেন, এখানে অফিস করতে যত টাকা লাগবে নিজাম হাজারী দেবে। নিজাম হাজারী অন্য জেলার লোক, এখানে উনার কী কাজ? এ কথা তো আমাদের জেলার সভাপতি বলতে পারেন, উনি কেন বলবেন। যদিও নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে আমি মানি না। এ কমিটির এখনও অনুমোদন দেওয়া হয়নি। কিন্তু নিজাম হাজারী কেন এ কথা বলবে। তারা সবাই মিলে অবৈধ অস্ত্র দিয়ে রাজনীতি করছে।’

বিএনপি নেতার বক্তব্যে খুনের রাজনীতি স্পষ্ট : কাদের
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ফাইল ছবি।

বিএনপির ফ্যাসিবাদী রাজনীতির চরিত্র উন্মুক্ত হয়েছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে বিএনপির এক নেতা দেশে আরেকটি ১৫ আগস্ট ঘটানোর যে ঈঙ্গিতপূর্ণ ও উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন, তাতে দেশবাসী বিক্ষুব্ধ। জনগণ আশা করে, বিএনপি এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য স্পষ্ট করবে।’

শুক্রবার (৫ মার্চ) সকালে ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবন থেকে অনলাইনে নিয়মিত ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বিএনপি নেতাদের কাছে প্রশ্ন রেখে বলেন, ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হোসেন বাদশা এবং রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ এ বিষয়ে প্রতিবাদ করলেও বিএনপির পক্ষ থেকে এর কোনো সুস্পষ্ট বক্তব্য দেওয়া হয়নি৷ তাহলে কি ধরে নেব, এটি বিএনপির দলীয় বক্তব্য?

১৫ ও ২১ আগস্ট একই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি নেতার এ বক্তব্যে তাদের খুনের রাজনীতির স্বরূপ উন্মোচিত হয়েছে। এই বক্তব্য থেকে স্পষ্ট বোঝা যায়, বিএনপি এখনো ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করছে। এ ষড়যন্ত্রের জাল দেশ-বিদেশে বিস্তৃত, তাদের বক্তব্য লন্ডনের ছক অনুযায়ী গোপন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ কি না তা-ও খতিয়ে দেখা হবে।

সরকার নির্বাচিত নয়, জনগণের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে সরকারের পতন হবে- বিএনপি মহাসচিবের এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির এমন হুমকি-ধামকি আমরা বছরের পর বছর শুনেছি, তাদের আন্দোলন এবং সরকার পতনের ঘোষণার এক যুগ পূর্তি হয়ে গেছে এরই মধ্যে৷ জনগণ এখনো কোনো আন্দোলন দেখতে পায়নি রাজপথে।

তিনি বলেন, ক্ষমতায় থাকাকালে বিএনপি সরকার পরিচালনায় একাধিক বিকল্প ক্ষমতাকেন্দ্র তৈরি করেছিল৷ এখনো তাদের আন্দোলনের ডাক আসে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন ক্ষমতাকেন্দ্র থেকে। বিএনপি নেতারা ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের অন্ধ বিরোধিতা করছে, আইনটির যথাযথ প্রয়োগের ক্ষেত্রে কোনো ব্যত্যয় ঘটছে কি না, সে বিষয়টির প্রতি সরকার কড়া নজর রাখছে৷ প্রযুক্তির এ যুগে জনস্বার্থেই এ আইন করা হয়েছে, আইনের অপপ্রয়োগ যাতে না হয়, সে বিষয়ে দেওয়া হয়েছে নির্দেশনা। বিএনপি এখন এ আইন নিয়ে মানবাধিকারের কথা বলছে, অথচ ১৯৭৫-এর হত্যাকাণ্ডের পর ইনডেমনিটি অধ্যাদেশের মাধ্যমে জাতির পিতার খুনিদের বিচার চাওয়ার পথ বন্ধ করে দিয়েছিল।


   Page 1 of 26
     রাজনীতি
বিএনপির মিথ্যাচারের জবাব অনিচ্ছা সত্ত্বেও দিতে হয়: কাদের
.............................................................................................
টিকা আসছে, আসবে বলে মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে সরকার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
.............................................................................................
আ.লীগ ফিনিক্স পাখির মতো জেগে উঠেছে’
.............................................................................................
তিন আসনের উপনির্বাচনে আ.লীগের ৯৪ মনোনয়ন ফরম বিক্রি
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার কিডনি ও লিভার ঠিকমতো কাজ করছে না:
.............................................................................................
আ.লীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলন শিগগিরই: কাদের
.............................................................................................
যারা দানবীয় আচরণ করেছিল তারাই এখন উসকানি দিচ্ছে: কাদের
.............................................................................................
রিজভীকে দেখতে গেলেন মির্জা ফখরুল
.............................................................................................
হেফাজত নেতাদের ওয়াজের ভিডিও খুঁজছে পুলিশ
.............................................................................................
চট্টগ্রামে নুরুর বিরুদ্ধে আরেক মামলা
.............................................................................................
দুধ দিয়ে সাপ পুষলে তার ফল শুভ হয় না: ১৪ দল
.............................................................................................
ইলিয়াসকে ‘গুমের পেছনে বিএনপির কেউ’, ইঙ্গিত মির্জা আব্বাসের
.............................................................................................
লোক দেখানো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিএনপির
.............................................................................................
ছাত্রদল কেন্দ্রিয় সংসদ কর্তৃক ফুলবাড়ী উপজেলা ছাত্রদলের সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিলের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত।
.............................................................................................
আমি জেলে যেতে প্রস্তুতঃ কাদের মির্জা
.............................................................................................
বিএনপি নেতার বক্তব্যে খুনের রাজনীতি স্পষ্ট : কাদের
.............................................................................................
বিএনপি নেতার উসকানিমূলক বক্তব্যটি কি দলীয়, প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের
.............................................................................................
নৌকা ১৬ ধানের শীষ ৯৮১
.............................................................................................
ছাত্রদলের তিন নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ
.............................................................................................
১নং উথুরা ইউনিয়ন যুব মহিলা লীগ কমিটি নিয়ে বির্তকিত ক্ষিপ্ত নেতার্কমীরা
.............................................................................................
মাতৃভাষা দিবসে যেসব কর্মসূচি হাতে নিয়েছে বিএনপি
.............................................................................................
খালেদা জিয়া অসুস্থ, শুনানি পিছিয়ে ২ মার্চ
.............................................................................................
গোলাপগঞ্জে ওয়ার্ড বিএনপির কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
ওসির গাড়ি থেকে নিখোঁজ স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী, থানা ঘেরাও
.............................................................................................
মহেশপুরে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল
.............................................................................................
ঝিনাইদহে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
কল্যাণ পার্টির নৈশভোজ বাতিল
.............................................................................................
দেশে-বিদেশে গণতন্ত্রবিরোধী অপশক্তি এখনো সক্রিয়: সেতুমন্ত্রী কাদের
.............................................................................................
গৌরীপুর পৌর নির্বাচনে সাংবাদিকের ওপর হামলা
.............................................................................................
বিএনপির হাত ধরেই দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতি চালু: কাদের
.............................................................................................
দুঃসময়ের কর্মীদের প্রাধান্য দেয়ার নির্দেশ কাদেরের
.............................................................................................
উপজেলা ও ইউপি নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী যারা
.............................................................................................
সরকারকে গদি থেকে টেনে-হিঁচড়ে নামানো হবে
.............................................................................................
সাংগঠনিক কার্যক্রম কাউন্সিলের অংশ
.............................................................................................
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভা আজ
.............................................................................................
‘হত্যার রাজনীতি জিয়ার আমল থেকে শুরু’
.............................................................................................
আ.লীগের শক্তির উৎস জনগণ
.............................................................................................
সর্বশক্তি নিয়েই ভোটের মাঠে থাকবে জাপা
.............................................................................................
উপনির্বাচন: বিএনপির মনোনয়ন চেয়ে ২৯ আবেদন
.............................................................................................
নির্বাচন কমিশন বাতিল করতে হবে
.............................................................................................
আমি রাষ্ট্র পরিচালনা করার মতো ক্ষমতা রাখি
.............................................................................................
খালেদার স্থায়ী মুক্তি চেয়ে ফের আবেদন পরিবারের
.............................................................................................
‘বঙ্গবন্ধুই দেশের জ্বালানী নিরাপত্তার উদ্যোগ নিয়েছিলেন’
.............................................................................................
ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে বিএনপি মহাসচিবের বৈঠক
.............................................................................................
ঢাকা-১৮ আসনে সরব বিএনপির কফিল উদ্দিন
.............................................................................................
তিনগুণের বেশি ব্যয় বেড়েছে বিএনপির
.............................................................................................
জাতীয় শোক দিবসে নানা কর্মসূচি
.............................................................................................
‘করোনা বুলেটিনে কারও বিশ্বাস নেই’
.............................................................................................
বিএনপিকে জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার অনুরোধ তথ্যমন্ত্রীর
.............................................................................................
‘অসাম্প্রদায়িক চেতনা দিয়েই সমৃদ্ধির সোপান রচনা করতে হবে’
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ হাজী মোবারক হোসেন।। সহ-সম্পাদক : কাউসার আহম্মেদ।সহ সম্পাদক মুশিদুল আলম
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু। র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, ফোন ০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop