| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জেলা সংবাদ -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ময়মনসিংহে পুলিশের প্রতি বয়োবৃদ্ধ ডাক্তার দম্পতির কৃতজ্ঞতা

শারমিন আক্তার স্টাফ রিপোর্টার

প্রবীন ডাক্তার বয়োবৃদ্ধ দম্পতি মানিব্যাগ ভর্তি টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ইন্সুরেন্সসহ গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র খুইয়েছেন। বিভিন্ন জায়গায় খুজে দিশেহারা। এমন সময় কোতোয়ালী পুলিশ ঐ ডাক্তার দম্পতিকে ফোন করেন। আপনার হারানো মানিব্যাগ পাওয়া গেছে। কোতোয়ালী মডেল থানায় এসে নিয়ে যান। ডাক্তার দম্পতি মহাখুশি।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, শনিবার বিকালে কোতোয়ালী পুলিশের এসআই আরিফ হোসেন ও এএসআই ইলিয়াছ খান সরকারি দায়িত্ব পালনের জন্য মাসকান্দা আমিরাবাদ এলাকায় যান। ঐ সময় পাকা রাস্তার উপর একটি মানিব্যাগ দেখতে পান। ঐ পুলিশ কর্মকর্তাদ্ব মানিব্যাগটি তুলেন এবং খুলে দেখতে পান ঐ মানিব্যাগে অনেক টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ইন্সুরেন্স সহ গুরুত্বপূর্ণ অনেক কাগজপত্র রয়েছে। এ পুলিশ কর্মকর্তাদ্বয় মানিব্যাগে খুজতে খুজতে দেখতে পান কাগজে থাকা মোবাইল নাম্বার। ঐ নম্বরে কল দিলে প্রকৃত মালিক ডাক্তার এটিএম হামিদুল হক (অবঃ) এবং তার স্ত্রী ডাক্তার কহিনুর বেগম (অবঃ) পুলিশকে জানান তাদের মানিব্যাগ হারিয়েছে। পুলিশ কোন রাখডাক না করে থানায় এসে তাদের মানিব্যাগ নিয়ে যেতে বলেন।

গত শনিবার রাতে বয়োবৃদ্ধ ডাক্তার দম্পতি কোতোয়ালী মডেল থানায় এসে এএসআই ইলয়াছ খানের কাছ থকে তাদের হারানো মানিব্যাগ ফেরত নেন। প্রবীণ এই ডাক্তার দম্পতিকে তাদের হারানো মানিব্যাগ ফেরত দিতে পেরে কোতোয়ালী পুলিশের ওসি আনন্দিত। কারণ এই বয়সে মানিব্যাগ টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও ইন্সুরেন্সসহ অন্যান্য কাগজপত্র হারিয়ে মানসিক যন্ত্রনায় ছিলেন। বয়োবৃদ্ধ এই দম্পতি পুলিশের এমন কাজে অনেক খুশি হয়ে পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করেছেন।

ময়মনসিংহে পুলিশের প্রতি বয়োবৃদ্ধ ডাক্তার দম্পতির কৃতজ্ঞতা
                                  

শারমিন আক্তার স্টাফ রিপোর্টার

প্রবীন ডাক্তার বয়োবৃদ্ধ দম্পতি মানিব্যাগ ভর্তি টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ইন্সুরেন্সসহ গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র খুইয়েছেন। বিভিন্ন জায়গায় খুজে দিশেহারা। এমন সময় কোতোয়ালী পুলিশ ঐ ডাক্তার দম্পতিকে ফোন করেন। আপনার হারানো মানিব্যাগ পাওয়া গেছে। কোতোয়ালী মডেল থানায় এসে নিয়ে যান। ডাক্তার দম্পতি মহাখুশি।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, শনিবার বিকালে কোতোয়ালী পুলিশের এসআই আরিফ হোসেন ও এএসআই ইলিয়াছ খান সরকারি দায়িত্ব পালনের জন্য মাসকান্দা আমিরাবাদ এলাকায় যান। ঐ সময় পাকা রাস্তার উপর একটি মানিব্যাগ দেখতে পান। ঐ পুলিশ কর্মকর্তাদ্ব মানিব্যাগটি তুলেন এবং খুলে দেখতে পান ঐ মানিব্যাগে অনেক টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ইন্সুরেন্স সহ গুরুত্বপূর্ণ অনেক কাগজপত্র রয়েছে। এ পুলিশ কর্মকর্তাদ্বয় মানিব্যাগে খুজতে খুজতে দেখতে পান কাগজে থাকা মোবাইল নাম্বার। ঐ নম্বরে কল দিলে প্রকৃত মালিক ডাক্তার এটিএম হামিদুল হক (অবঃ) এবং তার স্ত্রী ডাক্তার কহিনুর বেগম (অবঃ) পুলিশকে জানান তাদের মানিব্যাগ হারিয়েছে। পুলিশ কোন রাখডাক না করে থানায় এসে তাদের মানিব্যাগ নিয়ে যেতে বলেন।

গত শনিবার রাতে বয়োবৃদ্ধ ডাক্তার দম্পতি কোতোয়ালী মডেল থানায় এসে এএসআই ইলয়াছ খানের কাছ থকে তাদের হারানো মানিব্যাগ ফেরত নেন। প্রবীণ এই ডাক্তার দম্পতিকে তাদের হারানো মানিব্যাগ ফেরত দিতে পেরে কোতোয়ালী পুলিশের ওসি আনন্দিত। কারণ এই বয়সে মানিব্যাগ টাকা, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও ইন্সুরেন্সসহ অন্যান্য কাগজপত্র হারিয়ে মানসিক যন্ত্রনায় ছিলেন। বয়োবৃদ্ধ এই দম্পতি পুলিশের এমন কাজে অনেক খুশি হয়ে পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করেছেন।

মশার কামড়ে অতিষ্ঠ জনজীবন, নিস্তার মিলছেনা আমতলী উপজেলাবাসীর!
                                  

পারভেজ শাহরিয়ার, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
বরগুনার আমতলীতে মশার উপদ্রবে অতিষ্ঠ জনজীবন। রাত দিন মশার উৎপাত চলছে সমান তালে। মশার যন্ত্রণা থেকে পরিত্রান পেতে কয়েল ও অ্যারোসলসহ বিভিন্ন উপকরণ ব্যবহার করেও মশার হাত থেকে যেন নিস্তার মিলছে না। এতে যেমন মানুষের স্বাভাবিক কাজকর্ম বিঘিœত হচ্ছে, তেমনি ডেঙ্গুসহ মশাবাহিত রোগের ঝুঁকি বাড়ছে।

মশার যন্ত্রণায় দিনের বেলায়ও স্বাভাবিকভাবে কাজকর্ম করা যাচ্ছে না। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে আরো কয়েকগুন উৎপাত বেড়ে যায়। তখন মশা তাড়ানো উপকরণ ছাড়া বসে থাকা দুরুহ হয়ে পড়ে। মশার উৎপাতে শিক্ষার্থীরা ঠিকভাবে লেখাপড়া করতে পারছে না। পাশাপাশি উপজেলার ব্যবসায়ীরাও রয়েছে চরম বিপাকে। মশার কামড় খেয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বসে থাকা তাদের জন্য কষ্টকর হয়ে পড়েছে।

উপজেলা পরিষদের চার পাশে ডোবা নালাগুলো কঁচুরি পানায় ভরপুর এবং ময়লার ভাগারে পরিনত হয়েছে। প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের চোঁখের সামনে উপজেলা পরিষদের গেটেই রয়েছে ময়লার ভাগার। যা কেউ পরিস্কার পরিছন্ন করতে এগিয়ে আসছে না। ময়লার ভাগার থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এতে মারাত্মক পরিবেশ দুষণ, মশার বংশ বিস্তার ও ডেঙ্গুর প্রকোপ বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে। পরিবেশ দুষণ ও মশার উৎপাত বৃদ্ধি থেকে পরিত্রাণ পেতে দ্রæত ডোবা- নাল থেকে কচুরীপানা ও ময়লার ভাগার পরিস্কারের দাবী জানিয়েছেন ভূক্তভোগীরা।

এছাড়া উপজেলা ৭টি ইউনিয়নের অধিকাংশ খাল, ডোবা ও নালাগুলো কচুরীপানা ও ময়লা আবর্জনায় পরিপূর্ণ থাকায় প্রতিনিয়ত মশার বংশ বিস্তার হচ্ছে। উপজেলার আমতলী পৌরসভা এবং চাওড়া, হলদিয়া, কুকুয়া ও সদর ইউনিয়নের উপরদিয়ে প্রবাহিত ৩০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য ও ২০০ মিটার প্রস্থের চাওড়া- সুবন্দি বদ্ধ নদীটি বছরের পর বছর চুরীপানায় পরিপূর্ণ থাকায় পানি পঁচে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পরিবেশ দুষিত করছে। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মশার বংশ বৃদ্ধির কারখানা বলে পরিচিত এ নদীর দু-পাড়ের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ ভাইরাসসহ বিভিন্ন রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার আতংকে রয়েছে।

ভূক্তভোগী বাসিন্দাদের মতে, মশার এসব আবাসস্থলগুলো নিয়মিত পরিষ্কার- পরিচ্ছন্ন রেখে মশা নিধন অভিযান উপজেলা প্রশাসনের শুরু করতে হবে। তবেই মশার উৎপাত থেকে অনেকটাই পরিত্রাণ পেত উপজেলাবাসী। আবার মশা নিধন উপজেলা প্রশাসনের ওপর ছেড়ে দিলেই চলবে না এর সঙ্গে সকল এলাকাবাসীকে সচেতনতামূলক ভূমিকা পালন করতে হবে। নিজের আবাসস্থল পরিচ্ছন্ন রাখতে বসবাসকারীদের সহযোগিতা করতে হবে। বাড়ির ময়লা-আবর্জনা যেখানে সেখানে না ফেলে নির্দ্দিষ্ট স্থানে ফেলা উচিত। এমনটি করা হলে মশার উৎপাত অনেকাংশে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।

চন্দ্রা গ্রামের শাহাবুদ্দিন বলেন, চাওড়া- সুবন্দি বদ্ধ নদীটি বছরের পর বছর চুরীপানায় পরিপূর্ণ থাকায় পানি পঁচে যেমন দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পরিবেশ দুষিত করছে তেমনি প্রতিদিন মশার কামড়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে নদীর দু-পাড়ের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ।

উপজেলার মহিষডাঙ্গা এলাকার কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী মোঃ বেল্লাল ও তানিয়া বলেন, মশার কারণে রাতের বেলায় চেয়ার- টেবিলে বসে লেখাপড়া করা কষ্টকর। তাই নিরুপায় হয়ে তাকে মশারি টাঙিয়ে বিছানায় বসে লেখাপড়া করতে হচ্ছে।

পৌরসভার স্কুল শিক্ষার্থী মাহিদ, নিদি, সারা, সুমাইয়া বলেন, মশার কামড়ে আমরা ঠিকমত পড়াশুনা করতে পারছিনা।

পৌরসভার মাজার রোড এলাকার গৃহীনি রুমা বেগম জানায়, মশার অত্যাচারে ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি মিলছে না। দিনের বেলায়ও ঘরে কয়েল জ্বালিয়ে রাখতে হচ্ছে।

পৌর মেয়র মোঃ মতিয়ার রহমান বলেন, পৌর শহরে মশা নিধনে দ্রæত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শহরের মধ্যে ময়লার ভাগারগুলো দ্রæত পরিস্কার করার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। যেখানে সেখানে বাড়ির ময়লা-আবর্জনা না ফেলে নির্দ্দিষ্ট স্থানে ফেলতে তিনি পৌরবাসীকে অনুরোধ করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ কাওসার হোসেন মুঠোফোনে বলেন, শীঘ্রই মশা নিধন ও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করা হবে।

 

আমতলীতে মুজিব কোট নিয়ে ইমামের মিথ্যাচার ও কটুক্তি! শাস্তি দাবী
                                  

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুজিব কোট নিয়ে মিথ্যাচার ও কটুক্তি করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চাওড়া ইসলামপুর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আবু বকর মৃধা এ কটুক্তি ও মিথ্যাচার করেন। এ ঘটনায় রবিবার ইমামের বিচার দাবীতে মুসুল্লীরা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনা ঘটেছে আমতলী উপজেলার চাওড়া ইউনিয়নের ইসলামপুর জামে মসজিদ।

জানা গেছে, আমতলীর চাওড়া ইসলামপুর জামে মসজিদের ইমাম ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ উপজেলা কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানার আবু বকর মৃধা গত শুক্রবার খুতবার বয়ানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুজিব কোট নিয়ে মিথ্যাচার ও কটুক্তি করেছেন বলে অভিযোগ মুসুল্লীদের। মুসুল্লীরা অভিযোগ করেন, মুজিব কোট নিয়ে ইমাম বলেন, মুজিব কোট ছিল মাওলানা সামসুল হক ফরিদপুরীর। এক অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু ফরিদপুরীর ওই কোট নিয়ে যায়। ওই থেকে মুজিব কোট বঙ্গবন্ধু তার নামে চালিয়ে দেন। প্রকৃত পক্ষে বঙ্গবন্ধুর মুজিব কোট না। মুজিব কোট মাওলানার সামসুল হক ফরিদপুরীর। ইমামের এমন বয়ানের প্রতিবাদ করেন মসজিদে আসা মুসুল্লীরা। মুসুল্লীরা আরো অভিযোগ করেন ইমাম মুজিব কোট নিয়ে মিথ্যাচার ও কটুক্তির প্রতিবাদ করলে ইমাম মুসুল্লীদের মসজিদ থেকে চলে যেতে বলেন। ওই ঘটনার পরপর মুসুল্লীরা মসজিদে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন। ইমামের বিচার দাবীতে মসজিদের মুসুল্লীরা রবিবার আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

মুসুল্লী ইউসুফ জামান বলেন, ইমাম মাওলানা আবু বকর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুজিব কোট নিয়ে মিথ্যাচার ও কটুক্তি করে বলেছেন মুজিব কোট বঙ্গবন্ধুর না। মুজিব কোট সামসুল হক ফরিদপুরীর। ফরিদপুরীর কাছ থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কোট নিয়ে যায়। ইমামের এমন মিথ্যাচার ও কটুক্তি তীব্র নিন্দা জানিয়ে তিনি ইমামের বিচার দাবী করেছেন।

ইসলামপুর জামে মসজিদের সহ-সভাপতি ও উপজেলা ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম বাদল প্যাদা বলেন, ইমাম মাওলানা আবু বকর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুজিব কোট নিয়ে যে মিথ্যাচার ও কটুক্তি করেছেন তা মেনে নেয়া যায়না। এমন মিথ্যাচার ও কটুক্তি রাষ্ট্রবিরোধীতার সামিল।

ইমাম মাওলানা আবু বকর মৃধা মুজিব কোট নিয়ে মিথ্যাচার ও কটুক্তির কথা অস্বীকার করে বলেন, মুসুল্লীরা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছেন।

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, অভিযোগ পাইনি। তারপরও বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

ভালুকায় কৃষিউপকরণবিতরণ
                                  

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :

ভালুকায় ২০২১-২০২২ অর্থবছরেখরিপ/২০২১-২০২২ মৌসুমে কৃষিপ্রনোদনাকর্মসূচিরআওতায়গ্রীষ্মকালিন পেঁয়াজউৎপাদনবৃদ্ধি ও নাবীজাতেরপাটবীজউৎপাদনের লক্ষেক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝেগতকালশনিবারবিনামূল্যে কৃষিউপকরণবিতরণকরাহয়েছে।
উপজেলা কৃষিঅফিসেরআয়োজনেউপজেলাপরিষদ কনফারেন্সরুমে এক সংক্ষিপ্তআলোচনাসভায়সভাপতিত্ব করেননির্বাহীঅফিসারসালমাখাতুন। এতে প্রধানঅতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- স্থানীয়সাংসদ আলহাজ¦ কাজিমউদ্দিনআহমেদ ধনু। বক্তব্য রাখেন- অ্যাডভোকেটশওকতআলী, আহসানহাবীবমহন ও মোস্তফাকামালপ্রমুখ। অনুষ্ঠানসঞ্চালনাকরেন কৃষিঅফিসার জেসমিনজাহান। পরে কৃষকদের মাঝেবিভিন্নউপকরণবিতরণকরেনএমপি।

মামলা তুলে না নিলে আমতলীতে স্ত্রীকে এসিড মেরে ঝলসে দেয়ার হুমকি! স্বামীর ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন স্ত্রী!
                                  

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
স্বামী সাইদুর রহমান মাসুদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে স্ত্রী মমতাজ আক্তার লিমার দায়ের করা মামলা তুলে না নিলে এসিড মেরে ঝলসে দেয়া এবং পিস্তল দিয়ে গুলি করে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্ত্রী মমতাজ আক্তার লিমা শনিবার আমতলী প্রেসক্লাবে উপস্থিত হয়ে এমন লিখিত অভিযোগ দেন। স্বামীর অব্যাহত জীবন নাশের হুমকিতে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি। ঘটনা ঘটেছে আমতলী পৌর শহরের ফায়ার সার্ভিস এলাকায়।

জানা গেছে, ২০১৫ সালের ২৩ ফেব্রæয়ারী পটুয়াখালী জেলার শারিখখালী গ্রামের আব্দুল গনি হাওলাদারের কন্যা মমতাজ আক্তার লিমার সাথে আমতলী উপজেলার বাজারখালী গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ হাওলাদারের ছেলে সাইদুর রহমান মাসুদের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় মাসুদ দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার কথা বলে পনের লক্ষ টাকা যৌতুক নেন। ওই টাকা দিয়ে মাসুদ দক্ষিণ কোরিয়া চলে যান। দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার পর থেকে মাসুম স্ত্রী লিমার খোজ খবর নেয়া বন্ধ করে দেয়। পরে পূনরায় মোবাইল ফোনে ৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করেন। কিন্তু এতো টাকা যৌতুক দিতে স্ত্রী লিমার পরিবার অস্বীকার করেন। এর পর থেকে মাসুদ গত তিন বছর স্ত্রীর সাথে সমস্ত যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। নিরুপায় হয়ে স্ত্রী লিমা ২০১৯ সালের ১৩ অক্টোবর পটুয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে স্বামী সাইদুর রহমান মাসুদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এ বছর ২১ মে স্বামী সাইদুর রহমান মাসুদ দেশে আসেন। স্ত্রীর সাথে ঘর সংসার করবে বলে গত ৫ সেপ্টেম্বর আদালতে অঙ্গীকার দিয়ে জামিনে নেয়। জামিন নিয়েই স্ত্রীর লিমাকে মামলা তুলে নিতে চাপ দেন। মামলা তুলে না নিলে স্ত্রী লিমাকে এসিড মেরে ঝলসে দেয়া এবং পিস্তল দিয়ে গুলি করে হত্যার হুমকি দেন সাইদুর এমন অভিযোগ স্ত্রী লিমার। এদিকে বিয়ের পর স্ত্রী লিমার বাবা আব্দুল গনি হাওলাদার মেয়েকে আমতলী পৌরসভার ফায়ার সার্ভিস এলাকায় ৮ শতাংশ জমি ক্রয়ের জন্য ১২ লক্ষ দেন। ওই টাকা তার স্বামী সাইদুর রহমান নিয়ে যায়। স্ত্রীর সাথে প্রতারনা করে গোপনে সাইদুল তার নামে চার শতাংশ জমি রেজিষ্ট্রি করে নেন। ওই জমিতে লিমার বাবা ঘর নির্মাণ করে দেয়। গত চার বছর ধরে ওই বাড়ী তালা বদ্ধ। কেউ ওই বাড়ীতে বসবাস করছে না। কিন্তু ওই বাড়ীর মালামাল স্ত্রী লিমা ও তার আত্মীয় স্বজন চুরি করেছে মর্মে গত ৯ সেপ্টেম্বর আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্বামী সাইদুর রহমান মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে এমন অভিযোগ স্ত্রী লিমার। লিমা আরো অভিযোগ করেন, স্বামী মাসুদ তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। তার ভয়ে তিনি পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

শনিবার আমতলী পৌর শহরের ফায়ার সার্ভিস এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ওই বাড়ীর মুল ফটকে তালা দেয়া। বাড়ির চারিপাশে ঝোপঝারে ভরপুর।

মমতাজ আক্তার লিমা বলেন, বিয়ের পর দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার কথা বলে আমার পরিবারের কাছ থেকে সাইদুর রহমান মাসুদ ১৫ লক্ষ টাকা যৌতুক নেয়। ওই টাকা দিয়ে সে দক্ষিণ কোরিয়া যান। দক্ষিন কোরিয়া যাওয়ার পর থেকেই আমার খোজ খবর নেয়া বন্ধ করে দেয়। এরপর আমার কাছে আরো ৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করেন। কিন্তু আমার পরিবার এতো টাকা দিতে অস্বীকার করেন। এরপর গত তিন বছর ধরে আমার খোজ খবর নেয়া বন্ধ করে দেয়। আমি নিরুপায় হয়ে পটুয়াখালী নারী ও নির্যাতন দমন আদালতে বিচার চেয়ে মামলা দায়ের করি। বর্তমানে দেশে এসে ওই মামলা তুলে নিতে আমার উপর চাপ সৃষ্টি করছে। মামলা তুলে না নিলে আমাকে এসিড মেরে ঝলসে দেয়া এবং পিস্তল দিয়ে গুলি করে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। আমি তার ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। তিনি আরো বলেন, আমাকে এবং আমার পরিবারকে হয়রানী করতে আমতলী আদালতে মিথ্যা চুরির মামলা দায়ের করে। প্রশাসনের কাছে আমি আমার ও আমার পরিবারের জীবনের নিরাপত্তা চাই।

সাইদুর রহমান মাসুদ সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি না বলে ফোনের লাইন কেটে দেন।

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

বীরগঞ্জে ৪ জয়ারু সহ ৮ জন গ্রেফতার
                                  

দিনাজপুর প্রতিনিধি - দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৩ ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে ৪ জুয়ারু, ৪ মাদক ব্যাবস্যায়ীকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরন করেছে।

বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মতিন প্রধান জুয়া খেলার গোপন সংবাদ পেয়ে নির্দ্দেশে দিলে ওসি তদন্ত সোহেল রানা, এসআই আকবর আলী সহ পুলিশের একটি টিম রাত্রী ১২টায় ঢাকা-পঞ্চগড় মসাসড়কের ধারে উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের কবিরাজহাট এলাকার চাউলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের পুত্র আব্দুল লতিফ মনজু (৫৫) হাস্কিং মিল ইমরান ইন্ডাট্রিজ এর গোডাউনে জুয়া খেলা অবস্থায় মনজু সহ আটক করে। অন্যান্যরা হলেন একই ইউনিয়নের কালাপুকুর গ্রামের মৃত রমিজ উদ্দিনের পুত্র আব্দুল কুদ্দুস (৫০), সাতোর ইউনিয়নের ডাকেশ্বরী ঘোসপাড়া গ্রামের মৃত কেতারাম ঘোসের পুত্র অমুল্য ঘোস (৬০) ও আনিছারের পুত্র হোসেন আলী (৪০)। এসআই আকবর আলী জানায়, তাদের ৪ জনের বিরুদ্ধে জুয়া আইনে মামলা হয়েছে।
এলাকাবাসী জানায়, দির্ঘদিন ধরে আব্দুল কুদ্দুস এর নেতৃত্বে ঐ মিলে বড় বড় জুয়ার আসর বসে।

অপর দিকে একই সময়ে অপর একটি টিম উপজেলার শিবরামপুর ইউনিয়নের মুরারীপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে, ২০ পিস সিনটা ট্যাবলেট সহ আব্দুর রশিদের পুত্র শাহ আলম (২৮), পূর্ন চন্দ্রের পুত্র জিতেন (৩৭) কে এসআই রেজাউল করিম এবং এএসআই সজল শতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাড়বাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে, দেবারুপাড়ার দেলওয়ার হোসেনের পুত্র আসাদুজ্জামান আসাদ (৩০) ও প্রসাদপাড়ার আব্দুল বারীর পুত্র সুজন (২০) আটক করে আদালতে প্রেরন করেছে।
এলাকাবাসী জানায়, দির্ঘদিন ধরে আসাদ এর নেতৃত্বে কিছু গডফাদারের সহসোগিতায় মাদকের জমজমাট ব্যবস্যা ঐ এলাকায় চলছে।

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে বজ্রপাত ঠেকানোর জন্য তালের বীজ রোপন করেন যুদ্ধকালীন কমান্ডার সরোয়ার
                                  
ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ
  
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও বজ্রপাতের হাত থেকে সাধারণ মানুষকে রক্ষা করতে পাঁচশ তাল গাছের বীজসহ বিভিন্ন প্রজাতির চারা  রোপণের উদ্যোগ নিয়েছে মোবারকগঞ্জ সুগার মিলের সিডিএ ইমরান রেজা।
আজ শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার রঘুনাথপুর রোস্তম আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের চার পাশে এবং গ্রামের সড়কের দুই পাশে তাল গাছের বীজ রোপণের মাধ্যমে এই উদ্যোগের উদ্বোধন করেন কালীগঞ্জ-চৌগাছা যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক চেয়ারম্যান বি এম গোলাম সরোয়ার রেজা (দাতা প্রতিষ্ঠাতা রঘুনাথপুর রোস্তম আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়) এক দিনে পাঁচ শতাধিক তালের বীজ ও বিভিন্ন প্রজাতির চারা নিজ হাতে রোপণ করে এই কর্মসূচীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এবং আগামীতে আরও তাল গাছের বীজ রোপণ করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।
 
সাবেক চেয়ারম্যান রেজা বলেন, তাল গাছ অনেক উঁচু হওয়ায় বজ্রপাত ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের ক্ষয়-ক্ষতি নিরসনে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এছাড়া মাটির ক্ষয় রোধ, প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায় তালগাছের জুড়ি নেই। এর পাশাপাশি ঘরের খুঁটি ও হাতপাখা তৈরিতে তালগাছের ব্যবহার হয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। তাল পাতার পাখা আমাদের ঐতিহ্যের একটি অংশ। তাল গাছের ডালের আঁশ থেকে রকমারি দ্রব্যাদি তৈরী হয়। তবে ইদানিং তাল গাছের সংখ্যা ক্রমেই হ্রাস পাচ্ছে। এমন উপকারী একটি গাছের বৃদ্ধি ও সংরক্ষণের কথা মাথায় রেখে, আমার ছেলে ইমরান রেজা ও ইউপি সদস্য বেলাল হুসাইন বিজয় মিলে এই কর্মসূচি হাতে নিয়েছি।
গ্রামের সকলকে এই কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সবাইকে বলবো, আপনাদের বাসায় পড়ে থাকা তালের বীজ বাড়ির আঙিনা কিংবা আশেপাশে রোপণ করুন। অথবা সেই বীজ তুলে দিন আমাদের হাতে দিন। আসুন প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় ও বজ্রাঘাত থেকে বাঁচতে তালের বীজ রোপণ করি।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রঘুনাথপুরের ইউপি সদস্য বেলাল হুসাইন বিজয়, বাজার কমিটির সদস্য ইসলাম হোসেন প্রমুখ ও স্থানীয় সুধীজন।
 
স্থানীয় এক বয়স্ক পাটোয়ারী (৯০) বলেন, সে একজন ভাল মনের মানুষ। বিগত দিনে ১১ নং রাখাল গাছি ইউনিয়নের ১০-১৫ কিঃ মিঃ রাস্তার দুই পাশ দিয়ে এবং শিক্ষা  প্রতিষ্ঠানে নিজের পকেটের টাকা দিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগিয়ে ছিলেন। বৃক্ষ প্রেমিক সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম সরোয়ার রেজা সর্বসাধারণের জন্যই মহান এ কাজ করেন।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
                                  

মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রামঃ

দামপাড়াস্থ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন্স সদর দপ্তরের কনফারেন্স হলে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার জনাব সালেহ মোহাম্মদ তানভীর, পিপিএম এর সভাপতিত্বে সিএমপির মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় মানবিক কার্যক্রম ও অপরাধ দমনে পুলিশকে সহায়তার অংশ হিসেবে আবু নেওয়াজ (মাবুদ), মোঃ আলী, সোহেল মোঃ হাবিবুল্লাহ ও মোহাম্মদ ইদ্রিস কে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করেন সিএমপি কমিশনার মহোদয়। গত ২৫ আগস্ট, ২০২১ইং সকাল আনুমানিক ০৯ঃ০০ ঘটিকায় ডিউটিতে গমনরত অবস্থায় সার্জেন্ট মোঃ পারভেজ উদ্দিন কর্ণফুলী থানাধীন শাহ আমানত সংযোগ সেতু সড়ক স্থলে পৌছলে পিছন থেকে একটি মিনিট্রাক বেপরোয়া গতিতে তাকে ধাক্কা দিয়ে সেতুর টোলবার ভেঙে পালিয়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলে অবস্থানরত আবু নেওয়াজ (মাবুদ) ও মোঃ আলী দৌড়ে ট্রাকটির পিছনে উঠে ট্রাকের ড্রাইভারকে আটকানোর চেষ্টা করে। এতে ড্রাইভার ট্রাকটিকে ফাজিলহাট নামক স্থানে রেখে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে পুলিশ ট্রাকটি আটক করে। নিজ জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আবু নেওয়াজ (মাবুদ) ও মোঃ আলীর ঐকান্তিক প্রচেষ্টার স্বীকৃতিসরূপ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে তাদেরকে সম্মানিত করেন সিএমপি কমিশনার মহোদয়। এসময় দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত সার্জেন্ট মোঃ পারভেজ উদ্দিনকে উদ্ধার করে নিজ গাড়ী যোগে দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন সোহেল মোঃ হাবিবুল্লাহ। কয়েকদিনের টানা বর্ষণে চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন রাস্তা জলমগ্ন ছিল। জনগণের জানমাল রক্ষার দায়িত্বে সদা নিয়োজিত পুলিশ সদস্যের জীবন রক্ষায় আন্তরিক প্রচেষ্টার স্বীকৃতিতে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে সম্মানিত করেন সিএমপি কমিশনার মহোদয়। এছাড়াও আকবরশাহ থানার খুনসহ ডাকাতির মামলায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়ে সহায়তা করেন মোহাম্মদ ইদ্রিস। এতে আকবর শাহ থানা পুলিশ অপরাধীদের ধরতে সমর্থ হয়। অপরাধ দমনে সহযোগিতার স্বীকৃতিতে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে তাকেও সম্মানিত করেন সিএমপি কমিশনার মহোদয়। সভায় সিএমপি কমিশনার তাঁর বক্তব্যে নগরীর আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এই প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার জন্য সকল থানা ও মহানগর গোয়েন্দা বিভাগকে যৌথভাবে কাজ করার পরামর্শ প্রদান করেন। রুজুকৃত মামলা ও অভিযোগ সমূহের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে পুলিশি সেবা নিশ্চিত করতে বলেন। এছাড়াও করোনার প্রাদুর্ভাবকালীন সময়ে সবাইকে দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ দেন। এসময় সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) জনাব শ্যামল কুমার নাথ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(প্রশাসন ও অর্থ) জনাব সানা শামীনুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(ক্রাইম এন্ড অপারেশন) জনাব মোঃ শামসুল আলম, উপ-পুলিশ কমিশনার(সদর) জনাব মোঃ আমির জাফর সহ অন্যান্য উপ-পুলিশ কমিশনার, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার সহ সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ ও বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

ইভ্যালির দেনা ও ব্যাংক-ব্যালেন্স কত?
                                  

ইভ্যালির সিইও মো. রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন, ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ইভ্যালির দায় ছিল ৪০৩ কোটি টাকা। কিন্তু বর্তমানে দেনার পরিমাণ হাজার কোটিরও বেশি।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‌্যাবের সদরদপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ তথ্য জানান।


তিনি বলেন, `প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ইভ্যালির দেনা দাঁড়িয়েছে ৪০৩ কোটি টাকা। তাদের সম্পদ ছিল ৬৫ কোটি টাকা। কিন্তু বর্তমানে দেনার পরিমাণ প্রায় হাজার কোটিতে দাঁড়িয়েছে।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, বিভিন্ন ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ইভ্যালির প্রায় ৩০ লাখ টাকা রয়েছে। এছাড়া কয়েকটি গেটওয়েতে ৩০-৩৫ কোটি টাকা আটকে আছে, যেগুলো গ্রাহকের টাকা।

জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে তিনি আরও বলেন, নানা পণ্য বাবদ গ্রাহকদের কাছ থেকে অগ্রিম নেওয়া হয়েছে ২১৪ কোটি টাকা এবং গ্রাহক ও অন্যান্য কোম্পানির কাছে বকেয়া আছে ১৯০ কোটি টাকা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে, ইভ্যালিতে পূর্বে প্রায় ২ হাজার ব্যবস্থাপনা স্টাফ ও ১ হাজার ৭০০ অস্থায়ী কর্মী ছিল। বর্তমানে ব্যবস্থাপনা স্টাফ পদে ১ হাজার ৩০০ জন ও অস্থায়ী পদে প্রায় ৫০০ জন কর্মী আছেন। পূর্বে কর্মীদের মাসিক বেতন বাবদ প্রায় ৫ কোটি টাকা দেওয়া হতো। বর্তমানে তা দেড় কোটিতে দাঁড়িয়েছে। গত জুন থেকে অনেকের বেতন বকেয়া আছে।`

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, তিনি এবং তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন পদাধিকারবলে ইভ্যালি থেকে মাসে ৫ লাখ টাকা করে বেতন নিতেন বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা। এছাড়া তারা কোম্পানির টাকায় অডি ও রেঞ্জ রোভার দুটি দামি গাড়ি ব্যক্তিগতভাবে ব্যবহার করেন।`
‘দায় মেটাতে বিভিন্ন অজুহাতে সময় বৃদ্ধি করার আবেদন রাসেলের একটি অপকৌশল মাত্র। সবশেষ দায় মেটাতে ব্যর্থ হলে `দেওলিয়া ঘোষণার` পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি,` সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

 

নতুন গ্রাহকদের ওপর দায় চাপিয়ে পুরাতন গ্রাহকদের আংশিক অর্থ ফেরত অথবা পণ্য ফেরত দিত ইভ্যালি। দায় ট্রান্সফারের দুরভিসন্ধিমূলক অপকৌশল চালিয়ে গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল প্রতিষ্ঠানটি। এভাবে প্রতিষ্ঠানটির নেটওয়ার্কে গ্রাহক যত তৈরি হয় দায় তত বাড়ে।

দায়ের পরিমাণ বাড়ায় এক পর্যায়ে ইভ্যালিকে দেউলিয়া ঘোষণার পরিকল্পনা করছিলেন ইভ্যালির সিইও মো. রাসেল, উল্লেখ করে র‌্যাব জানায়, সম্প্রতি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ই-কমার্স ব্যবসা সংক্রান্ত যে নীতিমালা করা হয়েছে তার আলোকে ব্যবসা পরিচালনা কিংবা গ্রাহকদের দেনা পরিশোধ করা কোনোভাবেই সম্ভব হতো না।

এদিকে শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টার দিকে হাজির করে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা গুলশার থানার উপ-পরিদর্শক ওয়াহিদুল ইসলাম।

শুনানি শেষে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলামের আদালত তাদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিন দুপুর ২টার দিকে তাদের আদালতে হাজির করে আদালতের হাজতখানায় রাখা হয়। দুপুর আড়াইটার দিকে আসামিদের তোলা হয় আদালতে।
জমির দ্বন্দ্বে বলি দুই শতাধিক কলাগাছ
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি

মানুষের বিরোধের বলি হল দুই শতাধিক কলাগাছ। রাতের আধারে কেটে মাটিতে ফেলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের গোবরিয়া আবদুল্লাহ পুরের জগৎচর গ্রামে।

এমন অমানবিক কর্মকাণ্ডে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন বৃদ্ধা হালিমা বেগম, কাইয়ুম মিয়া ও জহিরুল ইসলাম নামের তিন বর্গাচাষি। এই অবস্থায় জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

 
জানা যায়, ভাটি জগৎচর উত্তর পশ্চিম পাড়া গ্রামের ইমাম উদ্দিন ও খরম আলী ও মিজান মিয়ার কাছ থেকে কৃষাণী হালিমা আক্তার ও দুই কৃষক কাইয়ুম ও জহিরুল ইসলাম ভাড়া নিয়ে কলার চাষ করে। এরইমধ্যে কলাগাছ বড় হয়ে সবে ফলন আসতে শুরু করেছে। তবে, জমির মালিকের সাথে একই গ্রামের মেজু মিয়ার বিরোধ ছিল। যা গড়ায় আদালত পর্যন্ত গড়ায়।
 
আদালত থেকে সমন পাশ হওয়ার দিন সেই রাতেই দুই বিঘা জমির দুই শতাধিক কলাগাছ কেটে ফেলে দেওয়া হয়। ধারণা করা হচ্ছে এই বিরোধের জেরেই এমন ঘটনা ঘটেছ।
 
 
 
কৃষাণী হালিমা আক্তার (৬০) বলেন, ‘গত বছর ৭০ হাজার টাকা দিয়ে এই জায়গাটি ভাড়া নিয়ে আমি কলার চাষ করেছি। এই কলা বাগানে আমি নিজে দিন-রাত পরিশ্রম করে চাষ করে আসছি। গাছে ফলন ধরতে শুরু করেছিলো, কিছু দিন পর থেকে বিক্রি করতে পারতাম। কিন্তু রাতে অন্ধকারে কে বা কারা আমার এই সর্বনাশ করেছে আমি জানি না। আমি এর বিচার চাই।’ তিনি বলেন, ‘আমিতো জমি ভাড়া নিয়ে চাষ করেছি, আমার সাথে কেনো এমন শত্রুতা?’
 
এই বিষয়ে কৃষক মো. কাইয়ুম (৩৮) ও জহিরুল ইসলাম (৩৫) বলেন, আমরাও জমি ভাড়া নিয়ে এখানে কলার চাষ করি। কিন্ত গত রাতে কারা যেন আমাদের স্বপ্ন সব মাটিতে মিশিয়ে দিয়েছে। আর কয়েকটা দিন গেলেই আমরা কলা বিক্রি করতে পারতাম, এমন সময় আমাদের এত বড় ক্ষতিটা করে কার কী এমন লাভ হলো আমরা জানি না। আমরা এর বিচার চাই।
 
কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ সুলতান মাহমুদ বলেন, আমি ফেসবুকের মাধ্যমে বিষয়টি জেনেছি।এখনও কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ হাতে আসলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
মধ্যপাড়া পাথরখনিতে কর্মরত শ্রমিকদের সন্তানদের জিটিসি কর্তৃক উচ্চ শিক্ষায় অধ্যায়নরত শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান
                                  

মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার মধ্যপাড়া কঠিনশীলা প্রকল্পে কর্মরত শ্রমিকদের সন্তানদেরকে জিটিসি কর্তৃক উচ্চশিক্ষায় অধ্যয়নরত শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩ টায় মধ্যপাড়া পাথর খনির সন্মুখে অবস্থিত জার্মানীয়া-ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) এর সমাজ কল্যাণ সংস্থা জিটিসি চ্যারিটি হোম কার্যালয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাথর খনিতে কর্মরত শ্রমিকদের উচ্চ শিক্ষায় অধ্যায়নরত ৫২ জন শিক্ষার্থীকে মাসিক শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান করা হয়।
জানা গেছে, মধ্যপাড়া পাথর খনি এলাকাবাসীর জন্য সামজিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে জিটিসি চ্যারিটি হোম থেকে পাথর খনি শ্রমিকদের উচ্চ শিক্ষায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত ৫২ জন শিক্ষার্থীর মাঝে মাসিক শিক্ষা উপবৃত্তির অর্থ প্রদান কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় উপস্থিত শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের হাতে এই উপবৃত্তির অর্থ তুলে দেন জিটিসি’র নির্বাহী পরিচালক জনাব মোঃ জাবেদ সিদ্দিকী এর পক্ষে উপ-মহাব্যবস্থাপক মোঃ জাহিদ হোসেন। পরে ননএমপিও ভুক্ত মধ্যপাড়া মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারীদের জন্য বিগত মাসগুলোর আর্থিক সহায়তার ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে অধ্যক্ষ মোঃ ওবায়দুর রহমানের হাতে চলতি সেপ্টেম্বর মাসের আর্থিক অনুদানের চেকও প্রদান করা হয়।
মধ্যপাড়া পাথর খনির ব্যবস্থাপনা, রক্ষনাবেক্ষন এবং উৎপাদন কাজে নিয়োজিত দেশীয় একমাত্র মাইনিং কোম্পানী জার্মানীয়া কর্পোরেশন লিমিটেড ও বেলারুশ কোম্পানী ট্রেস্ট এস এস এর যৌথ প্রতিষ্ঠান জার্মানীয়া ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) তাদের অধীনে কর্মরত খনি শ্রমিক সহ সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসীর মাঝে সেবামূলক এবং সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে শ্রমিকদের উচ্চ শিক্ষায় অধ্যায়নরত সন্তানদের মাঝে শিক্ষা উপবৃত্তি কার্যক্রম এবং মধ্যপাড়া পাথর খনির এলাকাবাসীর জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসা পরামর্শ সেবা প্রদান সহ বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে সমাজ কল্যাণ সংস্থা “জিটিসি চ্যারিটি হোম” স্থাপন করেছে। খনি এলাকায় সামজিক বিভিন্ন কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন বাড়াতে এলাকার বিভিন্ন মহলের সহযোগিতা কামনা করেছে জিটিসি কর্তৃপক্ষ।
এখানে উল্লেখ্য, জিটিসি চ্যারিটি হোমে একজন অভিজ্ঞ এমবিবিএস ডাক্তার দ্বারা সপ্তাহে ০৫ দিন খনি এলাকার মানুষের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরামর্শ সেবা কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সেখানে প্রতিদিন গড়ে খনি এলাকার প্রায় ৩০/৪০ জন রোগী এই সেবা গ্রহন করছেন। জিটিসি দায়ীত্ব নেওয়ার পর মধ্যপাড়া পাথর খনিতে উৎপাদন বৃদ্ধিতে রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন। পাশাপাশি এলাকার মানুষ খনিতে চাকরী করে জীবন জীবিকা নির্বাহ করছেন। অন্যদিকে দেশের বড় বড় ঠিকাদার মধ্যপাড়ার পাথর ক্রয় করে লাভবান হচ্ছেন। তারা এই পাথর নিয়ে গিয়ে সরকারি ও বেসরকারি কাজে ব্যবহার করছেন। যেমন- রাস্তা, ব্রীজ, কালভার্ট, বাসা-বাড়ীসহ অন্যান্য নির্মাণ কাজে। সরকার এখান থেকে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আয় করছেন। ইতিপূর্বে নাম নাম কোম্পানী দায়ীত্ব নেওয়ার পর তারা উৎপাদন বাড়াতে পারেন নি। এখন জার্মানীয়া কর্পোরেশন লিমিটেড ও বেলারুশ কোম্পানী ট্রেস্ট এস এস এর যৌথ প্রতিষ্ঠান জার্মানীয়া ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) উৎপাদন বাড়াচ্ছেন। ফলে লাভবান হচ্ছে খনিটি।

(বিজিবি) এর রামু ব্যাটালিয়নের মরিচ্যা যৌথ চেকপোস্ট অভিযানে ১,২৫,০০০ পিস বার্মিজ ইয়াবাসহ আটক ১
                                  
এম ডি বাবুল চট্রগ্রাম বিভাগীয় ব‍্যুরো প্রধান
কিছুতেই থামছেনা ইয়াবা পাচার বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত প্রবেশ করছে নিষিদ্ধ মরন ঘাতি ইয়াবা ট‍্যাবলেট আর দেশের বিজিবি জোয়ানরা তা সবসময় ব‍্যার্থ করে দিচ্ছে সজাগ রয়েছে সবসময় বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড বিজিবি 
অদ্য ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখ বিজিবি`র রামু ব্যাটালিয়ন(৩০ বিজিবি) এর অধিনায়ক লেঃ কর্নেল ইব্রাহীম ফারুক, এএসসি নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে, কুতুপালং থেকে কক্সবাজারগামী একটি সিএনজি যোগে প্রচুর পরিমাণ ইয়াবা পাচার হবে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে অত্র ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক মরিচ্যা যৌথ চেকপোস্টে গমন করতঃ মরিচ্যা বাজার এবং মরিচ্যা যৌথ চেকপোস্টে তল্লাশী কার্যক্রম জোরদার করেন। আনুমানিক ১১৫০ ঘটিকায় উক্ত সিএনজিটি মরিচ্যা যৌথ চেকপোস্টে আসলে তা তল্লাশীর জন্য থামানো হয়। অধিনায়কের উপস্থিতিতে চালক তোফায়েল (১৯), পিতা-আমিনুল হক, গ্রাম-চাকমার কুল ডিংগাপাড়া, পোস্ট+থানা-রামু, জেলা-কক্সবাজারকে তার সিএনজিটিসহ পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে তল্লাশী করা হয়। তল্লাশীকালে যাত্রী সিটের মধ্যে বিশেষ চেম্বারে লুকায়িত অবস্থায় ১২ কার্ডে এবং ০১ প্যাকেটে ৩,৭৫,০০,০০০/- (তিন কোটি পঁচাত্তর লক্ষ) টাকা মূল্যমানের ১,২৫,০০০ পিস বার্মিজ ইয়াবা আটক করতে সক্ষম হয়। এছাড়া ৪,০০,০০০/- টাকা মূল্যের ০১টি সিএনজি এবং ১০,০০০/- টাকা মূল্যের ০১টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে চালক ইয়াবা পাচারের বিষয়টি স্বীকার করে এবং জানায় যে, মোঃ বাদশা মিয়া (৪৫), পিতা-মৃত কালামিয়া, গ্রাম-পূর্ব কুরুলিয়া, পোস্ট+থানা+জেলা-কক্সবাজার এই ইয়াবার প্রকৃত মালিক। চালক তোফায়েল টাকার বিনিময়ে ইয়াবাগুলি বহন করছিল। পরবর্তীতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। আটককৃত মালামালের সর্বমোট আনুমানিক সিজার মূল্য- ৩,৭৯,১০,০০০/- (তিন কোটি ঊনআশি লক্ষ দশ হাজার) টাকা।
 
উল্লেখ্য, আটককৃত আসামীকে (বাংলাদেশী নাগরিক) জব্দকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট, সিএনজি এবং মোবাইলসহ নিয়মিত মামলার মাধ্যমে রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
অবৈধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারে বরগুনা জেলার পুলিশের সাফল্যঃ
                                  

স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন চট্টগ্রামঃ বরগুনা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মুহম্মদ জাহাঙ্গীর মল্লিক মহোদয়ের কার্যকরী নির্দেশনায় বরগুনা জেলা পুলিশ অবৈধ অস্ত্র গুলি ও মাদকদ্রব্য উদ্ধারে ধারাবাহিকভাবে সফলতা অর্জন করে চলেছে। এ ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে ১৬-০৯-২০২১ খ্রি. দুপুর ০২:১৫ ঘটিকার সময় বরগুনা সদর থানাধীন সোনাখালী শিপের খাল হতে এক মাদক কারবারিকে আটক করে বরগুনা থানা পুলিশ।

ফুলবাড়ীতে বিএনপির এর ভাইস চেয়ারম্যান এর মাতা’র সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত
                                  

মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান দিনাজপুর জেলার কৃতিসন্তান ডা: এ জেড এম জাহিদ হোসেন এর মাতা কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস এ আক্রান্ত হওয়ায় তার সুস্থতা কামনায় ফুলবাড়ী পৌর বিএনপির কার্যালয়ে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধা সাড়ে ৬ টায় ফুলবাড়ী পৌর বিএনপির কার্যালয়ে ফুলবাড়ী উপজেলা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহাদৎ আলী শাহাজুল এর নেতৃত্বে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ আলাউদ্দিনের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহাদৎ আলী শাহাজুল।
এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ফুলবাড়ী পৌর যুবদলের সদস্য সচিব মোঃ মানিক মন্ডল, সাবেক ছাত্র নেতা মোঃ মুরতুজা হক অস্টিন।
অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলে উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক আলামিন সরকার পাপ্পু, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক নূর আলম নুরউল্লাহ্, পৌর সহ-সভাপতি মোস্তাহারুল হাসান রিপন, ফুলবাড়ী প্রচার দলের সভাপতি সাজ্জাদ হোসেন সাজু, ফুলবাড়ী পৌর যুবদলের আহবায়ক শফিকুল ইসলাম জুয়েল, সদস্য সচিব পদপ্রার্থী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আনারুল ইসলাম, পৌর ছাত্রদলের আহবায়ক মোনাস সরকার, পৌর ছাত্রদলের সদস্য সচিব আবুল কাশেম পাপ্পু, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক পদপ্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান, সাবেক ছাত্রনেতা আবু হেলাল সরকার, উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক জিয়াবুর রহমান, উপজেলা প্রচার দলের সম্পাদক মোঃ শাহাজাহান, পৌর প্রচার দলের সভাপতি মোঃ কায়ছার আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ শিপন।
দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানের আয়োজনে ছিলেন ফুলবাড়ী উপজেলা পৌর বিএনপি, উপজেলা ছাত্রদল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদল, উপজেলা প্রচার দল ও পৌর যুবদল। এ সময় প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

আমতলীতে প্রতারনা করে স্ত্রীর জমি নিজ নামে লিখে নিলেন স্বামী
                                  

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ
বরগুনার আমতলীতে স্ত্রীর সাথে প্রতারনা করে নিজ নামে জমি লিখিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আমতলী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের মৃতঃ আঃ গনি হাওলাদারের মেয়ে মমতাজ আক্তার লিমার সাথে গত ২৩/০২/২০১৫ ইং তারিখে উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের বাজারখালী গ্রামের মৃতঃ আঃ রশিদের ছেলে মোঃ সাইদুর রহমান মাসুদ (৪০) এর বিবাহ হয়। বিবাহের পর মমতাজ আক্তার লিমার বাবা আমতলী পৌরসভার ০১নং ওয়ার্ডের ফায়ার সার্ভিস কার্যালয় এর পাশে ৮ শতাংশ জমি ক্রয়ের জন্য টাকা দেয়। সাইদুর রহমান উক্ত জমি থেকে ৪ শতাংশ জমি নিজ নামে গোপনে রেজিষ্ট্রি করে নেয়। স্ত্রী লিমা সরল বিশ^াসে স্বাক্ষর দিয়ে দেয়। মাসুদ জমি লিখে নিয়ে স্ত্রীকে না জানিয়ে গোপনে দক্ষিণ কোরিয়া চলে যায়। দীর্ঘ ৪ বছর পর্যন্ত মাসুদ লিমার কোন খোজ খবর নেয় নাই। কোন ভরন পোষণও দেয় নাই। লিমা বাধ্য হয়ে পটুয়াখালী নারী ও শিশু ট্রাইবুনালে ৪৬/২০২০নং মোকদ্দমা দায়ের করে। আদালত মাসুদ এর নামে সমন দিলে মাসুস সংশ্লিষ্ট আদালতে হাজির হয়ে স্ত্রীর জমি ফেরতসহ ভরন পোষণ দিবে বলে মুচলেকা দিয়ে জামিনে মুক্তি পায়। জামিনে মুক্তি পেয়ে প্রতারক মাসুদ জমি ফেরত না দিয়ে উপর্যপুরি তাকে মামলা প্রত্যাহারের জন্য চাপ দিতে থাকে। মামলা প্রত্যাহার না করলে লিমাকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেয়াসহ বিভিন্ন রকমের মামলা দেয়ার হুমকি দিচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে লিমা বলেন, আমার বাবা জমি কেনার টাকা দিলেও আমার স্বামী কৌশলে প্রতারনা কওে জমি তার নামে লিখিয়ে নেন এবং আমার ভরনপোষনসহ কোন খোজ খবর নেন না। আমি আমার জমি ফেরত চাই এবং প্রতারক মাসুদের বিচচার চাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মাসুদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সত্যি নয় বলে জানান।

১০ কেজি চালের জন্য ভাইয়ের ছেলের ছুরিকাঘাতে কৃষক চাচা খুন।
                                  

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
১০ কেজি চালের জন্য চাচাতো ভাইয়ের ছেলে সাগরের ছুরিকাঘাতে চাচা নুরুল ইসলাম নামের এক কৃষক খুন হয়েছে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরণ করেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত আলানুর মুন্সি ও তার মা আলেয়া বেগমকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনা ঘটেছে আমতলী উপজেলার সেকান্দারখালী গ্রামে বৃহস্পতিবার সকালে।

জানা গেছে, উপজেলার সেকান্দারকালী গ্রামের আলমগীর মুন্সির (আলানুর) (৪৮) এর মা আলেয়া বেগম (৬০) চাচাতো ভাসুরের ছেলে নুরুল ইসলাম মুন্সির স্ত্রী রানী বেগমের কাছ থেকে গত বছর ১০ কেজি চাল ধার নেয়। ওই চাল গত এক বছর ধরে পরিশোধ করেননি আলেয়া। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে চাচী শ্বশুড়ী আলেয়া বেগমের কাছে ওই চাল চায় রানী বেগম। এতে ক্ষিপ্ত হয় চাচী আলেয়া বেগম। এ ঘটনার ১৫ মিনিট পরে চাচী আলেয়ার ছেলে আলানুর মুন্সি, নাতি সাগর মুন্সি ও জামাতা খলিল সিকদার দেশীয় অস্ত্র বগী ও ছুড়ি নিয়ে নুরুল ইসলামকে মারতে উদ্বত হয়। এ সময় নুরুল ইসলাম মুন্সির ছোট ভাই হাসান মুন্সি আলানুরকে নিভৃত করেন। কিন্তু আলানুরের ছেলে সাগর মুন্সি দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে চাচা নুরুল ইসলাম মুন্সির পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেয় বলে জানান নিহতের ছোট ভাই হাসান মুন্সি। এতে সহযোগীতা করেন আলেয়া ও তার দুই মেয়ে খালেদা ও আসমা এ কথা বলেন প্রত্যক্ষদর্শী নিহতের বোন মিনারা ও বিলকিস বেগম। ছুরিকাঘাত করে তারা পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই নুরুল ইসলাম গুরুতর আহত হয়। আহত নুরুল ইসলামকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। ওই হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার হিমাদ্রী রায় আহত নুরুল ইসলামকে মৃত ঘোষনা করেন। পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহত নুুরুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে ময়ন তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরন করেছে। ঘটনার সাথে জড়িত আলানুর মুন্সি ও তার মা আলেয়া (৬০) বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আটক করেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বলেন, আলানুর মুন্সির বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক মামলা রয়েছে। তিনি ও তার ছেলে সাগর এলাকার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। নুরুল ইসলামকে হত্যার ঘটনার বিচার দাবী করেন তারা।
নিহত নুরুল ইসলাম মুন্সির স্ত্রী রানী বেগম বলেন, চাচী আলেয়া বেগম গত বছর ১০ কেজি চাল ধার নেয়। ওই চাল এক বছরেও পরিশোধ করেনি। বৃহস্পতিবার সকালে আমার ঘরে চাচী আসলে আমি ওই ধার নেয়া চাল তার কাছে চাই। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি তার ছেলে আলানুর, নাতি সাগর, জামাতা খলিল সিকদার, মেয়ে খালেদা ও আসমাকে পাঠিয়ে দেয়। তারা এসে আমার স্বামীকে ছুরি মেরে হত্যা করেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

নিহত নুরুল ইসলাম মুন্সির ছোট ভাই হাসান মুন্সি বলেন, আলানুর বগি নিয়ে আমার ভাইকে মারতে আসে। আমি ওই বগি তার হাত থেকে টেনে নেই। কিন্তু তার ছেলে সাগর মুন্সি ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে আমার ভাইয়ের পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেয়। এতে আমার ভাই গুরুতর আহত হয়। ভাইকে হাসপাতালে আনার পরে চিকিৎসকরা আমার ভাইকে মৃত ঘোষনা করেছেন। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ হিমাদ্রী রায় বলেন, নিহত নুরুল ইসলাম মুন্সির পেটের পাশে ধারারো অস্ত্রের আঘাতের চিহৃ রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার পেটের নারীভুড়ি কেটে গেছে।
আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, নিহত নুরুল ইসলাম মুন্সির মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত আলানুর মুন্সি ও তার মা আলেয়া বেগমকে আটক করা হয়েছে।


   Page 1 of 171
     জেলা সংবাদ
ময়মনসিংহে পুলিশের প্রতি বয়োবৃদ্ধ ডাক্তার দম্পতির কৃতজ্ঞতা
.............................................................................................
মশার কামড়ে অতিষ্ঠ জনজীবন, নিস্তার মিলছেনা আমতলী উপজেলাবাসীর!
.............................................................................................
আমতলীতে মুজিব কোট নিয়ে ইমামের মিথ্যাচার ও কটুক্তি! শাস্তি দাবী
.............................................................................................
ভালুকায় কৃষিউপকরণবিতরণ
.............................................................................................
মামলা তুলে না নিলে আমতলীতে স্ত্রীকে এসিড মেরে ঝলসে দেয়ার হুমকি! স্বামীর ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন স্ত্রী!
.............................................................................................
বীরগঞ্জে ৪ জয়ারু সহ ৮ জন গ্রেফতার
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে বজ্রপাত ঠেকানোর জন্য তালের বীজ রোপন করেন যুদ্ধকালীন কমান্ডার সরোয়ার
.............................................................................................
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
ইভ্যালির দেনা ও ব্যাংক-ব্যালেন্স কত?
.............................................................................................
জমির দ্বন্দ্বে বলি দুই শতাধিক কলাগাছ
.............................................................................................
মধ্যপাড়া পাথরখনিতে কর্মরত শ্রমিকদের সন্তানদের জিটিসি কর্তৃক উচ্চ শিক্ষায় অধ্যায়নরত শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান
.............................................................................................
(বিজিবি) এর রামু ব্যাটালিয়নের মরিচ্যা যৌথ চেকপোস্ট অভিযানে ১,২৫,০০০ পিস বার্মিজ ইয়াবাসহ আটক ১
.............................................................................................
অবৈধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারে বরগুনা জেলার পুলিশের সাফল্যঃ
.............................................................................................
ফুলবাড়ীতে বিএনপির এর ভাইস চেয়ারম্যান এর মাতা’র সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
আমতলীতে প্রতারনা করে স্ত্রীর জমি নিজ নামে লিখে নিলেন স্বামী
.............................................................................................
১০ কেজি চালের জন্য ভাইয়ের ছেলের ছুরিকাঘাতে কৃষক চাচা খুন।
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে সমাজসেবা কার্যালয়ের উদ্যোগে ভিক্ষুকদের মাঝে ছাগল বিতরণ
.............................................................................................
বিপিসি চেয়ারম্যানের গোলাপগঞ্জ এলপিজি প্ল্যান্ট পরিদর্শন
.............................................................................................
রংপুরের তারাগঞ্জে রাধাকৃষ্ণের মূর্তি ভাংচুর
.............................................................................................
আমতলীতে ছড়িয়ে পড়েছে ডেঙ্গু। দুইজন আক্রান্ত, এলাকায় আতঙ্ক । দ্রুত ডেঙ্গু মশা নিধনে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী
.............................................................................................
গোলাপগঞ্জে ছ্দ্মবেশে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তার
.............................................................................................
গোলাপগঞ্জের ঢাকাদক্ষিণে ডাকাতির ঘটনায় প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
নবাবগঞ্জ ফসলে ইদুররর উপদ্রােব ঠেকাতে বৈদ্যুতিক তারের ফাঁদে কৃষকের মৃত্যু
.............................................................................................
দনাজপুরের ফুলবাড়ী থানা পুলিশের উদ্যোগে কমিউনিটি ও বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে চেক বিতরণ
.............................................................................................
সখিপুরে অসহায় পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও চেক বিতরণ
.............................................................................................
ফুলবাড়ীর ভেটাই গ্রামে রেকর্ড ভুক্ত মালিকের জমি দখল করে প্রতিপক্ষের পাকা ঘর নির্মান আদালতে মামলা দায়ের।
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে ট্রেনে কেটে এক বৃদ্ধের মৃত্যু,
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠদান শুরু, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রত্যয়
.............................................................................................
বীরগঞ্জে নিয়োগ বানিজ্য, আদালতে মামলা, পরিক্ষা বর্জন
.............................................................................................
দেশীয় প্রজাতির মাছ এবং শামুক সংরক্ষণ ও উন্নয়নে আমতলীতে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা। জব্দকৃত অবৈধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস।
.............................................................................................
আমতলীর চার হরদরিদ্র পেল দুর্যোগ সহনীয় ঘর।
.............................................................................................
শিক্ষার্থীদের পদচারনায় মুখরিত আমতলীর শিক্ষাঙ্গণ।
.............................................................................................
১৮মাস পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উৎসব পরিবেশ দেখা মিলল
.............................................................................................
নবীনগরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে ৩টি ড্রেজারসহ আটক ১৮ জন।
.............................................................................................
ডেমরা-যাত্রাবাড়ী ৬ লেন সড়কে দুই শতাধিক বিদ্যুতের খুঁটিতে ব্যাহত হচ্ছে উন্নয়ন কাজ
.............................................................................................
ভালুকায় নকল জুস তৈরির দায়ে জরিমানা
.............................................................................................
টাঙ্গাইল সখিপুরে ৬০ শতাংশ বনের জমি উদ্ধার করেছে বনবিভাগ
.............................................................................................
শাহ্ সুফি জিন্দানী (রাঃ) মাজার জিয়ারতের মধ্য দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কালিগঞ্জ গয়েশপুর গ্রামে বৈদ্যুতিক শর্ক খেয়ে সাহেব আলী নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু।
.............................................................................................
নিখোঁজের দুইদিন পরে লাশ পাওয়া গেল স্কুল ছাত্র রাজকুমারের…!
.............................................................................................
চট্টগ্রামে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অভিযানে চন্দনাইশ ও পটিয়ায় ৫হাজার ইয়াবাসহ আটক ৫ জন।
.............................................................................................
চট্টগ্রামে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে মসজিদ নির্মিত হচ্ছে
.............................................................................................
নারী ও শিশু উন্নয়ন কমিটির সভা খবর পেলেই চসিক বাল্যবিবাহ বন্ধে ব্যবস্থা নেবে
.............................................................................................
একসঙ্গে তিন স্বামীর সংসার করছেন এক নারী!
.............................................................................................
ভালুকায় স্মার্টকার্ড বিতরন
.............................................................................................
ফুলবাড়ী পল্লীতে বাড়িতে আগুন লেগে ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি
.............................................................................................
ফুলবাড়ী পল্লীতে ধানের জমিতে কিটনাশক খেয়ে ১৭টি হাঁসের মৃত্যু থানায় অভিযোগ।
.............................................................................................
অমাবস্যার জোঁ এর প্রভাবে আমতলী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
.............................................................................................
বীরগঞ্জে ডায়াবেটিক প্রতিরোধে ফুট কেয়ার ইউনিটের উদ্বোধন করেন ডিআইজি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু। র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, ফোন ০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, রেজিস্ট্রেশন নং 134 / নিবন্ধন নং 69 মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop