| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   দেশজুড়ে -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
দুই স্ত্রী রেখে স্কুলছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক, ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় আত্মহত্যা

দুই স্ত্রী রেখে স্কুলছাত্রীর সঙ্গে প্রেম। পরে শারীরিক সর্ম্পক। আর ভিডিও ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বার বার ধর্ষণ। সবশেষ ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিষপানে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত হাফিজুরকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি বলছে, ধর্ষণে জড়িত থাকতে পারে হাফিজুরের বন্ধুরাও।ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ায় রংপুরে আত্মহত্যা করা স্কুলছাত্রীর পরিবার ভয়ে এলাকা ছাড়া। মূল অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের ছেলেকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। রংপুরের বদরগঞ্জ থানার কাঁচাবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তোলেন লোহানীপাড়া ইউনিয়ের সাবেক মেম্বার ইউনুস আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান।

আগের দুইজন স্ত্রী থাকলেও এই শিক্ষার্থীর সাথে বেশ কয়েকবার শারীরিক সর্ম্পকে মিলিত হন হাফিজুর রহমান। শারীরিক সর্ম্পকের এই ভিডিও মুঠোফোনে ধারণ করেন হাফিজুরের বন্ধু বিপুল চন্দ্র।

ধর্ষক হাফিজুর রহমান বলেন, সে (স্কুলছাত্রী) আমাকে খুব পছন্দ করতো। সে আমাকে বলতো তুমি যা চাও তাই হবে। আমার কোনো সমস্যা নেই। প্রথম স্ত্রীর সমস্যা থাকায় সে অন্যখানে বিয়ে করেছে। পরে দ্বিতীয় বিয়ে করি, সে আমার এ সম্পর্কের কথা জানে। 

পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বন্ধু বিপুলের বাড়িতে নিয়ে কয়েকবার ধর্ষণ করেন হাফিজুর। হাফিজুরের বন্ধুরা মিলে ভাইরাল করে ভিডিওটি।

এই ঘটনা জানাজানি হলে চলতি বছরের জানুয়ারিতে বিষপানে আত্নহত্যা করে ওই শিক্ষার্থী।

সিআইডির ডিআইজি শেখ নাজমুল আলম বলেন, এই মেয়েটির সাথে সে প্রেম করে, প্রেমের এক পর্যায়ে সে তাকে ধর্ষণ করে। এবং তার এক সহযোগী বিপুল চন্দ্র গোপনে ভিডিও ধারণ করে। এরপর সে প্রায়ই ভিডিওর ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। মেয়েটির বয়স কম এবং গরীব পরিবারের হওয়ায় লোক লজ্জার ভয়ে বিষপান করে গত ৫ জানুয়ারি। 

পুলিশ জানায়, ঘটনার পর থেকে ভিকটিমের পরিবার লোকলজ্জার ভয়ে এলাকা ছেড়েছেন। ভিডিও ধারণকারী হাফিজুরের বন্ধুদের ধর্ষণে সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে ধারণা করছে সিআইডি।

সিআইডি এই ঘটনায় জড়িত হাফিজুর রহমানকে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) রাজধানীর আশুলিয়া থেকে গ্রেপ্তার করেছে।

দুই স্ত্রী রেখে স্কুলছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক, ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় আত্মহত্যা
                                  

দুই স্ত্রী রেখে স্কুলছাত্রীর সঙ্গে প্রেম। পরে শারীরিক সর্ম্পক। আর ভিডিও ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বার বার ধর্ষণ। সবশেষ ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বিষপানে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত হাফিজুরকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি বলছে, ধর্ষণে জড়িত থাকতে পারে হাফিজুরের বন্ধুরাও।ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ায় রংপুরে আত্মহত্যা করা স্কুলছাত্রীর পরিবার ভয়ে এলাকা ছাড়া। মূল অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের ছেলেকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। রংপুরের বদরগঞ্জ থানার কাঁচাবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে তোলেন লোহানীপাড়া ইউনিয়ের সাবেক মেম্বার ইউনুস আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান।

আগের দুইজন স্ত্রী থাকলেও এই শিক্ষার্থীর সাথে বেশ কয়েকবার শারীরিক সর্ম্পকে মিলিত হন হাফিজুর রহমান। শারীরিক সর্ম্পকের এই ভিডিও মুঠোফোনে ধারণ করেন হাফিজুরের বন্ধু বিপুল চন্দ্র।

ধর্ষক হাফিজুর রহমান বলেন, সে (স্কুলছাত্রী) আমাকে খুব পছন্দ করতো। সে আমাকে বলতো তুমি যা চাও তাই হবে। আমার কোনো সমস্যা নেই। প্রথম স্ত্রীর সমস্যা থাকায় সে অন্যখানে বিয়ে করেছে। পরে দ্বিতীয় বিয়ে করি, সে আমার এ সম্পর্কের কথা জানে। 

পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বন্ধু বিপুলের বাড়িতে নিয়ে কয়েকবার ধর্ষণ করেন হাফিজুর। হাফিজুরের বন্ধুরা মিলে ভাইরাল করে ভিডিওটি।

এই ঘটনা জানাজানি হলে চলতি বছরের জানুয়ারিতে বিষপানে আত্নহত্যা করে ওই শিক্ষার্থী।

সিআইডির ডিআইজি শেখ নাজমুল আলম বলেন, এই মেয়েটির সাথে সে প্রেম করে, প্রেমের এক পর্যায়ে সে তাকে ধর্ষণ করে। এবং তার এক সহযোগী বিপুল চন্দ্র গোপনে ভিডিও ধারণ করে। এরপর সে প্রায়ই ভিডিওর ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। মেয়েটির বয়স কম এবং গরীব পরিবারের হওয়ায় লোক লজ্জার ভয়ে বিষপান করে গত ৫ জানুয়ারি। 

পুলিশ জানায়, ঘটনার পর থেকে ভিকটিমের পরিবার লোকলজ্জার ভয়ে এলাকা ছেড়েছেন। ভিডিও ধারণকারী হাফিজুরের বন্ধুদের ধর্ষণে সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে ধারণা করছে সিআইডি।

সিআইডি এই ঘটনায় জড়িত হাফিজুর রহমানকে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) রাজধানীর আশুলিয়া থেকে গ্রেপ্তার করেছে।

ফেসবুকে ভাইরাল কোটি টাকার ‘পরী পালং খাট
                                  

খাটের চার কোণে চার পায়ায় চারটি বড় পরী। আর পরীর হাতে বসে আছে প্রজাপ্রতি। দুই পাশে চারটি করে মোট আটটি ছোট্ট আকারের পরী। খাট জুড়ে বিভিন্ন নকশায় ও পরীর এমন স্থির নকশায় কেবলই শিল্প ফুটে উঠেছে। যে কারণে খাটটির নাম দেয়া হয়েছে ‘পরী পালং খাট’।খাগড়াছড়ির গুইমারার স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মো. নুরুন্নবী বানিয়েছেন ওই খাটটি। নিখুঁত দক্ষতায় তিন বছর দুই মাস সময়ে খাটটি নির্মাণ করেছেন আবু বক্কর ছিদ্দিক ওরফে কাঞ্চন মিস্ত্রি।

জানা গেছে, খাটটি তৈরির সময় কোনও নকশা বা ক্যাটালগ ছিল না ওই মিস্ত্রির কাছে। মিস্ত্রি তার মনের আবেগ আর মাধুর্য্য মিশিয়ে নকশা তৈরি করেছেন। এটি তৈরি করতে কাঞ্চন মিস্ত্রি মজুরি হিসেবে সাড়ে নয় লাখ টাকা নিয়েছেন এবং খাটটি তৈরি করতে নুরুন্নবীর মোট ব্যয় হয়েছে প্রায় ৪০ লাখ টাকা।

সম্প্রতি নিখুঁত দক্ষতায় তৈরি এই ‘পরী পালং খাট’ এর ছবি সামাজিক যোগোযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। আশপাশের এলাকায় খাটটির কথা ছড়িয়ে পড়লে সকল বয়সের মানুষ প্রতিদিনই এটি দেখার জন্য ভিড় করছেন কাঠ ব্যবসায়ী নুরন্নবীর বাড়ি।

জানা গেছে, কাঞ্চন মিস্ত্রি মাত্র চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। মাত্র ১৪ বছর বয়সে সে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় একটি ফার্নিচার দোকানে কাজ শুরু করেন। চার বছর পর তিনি নিজেই মিস্ত্রি হয়ে যান এবং কাজ করতে থাকেন। 

পরী পালং খাটের বিষয়ে তিনি বলেন, খাটটি তৈরি করতে একশ ফুট কাঠ লেগেছে। মনের মাধুর্য মিশিয়ে খাটটি তৈরি করেছেন বলেও জানান তিনি।

কাঠ ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা নুরন্নবী জানিয়েছেন, ব্যতিক্রম কিছু করার পরিকল্পনা থেকেই খাটটি তৈরি করিয়েছি। কাজ শুরুর পর তিন বছর সময় নিয়েছেন কাঞ্চন মিস্ত্রি। সময় বেশি লাগলেও দুর্দান্ত কাজ করেছেন সে এবং এতে একটি স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রকৃত সেগুন কাঠ দিয়ে তৈরি করা হয়েছে খাটটি। এর দাম এক কোটি টাকা হাঁকিয়েছি আমি। তবে এরই মধ্যে একজন ৭০ লাখ টাকা দাম বলেছেন। এটি বিক্রির পর লাভের একটি অংশ প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলেও জানান কাঠ ব্যবসায়ী নুরন্নবী।

মহামারি করোনার কারণে গত বছর বিমানের যাত্রী পরিবহন ৬৬ শতাংশ কমেছে।
                                  

আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন সংস্থা আইএটিএ জানায়- সীমান্ত বন্ধ, ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা ও কড়াকড়ি আর ভ্রমণে আস্থা হারিয়ে ফেলায় ২০২০ সালে নাটকীয়ভাবে কমে গেছে যাত্রীদের বিমানে ভ্রমণ; যা ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

এর মধ্যে ২০১৯ সালের চেয়ে সাড়ে ১০ শতাংশ কমেছে এয়ার কার্গো চলাচল, যা ১৯৯০ সালের পর সবচেয়ে বড় ধস।

নতুন করে করোনা সংক্রমণের কারণে ভ্যাকসিন বের হলেও এখনো স্বাভাবিক হয়নি পুরো বিশ্ব বিমান চলাচল। ২০২১ সালও এয়ারলাইন্স ইন্ডাস্ট্রির জন্য কঠিন বছর হবে বলে মনে করছেন আইএটিএর মহাপরিচালক আলেক্সান্ডার ডি জুনায়েক।
 

বগুড়ায় মদপানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৪
                                  

বগুড়ায় হোমিও দোকান থেকে কেনা, বিষাক্ত মদপানে আরো ৭ জন মারা গেছেন। মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত দু’দিনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৪ জনে। গুরুতর অসুস্থ আরো বেশ কয়েকজন। মদ বিক্রিতে অভিযুক্ত ৩টি হোমিও হল মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।জানা গেছে, বগুড়া শহরের ফুলবাড়ি দক্ষিণপাড়া। মহল্লার গলিঘেঁষে গড়ে তোলা হয়েছে বহুতল ভবন। এই ভবনে পুনম ও পারুল হোমিও হলের নিচতলায় রয়েছে রেকটিফায়েড স্পিরিটসহ মদ তৈরির উপকরণের গোডাউন। প্রশাসনকে ম্যানেজ করেই দীর্ঘদিন ধরে চলছে রমরমা ব্যবসা।

এলাকাবাসী জানান, গত ৩১ জানুয়ারি রাতে শহরের তিনমাথা এলাকার খান হোমিওপ্যাথি, পারুল হোমিও ও পুনম হোমিও দোকান থেকে মদ কিনে পান করেন ১৫-২০ জন। বাসায় ফেরার পর তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন। একের পর একজনকে নেওয়া হয় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। মঙ্গলবার পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ১৪ জনে। লোকলজ্জার ভয়ে হাসপাতালে না গেলেও গুরুতর অসুস্থ আছে বেশ কয়েকজন।

ঘটনার পর থেকে পলাতক খান হোমিও হলের মালিক শাহিনুর রহমান, পারুল হোমিও হলের মালিক নূর মোহাম্মদ ও পুনম হোমিও হলের মালিক নুরুন্নবী। তারা হোমিও ওষুধের আড়ালে প্রকাশ্যেই অবৈধ মদের ব্যবসা করত বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে বগুড়া সদর থানায় হোমিও হল তিনটির মালিককে আসামি করে মামলা করেছে। তবে এখনও গ্রেফতার হয়নি কেউ।

বগুড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

মৃতদের ৯ জনের বাড়ি বগুড়া সদরে আর কাহালু ও শাহজাহানপুরের রয়েছেন একজন করে। মরদেহগুলোর ময়নাতদন্ত শেষে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানায় পুলিশ।

ভাড়াটিয়ার মেয়েকে ধর্ষণ করলো বাড়িওয়ালার ছেলে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলায় বাসার মালিকের ছেলের বিরুদ্ধে ভাড়াটিয়ার মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হলে ধর্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শনিবার (১০ অক্টোবর) রাতে পৌর শহরের বালুয়াভাটা এলাকার আদর্শপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। পরে থানায় মামলা করেন মেয়ের বাবা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, আদর্শপাড়ার হানিফুলের বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে ভাড়া থাকেন উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের ঘৃলাই এলাকার এক ব্যক্তি।

শনিবার রাতে হানিফুলের পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে না থাকার সুযোগে ভাড়াটিয়ার ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়েকে ঘরে ডেকে ধর্ষণ করেন বাসার মালিকের ছেলে রায়হান হক (২৬)। বিষয়টি মেয়ের পরিবারে জানাজানি হলে থানায় মামলা হয়। ওই মামলায় বাদী হন মেয়ের বাবা।

বদরগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি হাবিবুর রহমান হাওলাদার বলেন, পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে রায়হানকে গ্রেফতার করেছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, মেয়েটিকে রংপুুুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হবে।

১২ কেজি গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রী আটক
                                  

বরিশাল প্রতিনিধিঃ

ব‌রিশালে নগরী‌তে অ‌ভিযান চা‌লিয়ে ১২ কেজি গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রীকে আটক করেছে ডি‌বি পু‌লিশ। বৃহস্প‌তিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ৯টায় মেট্রো ডি‌বি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়‌টি নি‌শ্চিত করেছেন উপ-ক‌মিশনার (ডি‌বি) মো. মনজুর রহমান।

‌তি‌নি জানান, গোপন সংবা‌দের ভি‌ত্তিতে সন্ধ্যায় নগরীর রসূলপুর কলোনীতে অ‌ভিযান চা‌লিয়ে পলাশ হাওলাদার এবং তার স্ত্রী লি‌পি বেগমকে আটক করা হয়। তাদের বসতঘ‌র থেকে ১২ কে‌জি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

‌লি‌পি বেগমের বিরুদ্ধে তিন‌টি মাদক মামলা এবং পলাশ হাওলাদারের বিরুদ্ধে দুই‌টি মাদক মাদক মামলা রয়েছে। এরা দুজনই আত্মসমর্পণ করার কথা বলে পু‌লিশকে ধোকা দিয়ে মাদক ব্যবসা প‌রিচালনা করে আস‌ছিলো। আটককৃতদের বিরুদ্ধে কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উপ-ক‌মিশনার মো. মনজুর রহমান জানান, রসূলপুর এলাকায় ১২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আমরা টার্গেট করে‌ছি। আমরা এলাকা ভি‌ত্তিক মাদক নিয়ন্ত্রণে কাজ কর‌ছি।

৩ সন্তানের জনকের সাথে পালিয়ে গেল প্রবাসীর স্ত্রী!
                                  

বান্দরবান প্রতিনিধিঃ

পরকীয়া আসক্ত হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী ও তিন সন্তানের জননী আরেক তিন সন্তানের পিতার সাথে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বান্দরবানের লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের টুইন্না পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। পালিয়ে যাওয়ার সময় ওই প্রবাসীর স্ত্রী তার স্বামীর পাঠানো নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও কাপড়-চোপড় নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছে তার ১৪ বছরের সন্তান শাহাব উদ্দিন।

লামা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের আইনজীবি এ্যাডভোকেট মোঃ মামুন মিয়া বলেন, ২৩ সেপ্টেম্বর বুধবার লামা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মায়ের বিরুদ্ধে সন্তানের করা মামলাটি আমলে নিয়ে নিয়মিত মামলা হিসাবে রেকর্ড করতে লামা থানাকে নির্দেশ প্রদান করেছেন।

 

আদালতে দায়ের করা মামলার সূত্রে জানা যায়, সরই ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের টুইন্না পাড়ার বাসিন্দা বজল আহম্মদ জীবিকার তাড়নায় দীর্ঘ ৬ বছর যাবৎ সৌদি আরবে রয়েছে। তার নামে সরই বাজারে ২টি দোকানের প্লট রয়েছে। একটি দোকান ভাড়া নেয় সরই ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের হাবিবুর রহমান পাড়ার আব্দুল মাবুদ এর ছেলে কামরুল ইসলাম (৩৬)। বজল আহম্মদের স্ত্রী রাজু বেগম (৩২) স্বামী দেশে না থাকায় দোকানের ভাড়া আদায় করত। নিয়মিত দোকানে যাতায়াত করতে গিয়ে দোকানের ভাড়াটিয়া কামরুল ইসলামের সাথে পরিচয় হয়। পরিচয়ের সূত্র ধরে দুইজনের মধ্যে পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে উঠে। বজল আহম্মদ ও রাজু বেগমের সংসারে ২টি ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে। অপরদিকে কামরুল ইসলাম বিবাহিত ও তিন সন্তানের জনক।

গত ১৩ আগস্ট বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রবাসীর স্ত্রী রাজু বেগম ডাক্তারের কাছে যাচ্ছে বলে বাড়িতে বড় ছেলে শাহাব উদ্দিন (১৪) ও মেয়ে সানজিদা আক্তার সাইমা (১১) কে ফেলে ছোট সন্তান সায়েদকে সাথে নিয়ে প্রেমিক কামরুল ইসলামের সাথে পালিয়ে যায়। লোকলজ্জার ভয়ে নিরবে সন্তান ও স্বজনরা রাজু বেগমকে খুঁজতে থাকে। ঘটনার পর থকে প্রেমিক কামরুল ইসলামকে এলাকায় দেখা যাচ্ছে না ও দোকান বন্ধ রয়েছে। বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা সমাধান করার কথা বলায় ও খোঁজাখুঁজি করতে গিয়ে অনেক সময় অতিবাহিত হওয়ায় আদালতে মামলা করতে বিলম্ব হয় বলে জানায় শাহাব উদ্দিন।

শাহাব উদ্দিন আরো বলে, আমার পিতার ঋণ পরিশোধের জন্য বিদেশ থেকে পাঠানো নগদ ৬ লক্ষ টাকা, ৫ ভরি স্বর্ণালংকার এবং ব্যবহৃত কাপড়-চোপড় সাথে নিয়ে আমার মা পালিয়েছে। বিষয়টি আমার জেঠা রফিকুল ইসলামকে জানালে তিনি আমার মায়ের ব্যবহৃত মোবাইলে ফোন দিয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। বর্তমানে আমি ও আমার বোন আমার জেঠা রফিকুল ইসলাম ও চাচা আব্দুল আজিজের হেফাজতে আছি। আমার পিতা বিদেশে অনেক টেনশনে আছে।
প্রবাসী বজল আহম্মদের বড় ভাই রফিকুল ইসলাম বলেন, ছোট ভাই ৬ বছর প্রবাসে থেকে অর্জিত সকল টাকা ও সম্পদ নিয়ে প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছে রাজু বেগম। বড় ২টি সন্তানের কান্না থামাতে পারছি না। সাথে নিয়ে যাওয়া ছোট সন্তানটি কি অবস্থায় আছে জানি না। সন্তান ফেলে চলে যায় এ কেমন মা।

কক্সবাজারের ৮ থানার ওসিসহ ৩৪ কর্মকর্তাকে বদলি
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ

পুলিশ সুপার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পর এবার কক্সবাজারের আট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ (ওসি) ৩৪ কর্মকর্তাকে দেশের বিভিন্ন রেঞ্জ ও মেট্রোপলিটনে একযোগে বদলি করা হয়েছে। একই সঙ্গে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর তাদের ঢাকায় তলব করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক ড. মো. মইনুর রহমান চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপন থেকে এ আদেশের কথা জানা যায়।

বদলির আদেশকৃত কর্মকর্তারা হলেন- উখিয়া থানার ওসি মর্জিনা আকতার মর্জুকে সিলেট রেঞ্জে, মহেশখালী থানার ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদৌসকে বরিশাল রেঞ্জে, ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম মজুমদারকে বরিশাল রেঞ্জে, চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমানকে খুলনা রেঞ্জে, রামু থানার ওসি মো. আবুল খায়েরকে রাজশাহী রেঞ্জে, পেকুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ কামরুল আজমকে রংপুর রেঞ্জে, টেকনাফের ওসি (তদন্ত) এ বি এম এস দোহাকে খুলনা রেঞ্জে, ডিএসবির ওসি (ডিআই১) মো. আলী আরশাদকে বরিশাল রেঞ্জে, কুতুবদিয়ার ওসি এ কে এম সফিকুল আলম চৌধুরীকে খুলনা রেঞ্জে, সদর থানার ওসির দায়িত্বে থাকা মো. মাসুম খানকে খুলনা রেঞ্জে বদলি করা হয়।

অন্যদের মধ্যে পরিদর্শক রোমেল বড়ুয়া সিআইডি ঢাকায়, মিজানুর রহমান সিআইডি ঢাকায়, মো. মঈন উদ্দিন বরিশাল রেঞ্জে, খোরশেদ আলম সিলেট রেঞ্জে, মো. একরামুল হক বরিশাল রেঞ্জে, মোহাম্মদ আমিরুল ইসলাম রংপুর রেঞ্জে, মানস বড়ুয়া ময়মনসিংহ রেঞ্জে, এস এম মিজানুর রহমান এসএমপি সিলেটে, এসএম আতিক উল্লাহ ঢাকা রেঞ্জে, মো. আবুল মনসুর বরিশাল রেঞ্জে, মোহাম্মদ ইয়াছিন এসএমপি সিলেট, মো. আনোয়ার হোসেন বরিশাল রেঞ্জে, মোহাম্মদ আরিফ ইকবাল রাজশাহী রেঞ্জে, মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান রাজশাহী রেঞ্জে এবং শেখ মোহাম্মদ মাহবুব মোরশেদ সিলেট রেঞ্জে বদলির আদেশ পেয়েছেন।

এ ছাড়া আমিনুল ইসলামকে এসএমপি সিলেটে, প্রদীপ কুমার দাসকে (কোর্ট ইন্সপেক্টর) এসএমপি সিলেটে, মো. আনিছুর রহমানকে বরিশাল রেঞ্জে, মো. ফজলুল আলমকে বরিশাল রেঞ্জে, রূপল চন্দ্র দাসকে (বিপিএ, সারদায় সংযুক্ত) বরিশাল রেঞ্জে, মো. বদরুল আলম তালুকদারকে সিলেট রেঞ্জে, মো. হাবিবুর রহমানকে খুলনা রেঞ্জে এবং টেকনাফ থানার রফিকুল ইসলাম খানকে বরিশাল রেঞ্জে বদলি করা হয়েছে।

এই ৩৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের স্মারক নং- ১৭.০০.০০০০.০৩৫.১৯.১৩৩.১৫.৯৪ এর সম্মতিক্রমে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত জনস্বার্থে বদলি করা হয়েছে বলে প্রজ্ঞাপনে বলা হয়।

আদেশে আরও বলা হয়, ওই পুলিশ পরিদর্শকরা বদলিকৃত ইউনিটে যোগ দেওয়ার জন্য আগামী ২৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বর্তমান কর্মস্থল থেকে ছাড়পত্র নেবেন। এরপর আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় ঢাকার রাজারবাগে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটরিয়ামে পুরো পোশাকে এক বিফ্রিংয়ে উপস্থিত হতে হবে তাদের।

এই বড় বদলির মধ্য দিয়ে কক্সবাজার জেলা পুলিশের খোলনলচে বদল হলো বলা চলে। এর আগে গত ২১ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ ঊর্ধ্বতন সাত কর্মকর্তাকে একযোগে বদলি করা হয়। আর গত ১৬ সেপ্টেম্বর বদলি করা হয় পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেনকে।

 

রোহিঙ্গা শিবির থেকে অস্ত্রসহ যুবক আটক
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা শিবির থেকে অস্ত্রসহ মো. রবিউল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্যরা।

বুধবার রাতে উপজেলার নয়াপাড়া নিবন্ধিত রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের আই ব্লক এলাকা থেকে অস্ত্রসহ তাকে আটক করা হয়।

আটক রবিউল ইসলাম বান্দরবান জেলার আলীকদম উপজেলার দক্ষিণ-পূর্ব পালংপাড়ার আবুল কালামের ছেলে।

কক্সবাজার-১৬ এপিবিএনের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হেমায়ুতুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোহিঙ্গা শিবিরে কর্মরত পুলিশ পরিদর্শক রকিবুল ইসলামের নেতৃত্বে এপিবিএনের একটি দল অভিযান চালায়। তারা রোহিঙ্গা শিবিরের ওই এলাকা থেকে আসামি মো. রবিউল ইসলামকে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী কালো পলিথিনে মোড়ানো একটি শাটারগান ও ৩৬ রাউন্ড গুলি জব্দ করে।

আটক যুবক জিজ্ঞাসাবাদে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী খালেক বাহিনীর সদস্য বলে জানিয়েছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অন্য সহযোগীদের সঙ্গে পাহাড়ে অবস্থান করে ডাকাতি, অপহরণসহ বিভিন্ন অপরাধে লিপ্ত রয়েছেন।

এ ঘটনায় টেকনাফ থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করে জব্দ অস্ত্র ও গুলিসহ আটক আসামীকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান এপিবিএন কর্মকর্তা।

দেলদুয়ারে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ
                                  

টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (১৩) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বুধবার বিকালে মাসুদ নামে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। দেলদুয়ার থানার ওসি সায়েদুল হক ভূইয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তার মাসুদ উপজেলার এলাসিন ইউনিয়নের সিংহরাগী গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বুধবার সকালে মাসুদসহ অজ্ঞাত আরও দুজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন।

ভিকটিমের পরিবার ও মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রীকে দীর্ঘদিন ধরে প্রাইভেটে যাওয়া-আসার সময় মাসুদ বিরক্ত করে আসছিলেন। পরে গত ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় মাসুদ মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ওই ছাত্রীকে বাড়ির সামনে যেতে বলেন। তার এসএমএসে সাড়া দিয়ে ওই ছাত্রী বাড়ির সামনে গেলে তাকে মাসুদসহ কয়েকজনে মিলে জোর করে গাড়িতে উঠিয়ে বিলের মধ্যে নৌকায় নিয়ে যায়। সেখানে তাকে গণধর্ষণ করে।

বিষয়টি কাউকে জানালে মেরে ফেরার হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। প্রাণের ভয়ে ওই সময় স্কুলছাত্রী তার পরিবারকে বিষয়টি জানায়নি। পরে মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) ওই ছাত্রী তার পরিবারকে জানালে তাকে তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, ওই স্কুলছাত্রীকে দুপুরে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার টিম গঠন করে পরীক্ষা করে প্রকৃত ফলাফল জানা যাবে।

ওসি সায়েদুল হক ভূইয়া বলেন, এ ঘটনায় ধর্ষণ মামলার পর মূল অভিযুক্ত মাসুদ গ্রেপ্তার হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ওই ছাত্রীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে নিয়ে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার ডাক্তারি পরীক্ষা করা হবে।

ঈশ্বরদীতে আ.লীগের নির্বাচনী অফিসে হামলা, গুলি
                                  

পাবনা প্রতিনিধিঃ

পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাসের দুটি নির্বাচন অফিসে ভাংচুর ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার গভীর রাতে ঈশ্বরদীর সাহাপুরের আজিজল তলা নির্বাচনী অফিস এবং সলিমপুর ইউনিয়নের মানিকনগর স্কুল সংলগ্ন নির্বাচন অফিসে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এ সময় অফিস দুটিতে কোনো নেতাকর্মী ছিল না।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, আকষ্মিকভাবে নির্বাচনী অফিসে হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা সাতটি গুলি ছুঁড়ে ও অফিসের চেয়ার টেবিল ভাংচুর করে দ্রুত পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। ঘটনা জানাজানি হলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তাৎক্ষণিক এসে বিক্ষোভ মিছিল করে ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছে।

সাহাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মতলেবুর রহমান মিনাজ ফকির ও সলিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথা অভিযোগ করেছেন, বিএনপি-জামায়াত এই হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেখ নাসীর উদ্দিন এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হামলাকারীদের খুঁজে বের করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দুই বন্ধু মিলে তিন দিন ধরে কিশোরীকে ধর্ষণ
                                  

কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ

দুই বন্ধু মিলে ১৩ বছরের এক কিশোরীকে ফুসলিয়ে হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজারের চকরিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় অভিযুক্ত দুই যুবকের মধ্যে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের উত্তর ঘুনিয়া গ্রামের মো. কামালের ছেলে শেফায়েত হোসেনকে (২২) এলাকাবাসীর সহাতায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অপর অভিযুক্ত মো. মহিউদ্দিন (২১) পলাতকরয়েছে। তারা দুজনই টমটম চালক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত রোববার ভাবির সঙ্গে তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যায় ওই কিশোরী। বিকেলে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ঘুনিয়া এলাকার টমটম চালক শেফায়েত তার বন্ধু মহিউদ্দিনসহ কিশোরীকে ফুসলিয়ে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে হোটেলে নিয়ে তিনদিন অবস্থান করে। হোটেলে দুই বন্ধু মিলে তিনদিন ধরে তাকে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে তারা দুই বন্ধু মিলে গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ওই কিশোরীকে তার বাড়িতে পৌঁছে দিতে যায়। বাড়ির কাছাকাছি পৌঁছার পর রাস্তার পাশে স্থানীয় লোকজনকে দেখে সে চিৎকার করে কান্না শুরু করে দেয়। এক পর্যায়ে দুই যুবক পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজন শেফায়েত হোসেনকে পাকড়াও করলেও মহিউদ্দিন পালিয়ে যায়।

 

চকরিয়া থানার পুলিশ পরির্দশক (তদন্ত) মো. মিজানুর রহমান বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে দুইজনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেছেন। এর মধ্যে একজন গ্রেপ্তার রয়েছেন। অপর আসামিকে ধরতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে। ভুক্তভোগীকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

নরসিংদীতে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৬
                                  

নরসিংদী প্রতিনিধিঃ

নরসিংদীতে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পৃথক অভিযান চালিয়ে বিয়ার ও ইয়াবাসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাতে নরসিংদী সদর মডেল থানা ও মাধবদী থানা এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। জেলা গোয়েন্দা শাখার উপ পরিদর্শক তাপস কান্তি রায়, সহকারী উপ পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন ও তাদের সঙ্গীয় ফোর্স এ অভিযান পরিচালনা করেন। বিয়ারসহ গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- নরসিংদী সদর উপজেলার হাজীপুর এলাকার সুকুমার সাহার ছেলে স্বর্বজিৎ সাহা স্বর্প (৩০), একই এলাকার হরে কৃষ্ণ সাহার ছেলে মানিক সাহা (২৫) ও নাগরিয়াকান্দি এলাকার মোরশেদ মিয়ার ছেলে হানিফ মিয়া(২৪)। ইয়াবাসহ গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- রায়পুরা থানার বাঘাইকান্দি এলাকার আসাদ মিয়ার ছেলে মোঃ অলি মিয়া (২৫), চরমধুয়া এলাকার কাজল মিয়ার ছেলে মোঃ সাগর মিয়া (২৫) ও সদর থানার হাজীপুর এলাকার নির্মল দাসের ছেলে হিমেল দাস ওরফে হিমেল ইসলাম (২৪)।

জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) জানায়, মাদক বিরোধী ধারাবাহিক অভিযানের অংশ হিসেবে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় মাধবদী থানাধীন ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাঁচদোনা মোড়ে পিপিএল নামের যাত্রীবাহী বাস থেকে ৫৪ ক্যান বিয়ার উদ্ধারসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। অপরদিকে নরসিংদী মডেল থানাধীন হাজীপুর হতে চিহ্নিত তিন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের দখল থেকে ১৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। বিয়ার ও ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা দীর্ঘদিন ধরেই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। গ্রেপ্তারকৃত সর্বজিৎ সাহা স্বর্পের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে মাদক আইনে ৩ টি সহ মোট ৫ টি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

৪ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে যুবলীগ নেত্রীর মামলা
                                  

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মানহানিকর পোস্ট দেয়ার অভিযোগে চুয়াডাঙ্গায় চার ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন জেলা যুব মহিলা লীগ নেত্রী আফরোজা পারভীন।

মামলার আসামিরা হলো, চুয়াডাঙ্গা শহরের শান্তিপাড়ার শহিদ খানের ছেলে মানিক খান (২৬), কেদারগঞ্জের খবির শেখের ছেলে ও পৌর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন (২৭), বাহাদুর পাড়ার আদম আলীর ছেলে রাকিবুল ইসলাম নিপ্পন (২৪) ও আরামপাড়ার কাশেমের ছেলে ফয়সাল খানসহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জন।

 

মামলার এজাহারে আফরোজা পারভীন উল্লেখ করেন, গত ১৮ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগ কর্মী মানিক খান তার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি থেকে জেলা আওয়ামী যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক আফরোজা পারভীনকে নিয়ে মানহানিকর তথ্য পোস্ট করে। পরদিন ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন তাকে উদ্দেশ্য করে কুরুচিপূর্ণ পোস্ট শেয়ার করে। এসব পোস্টে রাকিবুল ইসলাম নিপ্পন ও ফয়সাল খানসহ ১০/১৫ জন বাজে মন্তব্য প্রদান করে। এতে আফরোজা পারভীনের সামাজিকভাবে হেয় ও সুনামক্ষুন্ন করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়ে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্তের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শ্যামপুরে শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

রাজধানীর শ্যামপুরে পাঁচ বছরের এক শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার বিকেল সোয়া তিনটায় শারীরিক পরীক্ষার জন্য ওই শিশুকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ।

শ্যামপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বজলুর রহমান বলেন, শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, মঙ্গলবার সকালে অত্র থানাধীন তাদের বাসার পাশের বাড়ির ১৫ বছর বয়সী এক কিশোর তাকে ফুঁসলিয়ে নিজের বাসায় নিয়ে জোরপূর্বক যৌন নির্যাতন চালিয়েছে। পরে শিশুটিকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে আনা হয়।

ভুক্তভোগী শিশুর মা জানিয়েছেন, তিনি বাসা বাড়িতে কাজ করেন। শিশুটির বাবা রিকশাচালক। সকালে তারা দুজনই কাজের জন্য বেরিয়ে যান। দুপুরে বাসায় ফিরে বিষয়টি জানতে পেরেছেন। পাশের বাড়ির ওই কিশোর ঘটনাটি ঘটিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে থানায় গিয়ে অভিযোগ করেন শিশুর মা। শিশুটি এক ভাই এক বোনের মধ্যে ছোট। অভিযুক্ত কিশোরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান শ্যামপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বজলুর রহমান।

 

 
স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষকসহ গ্রেপ্তার ৪
                                  

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার সিংজুরী ইউনিয়নের বালিয়াবাধা এলাকায় অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষকসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার রাতে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে ঘিওর থানায় মামলা দায়ের করেন। আজ মঙ্গলবার সকালে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শিবালয় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানিয়া সুলতানা জানান, ঘটনাটি গত বুধবার ঘিওরের বালিয়াবাধা গ্রামে ঘটে। ভুক্তভোগীর বাড়ির টিউবওয়েল নষ্ট থাকায় প্রতিবেশি রাজিবের বাড়িতে পানি আনতে যায় ওই ছাত্রী। সেই সুযোগে ওই ছাত্রীকে একা পেয়ে ঘরের ভেতর নিয়ে ধর্ষণ করেন রাজিব।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও জানান, গতকাল সোমবার এ বিষয়টি জানাজানি হলে ওই ছাত্রীর বাড়িতে পুলিশ গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ভুক্তভোগী ছাত্রী ও তার পরিবার ধর্ষণের অভিযোগ তোলেন। পরে ওই ছাত্রীকে মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করার জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষক রাজিব, তার বাবা-মা এবং এলাকার মাতব্বর তমিজ উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়। ধর্ষণের ঘটনাটি ভুক্তভোগী পরিবারকে টাকা পয়সা দিয়ে মিমাংসা ও ধামাচাপা দেওয়ার অভিযোগে সহযোগী আসামি হিসেবে ধর্ষকের বাবা-মা ও মাতব্বরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।


   Page 1 of 40
     দেশজুড়ে
দুই স্ত্রী রেখে স্কুলছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক, ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় আত্মহত্যা
.............................................................................................
ফেসবুকে ভাইরাল কোটি টাকার ‘পরী পালং খাট
.............................................................................................
মহামারি করোনার কারণে গত বছর বিমানের যাত্রী পরিবহন ৬৬ শতাংশ কমেছে।
.............................................................................................
বগুড়ায় মদপানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৪
.............................................................................................
ভাড়াটিয়ার মেয়েকে ধর্ষণ করলো বাড়িওয়ালার ছেলে
.............................................................................................
১২ কেজি গাঁজাসহ স্বামী-স্ত্রী আটক
.............................................................................................
৩ সন্তানের জনকের সাথে পালিয়ে গেল প্রবাসীর স্ত্রী!
.............................................................................................
কক্সবাজারের ৮ থানার ওসিসহ ৩৪ কর্মকর্তাকে বদলি
.............................................................................................
রোহিঙ্গা শিবির থেকে অস্ত্রসহ যুবক আটক
.............................................................................................
দেলদুয়ারে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ
.............................................................................................
ঈশ্বরদীতে আ.লীগের নির্বাচনী অফিসে হামলা, গুলি
.............................................................................................
দুই বন্ধু মিলে তিন দিন ধরে কিশোরীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
নরসিংদীতে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার ৬
.............................................................................................
৪ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে যুবলীগ নেত্রীর মামলা
.............................................................................................
শ্যামপুরে শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ
.............................................................................................
স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষকসহ গ্রেপ্তার ৪
.............................................................................................
চাঁদাবাজির অভিযোগে এসআই প্রত্যাহার
.............................................................................................
সিনেমা হলে অনৈতিক কাজ, ৫ জনের সাজা
.............................................................................................
জামাইর ছুরিকাঘাতে শ্বশুর খুন
.............................................................................................
সাপের কামড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু
.............................................................................................
গাইবান্ধায় করোনায় নতুন আক্রান্ত ১২ জন
.............................................................................................
বন্দীর স্ত্রীকে ভাগিয়ে নিলেন কারারক্ষী
.............................................................................................
আশুলিয়ায় গুলি চালিয়ে টাকা লুট
.............................................................................................
আয়নাল হত্যায় ২ জনের ফাঁসি
.............................................................................................
প্রেমে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে হত্যা
.............................................................................................
ছেলের স্ত্রীকে যৌন নিপীড়ন, শ্বশুর আটক
.............................................................................................
গোপালগঞ্জে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা
.............................................................................................
পরকীয়া প্রেমিকাকে বিয়ে করে কারাগারে জুয়েল
.............................................................................................
সিরাজগঞ্জে একদিনে ৭ বাল্যবিবাহ বন্ধ করল ইউএনও
.............................................................................................
৬০ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১
.............................................................................................
বাড়িতে পৌঁছানোর কথা বলে বন্ধুর স্ত্রীকে ধর্ষণ
.............................................................................................
ইউএনও ওয়াহিদার উপর হামলার নেপথ্যে মাদক ও চাঁদাবাজি
.............................................................................................
ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
বিয়ের দাবিতে শিক্ষকের বাড়িতে কলেজ ছাত্রী
.............................................................................................
৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী আটক
.............................................................................................
গাজীপুরে স্টিল মিলের ৫ শ্রমিক দগ্ধ
.............................................................................................
সার আত্মসাত মামলায় শ্রমিকলীগ নেতা কারাগারে
.............................................................................................
ফেইসবুকে নারী উত্ত্যক্তকারী গ্রেপ্তার
.............................................................................................
‘ধর্ষককে’ ছেড়ে দেয়ার ক্ষোভে গৃহবধূর আত্মহত্যা
.............................................................................................
বাধ্য হয়েই নিজের বিরুদ্ধে মামলা নিলেন ওসি
.............................................................................................
বৃদ্ধা মাকে রাস্তায় ফেলে গেল ছেলে!
.............................................................................................
করোনায় বেড়া ইউপি চেয়ারম্যানের মৃত্যু
.............................................................................................
আখাউড়ায় অপহৃত শিশু দুই দিন পর উদ্ধার
.............................................................................................
কুমিল্লায় ইয়াবাসহ আটক ২
.............................................................................................
নরসিংদীতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত
.............................................................................................
করোনায় প্রাণ হারালেন দলগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান
.............................................................................................
রাজশাহীতে অতিরিক্ত মদ্যপানে রুশ নাগরিকের মৃত্যু
.............................................................................................
ঝিনাইদহে পাটকল শ্রমিকদের মানববন্ধন
.............................................................................................
বগুড়ায় পল্লী বিদ্যুতের ঠিকাদারকে কুপিয়ে হত্যা
.............................................................................................
করোনায় আক্রান্ত দক্ষিণ সুনামগঞ্জের ইউএনও
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ হাজী মোবারক হোসেন।। সহ-সম্পাদক : কাউসার আহম্মেদ।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু। র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, ফোন ০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, mannan2015news@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop