| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   খেলাধূলা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
চেলসির ৬০০ লুকাকুর স্বপ্নপূরণ

জোড়া গোল করলেন রোমেলু লুকাকু। বাকি একটি মাতেও কোভাসিচের।গতকাল রাতে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে অ্যাস্টন ভিলাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে চেলসি। লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সমান ১০ পয়েন্ট নিয়ে এখন দুইয়ে থমাস টাচেলের দল। এদিন আবার লিগে ৬০০তম জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে চেলসি। আর মাত্র একটি দলেরই ছয়শ বা তার বেশি জয়ের কীর্তি আছে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড জিতেছে ৬৯০টি। ইন্টার মিলান থেকে চেলসিতে নাম লেখানো লুকাকু স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে তার স্বপ্নপূরণের এক রাত কাটিয়েছেন। ম্যাচের পর বেলজিয়ান স্ট্রাইকার বলেন, ‌‌`আমার বয়স যখন ১১, তখন থেকেই এই স্বপ্ন দেখতাম (এখানে গোল করার)। আমি এই মুহূর্তটার জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছি। জয় পেয়ে খুবই খুশি।` ম্যাচের ফলে বোঝা যাচ্ছে না কতটা মরিয়া হয়ে লড়েছে অ্যাস্টন ভিলা। চেলসির চেয়ে আক্রমণে বেশ এগিয়ে ছিল তারা (১৬টির মধ্যে লক্ষ্যে ৬টি, চেলসির ১২টির মধ্যে লক্ষ্যে ৪টি)। কিন্তু সুযোগ কাজে লাগিয়েছে ব্লুজরাই। প্রথমার্ধে দুর্দান্ত কিছু সেভে ভিলাকে হতাশ করেন চেলসি গোলরক্ষক এদোয়ার্দ মেন্দি। ১৫তম মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন লুকাকু। কোভাসিচের পাস ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে নিখুঁত শটে গোলরক্ষকের পায়ের ফাঁক দিয়ে জাল খুঁজে নেন বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। দ্বিতীয়ার্ধও দাপটের সঙ্গে শুরু করে ভিলা। কিন্তু অ্যাক্সেল তোয়ানজেবের আরেকটি নিশ্চিত গোলের সুযোগ প্রতিহত করে দেন মেন্দি। এরই মধ্যে ৪৯ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি খেয়ে বসে অতিথিরা। ডিফেন্ডার মিঙ্গসের ভুলে বল পেয়ে গোলরক্ষককে অনায়াসে পরাস্ত করেন কোভাসিচ। এরপরও ম্যাচে ফিরতে চেষ্টা করেছে ভিলা। কিন্তু কাজের কাজ হয়নি। যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে ভিলার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকেন লুকাকু। সেসার আসপিলিকুয়েতার পাস থেকে বল পেয়ে বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের শটে জাল কাঁপান বেলজিয়ান তারকা।

চেলসির ৬০০ লুকাকুর স্বপ্নপূরণ
                                  

জোড়া গোল করলেন রোমেলু লুকাকু। বাকি একটি মাতেও কোভাসিচের।গতকাল রাতে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে অ্যাস্টন ভিলাকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে চেলসি। লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সমান ১০ পয়েন্ট নিয়ে এখন দুইয়ে থমাস টাচেলের দল। এদিন আবার লিগে ৬০০তম জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে চেলসি। আর মাত্র একটি দলেরই ছয়শ বা তার বেশি জয়ের কীর্তি আছে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড জিতেছে ৬৯০টি। ইন্টার মিলান থেকে চেলসিতে নাম লেখানো লুকাকু স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে তার স্বপ্নপূরণের এক রাত কাটিয়েছেন। ম্যাচের পর বেলজিয়ান স্ট্রাইকার বলেন, ‌‌`আমার বয়স যখন ১১, তখন থেকেই এই স্বপ্ন দেখতাম (এখানে গোল করার)। আমি এই মুহূর্তটার জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছি। জয় পেয়ে খুবই খুশি।` ম্যাচের ফলে বোঝা যাচ্ছে না কতটা মরিয়া হয়ে লড়েছে অ্যাস্টন ভিলা। চেলসির চেয়ে আক্রমণে বেশ এগিয়ে ছিল তারা (১৬টির মধ্যে লক্ষ্যে ৬টি, চেলসির ১২টির মধ্যে লক্ষ্যে ৪টি)। কিন্তু সুযোগ কাজে লাগিয়েছে ব্লুজরাই। প্রথমার্ধে দুর্দান্ত কিছু সেভে ভিলাকে হতাশ করেন চেলসি গোলরক্ষক এদোয়ার্দ মেন্দি। ১৫তম মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন লুকাকু। কোভাসিচের পাস ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে নিখুঁত শটে গোলরক্ষকের পায়ের ফাঁক দিয়ে জাল খুঁজে নেন বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড। ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। দ্বিতীয়ার্ধও দাপটের সঙ্গে শুরু করে ভিলা। কিন্তু অ্যাক্সেল তোয়ানজেবের আরেকটি নিশ্চিত গোলের সুযোগ প্রতিহত করে দেন মেন্দি। এরই মধ্যে ৪৯ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি খেয়ে বসে অতিথিরা। ডিফেন্ডার মিঙ্গসের ভুলে বল পেয়ে গোলরক্ষককে অনায়াসে পরাস্ত করেন কোভাসিচ। এরপরও ম্যাচে ফিরতে চেষ্টা করেছে ভিলা। কিন্তু কাজের কাজ হয়নি। যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে ভিলার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকেন লুকাকু। সেসার আসপিলিকুয়েতার পাস থেকে বল পেয়ে বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের শটে জাল কাঁপান বেলজিয়ান তারকা।

সাবেক ক্রিকেটার রবিউলের পাশে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী রাসেল
                                  

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়াড় শেখ রবিউল ইসলামের পাশে দাঁড়িয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

প্রতিমন্ত্রী সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে ক্রিকেটার রবিউলের হাতে বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশন থেকে দুই লাখ টাকার আর্থিক অনুদানের চেক প্রদান করেন। জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক এ কীর্তিমান ক্রিকেটার দীর্ঘদিন ধরে নাক ও নাভির পীড়াসহ শারীরিক নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। এছাড়া তার বৃদ্ধ মাও অসুস্থ অবস্থায় আছেন।


ক্রিকেটার রবিউল ২০১০ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশে জাতীয় ক্রিকেট দলের নিয়মিত খেলোয়াড় ছিলেন। তিনি জাতীয় দলের হয়ে ৯টি টেস্ট ম্যাচ, ৩টি ওয়ানডে ম্যাচ এবং একটি টি-টৌয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন।

তিনি জিম্বাবুয়ের সফরের টেস্ট সিরিজের ১৫টি উইকেট শিকার করে ম্যান অব দ্য সিরিজ নির্বাচিত হন যা দেশের বাইরে এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশের ক্ষেত্রে একটি অনন্য রেকর্ড।

চেক প্রদানকালে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সব সময় আমাদের খেলোয়াড়দের যে কোনো দূরাবস্থায় পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। ভবিষ্যতেও আমাদের আন্তরিক এ প্রচেষ্টা ও সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।’ এসময় ক্রিকেটার রবিউল যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
এছাড়াও প্রতিমন্ত্রী ফাউন্ডেশন হতে আম্পায়ার নাদির শাহের চিকিৎসার জন্য মুত্যুর ৩দিন পূর্বে ২ লাখ টাকা প্রদান করেন।

বঙ্গবন্ধু দুস্থ অসচ্ছল ও অসহায় ক্রীড়াসেবী এবং তাদের পরিবারের সহযোগিতার জন্য ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধু ক্রীড়াসেবী কল্যাণ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা ক্রীড়াপ্রেমী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্তরিকতা ও সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় ফাউন্ডেশনটির এরই মধ্যে সিডমানি পৌঁছেছে ২৭ কোটি ৮৫ লাখ টাকায়।

২০০৯- ১০ অর্থবছরে হতে ২০২০-২১ অর্থবছর পর্যন্ত ফাউন্ডেশন হতে ৬ হাজার ৬১৯ জন দুস্থ, আহত ও অসমর্থ ক্রীড়াসেবী এবং তাদের পরিবারের জন্য ১১ কোটি ৯২ লাখ ১৫ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও করোনা মহামারিকালে অস্বচ্ছল ক্রীড়াবিদকে আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়। ফাউন্ডেশন হতে ২০২০-২১ অর্থবছর থেকে মাসিক ক্রীড়া ভাতা চালু করা হয়েছে।

 

 
 
ইতিহাস গড়া হলো না
                                  

ইতিহাস গড়তে পারলেন না জোকোভিচ। সার্বিয়ান তারকার এককভাবে সবচেয়ে বেশি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম জিতে নিয়েছেন রাশিয়ান দানিল মেদভেদেভ। ইউএস ওপেন জিতে উচ্ছ্বসিত ২৫ বছর বয়সী এই টেনিস তারকা। সমর্থকদের হতাশ না হওয়ার অনুরোধ করেছেন জোকো। আগামী বছরের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতে রেকর্ড গড়ার লক্ষ্য সার্বিয়ান তারকার।

নিউইয়র্কের বিলি জিন কিং টেনিস সেন্টার প্রস্তুত ছিলো ইতিহাসের সাক্ষী হওয়ার। আর মাত্র একটা শিরোপা পেলেই রজার ফেদেরার ও রাফায়েল নাদালকে পেছনে ফেলে সবচেয়ে বেশি ২১টি গ্র্যান্ডস্লামের এককভাবে মালিক হতে পারতেন জোকো। তার সামনে ছিলো ৫২ বছরের মধ্যে প্রথম পুরুষ খেলোয়াড় হিসেবে বছরের সবগুলো গ্রান্ডস্লাম জয়ের রেকর্ডের হাতছানিও। কিন্তু কে জানতো? বছরের পুরোটা জুড়ে উড়তে থাকা জোকোকে থামিয়ে দিবেন র‌্যাংকিংয়ের দুই নম্বর তারকা দানিল মেদভেদেভ?


ক্যারিয়ারে তৃতীয়বারের মত ফাইনালে উঠেছিলেন মেদভেদেভ। ২০১৯ সালে প্রথম ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠেছিলেন ২৫ বছর বয়সী তারকা। শিরোপার মঞ্চে তাকে হতাশার সাগরে ভাসিয়েছিলেন রাফায়েল নাদাল। প্রথমবার ব্যর্থতার পর এ বছরের শুরুতে আবারো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে ওঠেন মেদভেদেভ। কিন্তু এবার তাকে শিরোপা বঞ্চিত করেন জোকোভিচ। রাজা রবার্ট ব্রুসের মত সাফল্যের দেখা পেতে ৬বার ব্যর্থ হতে হয়নি রাশিয়ান টেনিস তারকাকে। তৃতীয়বারের চেষ্টায়েই পেলেন ক্যারিয়ারের প্রথম গ্রান্ডস্লামের দেখা। তাও আবার জোকোভিচের ইতিহাস গড়ার স্বপ্ন গুড়িয়ে দিয়ে। সে সঙ্গে প্রতিশোধের মিশনে সফল ২৫ বছর বয়সী রুশ তারকা।

অপ্রতিরোধ্য জোকোভিচকে ফাইনালে খুঁজেই পাওয়া যায়নি। প্রথম সেট ৬-৪ গেমে জয়ের পর, পরের দুই সেটও একই ব্যবধানে জিতে উঁচিয়ে ধরেন ইউএস ওপেনের শিরোপা। এমন সাফল্য এত দ্রুত আসবে তা যেন নিজেও বিশ্বাস করতে পারছিলেন মেদভেদেভ। চোখজুড়ে ছিলো শুধুই আনন্দঅশ্রু। অন্যদিকে কেঁদেছেন জোকোও। তবে মেদভেদেভের অর্জনে তাকে শুভেচ্ছা জানাতেও ভোলেননি।
নোভাক জোকোভিচ বলেন, ‌`ইউএস ওপেনের ফাইনালে শিরোপার যোগ্য দাবিদার মেদভেদেভ। তাকে আমার হৃদয় নিংড়ানো ভালবাসা ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। সে অনেকদূর যাবে। রেকর্ড গড়তে পারিনি। সেজন্য একটু খারাপ লাগছে। তবে এটাও সত্যি আমি সেরাটা খেলতে পারিনি। সবাইকে হতাশ না হওয়ার অনুরোধ করছি।‌‌`
 

ইউএস ওপেন জয়ী টেনিস তারকা দানিল মেদভেদেভ বলেন, ‌`আমি জোকোভিচকে হারাতে পারবো এটা ভাবতে পারিনি। তাকে হারিয়ে শিরোপা জিততে পেরে আমি গর্বিত। তার মত খেলোয়াড়কে হারানো কঠিন।‌`

এককভাবে ২১টি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের জন্য জোকোভিচকে এখন অপেক্ষা করতে হবে ২০২২ সালের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন পর্যন্ত।
আবার বায়ার্ন-বার্সেলোনা মহারণ, জিতবে কে
                                  

বার্সেলোনা গত দুই মৌসুম ধরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সুবিধা করে উঠতে পারছে না। সর্বশেষ মৌসুমে লজ্জাজকভাবে হেরে বিদায় নিয়েছে পিএসজির বিপক্ষে। তার আগের মৌসুমে লিওনেল মেসির শৈশবের দল ৮-২ গোলের পাহাড়সম ব্যবধানে হারে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে। বিধ্বংসী সেই বায়ার্নের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই এবারের মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ যাত্রা শুরু হচ্ছে স্প্যানিশ ক্লাবটির।

১৪ সেপ্টেম্বর রাত একটায় গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে বায়ার্ন মিউনিখের মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা। মেসিবিহীন বার্সা ও বায়ার্ন ম্যাচের এবারের ফলাফল কী হবে? আগের মতোই নাকি আরও লজ্জাজনক?


মেসি না থাকলেও ক্লাবকে নিয়ে বড় আশা দেখছেন বার্সা কোচ রোনাল্ড কোম্যান। ম্যাচকে সামনে রেখে সংবাদ সম্মলনে তিনি বলেন, আমরা ক্লাবের থেকে সর্বোচ পারফরম্যান্স আশা করি। সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে। ক্লাবের সভাপতির সঙ্গেও এ নিয়ে কথা হয়েছে আমার। আসলে আমাদের সম্পর্ক খুব ভালো।

এর আগে কোম্যান মেসিকে ছাড়া বার্সা কেমন খেলবে এমন প্রশ্নের অবতারণায় বলেছিলেন, মেসি নেই, তবু আমাদের পথ চলতে হবে।

মেসি বার্সা ছাড়ার সময়েই কাতালান ক্লাবটি য়্যুভেন্তাসের বিপক্ষে হোয়ান গাম্পার ট্রফিতে খেলে। যেখানে তুরিনের বুড়িদের ৩-০ গোলে উড়িয়ে দেয় বার্সেলোনা। মেম্ফিস ডিপাই, মার্টিন ব্রাথওয়েট ও রিকুই পুজ একটি করে গোল করেন দলের জয়ে। তখন দুঃখ ভারাক্রান্ত কোম্যানের মনে বয়ে গেল সুখের আভাস। সেটা তিনি শিষ্যদের মধ্যে ছড়িয়ে দিলেন এই বলে যে, এটাই স্বাভাবিক। যখন মেসির মতো কোনো প্লেয়ার চলে যায় তখন সেটা সহ্য করা কষ্টদায়কই, সবার জন্য। তবু আমাদের এগিয়ে যেতে হবে, কারণ আমরা পরিস্থিতির পরিবর্তন করতে পারব না।
ফুটবল সব সময় দলগত খেলা। এ কারণেই মেসি-রোনালদোরাও মাঝে মাঝেই ছোট দলগুলোর বিপক্ষেই ব্যর্থ হন। কোম্যানও শিষ্যদের পরামর্শ দিয়েছেন দলগতভাবে শক্ত হয়ে উঠতে, আমাদের ভালো খেলতে হবে, জয় পেতে হবে এবং আরও কঠিন পরিশ্রম করতে হবে। এখানে অন্য খেলোয়াড়রা রয়েছে, যারা নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে খেললে দলে একটা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখা হবে। আমাদের এখন মেসি নেই, তবু সবকিছু চালিয়ে যেতে হবে।

খেলোয়াড়দের মোটিভেশন দেওয়ার পাশাপাশি কোম্যান চেষ্টা করেন উত্তপ্ত দর্শকদেরও শান্ত করতে। আমরা মেম্ফিস ডিপাইকে দলে নিয়েছি। সে য়্যুভেন্তাসের বিপক্ষে নিজেকে প্রমাণ করেছে। ও আমাদের দলের জন্য খুবই কার্যকরী হতে পারে। দলের মধ্যভাগের খেলোয়াড়দের গোল করে অবদান রাখতে ঘবে। সব মিলিয়ে সবাইকে উন্নতি করতে হবে। পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ খেলোয়াড়কে আমরা সবাই সবসময় মিস করব। তবে সবাইকে এটা গ্রহণও করতে হবে।

 

 
অনন্য মাইলফলকের সামনে মাহমুদউল্লাহ
                                  

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেই আরও এক অনন্য অর্জনের হাতছানি টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সামনে। তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে টস করতে নামলেই বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম এই সংস্করণে শত ম্যাচ খেলার কীর্তি গড়বেন এ অলরাউন্ডার।এর আগে চলতি সিরিজেই সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী বিন মুর্তজাকে টপকে গেছেন রিয়াদ। ম্যাশকে ছাড়িয়ে টি-টোয়েন্টিতে হয়েছেন দেশের সফলতম অধিনায়ক।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে রিয়াদের অভিষেক হয় ২০০৭ সালের ১ সেপ্টেম্বর। ১৪ বছর পরে আরেক সেপ্টেম্বরেই তিনি খেলতে যাচ্ছেন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে নিজের শততম ম্যাচ।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামী রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে কিউইদের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ওই ম্যাচে মাইলফলক স্পর্শের সঙ্গে ভালো খেলে সিরিজ জয়ে অবদান রাখতে চান মাহমুদউল্লাহ।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমার সবসময় লক্ষ্য থাকে দলের জন্য খেলা ও দলে অবদান রাখা। যদি সুস্থ থাকি ও আমার ১০০তম ম্যাচটি খেলতে পারি, তাহলে দলের জন্য অবদান রাখার চেষ্টা করব।

এদিকে নিউজিল্যান্ডকে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৪ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের দেওয়া ১৪২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৩৭ রান স্কোরবোর্ডে জমা করতে পারে সফরকারীরা। ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন রিয়াদ। তিনি অপরাজিত থাকেন ৩৭ রান নিয়ে। তার ইনিংসটি ৩২ বলে ৫টি চারে সাজানো ছিল। বল হাতে ১ ওভারে ৭ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য।

টি-টোয়েন্টিতে ৮৮ ম্যাচ খেলে দুই নম্বরে আছেন কিপার-ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। সাকিব আল হাসান খেলেছেন ৮৬ ম্যাচ। 

 
টানা দ্বিতীয় হারের পর যা বললেন অজি
                                  

টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের বিপক্ষে হারের স্বাদ পায় অস্ট্রেলিয়া। এবার টানা দ্বিতীয় ম্যাচে বুধবার (৪ আগস্ট) বড় হারের পর সেই স্বাদকে আরো তেতো বানালো ক্যাঙ্গারু বাহিনী।

দ্বিতীয় ম্যাচে শোচনীয় হারের প্রতিক্রিয়ায় অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক ম্যাথু ওয়েড বলেন, ‘আমরা প্রথম ৪ ওভার বেশ ভালো ব্যাট করেছি। শুরুতে আমরা ভালো পজিশনেও ছিলাম। কিন্তু শেষ ৪ ওভারে প্রত্যাশামতো রান করতে পারিনি। তাই আমাদের পুঁজি ১২১ রানেই থেমে গেছে। এই উইকেটে ১৪০-১৫০ করলে হয়তো জয় আমাদেরই হতো।’

আরও বলেন, ‘আমাদের স্পিনাররাও ভালো বল করেছে। কিন্তু টার্গেট কম হওয়ায় দুর্ভাগ্যজনকভাবে হেরেছি। তবে আমাদের খেলায় উন্নতি হয়েছে। আশা করছি পরের ম্যাচে আরো ভালো খেলব।’
এমন উইকেটে যে অস্ট্রেলিয়ানরা খেলতে অভ্যস্ত নয় তা গত ম্যাচের পরপরই জানিয়েছিলেন ওয়েড। উইকেটের আচরণে তিনি বিস্মিত হয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের উইকেটও স্পিন সহায়ক ছিল। কিন্তু এখানে স্পিনারদের বল স্কিড করে ভেতরে ঢুকেছে, যা ওয়েস্ট ইন্ডিজে ছিল না।’
সতীর্থদের পরিকল্পনা ঠিক রেখে সাকিব আল হাসানদের স্পিনের বিপক্ষে সাহসী হওয়ারও হুংকার দিয়েছিলেন অজি অধিনায়ক। বলেন, ‘স্পিনের বিপক্ষে আমরা সাহসী হব। পাশাপাশি আমাদের পরিকল্পনায় ঠিক থাকতে হবে, কারণ এই অল্প সময়ে সব কিছু পরিবর্তন করে ফেলা সম্ভব নয়। পরের ম্যাচে যেমন দরকার আমরা সেই খেলাটাই খেলতে চাই।’
তবে দ্বিতীয় ম্যাচেও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ম্যাথু ওয়েডের দল। এর আগে প্রথম ম্যাচে শেরে-ই বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামের উইকেট যেন একটু বেশিই টার্ন করছিল। অস্ট্রেলিয়া অধিনায়কও স্বীকার করেছেন বিষয়টি।
 
ম্যাথু ওয়েড বলেন, ‘এই দেশে এটাই (স্পিন) চ্যালেঞ্জ। শুরুর দিকের বলগুলো আপনি বুঝতে পারবেন না, প্যাডে বারবার আছড়ে পড়বে। কোনো কোনোটা আবার দ্রুত টার্ন করবে। তবে প্রথম ম্যাচে আমার মনে হয়েছে শুরুর দিকের চেয়ে শেষের দিকে বল বেশি ঘুরেছে।’ 
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কতটা প্রস্তুত বাংলাদেশ?
                                  

করোনার বিষবাষ্পে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে যে স্থবিরতা নেমে এসেছিল সময়ের পরিক্রমায় তা সচল হয়েছে। কেটে গেছে কালো মেঘের অমানিশা। মাঠে ফিরেছে প্রাণ-চাঞ্চল্য। শুরু হয়েছে স্থগিত হওয়া সব সিরিজ। স্বাস্থ্যবিধি আর কোভিডের কঠোর নিয়মনীতি মেনেই চলছে মাঠের খেলা। পিছিয়ে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও হাতছানি দিচ্ছে। চলতি বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে গড়াবে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরমেটের এ আয়োজন।করোনার কারণে নির্ধারিত সময়ে মাঠে গড়ায়নি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ২০২০ সালের আয়োজনের কথা থাকলেও তা স্থগিত হয়ে যায়। অনেক জল ঘোলার পর আইসিসি জানিয়েছিল, ২০২০ সালের টুর্নামেন্টটা হবে ২০২১ এর অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতের মাটিতে। তবে ভারতের করোনা পরিস্থিতি আবারও দুশ্চিন্তায় ফেলে আয়োজকদের। সিদ্ধান্ত বদলে যায়। বদলানো হয় ভেন্যু।

ভারত থেকে সরিয়ে নেওয়া হয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম, আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়াম, শারজাহ স্টেডিয়াম ও ওমান ক্রিকেট একাডেমি-এ চারটি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে এবারের বিশ্বকাপের খেলা।

আয়োজনের তারিখ, ভেন্যু সবই ঠিক। এখন অপেক্ষা মাঠের লড়াই শুরুর। বিশ্বকাপের মঞ্চে কেমন করবে বাংলাদেশ দল? এমন প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক। সাবেক টাইগার ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুলের কাছে এমন প্রশ্নই ছিল সময় সংবাদের পক্ষ থেকে। সময় সংবাদের নিয়মিত অনুষ্ঠান ‌`খেলার ক্ষণে‌`কে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে বিস্তারিত কথা বলেন তিনি।

মোহাম্মদ আশরাফুল বলেন, ‌টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশ দলের সামনে প্রায় ১৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার সুযোগ আছে। জিম্বাবুয়ের পর এবার অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টির সিরিজ শুরু হচ্ছে। এরপর নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ আছে। এ টুর্নামেন্টগুলো শেষ হলে বোঝা যাবে আমরা কতদূর যেতে পারি। স্বাভাবিকভাবে বলতে হয়, আমরা টি-টোয়েন্টিতে ফরমেটে বেশি শক্তিশালী নই। তবুও এই দলের ওপর আস্থা আছে। তরুণ ক্রিকেটারদের প্রমাণ করার ক্ষমতা আছে।‌

টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হওয়া শামীম পাটোয়ারী নজর কেড়েছেন জিম্বাবুয়ে সিরিজে। শামীম পাটোয়ারীকে নিয়ে আশাবাদী আশরাফুলও।

তিনি বলেন, ‌শামীম পাটোয়ারী ভালো ফিল্ডার এবং ব্যাটসম্যান। আশা করি অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সে দলে থাকবে। অজি পেসারদের বিপক্ষে ভালো করার সুযোগ আছে তার।‌

টি-টোয়েন্টি ফরমেটে উন্নতি করার বিষয়ে আশরাফুল জানান, ‌২০০৬ সালে আমরা এ ফরমেটে খেলা শুরু করেছিলাম। ২০০৭ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়েছিলাম। তখন ভেবেছিলাম এ ফরমেটে দ্রুত উন্নতি করবে বাংলাদেশ। কিন্তু এ খেলায় যারা অভিজ্ঞ তারা বেশি সফল। পাশাপাশি পাওয়ার হিটিং এবং মাঠের হিসাব-নিকাশ আছে। আমাদের দলে পাওয়ার হিটিং ব্যাটসম্যান নেই তেমন। এছাড়া এ ফরমেটে খেলাও কম হয় আমাদের। এর সমাধান হতে পারে ঘরোয়া লিগে বেশি বেশি খেলা আয়োজন করার মধ্যদিয়ে।‌

টিম বাংলাদেশের অন্যতম ভরসা সাকিব আল হাসান। তার ব্যাটে ভর করে অনেক জয়ের স্বাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টিতেও বড় ভূমিকা রাখতে পারেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত ফরমেটে সাকিব আল হাসানের পারফরমেন্স নিয়ে আশরাফুল জানান, ‌আমার মনে হয় সাকিবের তিন নম্বর পজিশনে খেলা উচিত। আমাদের দলে পাওয়ার হিটার নেই। সাকিব সার্কেল ব্যবহার করে শট খেলতে পারে ভালো। পাওয়ার প্লে ব্যবহারের জন্য তাকে ওই পজিশনে দরকার।‌

এছাড়া টি-টোয়েন্টি ফরমেটে সৌম্য সরকারকে বেশি মনযোগ দেওয়ার ব্যাপারে জোর দেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার আশরাফুল।

বাংলাদেশ দলের অলরাউন্ডারদের সম্পর্কে আশরাফুল জানান, `অনেক অলরাউন্ডার আছে দলে। অলরাউন্ডারদের কামব্যাক করার সুযোগ করে দিতে হবে। এখানে বাড়তি নজর দেওয়া প্রয়োজন।‌

বিশ্বকাপ নিয়ে বাংলাদেশের প্রস্তুতি সম্পর্কে ‌‘খেলার ক্ষণে‌` অনুষ্ঠানকে সিনিয়র সাংবাদিক নোমান মোহাম্মদ বলেন, ‌টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে শিরোপা প্রত্যাশী তিনটি দলের বিপক্ষে সিরিজ খেলবে। যা বাড়তি আত্মবিশ্বাস যোগাবে। প্রস্তুতি সর্বোচ্চটাই হওয়া উচিত। আমাদের সমস্যা হলো আমরা বর্তমানে বাঁচি। কিন্তু বোর্ড, ম্যানেজমেন্টের উচিত দীর্ঘমেয়াদি চিন্তা করা যাতে প্রস্তুতি ভালো হয় এবং প্রাথমিক পর্বটা সহজে উতরে যায়।‌

উল্লেখ্য বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ডে খেলবে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, আয়ারল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি, নামিবিয়া, নেদারল্যান্ডস, স্কটল্যান্ড ও ওমান। এখান থেকে চারটি দল যাবে পরের পর্বে। সেখানে সরাসরি জায়গা করে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তান।

মুশফিককে ছাড়াই খেলতে হবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ
                                  

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজে খেলতে পারবেন না মুশফিকুর রহিম। কোয়ারেন্টাইনে বাধ্যবাধকতায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) কোনো ছাড় না দেওয়ায় ব্যাটিং স্তম্ভকে পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল।

এই সিরিজের জন্য সিএর অনেকগুলোর শর্তের একটি হচ্ছে, অস্ট্রেলিয়া দল বাংলাদেশে পা রাখার ১০ দিন আগে (সিরিজ শুরু হওয়ার দুই সপ্তাহ আগে) বাংলাদেশ দল, আম্পায়ার-ম্যাচ রেফারিসহ সংশ্লিষ্টদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। জিম্বাবুয়ে সফর থেকে ফিরে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা সরাসরি টিম হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে ঢুকে যাবেন।

কিন্তু পারিবারিক কারণে মুশফিক জিম্বাবুয়ে থেকে দেশে ফিরে আসার পর অস্ট্রেলিয়া সিরিজে তার খেলা নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। বিসিবির পক্ষ থেকে সিএর সঙ্গে আলোচনা চলছিল, শুধুমাত্র মুশফিকের জন্য কোয়ারেন্টাইনে ছাড় দেওয়া যায় কিনা। এসব ক্ষেত্রে বরাবরই পেশাদার সিএ সেখানে কোনো ছাড় দেয়নি।
মুশফিক নিজে এই সিরিজে খেলতে খুবই আগ্রহী ছিলেন বলে জানিয়েছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানান, বাস্তবতা মেনে নেওয়া ছাড়া উপায় নেই। মুশফিকের বাবা-মা অসুস্থ, ওকে চলে আসতে হয়েছে। এখানে কিছু করার নেই। মুশফিক খেলতে চেয়েছিল। কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ছাড় দেয়নি ওদের শর্তগুলো থেকে। ওরা যেভাবে চেয়েছে, সেসবের বাইরে কিছু করা যাবে না। মুশফিককে না পাওয়া আমাদের জন্য হতাশার। তবে পরিস্থিতিই এরকম হলো, কিছু করার নেই।
মুশফিক ঈদের দিন তার ভেরিফায়েড পেজে ঈদ শুভেচ্ছার পাশাপাশি জানান, তার অসুস্থ বাবা-মার অবস্থা এখন উন্নতির পথে। তবে সিরিজটি খেলতে হলে তাকে কোয়ারেন্টাইনে ঢুকতে হতো দিন দুয়েক আগেই, যেটা সম্ভব হয়নি।
অস্ট্রেলিয়ার কঠিন শর্তের কারণেই জিম্বাবুয়ে সফরের পূর্ব ঘোষিত টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডের সঙ্গে বাড়তি রেখে দেওয়া হয়েছে মোহাম্মদ মিঠুন, মোসাদ্দেক হোসেন ও রুবেল হোসেনকে।৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে আসবে অস্ট্রেলিয়া। সিরিজ শুরু ৩ অগাস্ট।
বড় জয়ে টি-টোয়েন্টি মিশন শুরু টাইগারদের
                                  

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ের দেওয়া ১৫৩ রানের লক্ষ্য ২ উইকেট হারিয়ে ৭ বল বাকি থাকতেই টপকে যায় সফরকারীরা।বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৩ রান করেন ওপেনার নাঈম শেখ। ৫১ বলে খেলা তার ইনিংসে ছিল ৭টি চার। এছাড়া সৌম্য সরকার ৪৫ বলে ৫০ রান করেন। তার ইনিংসে ২টি ছক্কা ও চারটি চারের মার রয়েছে।

অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১৫ এবং নুরুল হাসান সোহান ১৬* রান করেন।

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১৯ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৫২ রানে অলআউট হয় স্বাগতিকরা।

বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) হারারেতে টসে জয়লাভ করেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক সিকান্দার রাজা। তিনি বাংলাদেশকে ফিল্ডিংয়ে পাঠান।

বল হাতে শুরুটা দুর্দান্ত করেন পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। নিজের প্রথম ওভারেই তুলে নেন মারুমানির (৭) উইকেট। দলীয় স্কোর তখন ১০। এরপর ঘুরে দাঁড়ায় জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৬৪ রান যোগ করেন মাদিভেরি ও রেগিস চাকাভা। এরপর মাদিভেরিকে (২৩) ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন সাকিব আল হাসান।

ক্রমেই বিপজ্জনক হয়ে ওঠা চাকাভাকে (২২ বলে ৪৩) তুলে নিয়ে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি এনে দেন উইকেট রক্ষক নুরুল হাসান সোহান।

শরীফুলের করা ১১তম ওভারে খেলায় পাল্টা চাপ বিস্তার করে বাংলাদেশ। ওভারের প্রথম বলে চাকাভাকে রান আউট করেন নুরুল। পঞ্চম বলে জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক সিকান্দার রাজা ফিরে যান রানের খাতা খোলার আগেই। তার আউটেও আছে নুরুলের অবদান। খোঁচা মারতে গিয়ে তাকে ক্যাচ দেন রাজা।

বল হাতে উইকেট পেয়েছেন সৌম্য সরকারও। তিনি মুসাকান্দার (৬) উইকেট তুলে নেন। পরের উইকেটটি তুলে নেন শরিফুল। ২২ বলে ৩৫ করা মায়ার্সের স্টাম্প উপড়ে ফেলেন তিনি। শেষ দিকে লুক জঙ্গউইয়ের (১৮) ব্যাটে ভর করে ১৫২ রানের পুঁজি  পায় স্বাগতিকরা।

বাংলাদেশের পক্ষে মুস্তাফিজ ৩টি, সাইফউদ্দিন ও শরিফুল ২টি করে এবং সাকিব ও সৌম্য ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

জবাব দিতে নেমে দারুণ শুরু করেন দুই ওপেনার নাঈম শেখ ও সৌম্য সরকার। তাদের ওপেনিং জুটিতে ১৩ ওভারে শতরান স্পর্শ করে বাংলাদেশ। তাদের এই জুটিই মূলত জয়ের পথ সহজ করে দেয়।

দীর্ঘ প্রায় ৮ বছর পর জিম্বাবুয়ে সফরে গেছে বাংলাদেশ দল। পূর্ণাঙ্গ এ সফরে একটি টেস্ট এবং তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলা শেষ করেছে টাইগাররা। টেস্ট এবং ওয়ানডে সিরিজ দাপটের সঙ্গে জিতে নিয়েছে সফরকারী বাংলাদেশ।

সিরিজ জিতল টাইগাররা
                                  

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সাকিবের ব্যাটে ভর করে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। তামিমদের যাওয়া আসার মিছিলে এক পাশ আগলে রাখেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। শেষ পর্যন্ত ৫ বল হাতে রেখেই ৩ উইকেটে জয় পায় টাইগাররা। এতে ৩ ম্যাচ সিরিজে ১ ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ নিশ্চিত করল সফরকারীরা।

২৪১ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ১৮ ওভারে ৭৫ রান তুলতেই সাজঘরে ফেরেন প্রথম সারির চার ব্যাটসম্যান। তামিম ইকবাল (২০), লিটন দাস (২১), মোহাম্মদ মিঠুন (২) ও মোসাদ্দেক হোসেন (৫) কেউই তাদের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি।

মাহমুদউল্লাহ ৩৫ বলে ২৬ রান তুলে মুজারাবানির শিকার হন। মিরাজ ৬ রান তুলে মাধেভেরের শিকার হন। আফিফকে নিয়ে আশায় বুক বেঁধেছিলেন বাংলাদেশের দর্শকরা। কিন্তু সেও টিকতে পারেননি বেশিক্ষণ। ১৫ রান তুলেই সাজঘরে ফেরেন তিনি। ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে লাইন মিস করেন আফিফ, হয়েছেন স্টাম্পড।
খাদের কিনারায় হাল ধরেন সাইফউদ্দিন। শেষ পর্যন্ত সাকিব ৯৬ রানে এবং সাইফউদ্দিন ২৮ রানে অপরাজিত থাকেন। ম্যাচ সেরা হন সাকিব আল হাসান।
রোববার (১৮ জুলাই) হারারে স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেয় জিম্বাবুয়ে। শুরুতেই তাসকিন-মিরাজের জোড়া আঘাতে বিধ্বস্ত হয় জিম্বাবুয়ে। তবে শুরুর সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠে স্বাগতিকরা। শেষমেষ শরীফুলের ৪ উইকেটে জিম্বাবুয়ের মাঝারি স্কোর দাঁড়ায়। নির্ধারিত ৫০ ওভারে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ২৪০ রান।
ক্রিকেট দলকে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
                                  

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ওয়ানডে সিরিজ জয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সব খেলোয়াড় ও টিম ম্যানেজমেন্ট সংশ্লিষ্ট সবাইকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ম্যাচ শেষ হওয়ার পরপরই এ অভিনন্দন জানান তারা।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সাকিবের ব্যাটে ভর করে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের দায়িত্বশীল লড়াইয়ে ৫ বল হাতে রেখে ৩ উইকেটে জয় পায় টাইগাররা। এতে ৩ ম্যাচ সিরিজে ১ ম্যাচ হাতে রেখে সিরিজ নিশ্চিত করে সফরকারীরা।

রোববার (১৮ জুলাই) হারারে স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেয় জিম্বাবুয়ে। শুরুতেই তাসকিন-মিরাজের জোড়া আঘাতে বিধ্বস্ত হয় জিম্বাবুয়ে। তবে শুরুর সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠে স্বাগতিকরা।
শেষ পর্যন্ত শরীফুলের ৪ উইকেটে জিম্বাবুয়ের মাঝারি স্কোর দাঁড়ায়। নির্ধারিত ৫০ ওভারে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ২৪০ রান।
অতীতের জৌলুস হারিয়েছে জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেট। বর্তমানে এই দলটি যেন বাংলাদেশের প্রিয় প্রতিপক্ষ। আমন্ত্রণ জানালেই যেমন তাদের পাওয়াটা সহজ, তেমনি পারফরম্যান্সেও তাদের বিপক্ষে টাইগার ক্রিকেটারদের রেকর্ড দুর্দান্ত।
চলমান সিরিজে খেলা তাসকিন আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজদের রেকর্ডের পাল্লাটাও বেশ ভারী আফ্রিকার দলটির বিপক্ষে। সমর্থকদের আশা, শুধু ঐতিহ্য হারানো জিম্বাবুয়েই নয়, শক্তিশালী দলগুলোর বিপক্ষেও উজ্জ্বল হবে বাংলাদেশের রেকর্ডের খাতা।
ফিফার নতুন নিয়ম, ফুটবল খেলা হবে ৬০ মিনিট
                                  

বদলে যাচ্ছে ফুটবলের নিয়ম। খেলাটিকে আরও আকর্ষণীয় করতে ৯০ মিনিটের পরিবর্তে খেলা হবে ৬০ মিনিট। থাকবে ইচ্ছেমতো ফুটবলার পরিবর্তনের সুযোগ। হলুদ কার্ড দেখলে সাসপেন্ড হবেন খেলোয়াড়রা, সাইডলাইনে বসে থাকতে হবে ৫ মিনিট। এমন বেশকিছু নতুন নিয়ম অনূর্ধ্ব-১৯ দলের টুর্নামেন্ট ফিউচার অব ফুটবল কাপে পরীক্ষামূলকভাবে প্রবর্তন করেছে ফিফা। এখনো কিছু চূড়ান্ত না হলেও এরই মধ্যে ভক্তদের মধ্যে এ নিয়ে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

বদলে যাচ্ছে পৃথিবী। সময়ের বিবর্তনে অনেক কিছুতেই এসেছে পরিবর্তন। খেলাধুলাও এর বাইরে নয়। দর্শকদের আগ্রহ ধরে রাখতে প্রতিনিয়ত কত কিছুই না করছে খেলার নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলো।

টি-২০ ফরম্যাট বিশ্ব ক্রিকেটে যোগ করে নতুন মাত্রা। এবার ফুটবলও সে পথে হাঁটছে। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। ফুটবলে নতুন কিছু সংযোজনের ক্ষমতা আছে শুধু তাদেরই। ফুটবলকে আরও আকর্ষণীয় করতে বেশকিছু নিয়মে পরিবর্তন আনার কথা ভাবছে তারা।
ইউরোপের চারটি ক্লাব পিএসভি, আজেড আল্কমার, লাইপজিগ ও ক্লাব ব্রুজের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের একটি টুর্নামেন্ট চলছে। ফিউচার অব ফুটবল কাপ নামে সেই টুর্নামেন্টে কিছু নিয়মে পরীক্ষামূলকভাবে পরিবর্তন এনেছে ফিফা। এমন খবর দিয়েছে ইউরোপের বেশকিছু সংবাদমাধ্যম। যদিও ফিফার পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তবে খবর প্রচারের পর তা নিয়ে কোনো আপত্তিও জানায়নি ফিফা।
নতুন সেই নিয়মগুলো কি? সবার আগে খবরটি প্রচার করে খেলাধুলাবিষয়ক স্পেনের শীর্ষ পত্রিকা মুন্ডো দেপোর্তিভো। তারা বলছে, প্রস্তাবিত নিয়মে ৯০ মিনিটের পরিবর্তে খেলা হবে ৬০ মিনিট। প্রতি অর্ধে খেলা হবে ৩০ মিনিট। থ্রো ইন হবে পা দিয়ে। কোনো ফুটবলার হলুদ কার্ড দেখলে সাসপেন্ড হবেন ৫ মিনিটের জন্য, বসে থাকতে হবে সাইডলাইনে। ম্যাচ চলাকালীন ফুটবলার পরিবর্তনে কোনো বাধ্যবাধকতা থাকবে না। আর বল মাঠের বাইরে গেলে বা খেলা বাধাগ্রস্ত হলে বন্ধ থাকবে ঘড়ি।
নতুন এ নিয়মগুলো এরই মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে দর্শক-সমর্থকের মাঝে। তাদের অধিকাংশই এই নিয়মগুলোর সমালোচনা করে বলছেন, এখন যে নিয়মে খেলা চলছে সেটাই আদর্শ।এর আগে ভিএআর প্রবর্তনের সময় হয়েছিল ব্যাপক সমালোচনা। তবে ধীরে ধীরে ঠিকই এই প্রযুক্তি গ্রহণ করেছে বিশ্বের শীর্ষ লিগগুলো। প্রস্তাবিত নতুন নিয়মগুলো আদৌ বাস্তবায়ন হবে কি না তা জানতে অপেক্ষা করতেই হচ্ছে।
শিরোপা উদযাপন করতে গিয়ে ইতালিতে একজনের মৃত্যু
                                  

ইউরো জয়ের উচ্ছ্বাসে ভাসছে ইতালি। অসীম আকাশের মতো ব্লুরা যেন আজ বাঁধনহারা। কেননা ৫৩ বছরের অপেক্ষার অবসান হয়েছে তাদের। ওয়েম্বলির মাঠে ইংল্যান্ডকে দুঃখের সাগরে ভাসিয়েছে আজ্জুজিরা। ইংল্যান্ডের ঘরের মাঠ থেকে নিজেদের শহর রোমে নিয়ে গেছে শিরোপা।

এমন জয়ের পর উদযাপনটা হওয়া চাই বাধাহীন। সেটাই তো স্বাভাবিক। সেই উল্লাসেই ভাসছে পুরো দেশ, ফুটবল সমর্থকরা। কিন্তু এর মধ্যেই ঘটে গেছে এক অপ্রত্যাশিত ঘটনা। শিরোপা উদযাপন করতে গিয়ে মারা গেছেন এক ব্যক্তি। ক্যালটাগিরোনে গাড়ি দুর্ঘটনায় তিনি মারা গেছেন বলে জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ। উদযাপনে মারা যাওয়া ব্যক্তি ২২ বছর বয়সী এক তরুণ বলে জানা গেছে।

 

এছাড়া ইতালি চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর পার্টিতে আরও ১৫ জন আহত হয়েছেন। যাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে। এদের একজনের হাতে আগুন ধরে তিনটি আঙুল হারিয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।

 

রোববার (১১ জুলাই) রাতে ইউরোর চ্যাম্পিয়ন হয় ইতালি। ফাইনালে টাইব্রেকারে ইংল্যান্ডকে হারায় তারা। নির্ধারিত সময়ে খেলা ১-১ গোলে সমতা ছিল। পরে অতিরিক্ত সময়েও কোন গোল না হওয়ায় টাইব্রেকার হয়। সেখানে ৩-২ ব্যবধানে জয় পায় আজ্জুরিরা।
ইউরো কাপ: গোল মিস করায় বর্ণবাদের শিকার ৩ ইংলিশ
                                  

পেনাল্টি শ্যুট আউটে ওয়েম্বলিতে ইতালির কাছে শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে ইংল্যান্ডের। যেখানে তিনটি শট মিস করেছেন ইংলিশ ফুটবলার মার্কাস র‌্যাশফোর্ড, জাদো সানচো, বুকায়ো সাকা। এই তিন ফুটবলারই কৃষ্ণাঙ্গ। তাদের নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে বর্ণবাদী সমালোচনা। তাছাড়া স্টেডিয়াম থেকে বের হওয়ার সময় মারধরের শিকার হয়েছেন অনেক ইতালি সমর্থকও।

ফুটবল বিশ্বে সমালোচনার আরেক নাম ইংল্যান্ড। কোন আসরই যেন তারা শেষ করতে পারে না পরিচ্ছন্ন ভাবে। ইউরো-২০২০ এর ফাইনালে আরো একবার বিশ্ববাসী সাক্ষী হলো ইংলিশ সমর্থকদের বর্বরতার।

 

বিতর্কের শুরুটা হয়েছিল সেমিফাইনালে ডেনমার্কের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে। ডি বক্সে রহিম স্ট্যার্লিংকে ফাউল করায় পেনাল্টি দেয়া হয় থ্রি লায়ানদের। যে সিদ্ধান্ত অনেকেই মেনে নিতে পারছেন না। সেখানে ঘটে আরও একটি বিতর্কিত ঘটনা। এক দর্শক লেজার লাইট মারেন ডেনমার্ক গোলরক্ষক স্ম্যাইকেলের চোখে। যার জন্য জরিমানা গুণতে হয়েছে ইংলিশ ফুটবলের নিয়ন্ত্রকদের।

 

এবার ফাইনালে ইতালির কাছে পেনাল্টি শ্যুটআউটে হেরে দিশেহারা ইংলিশরা। দর্শকরা মেজাজ হারালেন স্টেডিয়ামের বাইরে। বিভিন্ন ফুটেজে দেখা যায়, স্টেডিয়াম থেকে যখন ইতালির সমর্থকরা বের হচ্ছিলেন তখন তাদের উপর বর্বোরচিত হামলা করেন ইংল্যান্ড সমর্থকরা। বেধড়ক মারধর করা হয় নারীদেরও।

 

নিরাপত্তারক্ষী যারা ছিলেন তাদের অনেককে দেখা গেছে নীরব। তবে অনেকে উদ্ধার করতে এসেও, হামলার শিকার হতে হয়েছে। এমন ঘটনায় সমালোচনা চলছে ইংলিশদের নিয়ে। যা উঠে এসেছে বিশ্ব গণমাধ্যমে।
আরও একটি বিতর্কিত ঘটনার সাক্ষী হয়েছে ওয়েম্বলি। এবার বর্ণবাদী আচরণ শুরু করেছেন উগ্র দর্শকরা। পেনাল্টি শ্যুটআউট মিস করায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কৃষ্ণাঙ্গ র‌্যাশফোর্ড, সাকা আর সানচোদের নিয়ে হচ্ছে বর্ণবাদী সমালোচনা। তবে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন কোচ গ্যারেথ সাউথগেট এবং সাবেক ফুটবলারও।

 

ইংল্যান্ডের কোচ গ্যারেথ সাউথ বলেন, সাকা অনেক ভাল ফুটবলার। পুরো আসরে সে দুর্দান্ত খেলেছে। উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে এমন কিছু হতেই পারে। আমাদের সবার উচিত তার পাশে থাকা। আমি ওর সাথে আছি।

 

ইংল্যান্ডের সাবেক ফুটবলার গ্যারি নেভিলে বলেন, এটা কি ধরনের আচরণ আমি বুঝি না। খেলার মাঠে এমনটা হতেই পারে। তাই বলে বর্ণবাদকে সমানে এনে সমালোচনা কখনোই কাম্য নয়। ওরা নায়কের মতো খেলেছে। ফুটবলাররা আমাদের নায়ক। তাদের যথেষ্ট সম্মান দিতে হবে। এমন আচরণে আমি চরম ভাবে ক্ষুব্ধ।

 

ইংল্যান্ড সরকার কঠোর ভাবে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিষয়টি নিয়ে। এমন কাজ যারা করছেন তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে বিবৃতি দিয়েছে মেট্রোপলিটন পুলিশও।
মেসির জন্য একটা ট্রফি চাই...
                                  

শারমিন আক্তার স্টাফ রিপোর্টার

ফুটবল জীবনে লিওনেল মেসির যতটা সাফল্য তা দেখে হয়তো দূর থেকে ‘ফুটবল বিধাতাও’ ঈর্ষা করবে। কী নেই তার অর্জনের পাতায়? টানা চারবার আর মোট ছয়বার জাতীয় দলের হয়ে ফিফা ব্যালন ডি অর জিতেছেন জীবন্ত এই কিংবদন্তি এই ফুটবলার। কিন্তু জাতীয় দলকে এখন পর্যন্ত জেতাতে পারেননি বৈশ্বিক কোনো আসরের ট্রফি। তবে বারবার ব্যর্থ হওয়ার পাহাড়সম আক্ষেপ ঘোচাতে চায় সতীর্থরা। এমনটাই ঘোষণা দিয়েছেন ডি মারিয়া, মার্টিনেজরা।

ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ ৩ বার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ৪ বার উয়েফা সুপার লিগ তিনবার স্প্যানিশ সুপার লিগ ৮ বার। কোপা দেল রে ছয়বার। আর লা-লিগার শিরোপা জিতিয়েছেন ১০ বার। গোল করেছেন, গোল করিয়েছেন। ক্লাবের হয়ে দলীয় কিংবা ব্যক্তিগত অসংখ্য ট্রফি জিতেছেন। কিন্তু জাতীয় দলের হয়ে?

 

এমন প্রশ্ন ফুটবল সংশ্লিষ্ট অনেকের। কবে জিতবে দেশের হয়ে একটি ট্রফি। টানা তিন বছর তিনটি ফাইনালে উঠেও স্বপ্ন ডুবেছে আর্জেন্টিনার আর একজন মেসির। ২০১৪ সালে ব্রাজিলে ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানির কাছে ১-০ গোলে হেরে আসর থেকে বিদায় নিতে হয় আলবেসেলেস্তেদের। ২০১৫ আর ২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে দুবারই আর্জেন্টাইনদের হৃদয় ভাঙে চিলি।

 

৫ বছর পর আবারও কোপা আমেরিকার ফাইনালে আর্জেন্টিনা। এবারও মেসির নৈপুণ্যে ফাইনালে মঞ্চে আলবেসেলেস্তেরা। ৪ গোল করেছেন সাথে ৫টি গোলে সহায়তা করেছেন। টুর্নামেন্টের সেরা ফুটবলার হওয়ার অপেক্ষায়। কিন্তু ব্যক্তিগত সাফল্য নিশ্চয় মেসিও চান না। তার চাই একটি ট্রফি। যে ট্রফির জন্য মেসি তার সতীর্থ আর্জেন্টিনার সাধারণ মানুষ কিংবা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কোটি কোটি সমর্থকরা তীর্থের কাকের মতো প্রতীক্ষায় আছেন এবার যেন ট্রফি ধরা দেয়।

 

তবে এবারও সামনে কঠিন বাধা। চির প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল। যাদের বিপক্ষে কোপায় এর আগের তিন ফাইনালের মধ্যে সবশেষ দুটিতেই হেরেছে আর্জেন্টিনা। নেইমারের ব্রাজিল তাই আবারও মেসির আর্জেন্টিনার হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটতে পারে। কিন্তু মেসি নামক ফুটবল ধ্রুবতারা এই ফুটবল দুনিয়াকে যে মুগ্ধতা দিয়েছেন এবার নিশ্চিত মেসিকে খালি হাতে ফেরাবে না ফুটবল বিধাতা।
বিধাতার নিষ্ঠুরতা অনেকবারই দেখেছেন মেসি। তবে তার সহযোদ্ধারা প্রাণপণ চেষ্টা করবেন রক্তের শেষ বিন্দু দিয়ে হলেও যেন এবারে ম্লান না হয় ট্রফি জয়ের স্বপ্ন। একজন মেসি অনেক দিয়েছেন এবার হয়তো মেসিকে দেওয়ার পালা।
ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা, স্বপ্নের ফাইনাল দেখবে বিশ্ববাসী?
                                  

কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা স্বপ্নীল ফাইনাল সত্য হওয়ার পথে। কোয়ার্টার ফাইনালে নিজ নিজ ম্যাচে জয়ে, সেই স্বপ্নের ফাইনাল এখন মাত্র একধাপ দূরে।

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা এখনো বিশ্ব ফুটবলের পরম কাঙ্খিত এক ম্যাচ। যে ম্যাচে ফুটবল দুনিয়া ভাগ হয়ে যায় দুই ভাগে। কোপা আমেরিকায় প্রতি আসরেই সম্ভাবনা থাকে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথ দেখার। গেল আসরেও দুই পরাশক্তির সাক্ষাত হয়েছিলো। সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে শিরোপার পথে এগিয়ে যায় ব্রাজিল।

 

এবারো সেই সুযোগ আসছে। তবে সেমিফাইনালে না। দু`জনই দোর্দণ্ড প্রতাপে নিশ্চিত করেছে সেমিফাইনাল। সেমিতে নিজ নিজ ম্যাচে জয় পেলেই দেখা যাবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা স্বপ্নের ফাইনাল।

 

প্যারাগুয়েকে শ্যুট আউটে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় আসরে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে পেরু। গেল আসরের ফাইনালের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে এবার সেমিতেই। টানা দ্বিতীয় শিরোপার পথে এগিয়ে যেতে মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সকালে ব্রাজিল মুখোমুখি হবে পেরুর।

 

পরের দিন সকালে আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লিওনেল মেসির দল মুখোমুখি হবে ২০০১ সালের চ্যাম্পিয়ন কলম্বিয়ার। সবশেষ ২০১৬ আসরে সেমিফাইনাল খেলেছিলো কলম্বিয়ানরা। সেবার চিলির কাছে হেরে শেষ হয় তাদের আসর।

 


   Page 1 of 18
     খেলাধূলা
চেলসির ৬০০ লুকাকুর স্বপ্নপূরণ
.............................................................................................
সাবেক ক্রিকেটার রবিউলের পাশে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী রাসেল
.............................................................................................
ইতিহাস গড়া হলো না
.............................................................................................
আবার বায়ার্ন-বার্সেলোনা মহারণ, জিতবে কে
.............................................................................................
অনন্য মাইলফলকের সামনে মাহমুদউল্লাহ
.............................................................................................
টানা দ্বিতীয় হারের পর যা বললেন অজি
.............................................................................................
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কতটা প্রস্তুত বাংলাদেশ?
.............................................................................................
মুশফিককে ছাড়াই খেলতে হবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ
.............................................................................................
বড় জয়ে টি-টোয়েন্টি মিশন শুরু টাইগারদের
.............................................................................................
সিরিজ জিতল টাইগাররা
.............................................................................................
ক্রিকেট দলকে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন
.............................................................................................
ফিফার নতুন নিয়ম, ফুটবল খেলা হবে ৬০ মিনিট
.............................................................................................
শিরোপা উদযাপন করতে গিয়ে ইতালিতে একজনের মৃত্যু
.............................................................................................
ইউরো কাপ: গোল মিস করায় বর্ণবাদের শিকার ৩ ইংলিশ
.............................................................................................
মেসির জন্য একটা ট্রফি চাই...
.............................................................................................
ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা, স্বপ্নের ফাইনাল দেখবে বিশ্ববাসী?
.............................................................................................
যে শাস্তি হতে পারে সাকিবের
.............................................................................................
বৃষ্টিতে খেলা না হলেও জিতবে বাংলাদেশ দৈনিক নতুন বাজার
.............................................................................................
সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ
.............................................................................................
শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মাঠে নামছে রিয়াল মাদ্রিদ।
.............................................................................................
রোনালদোর গন্তব্য কোথায়?
.............................................................................................
তৃতীয় দিন শেষে ৩১২ রানে এগিয়ে বাংলাদেশ
.............................................................................................
এক চমক দিয়ে টাইগারদের চূড়ান্ত টেস্ট দল ঘোষণা
.............................................................................................
টানা দুই ম্যাচ হারল সাকিবের দল কলকাতা
.............................................................................................
ব্যাটিং অনুশীলন ভালোই হলো তামিম-মুশফিকদের
.............................................................................................
আউট হয়ে চেয়ার ভাঙলেন কোহলি, ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
শুরু হচ্ছে সাকিবের নতুন মিশন
.............................................................................................
পর্দা উঠছে ভারতীয় চতুর্দশ আইপিএল আসরের
.............................................................................................
টেস্ট স্ট্যাটাস পেল বাংলার নারীরা
.............................................................................................
ভালুকায় স্মৃতিসৌধে মোমবাতি প্রজ্বলন
.............................................................................................
টেন বল বিলিয়ার্ডে শিরোপা জুবেরির
.............................................................................................
নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ সিরিজ দেখা যাবে যেভাবে
.............................................................................................
ছেলে সন্তানের বাবা হলেন সাকিব
.............................................................................................
কাবাডিতে আসছেন অপু!
.............................................................................................
সাত জমিদারের নাতি আমি, জীবনে ব্যাংক ঋণ নেইনি’
.............................................................................................
শচীন-যুবরাজদের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ
.............................................................................................
জয় ধরে রাখার মিশনে ম্যানসিটি, বার্সার প্রতিপক্ষ সেভিয়া
.............................................................................................
নতুন বাজার স্পোর্টস জিপিএল
.............................................................................................
করোনায় মাকে হারালেন রোনালদিনহো
.............................................................................................
টেস্ট বাদ দিয়ে আইপিএলে সাকিব, যা বললেন আকরাম খান
.............................................................................................
সার কারখানায় তিতাস গ্যাসের পাইপলাইনে ফুটো, অগ্নিকাণ্ড
.............................................................................................
নিউজিল্যান্ড সফরে ডাক পেলেন যারা
.............................................................................................
ফিফা র‍্যাংকিংয়ে অপরিবর্তিত বাংলাদেশ
.............................................................................................
পরিচালক-সিনিয়র ক্রিকেটারদের বাসায় ডাকলেন পাপন
.............................................................................................
হারলে প্রশ্ন করেন, জিতলে তো করেন না
.............................................................................................
নন্দীগ্রামে টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
টেস্টের প্রথম দিন বেশ ভালোই কাটাল উইন্ডিজ
.............................................................................................
জয়-পরাজয় নিয়ে ভাবনা নেই ক্যারিবিয়ানদের
.............................................................................................
শেষ সেশনে রোমাঞ্চকর লড়াই
.............................................................................................
শততম টেস্টে ইতিহাস গড়লেন রুট
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু। র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, ফোন ০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, রেজিস্ট্রেশন নং 134 / নিবন্ধন নং 69 মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop