| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
প্রয়োজন হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন করা হবে : আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপপ্রয়োগ রোধে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রয়োজন হলে আইনটি সংশোধন করা হবে।

সচিবালয়ের গণমাধ্যম কেন্দ্রে আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) সংলাপে আইনমন্ত্রী এ কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি তপন বিশ্বাস এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এ আইনে (ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন) অনেক অহেতুক মামলা করা হয়েছে। এ প্রেক্ষাপটে ২০১৯ সালে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। এ আইনে মামলা হলে সঙ্গে সঙ্গে কাওকে যেন গ্রেপ্তার করা না হয়, আমরা সে ব্যবস্থা নিয়েছি। এর ফলে এখন যত্রতত্র গ্রেপ্তার হচ্ছে না।’

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এটা সাংবাদিকতায় বাধা সৃষ্টির জন্য করা হয়নি। টেকনোলজির উন্নয়ন হয়েছে। এর মাধ্যমে যে অসুবিধা সৃষ্টি হচ্ছে, সেগুলোরও মোকাবিলা করতে হবে। সেজন্য আমরা এ আইন করেছি।’

গুজব বন্ধের জন্য সারা বিশ্ব ব্যবস্থা নিচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদেরও ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। সেজন্য এ আইন করা হয়েছে। আমরা সেবা করতে এসেছি, ত্রুটি হলে অবশ্যই শুনব।’

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আরও বলেন, ‘আমি একটা জিনিস ব্রডলি বলে দিতে চাই, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন সংবিধান উপহার দেন, তখন দুটি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করেছেন—একটি হলো বাক-স্বাধীনতা, আরেকটা হলো সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা, এটি আমাদের সংবিধানে মৌলিক অধিকার হিসেবে গ্যারান্টিড। সেই জিনিসটা পাল্টে দেওয়া হবে, তা হয় না। আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি, বাংলাদেশে এমন কোনো আইন হবে না, যেটা স্বাধীন সাংবাদিকতায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়।’

এ সময় বিএসআরএফের সহ-সভাপতি মোতাহার হোসেন, যুগ্ম-সম্পাদক মেহেদী আজাদ মাসুম, অর্থ সম্পাদক মো. শফিউল্লাহ সুমন, কার্যনির্বাহী সদস্য ইসমাইল হোসাইন রাসেল, শাহজাহান মোল্লা, হাসিফ  মাহমুদ শাহ, শাহাদাত হোসেন রাকিব, মো. বেলাল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রয়োজন হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন করা হবে : আইনমন্ত্রী
                                  

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপপ্রয়োগ রোধে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রয়োজন হলে আইনটি সংশোধন করা হবে।

সচিবালয়ের গণমাধ্যম কেন্দ্রে আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) সংলাপে আইনমন্ত্রী এ কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সভাপতি তপন বিশ্বাস এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এ আইনে (ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন) অনেক অহেতুক মামলা করা হয়েছে। এ প্রেক্ষাপটে ২০১৯ সালে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। এ আইনে মামলা হলে সঙ্গে সঙ্গে কাওকে যেন গ্রেপ্তার করা না হয়, আমরা সে ব্যবস্থা নিয়েছি। এর ফলে এখন যত্রতত্র গ্রেপ্তার হচ্ছে না।’

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এটা সাংবাদিকতায় বাধা সৃষ্টির জন্য করা হয়নি। টেকনোলজির উন্নয়ন হয়েছে। এর মাধ্যমে যে অসুবিধা সৃষ্টি হচ্ছে, সেগুলোরও মোকাবিলা করতে হবে। সেজন্য আমরা এ আইন করেছি।’

গুজব বন্ধের জন্য সারা বিশ্ব ব্যবস্থা নিচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদেরও ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। সেজন্য এ আইন করা হয়েছে। আমরা সেবা করতে এসেছি, ত্রুটি হলে অবশ্যই শুনব।’

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক আরও বলেন, ‘আমি একটা জিনিস ব্রডলি বলে দিতে চাই, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন সংবিধান উপহার দেন, তখন দুটি বিষয় অন্তর্ভুক্ত করেছেন—একটি হলো বাক-স্বাধীনতা, আরেকটা হলো সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা, এটি আমাদের সংবিধানে মৌলিক অধিকার হিসেবে গ্যারান্টিড। সেই জিনিসটা পাল্টে দেওয়া হবে, তা হয় না। আমি দৃঢ়ভাবে বলতে পারি, বাংলাদেশে এমন কোনো আইন হবে না, যেটা স্বাধীন সাংবাদিকতায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়।’

এ সময় বিএসআরএফের সহ-সভাপতি মোতাহার হোসেন, যুগ্ম-সম্পাদক মেহেদী আজাদ মাসুম, অর্থ সম্পাদক মো. শফিউল্লাহ সুমন, কার্যনির্বাহী সদস্য ইসমাইল হোসাইন রাসেল, শাহজাহান মোল্লা, হাসিফ  মাহমুদ শাহ, শাহাদাত হোসেন রাকিব, মো. বেলাল হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মুহিত: দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় এক রুপান্তরের নায়ক
                                  

আবুল মাল আব্দুল মুহিত। দেশের ৫০ বছরের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় যিনি ছিলেন এক রুপান্তরের নায়ক। তিন দফায় এক যুগ পালন করেছেন অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব।

যিনি সব সময় বিশ্বাস করতেন আমরা পারবো-বাংলাদেশ পারবে। সততা সরলতা আর অকপটে সত্য বলার গুণের কারনে তাঁকে মনে রাখবে মানুষ।

কর্মবহুল আর বণার্ঢ্য একটা জীবন অতিবাহিত করলেই হাসিমুখে চলে যেতে হয়, পরপারে চলে যাবার পরও যেনো তার চোখে মুখে সেই ছবিটা ছিলো স্পষ্ট।

বহুবার দেশের অর্থনীতিকে খাদের কিনারে থেকে যিনি টেনে তুলেছেন, সেই আবুল মাল আবদুল মুহিত চলে গেলেন না ফেরার দেশে। তার কখনও দেখা যাবে না তার শিশুর মতো হাসি।

সিলেটের এই সূর্যসন্তানের জন্ম ১৯৩৪ সালের ২৫ জানুয়ারি। মা-বাবার তৃতীয় সন্তান, তাঁর ডাক নাম ছিলো শিশু। সে কারণেই বুঝি তাঁর জীবন জুড়ে ছিলো শিশুর সারল্য।

বিশ্বের শীর্ষ দুই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হার্ভার্ড ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া আবুল মুহিত সব সময়ই নিজের সততা ও দায়িত্ববোধকে রেখেছেন সবার উপরে। সীমাহীন আনুগত্য ছিল দেশের প্রতি।

মেধাবী ছাত্র আবদুল মুহিত ১৯৫১ সালে সিলেট এমসি কলেজ থেকে তৎকালীন সারা প্রদেশে আইএ (এখনকার এইচএসসি) পরীক্ষায় প্রথম স্থান লাভ করেন।

১৯৫৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে বিএ (অনার্স) পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণিতে প্রথম এবং ১৯৫৫ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সঙ্গে এমএ পাস করেন।

পাকিস্তানের ওয়াশিংটন দূতাবাসের তিনি প্রথম কূটনীতিবিদ, যিনি স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় ১৯৭১-এর জুন মাসে পাকিস্তানের পক্ষ ত্যাগ করে বাংলাদেশের প্রতি আনুগত্য প্রদর্শন করেন।

বিশ্বব্যাংক ও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক, ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক ও জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থায় তিনি একজন সুপরিচিত ব্যক্তিত্ব।

২০০৮ সালের নিবার্চনে বিজয়ী হয়ে দায়িত্ব পান অর্থমন্ত্রীর। সে বছর তাঁর দেয়া ৯৫ হাজার কোটি টাকার বাজেট ১০ বছরে তার তার ধরেই গড়ে দাঁড়ায় চার লাখ ৬৪ হাজার কোটিতে।

১০ বছর অর্থমন্ত্রী থাকাকালে, তার হাত ধরেই দেশ পেয়েছে পদ্মা সেতু, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট, কর্ণফুলী টানেল, মেট্রোরেল প্রকল্প, রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের মতো বড় প্রকল্পগুলো।

অর্থনীতির মতো কাটখোট্টা বিষয় সামলানো মুহিত ছিলেন আপদমস্তক একজন সংস্কৃতিমনা আর গান পাগল মানুষ। তাঁর ব্যক্তিগত সংগ্রহে ছিলো ৪০ হাজারেরও বেশি বই।

 

 

নিজের আত্মজীবনী লেখার কাজও প্রায় শেষ করে এনেছিলেন তিনি। কিন্তু সেটির প্রকাশ দেখার আগেই চলে গেলেন সৎ ও কাজ পাগল আবুল মাল আব্দুল মুহিত।
নতুন নির্বাচন কমিশনারদের শপথ গ্রহণ
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদক,

শপথ গ্রহণ করলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালসহ অন্য চার কমিশনার। প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী তাদের শপথ পাঠ করান। 

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে এই শপথ অনুষ্ঠিত হয়। আগামীকাল (সোমবার) থেকে তারা দায়িত্ব শুরু করবেন। 

বাকি চার কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সাবেক জেলা ও দায়রা জজ বেগম রাশিদা সুলতানা, অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহসান হাবীব খান, সাবেক সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর ও সাবেক সিনিয়র সচিব আনিছুর রহমান। সার্চ কমিটির চূড়ান্ত করা ১০টি নাম থেকে, এই পাঁচজনকে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি। শনিবার এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপনও জারি করা হয়।

প্রথম বারের মতো আইন অনুযায়ী গঠিত হয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। সংবিধানের ১১৮ (১) অনুচ্ছেদে দেওয়া ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি এ নিয়োগ দিয়েছেন বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ আইন, ২০২২’ অনুসারে নির্বাচন কমিশন গঠনে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের সার্চ কমিটি গঠন করে গত ৫ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি হয়। আইন অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির কাছে সুপারিশ পেশ করতে কমিটিকে ১৫ কার্যদিবস সময় দেওয়া হয়। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সার্চ কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা দেয়।

নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে সার্চ কমিটি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল এবং ব্যক্তি পর্যায় থেকে নাম নেওয়া ছাড়াও বিশিষ্টজনের সঙ্গে বৈঠক করে। গত মঙ্গলবারের (২২ ফেব্রুয়ারি) সভায় ১০ জনের নাম চূড়ান্ত করে কমিটি।

এ পর্যন্ত নিয়োগ পাওয়া ১৩ জন সিইসির মধ্যে সাতজনই বিচারপতি। বাকি ছয়জন সাবেক আমলা।

বুস্টার ডোজ নিতে হাসপাতালে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া
                                  

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া আজ কোভিড টিকার তৃতীয় বা বুস্টার ডোজ নেবেন। বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে রাজধানীর মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে যাবেন তিনি।

গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান। তিনি বলেন, আজ করোনার টিকার তৃতীয় ডোজ নেবেন বিএনপি চেয়ারপারসন। এসময় হাসপাতালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর উপস্থিত থাকবেন।

গত ১৮ আগস্ট টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। ১৯ জুলাই নিয়েছিলেন প্রথম ডোজ। খালেদা জিয়া করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন চলতি বছরের ১১ এপ্রিল।

 

শারীরিক নানা জটিলতায় ভুগছেন ৭৬ বছর বয়সি খালেদা জিয়া। রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে দীর্ঘদিন চিকিৎসা নিয়ে তিনি বর্তমানে গুলশানের ভাড়া বাসায় থাকছেন।

 

বিমানের স্মারক ডাকটিকেট অবমুক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

 

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে প্রকাশিত স্মারক ডাকটিকেট অবমুক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে খাম উন্মোচন এবং শুভেচ্ছা স্মারক গ্রহণ করেন তিনি।

এ সময় বিমান প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, ডাক ও টেলি যোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বিমান সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাজ্জাদুল হাসান, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব মো. খলিলুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স্মারক ডাকটিকেটের মূল্য ১০ টাকা।

 

শ্রদ্ধায় ফুলেল হয়ে উঠেছে শহীদ বেদি
                                  

মহান ভাষা শহীদদের স্মরণে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দলমত নির্বিশেষে মানুষজনের শ্রদ্ধায় ফুলে ফুলে ভরে উঠছে শহীদ বেদি। মায়ের ভাষা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ৭০ বছর আগে অকাতরে প্রাণ বিলিয়ে দিয়েছিলেন রফিক, সালাম, বরকত, জব্বাররা। যাদের প্রাণের বিনিময়ে বাংলায় কথা বলার অধিকার নিশ্চিত হয়েছে বাঙালির, তাদের স্মরণ করছে পুরো দেশ।

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’ গাইতে গাইতে শহীদ মিনারে এখনও ফুল হাতে অপেক্ষায় সর্বস্তরের বহু মানুষ। অনেকের পরনেই সাদা-কালো পোশাক।

যথারীতি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ফুল দেওয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে শ্রদ্ধা নিবেদন। 

করোনার কারণে এবারও রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল সালাউদ্দিন ইসলাম ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমেদ চৌধুরী শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

এরপর জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর পক্ষে ফুল দেন সার্জেন্ট অ্যাট আর্মস।

এরপর আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের নেতারা, সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি ও বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকেরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

রাষ্ট্রীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে শহীদ মিনার উন্মুক্ত হলে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ঢল নামে সাধারণ মানুষের।

এদিকে ‘শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ উদযাপনের লক্ষ্যে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রয়েছে। 

দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সকল স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, বিদেশে অবস্থিত বাংলাদেশ মিশনগুলোও নানা কর্মসূচি পালন করছে।

বাংলা রায় লেখার জন্য আলাদা শাখা চালু: প্রধান বিচারপতি
                                  

সর্বোচ্চ আদালতে বাংলায় রায় লেখা পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়নে আলাদা শাখা চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী। 

সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ও পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে তিনি এ কথা জানান।

তিনি জানান, সর্বোচ্চ আদালতে বাংলায় রায় লেখা পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়নে আলাদা শাখা চালু হয়েছে।

মহান ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে তিনি বলেন, তারা যে চেতনা ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সেদিন ভাষার জন্য শহীদ হয়েছিলেন, আমাদেরও সেই চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশ গঠনে ভূমিকা রাখতে হবে।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ও পুষ্পস্তবক অর্পণের সময় আরো ছিলেন আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. নুরুজ্জামান, বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি এম, ইনায়েতুর রহিমসহ আপিল বিভাগের বিচারপতিগণ, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিগণ ও সুপ্রিমকোর্ট প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ।

উল্লেখ্য, দেশের নিম্ন আদালতে বেশির ভাগ রায় ও আদেশ বাংলায় হলেও সর্বোচ্চ আদালতে বাংলায় রায় ও আদেশ দেয়ার হার কম। তবে এখন সর্বোচ্চ আদালতে বাংলায় রায় ও আদেশ ঘোষণার প্রবণতা বাড়ছে।

সাধারণ মানুষ ও বিচার প্রার্থীরা যাতে রায় বুঝতে পারেন, সে জন্য ইংরেজিতে দেয়া রায় বাংলায় অনুবাদ করতে সুপ্রিমকোর্টে যুক্ত হয়েছে নতুন সফটওয়্যার ‘আমার ভাষা’। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ওই সফটওয়্যারটি দিয়ে রায়গুলো বাংলায় অনুবাদ করা যাবে।

প্রচলিত ও পরিচিত শব্দ ব্যবহারের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর
                                  

বহুল প্রচলিত, পরিচিত এবং আন্তর্জাতিকভাবে প্রচলিত শব্দগুলো গ্রহণ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, যে শব্দগুলো বহুল প্রচলিত এবং আন্তর্জাতিকভাবে প্রচলিত সেগুলো যে ভাষাতেই আসুক আমাদের সেটাই গ্রহণ করতে হবে।

সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে চার দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করে তিনি এ কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যেমন ‘কনটেন্ট’-এর বাংলা আধেয়। সবাই কনটেন্টই বেশি ব্যবহার করে এবং চেনে। আধেয় জানে না। তাই প্রচলিত, পরিচিত শব্দগুলো ব্যবহার করা উচিত। ওটারও পরিভাষা ব্যবহার করতে গিয়ে কোনো কিছুই বুঝব না, এটা যেন না হয়।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মাতৃভাষা চর্চা এবং গবেষণার পাশাপাশি কিভাবে ভাষাকে মানুষের ব্যবহারের জন্য সহজলভ্য বা সহজবোধ্য করা যায় সে বিষয়টাও দেখতে হবে। এই বিষয়টা নিয়েও গবেষণা একান্তভাবে প্রয়োজন।

শেখ হাসিনা বলেন, বিজ্ঞানের এই যুগে বিজ্ঞান যেভাবে বিস্তার লাভ করছে, সেখানে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের ভাষাও রয়েছে, ইংরেজি, ফ্রেঞ্চ বা অন্য ভাষাও রয়েছে, যা এর ভেতর যুক্ত হয়ে গেছে। আর আমাদের বাংলা ভাষায় কিন্তু আট হাজার ভাষার শব্দ মিলে মিশে গেছে। কাজেই এ ব্যাপারে খুব বেশি রক্ষণশীল না হয়ে প্রচলিত শব্দগুলো, প্রচলিত বিজ্ঞানের টার্মসগুলো ব্যবহার করেই বাংলা ভাষায় সহজভাবে বিজ্ঞান শিক্ষার ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

শেখ হাসিনা বলেন, ভাষা, শিক্ষা, বিজ্ঞানসহ সব ক্ষেত্রে গবেষণা প্রয়োজন।  ১৯৯৬ সালের আগে গবেষণার জন্য আলাদা কোনো বরাদ্দ ছিলো না। আওয়ামী লীগ সরকার গবেষণায় বরাদ্দ দেয়া শুরু করেছে।শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে বক্তৃতা করেন ইউনেস্কোর বাংলাদেশ প্রতিনিধি এবং হেড অব অফিস বিয়েট্রিস কালদুন।

নয়া দিল্লিতে হাসপাতালে ভর্তি ওবায়দুল কাদের
                                  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ভারতের নয়া দিল্লির মেদান্তা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

 

 

 

সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য দিল্লি যান। এদিন দুপুরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে নয়া দিল্লি পৌঁছেন তিনি। তার সঙ্গে রয়েছেন সহধর্মিণী ইসরাতুন্নেছা কাদের।

ওবায়দুল কাদের দিল্লির উপকণ্ঠে গুরগাঁও-তে অত্যাধুনিক সুযোগ সুবিধাসম্পন্ন সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। মেদান্তার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অন্তত আগামী দু’সপ্তাহ ওবায়দুল কাদেরকে ভর্তি রেখে তার নানা শারীরিক পরীক্ষা নিরীক্ষা চালানো হবে।

 

 

 

এর আগে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা ছাড়েন ওবায়দুল কাদের। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ওবায়দুল কাদেরকে বিদায় জানান আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া ও উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান।

অমর একুশেতে বিজাতীয় সংস্কৃতি রুখে দেয়ার ডাক
                                  

বাঙালির প্রাণের দিবস একুশে ফেব্রুয়ারি। মুক্তিযুদ্ধে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে ভাষা আন্দোলন। জনগণের অধিকার রক্ষার আন্দোলনে বাতিঘর হয়ে পথ দেখিয়েছে ২১ ফেব্রুয়ারি। দেশের মানুষের কাছে দিনটি আত্মত্যাগ ও জাগরণের। শোক শ্রদ্ধা ও গর্বেরও অমর একুশ।

তবে বায়ান্নোর একুশ এসেছিলো রক্তের বিনিময়। সালাম, রফিক, জব্বার, বরকত, শফিকসহ নাম না জানা আরো অনেকের রক্তের বিনিময়ে কেনা হয় আ মরি বাংলা ভাষা। সেই শহীদের প্রতি শ্রদ্ধায় অবনত হয়ে জাতি পালন করছে মহান একুশে ফেব্রুয়ারি। 

সারাদেশে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে একুশে ফেব্রুয়ারি পালন করা হচ্ছে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য হলো, ‘প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বহুভাষায় জ্ঞানার্জন: সংকট এবং সম্ভাবনা’।

টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া- দেশের প্রতি কোণে কালো পোশাক-কালো ব্যাচ পরে, ফুল হাতে শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়েছে সব স্তরের মানুষ। 

হাজার হাজার স্মৃতির মিনারে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এসে বাংলা ভাষাকে বাঁচাতে বিজাতীয় সংস্কৃতির আগ্রাসন বন্ধের দাবি জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ। বলেছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়তে হলে অপশক্তি ও অপসংস্কৃতি রুখতেই হবে।

একুশের প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের রাষ্ট্রীয় কার্যক্রম শুরু হয়।

আর সোমবার ভোর থেকে চট্টগ্রাম মিউনিসিপ্যাল মডেল হাই স্কুল মাঠের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ মুখরিত হয়ে নানা বয়েসী মানুষ, শিক্ষা, সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের সমাগমে। প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান চট্টগ্রামের সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী।

চট্টগ্রাম মুসলিম হলের সামনে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারটি পুনঃনির্মাণের কাজ চলায় এবার বিকল্প হিসেবে মিউনিসিপ্যাল মডেল হাই স্কুলের মাঠের শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানিয়েছে মানুষ। 

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেশিয়াম চত্বরে চলছে একুশের বইমেলা। একুশে ফেব্রুয়ারির সকাল থেকেই সেখানে বইপ্রেমীদের ভিড় দেখা গেছে।

শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে খুলনায় বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদের স্মরণ করা হয়েছে। মহানগরীর শহীদ হাদিস পার্কের শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করেছেন খুলনাবাসী।

প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মুক্তিযোদ্ধা খুলনা মহানগর ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এবং খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসে রাজশাহী গুরুত্বপূর্ণ এক নগরী। ১৯৪৮ সালে মাতৃভাষার অধিকার আদায়ে আন্দোলনে প্রথম রক্ত ঝরেছিল রাজশাহীতে। ১৯৫২ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি তমদ্দুন মজলিশের উদ্যোগে রাজশাহী নগরীর মোহন পার্কে আয়োজিত হয়েছিল ভাষা আন্দোলনের দাবিতে প্রথম জনসভা।

ভাষা আন্দোলনের মিছিলে ঢাকায় পুলিশের গুলিতে শহীদ ছাত্রদের স্মৃতিতে প্রথম শহীদ মিনার নির্মিত হয়েছিল রাজশাহীতেই। 

২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় রাজশাহী কলেজ মুসলিম হোস্টেলের এফ ব্লকের সামনে ইট-কাদা দিয়ে নির্মিত এই স্মৃতিস্তম্ভটিই ছিল দেশে ভাষা আন্দোলনের প্রথম শহীদ মিনার।

সেই রাজশাহীতে ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধায় পালিত হচ্ছে অমর একুশে। শহীদদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে গিয়ে সর্বক্ষেত্রে বাংলা ভাষা প্রচলনের দাবি জানিয়েছেন সবাই।

সেই সঙ্গে বিদেশি সংস্কৃতির আগ্রাসন থেকে দেশ রক্ষার ডাকও এসেছে সেখানকার সাধারণ মানুষের থেকে। বলেছেন, যা বাংলার নয়, তা লালন ও চর্চাও নয়। 

একুশের প্রথম প্রহরে রাজশাহীর বিভিন্ন শহীদ মিনারে সব শ্রেণীর মানুষের ঢল নামে। ভোর পেরিয়ে সকাল হতেই নানান রঙের ফুলে ভরে ওঠে শহীদ বেদি। 

অমর একুশে স্মরণে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন প্রভাতফেরি বের করে। এতে অংশ নেয় মহানগরীর সর্বস্তরের জনগণ।

বিনম্র শ্রদ্ধা আর গভীর ভালোবাসায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বরিশালে পালিত হয়েছে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জা তিক মাতৃভাষা দিবস। সোমবার প্রথম প্রহরে বরিশাল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ শুরু হয়। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায় নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ।

প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। এরপর প্রশাসনের কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতাসহ সমাজের সব স্তরের মানুষ স্মৃতির মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ সময় অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে প্রতিরোধের আহবানও জানান তারা। 

ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানুষের ঢল নামে। সোমবার মধ্যরাত ১২ টা ১ মিনিটে নগরীর প্রাণকেন্দ্র চৌহাট্টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভালোবাসা ও মমতায় শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সমবেত হয় হাজারো মানুষ।

এছাড়া ভোর থেকে দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, সংগঠন,পরিবার ও ব্যক্তিগত ভাবেও শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা নিবেদন করতে দেখা যায়। সকাল থেকে বেলা বাড়ার সাথে সাথে শহীদ মিনার ও আশপাশ এলাকা লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়।

একুশের প্রথম প্রহরে রংপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান বিভাগীয় কমিশনার, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, ডিআইজি রংপুর রেঞ্জ, মেট্রোপলিটন পুলিশ, জেলা প্রশাসনসহ সর্বস্তরের মানুষ।

একুশের প্রথম প্রহরে ময়মনসিংহ মহানগর কেন্দ্রীয় টাউন হলের শহীদ মিনারে প্রথমে ভাষা শহীদদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ। এরপর বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সব পেশার মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

শহীদদের স্মরণে জেলা সব সরকারি ও আধা-সরকারি ভবনসমূহে ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়।সিটি কর্পোরেশন ও জেলা পরিষদ, জেলা ও মহানগর অফিসে জাতীয় অর্ধনমিত রাখা হয়।

এদিকে, সোমবার সকালে মানিকগঞ্জে ভাষা শহীদ রফিকের বাড়ির শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় রফিক পরিবারের সদস্যসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতারাও।এ সময় শহীদ পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রতি বছর এই দিনে নানা অনুষ্ঠান করেন তারা। তবে সরকারিভাবে কোন সাহায্য পান না তারা। 

জলবায়ু পরিবর্তন দেশের জন্য ভয়ংকর সমস্যা: পরিকল্পনামন্ত্রী
                                  

জলবায়ু পরিবর্তন বাংলাদেশের জন্য ভয়ংকর সমস্যা। এ বিষয়ে বিশ্ব নেতারা অবগত। তবে সবচেয়ে গর্বের বিষয়, নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও ঝড় ও দুর্যোগ মোকাবিলা করে আমাদের পূর্বপুরুষ ও মায়েরা এ মাটিতে বসবাস করছেন।

বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) ‘বাংলাদেশ ক্লাইমেট অ্যান্ড ডিজেস্টার রিস্ক অ্যাটলাস’ শীর্ষক প্রকাশনার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এসব কথা বলেন।

 

ওয়েবিনারে মন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনেও আমরা ভালোভাবে টিকে আছি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী নানা ধরনের উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছেন। আমাদের বন্ধুরাষ্ট্রগুলো নানা সহায়তা দিচ্ছে। আমরা উন্নত দেশের মতোই কাজ করছি। উপকূলীয় মানুষ, পিছিয়ে পড়া মানুষ যেন ভালো থাকে এ লক্ষ্যে কাজ করছি।

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে আশ্বস্ত করে এম এ মান্নান আরও বলেন, আপনারা জলবায়ু-সংক্রান্ত প্রকল্প পরিকল্পনা কমিশনে নিয়ে আসেন, আমরা আছি। দেখেশুনে এগুলো পাস করিয়ে দেবো। দেশের মালিক জনগণ, ফলে জনগণের জন্য কাজ করতে হবে।

এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এডিবি বা এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক একটা আবেগের নাম। এশিয়া মানেই বাংলাদেশ, এশিয়া মানেই বাংলাদেশের গ্রাম ও শহর।

ওয়েবিনারে যুক্ত হয়ে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, আমি এরইমধ্যে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টরের সঙ্গে কথা বলেছি। ডেল্টা প্ল্যানকে উন্নয়নের ভিত্তি হিসেবে ধরে বিনিয়োগ করতে বলেছি। কারণ, টেকসই উনয়নের জন্য জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা জরুরি। এজন্য শতবর্ষের এ পরিকল্পনা তৈরি ও বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।অনুষ্ঠানে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিংও বক্তব্য রাখেন। ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিকল্পনা কমিশনের যুগ্ম প্রধান ড. নুরুন নাহার।

শপথ নিলেন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী
                                  

এম এ মান্নান 

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) মেয়র হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন ডা. সেলিনা হায়াত আইভী। টানা তৃতীয়বারের মতো নাসিক মেয়রের দায়িত্ব নিলেন তিনি।

বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মেয়র আইভীকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মেয়রের শপথ নেওয়া শেষে নবনির্বাচিত কাউন্সিলদের শপথ শপথবাক্য পাঠ করান স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

এর আগে শপথ নেওয়ার জন্য নিবনির্বাচিত মেয়র ও ৩৬ কাউন্সিলর ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে উপস্থিত হন।

গত ১৬ জানুয়ারি নাসিক নির্বাচনে জয় পান সেলিনা হায়াত আইভী। ১৯২টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণের পর আইভী পেয়েছেন এক লাখ ৬১ হাজার ২৭৩টি ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হাতি মার্কার স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৭১টি ভোট। তাদের ভোটের পার্থক্য ৬৯ হাজার ১০২।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে বাংলাদেশের কোনো সিটি করপোরেশনের প্রথম নারী মেয়র নির্বাচিত হন আইভী। সে সময় নির্দলীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ-সমর্থিত প্রার্থী ও বর্তমান সাংসদ শামীম ওসমানকে এক লাখ দুই হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন আইভী।

এছাড়া ২০১৬ সালে ৮০ হাজার ভোটের বিএনপির সাখাওয়াত হোসেন খানকে পরাজিত করেন তিনি। সে সময় সেলিনা হায়াৎ আইভী পেয়েছেন এক লাখ ৭৫ হাজার ৬১১ ভোট। আর সাখাওয়াত হোসেন খান পান ৯৬ হাজার ৪৪ ভোট।

অনুমতি ছাড়া কাটা যাবে না নিজের গাছও
                                  

এবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতীত ব্যক্তি মালিকানাধীন কোনও গাছও কাটা যাবে না- এমন বিধান রেখে `বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশন আইন, ২০২১`-এর খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। 

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে এই অনুমোদন দেওয়া হয়। গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মন্ত্রীরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠকে যোগ দেন।

মন্ত্রিসভার এই বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান। 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, যারা বাগান করবেন বা স্থায়ী যে গাছ লাগাবেন, সেগুলো তারা তাদের ইচ্ছেমতো কাটতে পারবেন না। সৌদি আরব, ভারতসহ পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এরকম নিয়ম আছে। 

খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম আরও বলেন, এ আইনের মাধ্যমে সব বনাঞ্চলকে সুরক্ষা দেওয়া হয়েছে। সামাজিক বনায়নে থাকা গাছও এর আওতায় আসবে। এই আইনে স্থায়ী গাছের কথা বলা হয়েছে। লাউগাছ কাটতে কোনো সমস্যা নাই।

তিনি বলেন, `আমি যতটুকু জানি, আগেও এরকম একটি বিধান ছিল। এটিকে একটু সহজ করে অনুমতি দিতে বলা হয়েছে। কারণ গাছ ভেঙে যদি সাত দিন পরে থাকে, সময় লাগে অনুমতি নিতে, তাহলে তো মুশকিল।’

তাই এটিকে একটু সহজ করতে বলা হয়েছে, এটি অনলাইনে করা যায় কি না তাও ভেবে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। 

`বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশন আইন, ২০২১`-এর খসড়া প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও বলেন, `একটি করপোরেশন হবে। করপোরেশনের একজন চেয়ারম্যান ও পরিচালক থাকবেন। তারা এটাকে প্রশাসনিকভাবে দেখবেন। বোর্ড থাকবে নীতিগত বিষয়গুলো তদারকি করতে।` 

 

লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে মোদির কাছে প্রধানমন্ত্রীর শোকপত্র
                                  

ভারতরত্ন লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে এক শোকপত্র পাঠিয়েছেন।

 শোকপত্রে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের জনগণ শোকের এই মুহূর্তে ভারতের জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে শোক প্রকাশ করছে।

তিনি বলেন, প্রয়াত লতা মঙ্গেশকর একজন সাংস্কৃতিক আইকন ও একজন কিংবদন্তি এবং সর্বকালের অন্যতম মেধাবী শিল্পী ছিলেন। তার অসাধারণ সুরেলা কণ্ঠে বাংলাসহ বিভিন্ন ভাষায় অসংখ্য গান গেয়েছেন এবং আমাদের অঞ্চল ও এর বাইরেও লাখ লাখ মানুষের হৃদয় স্পর্শ করেছেন। তার বাংলা গান এখন বাংলা সংস্কৃতির ভাণ্ডারের অবিচ্ছেদ্য অংশ।

 

 

 

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে লতা মঙ্গেশকরের ভূমিকা গভীর শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, লতাজি তার ভারতীয় সহশিল্পীদের সঙ্গে ভারতের জনগণের মধ্যে বাংলাদেশের বিষয়ে প্রচারে ব্যাপক অবদান রেখেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী ভারতরত্ন লতা মঙ্গেশকরের বিদেহী আত্মার চির শান্তির জন্য প্রার্থনা করেন।

 শেখ হাসিনা শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের এবং সারা বিশ্বে শিল্পীর লাখ লাখ ভক্তদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করে তাদের এই অপূরণীয় ক্ষতি সহ্য করার শক্তি লাভের জন্য প্রার্থনা করেন।

বিদেশ পাঠানোর নামে প্রতারণা ঠেকাতে যে নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

বিদেশ পাঠানোর নামে প্রতারণা ঠেকাতে ব্যাপক প্রচারণা চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) অনলাইনে মন্ত্রিসভার সঙ্গে বৈঠকে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। বৈঠকের পর সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এতথ্য জানিয়েছেন।

 

 

 

তিনি বলেন, আজকের বৈঠকে বিদেশে শ্রমিক নিয়োগ নিয়ে কথা হয়েছে। বিশেষ করে যারা বিদেশে যাবেন তারা যেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় বা সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ রাখে এবং না জেনে কাউকে অতিরিক্ত কোনো টাকা না দেয়। প্রয়োজনে তারা প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মাধ্যমে লোন নিয়ে যেতে পারে। ব্যাংক নিয়োগ সম্বন্ধে নিশ্চিত না হয়ে কোনো টাকা দেবে না। এতে তার নিরাপত্তা বাড়বে।

তিনি বলেন, জমি বিক্রি করে নয়, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে বিদেশে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া ভিসার জন্য অতিরিক্ত অর্থ না দিতেও পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

 

 

 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ বিষযে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন যাতে বিষয়গুলো ব্যাপক প্রচারণায় আনা হয়। পাশাপাশি আমাদের দেশেও কিন্তু ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল করা হচ্ছে। এগুলোর জন্য কর্মী পাওয়া যাচ্ছে না। এই অঞ্চলগুলোতে লাখ লাখ শ্রমিক লাগবে। কোথায় কী পরিমাণ কী কাজে শ্রমিক লাগবে তা জেনে প্রশিক্ষণ নিয়ে দেশেই আয় করার সুযোগ তৈরি হচ্ছে।

শিশুদের শ্রম থেকে সরিয়ে এনে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবেে, স্পিকার
                                  

 

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, শিশুদের শ্রম থেকে সরিয়ে এনে শিক্ষার মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে হবে। দেশকে এগিয়ে নেওয়ার কাণ্ডারি হচ্ছে শিশু-কিশোর। শিশুদের প্রতিভার পরিপূর্ণ বিকাশ ঘটিয়ে তাদের দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

বুধবার (২২ ডিসেম্বর) রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আয়োজিত ‘আরটিভি এসএমসি মনিমিক্স প্রেরণা পদক ২০২১’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে স্পিকার এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সমাজসেবা ক্যাটাগরিতে সরেরহাট কল্যাণী শিশু সদন, রাজশাহী; অদম্য মেধাবী ক্যাটাগরিতে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শাহিন আলম, বিজ্ঞান চর্চায় বাংলাদেশ সায়েন্স সোসাইটি, অদম্য সাহসী তরুণী ক্যাটাগরিতে প্রিয়াংকা ভদ্র, ক্রীড়ায় তাহসিন তাজওয়ার জিয়া এবং শিশু কিশোর পত্রিকা ক্যাটাগরিতে মাসিক টইটুম্বুর-কে পদক প্রদান করা হয়।

স্পিকার বলেন, ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম শিশুনীতি প্রণয়ন করেন। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার শিশুশ্রম নিরসন নীতি-২০১০, শিশু আইন-২০১৩, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার ও সুরক্ষা আইন-২০১৩ এবং শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র আইন-২০২১ প্রণয়ন করেছে। সরকারের পাশাপাশি সামাজিকভাবে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। অনেক বিত্তশালী ব্যক্তি ও সংস্থা আজ শিশুদের উন্নয়নে কাজ করছেন।

ড. শিরীন শারমিন বলেন, বর্তমান সরকার শিশুদের যথাযথ পরিচর্যা ও তাদের প্রতিভার সুষ্ঠু বিকাশে বহুমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। মাতৃমৃত্যু ও শিশুমৃত্যুহার এখন প্রায় শূন্যের কোঠায়। শিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পরিবেশ, পুষ্টি- সব বিষয়গুলো নিশ্চিত করেছে সরকার। শিশুদের দক্ষ মানবসম্পদ ও পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে বাস্তবমুখী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে চলেছে সরকার।

আরটিভির চেয়ারম্যান মোরশেদ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন।

 

 


   Page 1 of 93
     জাতীয়
প্রয়োজন হলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন করা হবে : আইনমন্ত্রী
.............................................................................................
মুহিত: দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রায় এক রুপান্তরের নায়ক
.............................................................................................
নতুন নির্বাচন কমিশনারদের শপথ গ্রহণ
.............................................................................................
বুস্টার ডোজ নিতে হাসপাতালে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া
.............................................................................................
বিমানের স্মারক ডাকটিকেট অবমুক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
শ্রদ্ধায় ফুলেল হয়ে উঠেছে শহীদ বেদি
.............................................................................................
বাংলা রায় লেখার জন্য আলাদা শাখা চালু: প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
প্রচলিত ও পরিচিত শব্দ ব্যবহারের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
নয়া দিল্লিতে হাসপাতালে ভর্তি ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
অমর একুশেতে বিজাতীয় সংস্কৃতি রুখে দেয়ার ডাক
.............................................................................................
জলবায়ু পরিবর্তন দেশের জন্য ভয়ংকর সমস্যা: পরিকল্পনামন্ত্রী
.............................................................................................
শপথ নিলেন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী
.............................................................................................
অনুমতি ছাড়া কাটা যাবে না নিজের গাছও
.............................................................................................
লতা মঙ্গেশকরের মৃত্যুতে মোদির কাছে প্রধানমন্ত্রীর শোকপত্র
.............................................................................................
বিদেশ পাঠানোর নামে প্রতারণা ঠেকাতে যে নির্দেশ দিলেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
শিশুদের শ্রম থেকে সরিয়ে এনে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবেে, স্পিকার
.............................................................................................
করোনা টিকার বুস্টার ডোজ নিলেন কে এম খালিদ
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবনতি হলে বিএনপিই দায়ী থাকবে , হাসান মাহমুদ
.............................................................................................
ঢাকা প্রেসক্লাবের দ্বি বার্ষিক নির্বাচনে বিজয়ীদের চূড়ান্ত তালিকা
.............................................................................................
ওমিক্রন মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত আছি’স্বাস্থ্য অধিদপ্তর
.............................................................................................
শান্তিপূর্ণ বিশ্ব গড়তে সম্পদ ব্যবহার করুন : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বিজয়ের মাস শুরু আজ থেকে
.............................................................................................
বীর মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইয়ে ১০ শতাংশ কোটা বাতিল
.............................................................................................
হাফ ভাড়ার সিদ্ধান্তের বিষয়ে যা বললেন সেতুমন্ত্রী
.............................................................................................
এলডিসি উত্তোরণের চূড়ান্ত সুপারিশ বাংলাদেশের জন্য মাইলফলক: অর্থমন্ত্রী
.............................................................................................
ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদ চত্তরে কৃষকদের কাছ থেকে উন্মুক্ত লটারিতে ধান ক্রয়ে লটারি অনুষ্টিত॥
.............................................................................................
মুক্তিযোদ্ধারা যে দলেরই হোক তারা সম্মান পাবেন
.............................................................................................
উন্নয়নের জন্য দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা অপরিহার্য: রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
সিসিইউতে খালেদা জিয়া
.............................................................................................
ফ্রান্সের সঙ্গে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা সম্মতিপত্র সই
.............................................................................................
পদ্মা সেতুর পিচ ঢালাইয়ের কাজ শুরু
.............................................................................................
রাজধানীতে সিটিং ও গেইট লক সার্ভিস থাকবে না: মালিক সমিতি
.............................................................................................
নিজের গান সুরক্ষায় মামলার আবেদন জেমসের
.............................................................................................
লেডি বাইকারকে খুঁজছে পুলিশ, মাদকসহ গ্রেফতার প্রেমিক
.............................................................................................
৭ দিনের সফরে কিশোরগঞ্জ যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
ঢাকায় বাসে অতিরিক্ত ভাড়া, চলছে বাকযুদ্ধ
.............................................................................................
ডেমরায় বাসচাপায় স্কুলশিক্ষকের মৃত্যু
.............................................................................................
বাস-ট্রাক-লঞ্চ মালিকদের সঙ্গে বসছে সরকার
.............................................................................................
অতিরিক্ত ভাড়া নিলে কঠোর ব্যবস্থা: কাদের
.............................................................................................
কারখানার চাল ভেঙে নিচে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু
.............................................................................................
বাস ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে আসছে হরতাল
.............................................................................................
লঞ্চের ভাড়া বেড়েছে ৩৫ শতাংশ, ধর্মঘট প্রত্যাহার
.............................................................................................
লঞ্চ চলাচল বন্ধ ঘোষণা
.............................................................................................
পরিবহন ধর্মঘট ইস্যুতে সভা স্থগিত
.............................................................................................
বসুন্ধরার এমডিকে হত্যাচেষ্টা: সিলেটের ব্যবসায়ী নেতাদের নিন্দা
.............................................................................................
যশোরে ২১ রুটে বাস বন্ধ, ট্রেনে উপচে পড়া ভিড়
.............................................................................................
বাড়ানোর পরও ডিজেলের দাম প্রতিবেশী দেশের চেয়ে কম
.............................................................................................
পরিবহন ধর্মঘট চলবে রোববার পর্যন্ত
.............................................................................................
বিএমইটিতে ‘বঙ্গবন্ধু ওয়াল অব ফেইম’
.............................................................................................
সকাল ৬টা থেকে সারা দেশে পণ্য পরিবহন-বাস বন্ধ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু, সহ সম্পাদক কাওসার আহমেদ র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল । বার্তা বিভাগ ফোন০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, রেজিস্ট্রেশন নং 134 / নিবন্ধন নং 69 মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD