| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
আলেমরা নন, গ্রেপ্তার হচ্ছে দুষ্কৃতকারীরা: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, সরকার কোনো আলেম বা ধর্মীয় নেতাকে গ্রেপ্তার করছে না, গ্রেপ্তার করছে দুষ্কৃতকারীদের।

তথ্যমন্ত্রী আজ মঙ্গলবার রাজধানীর সরকারি বাসভবন থেকে বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা ও এটুআই আয়োজিত ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে স্থানীয় সাংবাদিকদের ভূমিকা’ শীর্ষক অনলাইন কর্মশালা উদ্বোধনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।

বাসসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনলাইনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম ও এটুআই প্রকল্পের পরিচালক আবদুল মান্নান।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘যেসব দুষ্কৃতকারী ২৬ থেকে ২৮ মার্চ সমগ্র দেশে তাণ্ডব চালিয়েছে, নিরীহ মানুষের ঘরবাড়ি-সহায়-সম্পত্তি, যানবাহন জ্বালিয়ে দিয়েছে, ভূমি অফিসে আগুন দিয়ে সাধারণ মানুষের জমির দলিলপত্র পুড়িয়েছে, ফায়ার স্টেশন-রেলস্টেশনে হামলা করে ক্ষতি করেছে এবং যারা মানুষের ওপর আক্রমণ চালিয়েছে, তাদের এবং তাদের নির্দেশদাতাদের গ্রেপ্তার করছে সরকার।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে গতকাল সোমবার হেফাজতে ইসলামের নেতাদের সাক্ষাৎ–সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে কেউ দেখা করতে চাইলে, দেখা করতেই পারে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেখা করেছেন। কিন্তু তাতে দুষ্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে কোনো ব্যত্যয় হবে না।’

আলেমরা নন, গ্রেপ্তার হচ্ছে দুষ্কৃতকারীরা: তথ্যমন্ত্রী
                                  

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, সরকার কোনো আলেম বা ধর্মীয় নেতাকে গ্রেপ্তার করছে না, গ্রেপ্তার করছে দুষ্কৃতকারীদের।

তথ্যমন্ত্রী আজ মঙ্গলবার রাজধানীর সরকারি বাসভবন থেকে বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা ও এটুআই আয়োজিত ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে স্থানীয় সাংবাদিকদের ভূমিকা’ শীর্ষক অনলাইন কর্মশালা উদ্বোধনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।

বাসসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনলাইনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলম ও এটুআই প্রকল্পের পরিচালক আবদুল মান্নান।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘যেসব দুষ্কৃতকারী ২৬ থেকে ২৮ মার্চ সমগ্র দেশে তাণ্ডব চালিয়েছে, নিরীহ মানুষের ঘরবাড়ি-সহায়-সম্পত্তি, যানবাহন জ্বালিয়ে দিয়েছে, ভূমি অফিসে আগুন দিয়ে সাধারণ মানুষের জমির দলিলপত্র পুড়িয়েছে, ফায়ার স্টেশন-রেলস্টেশনে হামলা করে ক্ষতি করেছে এবং যারা মানুষের ওপর আক্রমণ চালিয়েছে, তাদের এবং তাদের নির্দেশদাতাদের গ্রেপ্তার করছে সরকার।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে গতকাল সোমবার হেফাজতে ইসলামের নেতাদের সাক্ষাৎ–সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে কেউ দেখা করতে চাইলে, দেখা করতেই পারে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেখা করেছেন। কিন্তু তাতে দুষ্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে কোনো ব্যত্যয় হবে না।’

পদ্মা–যমুনার মোহনায় ধরা পড়ল ৫১ হাজার টাকার কাতল
                                  

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার পদ্মা ও যমুনা নদীর মোহনায় প্রায় ৩০ কেজি ওজনের একটি বড় কাতল মাছ ধরা পড়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় জয়নাল হালদার নামের জেলের জালে বিশাল আকারের এ কাতল মাছটি ধরা পড়ে। মাছটি ঢাকার এক ব্যক্তি ৫১ হাজার টাকায় কিনেছেন।

দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাটসংলগ্ম মৎস্য ব্যবসায়ী চান্দু মোল্লা জানান, আজ মঙ্গলবার সকালে পদ্মা নদীর দৌলতদিয়ার শেষ সীমানায় পদ্মা ও যমুনা নদীর মোহনায় জাল ফেলেন জেলে জয়নাল হালদার। দীর্ঘক্ষণ জাল ফেলে তেমন মাছ না পাওয়ায় হতাশ হন। একপর্যায়ে কয়েক দফা জাল ফেলে টেনে তোলার পর শেষ দিকে ফ্যাশন জালে একটি ঝাঁকি দিলে বুঝতে পারেন বড় কোনো মাছ ধরা পড়েছে। ঠিক তাই, জাল টেনে নৌকায় তুলতে গিয়ে দেখতে পান বিশাল আকারের একটি কাতল মাছ ধরা পড়েছে। বেশ কিছুদিন ধরে নদীতে তেমন একটা মাছের দেখা মিলছে না বললেই চলে। হঠাৎ করে এত বড় মাছ ধরা পড়ায় জেলে জয়নাল হালদার ও তাঁর সহযোগীদের বাঁধভাঙা আনন্দ দেখা দেয়।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, জেলে জয়নাল মাছটি পাওয়ার পরই বিষয়টি মুঠোফোনে ঘাটের ব্যবসায়ীদের জানান। সঙ্গে সঙ্গে মাছটি বিক্রির জন্য নিয়ে আসেন দৌলতদিয়া বাইপাস সড়কসংলগ্ন মাছবাজারে স্থানীয় দুলালের আড়তে। সেখানে মাছটি বিক্রির জন্য প্রকাশ্য নিলাম আহ্বান করা হয়। এ সময় উপস্থিত ব্যবসায়ীদের মধ্যে চান্দু মোল্লা সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে ১ হাজার ৬০০ টাকা কেজি দরে তিনি মাছটি কিনে নেন। এ সময় মাছটি ওজন দিয়ে দেখতে পান প্রায় ৩০ কেজি ১০০ গ্রাম ওজন হয়েছে। যার দাম আসে প্রায় ৪৮ হাজার টাকা। পরে মাছটি কিনে চান্দু মোল্লা নিয়ে আসেন তাঁর আড়তে। সেখান থেকে দ্রুত মাছটি ফেরিঘাটের পন্টুনের সঙ্গে রশি দিয়ে পানিতে ভাসিয়ে রাখেন। এ সময় ফেরিঘাট এলাকার উৎসুক মানুষ ভিড় করেন একনজর দেখতে।

মৎস্য ব্যবসায়ী চান্দু মোল্লা বলেন, কেজিপ্রতি ১০০ টাকা বেশি হলে অর্থাৎ ১ হাজার ৭০০ টাকা কেজি করে তিনি মাছটি বিক্রি করবেন বলে মনস্থির করেন। এরপর ঢাকাসহ বিভিন্ন অঞ্চলে পরিচিতজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তবে বিপাকে পড়েন লকডাউনের মধ্যে যথাস্থানে মাছটি পাঠানো নিয়ে। পরে ঢাকার এক পরিচিত ব্যবসায়ীর কাছে ১ হাজার ৭০০ টাকা কেজি দরে মোট ৫১ হাজার টাকায় কাতল মাছটি বিক্রি করেন। এরপর ঝুঁকি নিয়ে বিকেলে মোটরসাইকেলে করে ঢাকায় ওই ব্যক্তির কাছে পৌঁছে দেন।

গোয়ালন্দ উপজেলার ভারপ্রাপ্ত মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ বলেন, পদ্মা নদীর সুস্বাদু পানির মাছ কার না পছন্দ। সম্প্রতি পদ্মা নদীতে বড় মাছের তেমন একটা দেখা মেলে না। এর মাঝে এত বড় একটি কাতল মাছ ধরা পড়েছে, এটা অবশ্যই সুখবর। ভবিষ্যতেও এ রকম আরও অনেক বড় বড় মাছ ধরা পড়বে বলে তিনি মনে করেন।

মামুনুল হক ৭ দিনের রিমান্ডে মঞ্জুর
                                  

হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার (১৯ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে তাকে আদালতে তোলা হয়। এর আগে মামুনুল হকের বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী রিমান্ডের এ আদেশ দেন। আদালতে সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এদিকে, নিরাপত্তাজনিত কারণে মামুনুল হককে ডিবি কার্যালয়ে রাখা হবে বলে জানা গেছে। আর সেখানেই এসে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করবেন হেফাজতের এই নেতাকে। 

রোববার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামুনুলকে গ্রেফতার করার পর ওইদিন দুপুরে এক ব্রিফিংয়ে তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) হারুন অর রশীদ জানান, দেশে বিভিন্ন সময় মামুনুল উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিভিন্ন জায়গায় ভাঙচুরসহ নাশকতার ঘটনা ঘটেছে। এ জন্য তার বিরুদ্ধে আরও মামলা হয়েছে।

তিনি জানান, ‘সম্প্রতি সারা দেশে হেফাজতের তাণ্ডবে থানা এবং সরকারি অফিসসহ অনেক কিছুই ভাঙচুর হয়েছে। আমাদের মোহাম্মদপুর থানায়ও ভাঙচুরের একটি মামলা ছিল। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা তদন্ত করছিলাম। তদন্তের ভিত্তিতে আমরা নিশ্চিত হয়েছি, ২০২০ সালের এক মামলার সঙ্গে সে জড়িত। এ মামলায় আমরা তাকে জামিয়া রহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে পৌনে ১টার দিকে গ্রেফতার করেছি। ওখান থেকে গ্রেফতার করে আমাদের অফিসে নিয়ে এসেছি।’ এ ঘটনার সত্যতা মামুনুল স্বীকার করেছেন বলেও জানান ডিসি।  

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হারুন অর রশীদ বলেন, ‘২০১৩ সালে শাপলা চত্বরের ঘটনা থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় উস্কানিমূলক বক্তব্য দিচ্ছে হেফাজত। এর পরিপ্রেক্ষিতে সারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় ভাঙচুরসহ নানা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। মামুনুলের বিরুদ্ধে অজস্র মামলা রয়েছে। আমাদের কাছে যে মামলাটি রয়েছে, তাতে আমরা সত্যতা পেয়েছি।’

আদালতে মামুনুল
                                  

২০২০ সালের নাশকতার মামলায় গ্রেফতার হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে বিশেষ নিরাপত্তায় আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে আদালতে তোলা হয়েছে। গতকাল দুপুর ১টার কিছু আগে মোহাম্মদপুরের একটি মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তেজগাঁও জোনের ডিসি হারুনুর রশীদ পরে সংবাদ সম্মেলনে জানান, রিসোর্টকাণ্ড ও তৃতীয় বিয়েসহ নানা বিষয়ে কোনো প্রশ্নেরই জবাব দিতে পারেননি মামুনুল।মোদিবিরোধী উগ্র আন্দোলন, রিসোর্টে নারী কেলেঙ্কারি, ২০১৩ সালে শাপলা চত্বরের নৈরাজ্য কিংবা সম্প্রতি দেশব্যাপী দফায় দফায় ভাঙচুর আর তাণ্ডবের ঘটনায় হুকুমদাতা হিসেবে ঘুরে ফিরে নাম আসে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের।

আর এ কারণে মামুনুলকে নজরদারিতে রাখে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী। মামুনুল হক কি গ্রেফতার হবেন? গত কয়েক দিনের এমন গুঞ্জন সত্যি হলো রোববার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে। এদিন পৌনে ১টার দিকে মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পরপরই এ তথ্য নিশ্চিত করেন ডিএমপি কমিশনার ও ডিএমপির তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার।

গ্রেফতারের পর সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশ। তারা জানান, সোমবার তাকে আদালতে নেওয়া হবে। সম্প্রতি দেশের বহু জায়গায় হেফাজতের তাণ্ডবের কথা মামুনুল স্বীকার করেছেন বলেও জানায় পুলিশ। পরে মামুনুলকে তেজগাঁও থানায় পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়।

গাজীপুরে শ্রমিক আনা-নেয়ায় পরিবহন ব্যবস্থা এখনো উপেক্ষিত
                                  

সর্বাত্মক লকডাউনে গাজীপুরের বেশির ভাগ কারখানায় স্বাস্থ্যবিধি অনেকটাই মানা হলেও সরকারি প্রজ্ঞাপনের শর্তানুযায়ী শ্রমিকদের আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রে নিজস্ব পরিবহনব্যবস্থা এখনো উপেক্ষিত রয়ে গেছে। বেশির ভাগ শ্রমিক শিল্প প্রতিষ্ঠানের আশপাশে থাকায় নিজস্ব গাড়ির ব্যবস্থা করা হয়নি বলে জানায় পোশাক কারখানার কর্তৃপক্ষ।ভোর থেকে কয়েকটি শিফটে শরীরের তাপমাত্রা মেপে, জীবাণুনাশক চেম্বার হয়ে কর্মস্থলে প্রবেশ করেন শ্রমিকরা।

মৌচাকের একটি পোশাক কারখানার ফ্লোরে যেখানে আট লাইনে ৩৬০ জন শ্রমিক কাজ করতেন করোনা পরিস্থিতিতে-সেখানে ৬ লাইন করে চালানো হচ্ছে উৎপাদন কার্যক্রম। তবে সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখীর দুঃসময়ে কর্মস্থলে স্বাস্থ্যবিধি মানা হলেও পরিবহনব্যবস্থা না থাকায় স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বলছেন শ্রমিকরা।

অবশ্য পরিবহনব্যবস্থা নেই স্বীকার করে কর্তৃপক্ষ বলছে, দূরের শ্রমিকদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় আলোচনা চলছে।

সাদমা গ্রুপের পরিচালক সোহেল রানা বলেন, এ মুহূর্তে আমাদের পরিবহনের কোনো সুবিধা নেই। যেহেতু আমাদের শ্রমিকরা আশপাশে থাকেন, দূরের শ্রমিকদের পরিবহনে করে আনা-নেয়ার ব্যবস্থার কথা চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।  

কোনো কারখানা স্বাস্থ্যবিধি না মানলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান বিজিএমইএ পরিচালক মো. নাসির উদ্দিন।

তিনি আরো বলেন, সবার আগে জীবন, সবার আগে বেঁচে থাকা, আমাদের মূল টার্গেট যারা এগুলো (সরকারি নির্দেশনা) মানবে না আমরা তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

শিল্প পুলিশের দেয়া তথ্যমতে, প্রায় তিন হাজারের মতো তৈরি পোশাক কারখানা রয়েছে গাজীপুরে। এর মধ্যে সিটি করপোরেশন এলাকায় কাজ করেন প্রায় ২২ লাখ শ্রমিক।

কবরীর জানাজা ও দাফনের স্থান নির্ধারণ
                                  

বাংলা সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীকে রাজধানীর বনানী কবরস্থান এলাকায় বাদ জোহর জানাজা শেষে দাফন করা হবে। শনিবার (১৭ এপ্রিল) সকালে সময়নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে শাকের চিশতী। তিনি জানান, জানাজা শুরুর আগে বনানী কবরস্থানের সামনেই মুক্তিযোদ্ধা এই অভিনয়শিল্পীকে রাষ্ট্রীয়ভাবে গার্ড অব অনার দেওয়া হবে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৩ দিনের মাথায় শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২টা ২০মিনিটে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলা সিনেমার কিংবদন্তি এই অভিনেত্রী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী ও সাবেক সংসদ সদস্য কবরীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সিটি করপোরেশনের মেয়র, অভিনেতা-অভিনেত্রী, চলচ্চিত্র ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিবর্গ শোক প্রকাশ করেন। 

গত ৫ এপ্রিল করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরপরই রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল কবরীকে। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে ৮ এপ্রিল তাকে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চিরবিদায় নিলেন এই কিংবদন্তি অভিনেত্রী।

১৯৫০ সালে চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে জন্ম নেওয়া কবরী ১৯৬৩ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে নৃত্যশিল্পী হিসেবে মঞ্চে আবির্ভূত হন। ১৯৬৪ সালে সুভাষ দত্তের পরিচালনায় ‘সুতরাং` ছবির নায়িকা হিসেবে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। তারপর আর তাকে ফিরে তাকাতে হয়নি। 

একের পর এক জনপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়ে দর্শকদের মনে শক্ত অবস্থান করে নিয়েছেন এই অভিনেত্রী। অভিনয় জীবনে নায়িকা হিসেবে কবরী শতাধিক সিনেমা করেছেন। ১৯৭৩ সালে ঋত্বিক ঘটক পরিচালিত ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। নায়ক রাজ্জাকের সঙ্গে ‘রংবাজ’ পায় বেশ জনপ্রিয়তা।

১৯৭৫ সালে নায়ক ফারুকের সঙ্গে করা `সুজন সখী` ছবিটি তাকে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে পৌঁছে দেয়। পরবর্তীতে তিনি রাজ্জাক, সোহেল রানা, ফারুক, উজ্জ্বল, জাফর ইকবালের মতো অভিনেতাদের সঙ্গে কাজ করেছেন। 

২০০৮ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন কবরী। অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, মেরিল-প্রথম আলো আজীবন সম্মাননাসহ বহু পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন তিনি।

কোম্পানীগঞ্জে ফের উত্তেজনা, তিনটি বাস ভাঙচুর
                                  

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে বাসস্ট্যান্ডে হামলা চালিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। এ সময় তারা তিনটি বাস ও একটি অফিস ভাঙচুর করেছে।পরে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় তারা। এসব ঘটনায় উপজেলায় আবারও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে, যে কোনো মুহূর্তে আবারও বড় ধরনের কোনো সংঘর্ষ ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছে স্থানীয় লোকজন।

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে বসুরহাট নতুন বাসস্ট্যান্ডে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, লকডাউনের কারণে দূরপাল্লার বাসগুলো বসুরহাট নতুন বাসস্ট্যান্ডে পার্কিং করে রাখে বাস মালিক সমিতি। রাত ৮টার দিকে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে একদল যুবক বাসস্ট্যান্ডে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা স্ট্যান্ডে থাকা উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি আকরাম উদ্দিন চৌধুরী সবুজের তিনটি ড্রিমলাইন বাস ও ড্রিমলাইন কার্যালয় ভাঙচুর করে।

জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি আকরাম উদ্দিন চৌধুরী সবুজ অভিযোগ করে বলেন, `মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ভাই শাহাদাত ও ছেলে তাশিক মির্জার নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে আমার তিনটি বাস ও অফিসে ভাঙচুর করেছে।`

এ বিষয়ে জানতে মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ব্যবহৃত মোবাইল কল দিলে অপরিচিত একজন রিসিভ করে জানান, স্যার বিশ্রামে আছেন। কথা বলতে পারবে কি না জানতে চাইলে তিনি সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেন।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহিদুল হক রনি বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নাজিম উদ্দিন মিকনের নেতৃত্বে এ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছি বলে জানা গেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ রয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন জানান, ভাঙচুরসহ কোম্পানীগঞ্জের সকল ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ব্যবহৃত ফেসবুক আইডি থেকে `শুক্রবার জুমার নামাজের সময় বায়তুল মোকাররম মসজিদ বোমা মেরে উড়িয়ে দিলে দেশে দুর্নীতিবাজ এর সংখ্যা কমে যাবে` বলে একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয়।

এর জের ধরে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের ২০ থেকে ২৫ জন সমর্থক মির্জা বিরোধী স্লোগান দিয়ে একটি মিছিল নিয়ে বসুরহাট পৌরসভায় ঢোকার চেষ্টা করলে পুলিশ বাধা দিলে তারা উপজেলা গেইটে চলে যায়।

এর কিছুক্ষণ পর মেয়র মির্জার ছেলে তাশিক মির্জার নেতৃত্বে মির্জার অনুসারীরা থানার সামনে গেলে উভয় পক্ষের সমর্থকরা একে অন্যকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। ইটের আঘাতে তাশিক মির্জা ও আরমান চৌধুরীসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৮ জন আহত হয়।

হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া
                                  

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতাল থেকে সিটি স্ক্যান শেষে বাসায় ফিরেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়াপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি বাসায় ফিরেন।করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যান করানোর জন্য রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। 

এর আগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যান করানোর জন্য রাত ৯টা ৪০ মিনিটে  হাসপাতালে নেওয়া হয়।

খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক এফ এম সিদ্দিকী সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন। 

এসময় সিটি স্ক্যান করানোর সময় খালদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. জাহিদ হোসেন।

এর আগে বিকেলে ডা. এফ এম সিদ্দিকী জানান, ‘ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) আজকে আক্রান্ত হওয়ার সপ্তম দিন। কোভিডের পরিভাষায় তিনি এখন দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রবেশ করছেন। আমি আগেও বলেছি যে, কোভিডের প্রথম ও দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে একটা পার্থক্য আছে। কোভিডের যত সাবধানতা, যত জটিলতা সেগুলো সাধারণত সেকেন্ড উইকেই হয়। সেজন্য আমরা আরেকটু সাবধানতা অবলম্বন করতে চাই।’

তিনি জানান, ‘তার সব পরীক্ষা করা হয়েছে। শুধু সিটি স্ক্যানটা করানো হচ্ছিল না। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, দ্রুত সময়ের মধ্যেই সিটি স্ক্যানটা করিয়ে ফেলব। এছাড়া বাকি সব যেমন- বায়ো কেমিক্যাল প্যারামিটারস, ফিজিক্যাল স্ট্যাটাস, অক্সিজেন স্যাচুরেশন এবং অ্যাপেটাইট, পালস, ব্লাড সার্কুলেশন অন্যান্য সব দিকে তিনি আলহামদুলিল্লাহ মোটামুটি ভালো আছেন।’

সিটি স্ক্যান কোন হাসপাতালে করানো হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা কোথায় সিটি স্ক্যান করাব তার ব্যবস্থাও আমরা করে রেখেছি। যখন করব তখন আপনারা জানতে পারবেন।’

এফএম সিদ্দিকী আরও বলেন, ‘কোভিডে কখনোই আপনি আগে থেকে বলতে পারবেন না কন্ডিশন কেমন হবে। এটা দ্রুত পরিবর্তনশীল একটা রোগ। তবুও আমরা দ্রুত সিটি স্ক্যান করাব।’

তিনি আরও জানান, ‘আমরা যদি সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট দেখে মনে করি যে, বাসায় রেখে চিকিৎসা করাটা তার জন্য ভালো হবে তাহলে বাসায় রাখব। সিটি স্ক্যান দেখে যদি মনে হয় দু-তিনদিন বা কয়েক দিনের জন্য হাসপাতালে অবজারভেশনে রাখা দরকার-আমরা সেটাও করব। আমাদের ডিসিশনটা নির্ভর করবে সিটি স্ক্যানের রিপোর্টের ওপর।

শুক্রবার গ্যাস থাকবে না বেশ কিছু এলাকায়,
                                  

মিজানু রহমানঃহরিপুরে গ্যাস পাইপলাইনের ভালভ প্রতিস্থাপন কাজের জন্য নারায়ণগঞ্জ, ফতুল্লা, মুন্সীগঞ্জ, হরিপুর, কাচপুরসহ শীতলক্ষ্যা নদীর দুই পাড়ে শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) ভোর ৪টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। এছাড়া কেরানীগঞ্জ ও শ্যামপুরে গ্যাসের চাপ কম থাকবে।

 বুধবার (১৪ এপ্রিল) তিতাস গ্যাসের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল) এবং তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (টিজিটিডিসিএল) হরিপুরে ভালভ প্রতিস্থাপন কাজ করবে। এজন্য আগামী ১৬ এপ্রিল শুক্রবার ভোর ৪টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত গ্যাস বন্ধ রাখা হবে। এ কারণে শীতলক্ষ্যা নদীর পশ্চিম পাশে নারায়ণগঞ্জ শহর এলাকা, সিদ্ধিরগঞ্জ, আদমজী ইপিজেড, গোদনাইল, পাগলা, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ বিসিক, পঞ্চবটি থেকে মুক্তারপুর পর্যন্ত এলাকা, মুন্সীগঞ্জ সদর, মুন্সীগঞ্জ বিসিক, রেকাবী বাজার ও তৎসলগ্ন এলাকায় গ্যাস থাকবে না।

 

শীতলক্ষ্যা নদীর পূর্ব পাশে কাচপুর, হরিপুর, কুতুবপুর, মদনপুর, বন্দর এলাকা, কেওডালা, নাঙ্গলবন্দ ও এর আশপাশের এলাকার সব শ্রেণির গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। এছাড়া কেরানীগঞ্জ ও শ্যামপুর এলাকায় গ্যাসের স্বল্পচাপ বিরাজ করবে।

সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

পুলিশের ‘মুভমেন্ট পাস’: ৩৩ ঘণ্টায় ওয়েবসাইটে হিট আট কোটি
                                  

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি রোধে সপ্তাহব্যাপী সর্বাত্মক লকডাউন দিয়েছে সরকার। যা বুধবার (১৪ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে। লকডাউন চলাকালে নাগরিকরা যাতে জরুরি প্রয়োজনে বাসা থেকে বের হতে পারেন সেজন্য পুলিশ চালু করেছে বিশেষ সেবা ‘মুভমেন্ট পাস’।অর্থাৎ, অনলাইনের মাধ্যমে মুভমেন্ট পাসের আবেদন করে যদি আপনার পাস ইস্যু হয় তাহলে আপনি কোনো ধরনের আইনি জটিলতা ছাড়াই যেতে পারবেন নিজ গন্তব্যে। 

এদিকে, কড়া লকডাউনের সময়ে ওই মুভমেন্ট পাস ওয়েবসাইট চালুর পর থেকে সেখানে ৩৩ ঘণ্টায় প্রবেশ করেছে মোট সাত কোটি ৮১ লাখ নাগরিক। ফলে কর্তৃপক্ষ ওই ওয়েবসাইট নিয়ন্ত্রণ করতেও হিমশিম খাচ্ছে। 

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাজারবাগ বাংলাদেশ পুলিশ অডিটরিয়ামে আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ ওই মুভমেন্ট পাস অ্যাপের উদ্বোধন করেন। 

এদিকে, পুলিশ সদর দফতর জানিয়েছে, বুধবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ৭ কোটি ৮১ লাখ হিট হয়েছে ওই ওয়েবসাইটে। সে হিসেবে ২১ হাজার ৩৩৭টি হিট হয়েছে প্রতি মিনিটে। অবশ্য তারা সবাই আবেদন করেনি পাসের জন্য। ৭ কোটি ৮১ লাখের মধ্যে পাসের জন্য আবেদন করেছেন তিন লাখ ১০ হাজার। যেখানে ইস্যু করা হয়েছে ২ লাখ ৫০ হাজার আবেদন। 
 
সর্বাত্মক লকডাউন চলাকালীন জরুরি প্রয়োজনে চলাচলের জন্য ১৪ শ্রেণিতে মুভমেন্ট পাস দেয়া হবে। মুভমেন্ট পাসের আবেদন করতে প্রবেশ করতে হবে movementpass.police.gov.bd ওয়েবসাইটে।

জানা গেছে, ওই মুভমেন্ট পাস কেবলমাত্র মুদি দোকানে কেনাকাটা, কাঁচা বাজার, ওষুধপত্র, চিকিৎসা কাজে নিয়োজিত, কৃষিকাজ, পণ্য পরিবহন ও সরবরাহ, ক্রাণ বিতরণ, পাইকারি ও খুচরা ক্রয়, পর্যটন, মৃতদেহ সৎকার, ব্যবসাসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে দেয়া হবে। 

লকডাউনের মধ্যেও চলবে টিসিবির পণ্য বিক্রি
                                  

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত ‘লকডাউন’ এর মধ্যেও ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলে টিসিবি সাশ্রয়ী মূল্য প্রতিদিন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় করছে।করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সরকার বুধবার (১৪ এপ্রিল) থেকে দেশে ৭ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে। 

এ বিষয়ে বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) বলেন, জরুরি সেবা হিসেবে লকডাউনের মধ্যে সরকারি বিপণন সংস্থা টিসিবির নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সকল ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারা পণ্য বিক্রি করবে বলে তিনি জানান।

পবিত্র রমজানে বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রীর মূল্য স্থিতিশীল রাখার লক্ষ্যে সারাদেশে টিসিবি প্রতিদিন ৫০০টি ভ্র্যম্যমান ট্রাকে টিসিবির ছয়টি পণ্য বিক্রি করছে। রাজধানীর ১০০টি স্পটে ১০০টি ট্রাকে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে।

টিসিবির ট্রাকে সয়াবিন তেল, চিনি, মসুর ডাল, ছোলা, খেজুর ও পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। এর মধ্যে প্রতি কেজি সয়াবিন তেল ১০০ টাকা, চিনি, ছোলা ও মসুর ডাল ৫৫ টাকা কেজি এবং খেজুর বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। পেঁয়াজের মূল্য কেজি প্রতি ২০ টাকা। একজন ক্রেতা সর্বোচ্চ ৫ লিটার তেল, চার কেজি করে চিনি, ছোলা ও মসুরের ডাল কিনতে পারছেন। এছাড়াও ১ থেকে ২ কেজি খেজুর কিনতে পারছেন।

রমজানে টিসিবির প্রস্তুতির বিষয়ে বাণিজ্য সচিব বলেন, আমরা সরকারি বিক্রয়কারি সংস্থা টিসিবির সক্ষমতা বাড়িয়েছি। এর জন্য মাথায় রেখেছি, বাংলাদেশের চরম দারিদ্র্যের হারকে। এই হার এখন ১২ শতাংশ। রমজানে যেসব পণ্যের বেশি চাহিদা থাকে, সেগুলোর ১০ থেকে ১২ শতাংশ টিসিবির মজুতে রয়েছে বলে তিনি জানান।

পবিত্র রমজান মাস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে টিসিবি গত ১৭ মার্চ থেকে স্বল্প মূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি শুরু করে। প্রথম দিকে ৪০০টি ভ্রাম্যমাণ ট্রাকে পণ্য বিক্রি শুরু করলেও পরবর্তীতে টিসিবির বিপণন কার্যক্রম জোরদার করা হয় এবং ট্রাকের সংখ্যা ৫০০ করা হয়েছে।

এদিকে, রমজান মাস ও লকডাউনের সুযোগে কোন ব্যবসায়ী যেন অসাধুপায়ে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য অস্থিতিশীল করতে না পারে, এ জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে ৩৪টি মনিটারিং টিম রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় নিয়মিত বাজার তদারকি করছে। এছাড়া দেশের অন্যান্য স্থানেও নিয়মিত বাজার তদারকি করছে সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো।

বাংলাদেশের মানুষ খেতে পায় না, তাই ভারতে আসে’, বক্তব্যের কড়া জবাব
                                  

সামাজিক অনেক সূচকে ভারতের চেয়ে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ভারতের লোকদের ৫০ শতাংশের ভালো কোনো শৌচাগার নেই। আর আমাদের ৯০ শতাংশ লোকই ভালো শৌচাগার ব্যবহার করেন। বাংলাদেশের মানুষ খেতে পায় না, তাই ভারতে আসে’ ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাতে গণমাধ্যমকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা বলেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকায় সোমবার (১২ এপ্রিল) অমিত শাহ বলেন, বাংলাদেশের গরিব মানুষ এখনো খেতে পায় না, তাই ভারতে আসে। বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় এলে বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশ বন্ধ করা হবে।

বাংলাদেশ নিয়ে অমিত শাহের এসব বক্তব্যের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন আরও বলেন, ‘পৃথিবীতে অনেক জ্ঞানী লোক আছেন, দেখেও দেখেন না, জেনেও জানেন না। তবে তিনি (অমিত শাহ) যদি সেটা বলে থাকেন, আমি বলব, বাংলাদেশ নিয়ে তার জ্ঞান সীমিত। আমাদের দেশে এখন কেউ না খেয়ে মরে না। এখানে কোনো মঙ্গাও নেই।’

বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক যখন এতটা গভীর, তখন এ ধরনের মন্তব্য গ্রহণযোগ্য নয় উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা যদি এ ধরনের চিন্তা করে থাকেন, তাহলে আমি বলব, তাদের জ্ঞানের পরিধি বাড়াতে হবে। আমার দেশের শিক্ষিত লোকের চাকরির অভাব আছে। তবে কম শিক্ষিত লোকের চাকরির অভাব নেই। আর ভারতের এক লাখের বেশি মানুষ বাংলাদেশে চাকরি করে। তাই আমাদের ভারতে যাওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। 

খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত
                                  

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্তের বিষয় নিয়ে আজ রবিবার বিকালে টেলিফোনে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছেন খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. মোহাম্মদ মামুন।

তিনি বলেন, প্রায় ৫-৬ দিন আগে খালেদা জিয়ার বাসার একজন স্টাফের জ্বর জ্বর ভাব প্রকাশ প্রায়। পরেরদিন তার শরীরে ব্যথা আছে বলে জানা যায়। সন্দেহজনক মনে হওয়ায় ৩ দিন আগে তার করোনা টেস্ট করা হয়। এতে ফল পজিটিভ আসে।

এরপর ওই স্টাফ যে রুমে থাকেন, সে রুমের ৬ জন স্টাফের করোনা পরীক্ষা করানো হয়। এবারও সবার ফল পজিটিভ আসে। তবে তাদের জ্বর, কাশি বা অন্য কোনো উপসর্গ ছিল না এবং এখনো নেই’, যোগ করেন তিনি।

ডা. মোহাম্মদ মামুন বলেন, পরেরদিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে যে দুই জন থাকেন, তাদেরও টেস্ট করানো হলে করোনা শনাক্ত হয়। পরে গতকাল সকালে খালেদা জিয়ার করোনা টেস্ট করা হয় এবং ফল পজিটিভ আসে। তবে এখন পর্যন্ত তার কোনো উপসর্গ নেই।

খালেদা জিয়ার করোনা আক্রান্তের তথ্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর বিষয়ে তিনি বলেন, চিকিৎসক হিসেবে গোপনীয়তা বজায় রাখার চেষ্টা করেছি। জানানোর দায়িত্ব আমার নয়, দলীয় নেতৃত্বের। দলের পরিকল্পনা ছিল প্রেস কনফারেন্স করে বিষয়টি জানানোর। ডাক্তার হিসেবে আমি যেহেতু জানাতে পারি না, সে কারণেই সকালে আপনার সঙ্গে যখন কথা হয়েছে, স্বীকার করিনি।’

ডা. মামুন আরও বলেন, আমরা এখনো (বিকাল ৫টা) খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষার অফিসিয়াল রিপোর্ট হাতে পাইনি। আইসিডিডিআর,বি-তে খালেদা জিয়ার রক্ত পরীক্ষাসহ আরও কিছু পরীক্ষা করানো হয়েছে। সেগুলোর অফিসিয়াল রিপোর্ট আরও ঘণ্টাখানেক পরে হাতে পাব।

খালেদা জিয়া করোনা পজিটিভ এই তথ্য আপনারা আগে জেনেছেন, না সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আগে ছড়িয়েছে? প্রশ্নের উত্তরে ডা. মামুন বলেন, এটা আমি বলতে পারবো না। ডাক্তার হিসেবে এ বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্যও করতে চাই না।

বেগম খালেদা জিয়ার জন্যে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে আগে থেকেই একটি কেবিন বুক করে রাখা হয়েছে। যদিও এখন পর্যন্ত তার শারীরিক কোনো সমস্যা নেই। তাছাড়া বাসাতেও অক্সিজেনসহ যাবতীয় ব্যবস্থা করে রাখা হয়েছে। বলতে পারেন, হাসপাতালের মত ব্যবস্থা আমরা নিয়ে রেখেছি। তার চিকিৎসার একটি মেডিকেল বোর্ড আছে। তারা পুরো বিষয়টি দেখছেন, বলেন তিনি।

মামুনুলের কথিত স্ত্রী জান্নাতের নিরাপত্তা চেয়ে ছেলের জিডি
                                  

নিজের মা জান্নাত আরা ঝর্নার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি করেছে তার ছেলে আব্দুর রহমান। একইসঙ্গে তিনি তার মায়ের লেখা তিনটি ডায়েরি যেন সংরক্ষিত থাকে তার নিরাপত্তার কথাও উল্লেখ করেছেন ওই জিডিতে। শনিবার (১০ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর পল্টন থানায় এ জিডি করা হয়।

জিডিতে আব্দুর রহিম উল্লেখ করেছে, সে বাগেরহাটে থাকে। বেশকিছু দিন ধরে তার মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পেরে সপ্তাহখানেক আগে ধানমন্ডিতে তার মায়ের বাসায় যায় আব্দুর রহমান। ওই বাসার মালিক তাকে জানান, গত ৩ এপ্রিল ওই বাসা থেকে বের হওয়ার পর আর বাসায় ফেরেননি তার মা (জান্নান আরা ঝর্না)। পরে ওই বাসায় প্রবেশ করে সেখান থেকে ঝর্নার লেখা তিনটি ডায়েরির সন্ধান পান আব্দুর রহমান।

মায়ের খোঁজ না পেয়ে ডায়েরিগুলো নিয়ে শনিবার (১০ এপ্রিল) বাড়ির পথে রওনা হয় সে। পল্টন এলাকায় গিয়ে তার মনে হয়, অপরিচিত কিছু লোক তাকে অনুসরণ করছেন। এ অবস্থায় তার নিজের ও তার মায়ের নিরাপত্তা এবং ডায়েরিগুলোর সংরক্ষণের বিষয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। সে কারণেই রহমান থানায় এ সাধারণ ডায়েরির আবেদন করেছে বলে জান্নাতের বড় সন্তান আব্দুর রহমান জানায়। 

জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে পল্টন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সেন্টু মিয়া গণমাধ্যমকে জানান, থানায় এসে জিডি করেছে জান্নাত আরা ঝর্নার ছেলে। জিডির বিষয় তদন্ত শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন দিতে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্র
                                  

ঢাকায় সফররত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত জন কেরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানিয়েছেন, গ্রীষ্মকাল শেষে যুক্তরাষ্ট্র তাদের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে সারা বিশ্বে করোনা টিকা সরবরাহে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বাংলাদেশকেও করোনা ভ্যাকসিন দিতে আগ্রহী তার দেশ।শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেলে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন জন কেরি। এ সময় তিনি জানান, নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রথম একশ দিনের কর্মসূচির অংশ হিসেবে এখন পর্যন্ত ৯৯ মিলিয়ন আমেরিকান নাগরিক প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন। দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৫৬ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ। 

জন কেরি আরও জানান, আগামী ২২ ও ২৩ এপ্রিল প্রেসিডেন্ট বাইডেনের উদ্যোগে যুক্তরাষ্ট্রে ৪০টি দেশের রাষ্ট্র বা সরকার প্রধানের অংশগ্রহণে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হবে ‘গ্লোবাল লিডারস সামিট অন ক্লাইমেট চেঞ্জ’। এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে জো বাইডেনের পক্ষ থেকে আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তর করেন তিনি। আমন্ত্রণপত্র পেয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা। সাবেক এ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে প্রধানমন্ত্রী তুলে দেন মুজিব জন্মশতবর্ষের শুভেচ্ছা স্বারক। উপহার দেন বঙ্গবন্ধু রচিত ‘কারাগারের রোজনামচা’ ও ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ এবং ‘সিক্রেট ডকুমেন্টস অব ইন্টেলিজেনস ব্রাঞ্চ অন ফাদার অব দ্যা নেশন’ বই।    

বৈঠকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের জলবায়ু বিষয়ক দূত জানান, নবায়নযোগ্য জ্বালানির জন্য প্রযুক্তি হস্তান্তর, কার্বন নিঃসরণ ও অভিযোজনসহ জলবায়ু সংকট মোকাবিলায় ১ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া, দেশটির বকেয়া ২ বিলিয়ন ডলার পরিশোধ করবে বাইডেন প্রশাসন। জন কেরি জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকার প্রশংসা করেন।

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশ। বর্তমানে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের চেয়ারম্যানও বাংলাদেশ।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জন কেরিকে বলেন, ‘প্যারিস চুক্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যাবর্তন জলবায়ু পরিবর্তন কূটনীতিতে নতুন গতি সঞ্চার করবে।’ ভারত, ভুটান এবং নেপালের সঙ্গে আঞ্চলিক ভিত্তিতে দ্বিপাক্ষিক বা ত্রিপক্ষীয় উপায়ে জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে আলোচনা চলছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

এই বৈঠক শেষে ঢাকা ছাড়েন জন কেরি। এর আগে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় একদিনের সংক্ষিপ্ত সফরে ঢাকায় আসেন তিনি। জো বাইডেন ক্ষমতায় আসার পরে, দেশটির কোনো ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার বাংলাদেশে এটাই প্রথম রাষ্ট্রীয় সফর। 

১৪ এপ্রিল থেকে দেশব্যাপী এক সপ্তাহের লকডাউন
                                  

 নতুন বাজার প্রতিবেদক :

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, আগামী ১৪ এপ্রিল (বুধবার) থেকে এক সপ্তাহের জন্য আবারও সর্বাত্মক লকডাউনের বিষয়ে সরকার চিন্তা ভাবনা করছে।

শুক্রবার সকালে ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

তিনি বলেন, দেশে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার। সেই সঙ্গে বাড়ছে জনগণের অবহেলা ও উদাসীনতা।

এমন অবস্থায় সরকার জনস্বার্থে আগামী বুধবার থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের বিষয়ে সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে।

চলমান এক সপ্তাহের লকডাউনে জনগণের উদাসীন মানসিকতার কোনো পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে হয় না বলেও জানান তিনি।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বাড়ায় সরকার গত ৪ এপ্রিল দেশব্যাপী এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে। গত সোমবার সকাল ৬টা থেকে ‘লকডাউন’ শুরু হয়। আগামী ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত থাকবে এই ‘লকডাউন’।

তবে ‘লকডাউন’ বাড়বে কিনা এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরেই আলোচনা চলছিল। আজ সেতুমন্ত্রী লকডাউন বাড়ানোর সেই ইঙ্গিতই দিলেন।

‘লকডাউনে’ গণপরিবহন ও শপিংমল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হলেও গত বুধবার শর্ত সাপেক্ষে সরকার গণপরিবহনে চলাচলের অনুমোদন দেয়। আর আজ শুক্রবার থেকে শপিংমল ও দোকানপাট খোলা হয়েছে।


   Page 1 of 82
     জাতীয়
আলেমরা নন, গ্রেপ্তার হচ্ছে দুষ্কৃতকারীরা: তথ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
পদ্মা–যমুনার মোহনায় ধরা পড়ল ৫১ হাজার টাকার কাতল
.............................................................................................
মামুনুল হক ৭ দিনের রিমান্ডে মঞ্জুর
.............................................................................................
আদালতে মামুনুল
.............................................................................................
গাজীপুরে শ্রমিক আনা-নেয়ায় পরিবহন ব্যবস্থা এখনো উপেক্ষিত
.............................................................................................
কবরীর জানাজা ও দাফনের স্থান নির্ধারণ
.............................................................................................
কোম্পানীগঞ্জে ফের উত্তেজনা, তিনটি বাস ভাঙচুর
.............................................................................................
হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া
.............................................................................................
শুক্রবার গ্যাস থাকবে না বেশ কিছু এলাকায়,
.............................................................................................
পুলিশের ‘মুভমেন্ট পাস’: ৩৩ ঘণ্টায় ওয়েবসাইটে হিট আট কোটি
.............................................................................................
লকডাউনের মধ্যেও চলবে টিসিবির পণ্য বিক্রি
.............................................................................................
বাংলাদেশের মানুষ খেতে পায় না, তাই ভারতে আসে’, বক্তব্যের কড়া জবাব
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার করোনা শনাক্ত
.............................................................................................
মামুনুলের কথিত স্ত্রী জান্নাতের নিরাপত্তা চেয়ে ছেলের জিডি
.............................................................................................
বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন দিতে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্র
.............................................................................................
১৪ এপ্রিল থেকে দেশব্যাপী এক সপ্তাহের লকডাউন
.............................................................................................
করোনা মোকাবেলায় ‘সর্বদলীয় কমিটি‘ গঠনের প্রস্তাব
.............................................................................................
লকডাউন’ আরও বাড়বে কিনা, জানা যাবে বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
করোনায় আক্রান্ত গাজীপুরের জেলা প্রশাসক
.............................................................................................
শীতলক্ষ্যায় ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধার, মৃতের সংখ‌্যা বেড়ে ২৭
.............................................................................................
মামুনুল হকের বিরুদ্ধে মামলা
.............................................................................................
লকডাউনে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার দাবি
.............................................................................................
মমতাকে খালেদা জিয়ার সাথে তুলনা শুভেন্দুর!
.............................................................................................
তিস্তা ও সীমান্ত হত্যার প্রসঙ্গ তুললেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
রাষ্ট্রপতির সঙ্গে মোদির সৌজন্য সাক্ষাৎ
.............................................................................................
বোর্ড নিয়ে মাশরাফী-সাকিবের মন্তব্য অনাকাঙ্খিত: সুজন
.............................................................................................
স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন
.............................................................................................
জাতীয় দিবস উদযাপনে অধীর অপেক্ষায় আছি: মোদি
.............................................................................................
কুচকাওয়াজের মহড়ায় মারা গেলেন আনসার সদস্য
.............................................................................................
মহান স্বাধীনতা দিবসে গুগলের বিশেষ ডুডল
.............................................................................................
আরও ১৮ প্রাণ কাড়ল করোনা, নতুন শনাক্ত ১৮৯৯
.............................................................................................
মওদুদের মৃত্যুতে গভীর শূন্যতা অনুভব করছেন ফখরুল
.............................................................................................
ভোঁতা অস্ত্র কাজে লাগানোর অপচেষ্টা করছে বিএনপি’
.............................................................................................
২৬ মার্চের কর্মসূচি ঘোষণা করলেন আওয়ামী লীগ
.............................................................................................
এটি তাদের চৈত্রের দাবদাহে আষাঢ়ে গল্প:ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
বাংলাদেশ থেকে মালে যাবে বিমান-জাহাজ
.............................................................................................
দেশকে সোনার বাংলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করবই: শেখ হাসিনা
.............................................................................................
দেশের রাজনীতি উল্টো পথে হাঁটছে: রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
গাজীপুরে নানা আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর জন্ম শত বার্ষিকী পালন
.............................................................................................
আমাকে হত্যার চেষ্টা চলছে: কাদের মির্জা
.............................................................................................
আকাশে ১০০ এঁকে শ্রদ্ধা জানাবে বিমান বাহিনী
.............................................................................................
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী আজ
.............................................................................................
চাকরি হয়নি দাড়ি থাকায়
.............................................................................................
ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের মৃত্যুতে মন্ত্রিসভার শোক
.............................................................................................
ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এর মৃত্যুতে বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ এমপির শোক
.............................................................................................
শোক সংবাদ
.............................................................................................
বেগমগঞ্জে মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের পর গণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার-২
.............................................................................................
নেত্রকোণায় র‍্যাবের অভিযানে ৯ কেজি গাঁজাসহ আটক ১
.............................................................................................
মার্চ মানেয় অগ্নিঝরা রক্তখয়িই মাস
.............................................................................................
মাইক্রোবাসের ধাক্কায় শিশুর মৃত্যু পঞ্চগড়ে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ হাজী মোবারক হোসেন।। সহ-সম্পাদক : কাউসার আহম্মেদ।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু। র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, ফোন ০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, mannan2015news@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop