| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   নগর - মহানগর -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
আজ ঢাকার বাতাস ‘অতি অস্বাস্থ্যকর

রাজধানীতে আবারও বেড়েছে বায়ু দূষণ। এতে ঢাকার বাতাসে সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াসা। আজ সকাল থেকে ঢাকার বাতাস রয়েছে অতি অস্বাস্থ্যকর মাত্রায়। বিশ্বব্যাপী বায়ুমান যাচাই সফটওয়্যার এয়ার ভিজ্যুয়ালের বৈশ্বিক র‌্যাংকিংয়ে এখন বাংলাদেশের অবস্থান সবার উপরে। এমন অবস্থায় মাস্ক ছাড়া নগরবাসীর রাস্তায় বের হওয়া চরম ঝুঁকিপূর্ণ বলছেন বিশেষজ্ঞরা।এয়ার ভিজ্যুয়াল বলছে, বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় ঢাকার বাতাস মানুষের স্বাভাবিক সহ্য ক্ষমতার তুলনায় ৪ গুণ বেশি দূষিত পাওয়া গেছে। এসময় এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে ঢাকার বাতাসের মান ছিল ২৪৮ একিউআই। অথচ বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদফতরের মানমাত্রায় ৫০ একিইউআই মানের পর্যন্ত বাতাসকে ভালো ধরা হয়।

সফটওয়্যারটির র‌্যাংকিংয়ে এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরের অবস্থানে রয়েছে ঢাকা। ২১৬ একিউআই মানমাত্রার বায়ু নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের কলকাতা শহর।

এয়ার ভিজ্যুয়াল আরও জানায়, বেলা ১২টায় ঢাকার প্রতি ঘনমিটার বাতাসে মানবদেহের জন্য চরম ক্ষতিকর সূক্ষ্ম ধূলিকনার উপস্থিতি ছিল ১৯৮ মাইক্রোগ্রাম। এই অবস্থায় রাজধানীবাসীকে সাইকেল না চালাতে, জানালা খোলা না রাখতে এবং একান্ত প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়ারও পরামর্শ দিচ্ছে সফওয়্যারটি। একান্ত প্রয়োজনে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পরারও পরামর্শ দিয়েছে এয়ার ভিজ্যুয়াল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-এর পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও বায়ুমান গবেষক অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার বাংলাভিশনকে বলেন, আজ ভোর থেকে ঢাকার বায়ুমান ক্ষতিকর মাত্রায় (৩০০ একিউআই) চলে গিয়েছিল। এখন ধিরে ধিরে একটু কমছে। সাধারণত বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ৩০০ একিউআই এর উপরে টানা ৩ ঘণ্টার বেশি থাকলে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে। কারণ এতটা দূষিত বায়ু গ্রহণ করলে শ্বাসকষ্ট, চোখে জ্বালাপোড়াসহ বিভিন্ন রোগ বেড়ে যাবে। বিশেষ করে শিশুদের রেসপিরেটরি সিস্টেম দুর্বল হয়ে যেতে পারে। এজন্যই এমন পরিস্থিতিতে কম বের হতে বা বের হলেও মাস্ক পরতে বলি।

হঠাৎ দূষণ বাড়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতি বছর নভেম্বর মাস থেকে ঢাকার বায়ুদূষণ বাড়ে। তবে এবার নভেম্বর মাসটা আমরা এতটা খারাপ বায়ু পাইনি। এর বড় কারণ নভেম্বরে এবার তাপমাত্রা তেমন একটা কমেনি, বাতাসের গতিবেগও ঠিক ছিল। তাছাড়া, মেট্রোরেলের নিচের স্তরের কাজ প্রায় শেষ হওয়ায় এখানেও দূষণ কমেছে। তবে বিআরটি প্রকল্প এলাকা সেসময়ও দূষিত ছিল। 

‘কিন্তু ডিসেম্বরের শুরু থেকে তাপমাত্রা কমে এসেছে, বাতাসের গতিবেগও বেড়েছে। এর মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ব্যপকভাবে বর্জ্য পোড়াতে দেখা যাচ্ছে। আর গাড়ির কালো ধোয়াতো আছেই। বায়ুপ্রবাহ কমে যাওয়ায় এই ধোয়াগুলো বায়ুমণ্ডলে গিয়ে জমে যাচ্ছে। ফলে একটি ধোঁয়াসা তৈরি হয়ে দূষিত বায়ুকে আটকে দিচ্ছে। বৃষ্টি বা বায়ুপ্রবাহ থাকলে এতটা থাকতো না’। বলেন, বায়ুমান বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার।

আজ ঢাকার বাতাস ‘অতি অস্বাস্থ্যকর
                                  

রাজধানীতে আবারও বেড়েছে বায়ু দূষণ। এতে ঢাকার বাতাসে সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াসা। আজ সকাল থেকে ঢাকার বাতাস রয়েছে অতি অস্বাস্থ্যকর মাত্রায়। বিশ্বব্যাপী বায়ুমান যাচাই সফটওয়্যার এয়ার ভিজ্যুয়ালের বৈশ্বিক র‌্যাংকিংয়ে এখন বাংলাদেশের অবস্থান সবার উপরে। এমন অবস্থায় মাস্ক ছাড়া নগরবাসীর রাস্তায় বের হওয়া চরম ঝুঁকিপূর্ণ বলছেন বিশেষজ্ঞরা।এয়ার ভিজ্যুয়াল বলছে, বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় ঢাকার বাতাস মানুষের স্বাভাবিক সহ্য ক্ষমতার তুলনায় ৪ গুণ বেশি দূষিত পাওয়া গেছে। এসময় এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে ঢাকার বাতাসের মান ছিল ২৪৮ একিউআই। অথচ বাংলাদেশ পরিবেশ অধিদফতরের মানমাত্রায় ৫০ একিইউআই মানের পর্যন্ত বাতাসকে ভালো ধরা হয়।

সফটওয়্যারটির র‌্যাংকিংয়ে এই মুহূর্তে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরের অবস্থানে রয়েছে ঢাকা। ২১৬ একিউআই মানমাত্রার বায়ু নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের কলকাতা শহর।

এয়ার ভিজ্যুয়াল আরও জানায়, বেলা ১২টায় ঢাকার প্রতি ঘনমিটার বাতাসে মানবদেহের জন্য চরম ক্ষতিকর সূক্ষ্ম ধূলিকনার উপস্থিতি ছিল ১৯৮ মাইক্রোগ্রাম। এই অবস্থায় রাজধানীবাসীকে সাইকেল না চালাতে, জানালা খোলা না রাখতে এবং একান্ত প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে না যাওয়ারও পরামর্শ দিচ্ছে সফওয়্যারটি। একান্ত প্রয়োজনে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পরারও পরামর্শ দিয়েছে এয়ার ভিজ্যুয়াল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-এর পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও বায়ুমান গবেষক অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার বাংলাভিশনকে বলেন, আজ ভোর থেকে ঢাকার বায়ুমান ক্ষতিকর মাত্রায় (৩০০ একিউআই) চলে গিয়েছিল। এখন ধিরে ধিরে একটু কমছে। সাধারণত বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ৩০০ একিউআই এর উপরে টানা ৩ ঘণ্টার বেশি থাকলে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে। কারণ এতটা দূষিত বায়ু গ্রহণ করলে শ্বাসকষ্ট, চোখে জ্বালাপোড়াসহ বিভিন্ন রোগ বেড়ে যাবে। বিশেষ করে শিশুদের রেসপিরেটরি সিস্টেম দুর্বল হয়ে যেতে পারে। এজন্যই এমন পরিস্থিতিতে কম বের হতে বা বের হলেও মাস্ক পরতে বলি।

হঠাৎ দূষণ বাড়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতি বছর নভেম্বর মাস থেকে ঢাকার বায়ুদূষণ বাড়ে। তবে এবার নভেম্বর মাসটা আমরা এতটা খারাপ বায়ু পাইনি। এর বড় কারণ নভেম্বরে এবার তাপমাত্রা তেমন একটা কমেনি, বাতাসের গতিবেগও ঠিক ছিল। তাছাড়া, মেট্রোরেলের নিচের স্তরের কাজ প্রায় শেষ হওয়ায় এখানেও দূষণ কমেছে। তবে বিআরটি প্রকল্প এলাকা সেসময়ও দূষিত ছিল। 

‘কিন্তু ডিসেম্বরের শুরু থেকে তাপমাত্রা কমে এসেছে, বাতাসের গতিবেগও বেড়েছে। এর মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ব্যপকভাবে বর্জ্য পোড়াতে দেখা যাচ্ছে। আর গাড়ির কালো ধোয়াতো আছেই। বায়ুপ্রবাহ কমে যাওয়ায় এই ধোয়াগুলো বায়ুমণ্ডলে গিয়ে জমে যাচ্ছে। ফলে একটি ধোঁয়াসা তৈরি হয়ে দূষিত বায়ুকে আটকে দিচ্ছে। বৃষ্টি বা বায়ুপ্রবাহ থাকলে এতটা থাকতো না’। বলেন, বায়ুমান বিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার।

মিরাজ মুগ্ধতার ম্যাচে ভারতকে সিরিজ হারাল বাংলাদেশ
                                  

প্রথম ইনিংসের শেষে জয়-পরাজয়ের সমীকরণ নেই। উত্তাপও তাই থাকে না খুব একটা।

তবুও শেরে বাংলায় ছড়ালো অদ্ভূত এক রোমাঞ্চ। মেহেদী হাসান মিরাজ কি পারবেন? জেতাবেন কি না ওই প্রশ্ন বহু দূরের পথ তখনও। অপেক্ষা কেবল মিরাজের সেঞ্চুরি ছুঁয়ে দেখার। তিনি পারলেন। মিরাজের মুগ্ধতায় ভরানো ইনিংস শার্দুল ঠাকুরের করা শেষ বলে খুঁজে পেল তিন অঙ্ক।  

 

ফ্লাডলাইটের জ্বলজ্বলে আলোর নিচে দৌড়ালেন বাংলাদেশের ক্রিকেটের তারা। উচ্ছ্বাস, আনন্দ, উল্লাসে তিনি নিজে ভাসলেন; ভাসালেন স্লোগানে মুখর হয়ে থাকা গ্যালারিকেও। মিরাজের দর্শকদের পয়সা উসুল করা ইনিংসের পর বোলারদের কাজটুকু ঠিকঠাক করতে হতো কেবল; তারা করলেন, বাংলাদেশ জিতল সিরিজ।

বুধবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ভারতকে ৫ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এর আগে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতেও জেতে ১ উইকেটের ব্যবধানে। এক ম্যাচ আগেই সিরিজ নিশ্চিত হয়ে গেল প্রথমবার দলকে নেতৃত্ব দেওয়া লিটন দাসের দলের।  

টস জিতে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে আগের ম্যাচের উদ্বোধনী জুটিতে বদল আনে বাংলাদেশ। লিটন দাসের সঙ্গী হন এনামুল হক বিজয়। তাকে দেখে মনে হচ্ছিল আছেন ছন্দে। ফ্লিক করেছিলেন, খেলেছিলেন দৃষ্টনন্দন কাভার ড্রাইভও। কিন্তু ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে।  

মোহাম্মদ সিরাজের প্রথম দুই বলে বাউন্ডারি হাঁকান তিনি। চতুর্থ বলে স্লিপে বিজয়ের ক্যাচ ছাড়েন রোহিত শর্মা। হাতে চোট নিয়ে মাঠও ছাড়তে হয় তাকে। পঞ্চম বল অফ সাইড থেকে কিছুটা সুইং করে প্যাডে লাগে বিজয়ের। সিরাজের এলবিডব্লিউয়ের আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার। রিভিউ নিলেও বাঁচতে পারেননি বিজয়। ৯ বলে ১১ রান করে সাজঘরে ফেরত যান তিনি।  

এরপর নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে এগোচ্ছিলেন লিটন দাস। কিন্তু পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই সাজঘরে ফিরতে হয় তাকে।
দশম ওভারে সিরাজের বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে লাইন মিস করেন তিনি। বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরত যেতে হয় বাংলাদেশ অধিনায়ককে। ২৩ বলে কেবল ৭ রান করেন লিটন।

নাজমুল হোসেন শান্ত পজিশন বদলেও বড় রান পাননি। ৩ চারে ৩৫ বলে ২১ রান করেন তিনি। উমরান মালিকের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন শান্ত। সাকিব ফিরে যান ওয়াশিংটন সুন্দরের ওভারে। স্লগ সুইপ করতে গিয়ে টপ এজ হয় তার। স্লিপে দাঁড়ানো শেখর ধাওয়ান ক্যাচ ধরেন। ১ চারে ২০ বলে ৮ রান করেন তিনি।  

আফিফ হোসেন ও মুশফিকুর রহিমও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। ২ চারে ২৪ বলে ১২ রান করে শুরুতে মুশফিক সাজঘরে ফেরত যান ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে ধাওয়ানের হাতে ক্যাচ দিয়ে। নিজের মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলে একই বোলারের ওভারে বোল্ড হয়ে যান আফিফ।

হুট করে ১৭ রানে তিন উইকেট হারিয়ে বিপদেই পড়ে যায় বাংলাদেশ। এরপর দলের হাল ধরেন আগের ম্যাচে নায়ক হয়ে ম্যাচ জেতানো মেহেদী হাসান মিরাজ। দারুণ সব শটের সঙ্গে তিনি খেলছিলেন দায়িত্ব নিয়েও। তার সঙ্গে এই ইনিংসের সবচেয়ে বড় হাইলাইট মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের রানে ফেরা।  

ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনেও তার জায়গা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বেশ কয়েকবার। এখনও দলে থাকার মতো সক্ষমতা আছে কি না, কথা উঠেছিল এ নিয়েও। সবকিছুর প্রমাণ যেন মাঠেই দিতে চাইলেন রিয়াদ। মিরাজের সঙ্গে তার ১৪৭ রানের জুটি ভাঙে ৪৭তম ওভারে এসে।  

উমরান মালিকের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেওয়ার আগে ৭ চারে ৯৬ বলে ৭৭ রান করেন রিয়াদ। তিনি সাজঘরে ফেরার পরও দলকে টেনে নেন মিরাজ। উইকেটের সামনে, পেছনে; বাউন্ডারি ও ওভার বাউন্ডারিতে পেয়ে যান শতকের দেখা। নিজের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি হাঁকানোর পথে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২ হাজার রান ও দুইশ উইকেটের মাইলফলকও ছুঁয়ে ফেলেন এই অলরাউন্ডার।  

মিরাজের অসাধারণ ইনিংসটি শেষ পর্যন্ত থেকেছে অপরাজিতই। ৮ চার ও ৪ ছক্কার ইনিংসে ৮৩ বলে ১০০ রান করেন মিরাজ। রোমাঞ্চকর অপেক্ষা শেষে ইনিংসের শেষ বলে গিয়ে পূর্ণ করেন শতক। শেষ পাঁচ ওভারে দলের রান হয় ৬৮। বাংলাদেশ পায় ২৭১ রানের সংগ্রহ। ওয়াশিংটন সুন্দর তিন ও উমরান মালিক- মোহাম্মদ সিরাজ নেন দুই উইকেট করে।

জবাব দিতে নামা ভারতের হয়ে ফিল্ডিংয়ের সময় চোট পাওয়া রোহিত শর্মার বদলে এদিন ইনিংস উদ্বোধনে আসেন লোকেশ রাহুল ও বিরাট কোহলি। প্রথম বলেই চার হাঁকান কোহলি। দ্বিতীয় ওভারের পঞ্চম বলে এসে তাকে সাজঘরে ফেরত পাঠান এবাদত হোসেন।  

পুল করতে গিয়ে ইনসাইড এজ হয়ে বোল্ড হয়ে যান কোহলি। আউট করেই ছুটতে শুরু করেন এবাদত। দৌড়ে যান ড্রেসিং রুমের কাছে। স্যালুট জানান ড্রেসিং রুমের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা পেস বোলিং কোচ গুরু অ্যানাল্ড ডোনাল্ডকে। ৬ বলে ১ চারে ৫ রান করেন কোহলি।

পরের ওভারে বাংলাদেশ আরও এক উইকেট নেয়। এবার মোস্তাফিজ ফেরান শেখার ধাওয়ানকে। পয়েন্টে দাঁড়ানো মিরাজের হাতে ক্যাচ দেন তিনি। পরে লোকেশ রাহুল ও ওয়াশিংটন সুন্দর ফিরলে ৬৫ রানেই চার উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত।  

সেখান থেকে দলকে ঘুরে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেন শ্রেয়াস আয়ার ও অক্ষর প্যাটেল। দুজনেই পেয়ে যান হাফ সেঞ্চুরির দেখাও। দুজন মিলে গড়েন ১০৭ রানের জুটি। এবারও বাংলাদেশের ভরসার আলো হন মেহেদী হাসান মিরাজ।  

তাকে আকাশে ভাসিয়ে খেলতে চেয়েছিলেন আয়ার। কিন্তু তিনি মিরাজের বলে ধরা পড়েন ডিপ মিডউইকেটে দাঁড়ানো আফিফ হোসেনের হাতে। দ্বিধাদ্বন্দ্ব বলে ঠিকঠাক ক্যাচটা নেন আফিফ। ১০২ বলে ৮২ রান করেন আয়ার।  

খানিক বাদেই সাজঘরে ফেরত যান অক্ষর প্যাটেলও, এবার সেই এবাদত বোলিংয়ে এসে নেন উইকেট। ৫৬ বলে ৫৬ রান করা অক্ষর ক্যাচ দেন সাকিব আল হাসানের হাতে। চোট পাওয়া রোহিত শর্মা ব্যাটিংয়ে নামেন ৯ নম্বর ব্যাটার হিসেবে। এবাদত হোসেন ৪৯তম ওভারে ক্যাচ ফেলে দেন।  

এরপর টানা দুই ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ জমিয়ে ফেলেন রোহিত। ৩ চার ও ৫ ছক্কায় ২৮ বলে ৫১ রান করলেও দলকে জেতাতে পারেননি ভারতীয় অধিনায়ক। তবে ম্যাচ নিয়ে যান শেষ বল অবধি।

চাল-ডালের বস্তায় ককটেল এসেছে, এমন খবরে অভিযান: ডিএমপি কমিশনার
                                  

ঢাকা: বিএনপি নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চাল ও ডালের বস্তার মধ্যে ককটেল আসছে এমন খবরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক।

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ঢাকার পরিস্থিতি আজ কতটুকু খারাপ বলে মনে করেন? আজকে দেখা গেছে, পুলিশের বিশেষায়িত বাহিনী সোয়াটকে রাইফেল হাতে রাস্তায় নামতে, বোম ডিসপোজাল ইউনিট নেমেছে। সাধারণত, বিশেষ কোনো অভিযানে বিশেষ পরিস্থিতিতে তাদের নামানো হয়। এমন কি হলো? পরিস্থিতি কি খুবই খারাপ? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার ফারুক বলেন, আমরা শুনেছি ওইখানে (বিএনপি কার্যালয়ে) অনেক ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে। বিএনপি অফিস থেকে ককটের বিস্ফোরণ হয়েছে। ওইখানে খাবার-দাবার, চাল-ডাল, লাঠিসোঠা বিভিন্ন কিছু জমা করা হয়েছে এমন খবর পেয়েছি। আমাদের পুলিশ নিরাপত্তার স্বার্থে তাদের শক্তি বাড়িয়েছে। আজ একটা অফিসিয়াল ডে। কোনো পূর্বানুমতি নেই, ১০ ডিসেম্বর সমাবেশ। পল্টনে তারা রাস্তা বন্ধ করে সমাবেশ করবে এটা তো কাম্য নয়।  

আজ তবে কি ককটেলের বিরুদ্ধে পুলিশের পক্ষ থেকে এম-১৬ ব্যবহার, এম-১৬ এর শোডাউন করা হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ককটেল শুধু নয়, সামগ্রিক নাশকতার বিরুদ্ধে এম-১৬ ব্যবহার করা হয়েছে।

বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যেকার সংঘর্ষে কেউ নিহত হয়েছে কিনা? জানতে চাইলে খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, এরকম তথ্য আমরা এখনো নিশ্চিত হতে পারিনি। আমি একটা মিটিং এ ছিলাম। খোঁজ নিতে হবে।

এমন পরিস্থিতিতে ডিএমপি ১৪৪ ধারা জারি করেনি কেন? সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, এখনও সময় আছে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত। যদি তারা সিদ্ধান্ত বদল করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে যায়। তবে তারা যদি বলে আমরা সমাবেশ করতে যাবো না। তবে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবো।

ভিডিও ফুটেছে দেখা যাচ্ছে যে পুলিশ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় গিয়ে আক্রমণ করেছে এ জিনিসটা কেন করা হলো? জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, আপনি ভিডিও ফুটেজ দেখেছেন আমি এখনো ভিডিও ফুটেজ দেখিনি। তাহলে আমি যতটুকু জানি উনাদের সমাবেশ ১০ ডিসেম্বর। আজ অফিসিয়াল ডে এই দিনে তারা নয়া পল্টনের রাস্তা দখল করে সমাবেশ করছেন। গাড়ি-ঘোরা বন্ধ করে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করে তারা ওইখানে আজকে জমায়েত হবেন, তারা সেখানে সমাবেশ করবেন এটা ঠিক নয়, আমি মনে করি তারা আইন অনুযায়ী কোনো কাজ করেনি।

রাজধানীর প্রবেশ পথ গাবতলী, গুলিস্তান, সায়েদাবাদ যাত্রাবাড়ী এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করা হচ্ছে। তল্লাশির নামে হয়রানির অভিযোগ রয়েছে। যাদের অনেককে আটক করা হচ্ছে বিএনপি নেতাকর্মী হলেই এমন প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, এরকম কোনো তথ্য নেই। নিয়মিত চেকপোস্ট বসছে। এর কারণ হলো আমাদের ১-১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিশেষ অভিযান চলছে। ১৪, ১৬ ডিসেম্বর ও ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন। এর আগে যাতে কোনো ধরনের নাশকতার ঘটনা না ঘটে সেজন্য আমরা নিরাপত্তা ব্যবস্থার অংশ হিসেবে চেকপোস্ট বসিয়েছি। আমরা কোনো যাত্রীকে আটক বা ঢাকা আসা বন্ধ করিনি।

ইডেন ছাত্রলীগের ১৪ জনের আগাম জামিন
                                  

দুই পক্ষের মারামারির মামলায় ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের স্থগিত হওয়া কমিটির সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা, সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানাসহ ১৪ নেতাকর্মীকে আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। 

মঙ্গলবার বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাদের ৬ সপ্তাহের আগাম জামিন দেন।

জামিন পাওয়া বাকিরা হলেন- কামরুন্নাহার জ্যোতি, জিন্নাত জাহান লিমা, বিজলি আক্তার, সোমা মলি­ক, শাহানা রহমান, শিরিন সুমি, ফারজানা নীলা, রিতু আক্তার, মিম ইসলাম, নুজহাত ফারিয়া রোকসানা, নূরজাহান ও আনিকা তাবাসসুম স্বর্ণা। 

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট এসএম আবুল হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী মাইনুল হোসেন।

এর আগে গতকাল (৩ অক্টোবর) লালবাগ থানায় দায়ের করা মামলায় ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার হওয়া নয়জনকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন দেন হাইকোর্ট। তারা হলেন- সহসভাপতি জেবুন নাহার শিলা, মারজান আক্তার উর্মি, কল্পনা বেগম, সোনালী আক্তার, সুস্মিতা বাড়ৈ, সাদিয়া জাহান সাথী ও জান্নাতুল ফেরদৌস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফাতেমা খানম বিন্তি ও সাংগঠনিক সম্পাদক সামিয়া আক্তার বৈশাখী।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর ক্যাম্পাসে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রীভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়ার সমর্থকদের সঙ্গে সহসভাপতিদের সমর্থকদের মারামারির ঘটনায় ১০ জন আহত হন। ওইদিন রাতে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সংসদ। একইসঙ্গে সাংগঠনিক শৃঙ্খলাভঙ্গের জন্য ১৬ জনকে বহিষ্কার করা হয়। এ ঘটনায় গত ২৮ সেপ্টেম্বর লালবাগ থানায় উভয় গ্রুপ পালটাপালটি মামলা দায়ের করে।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৩
                                  

মোঃ শফিকুল ইসলাম 

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে ৩৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

 রোববার (৯ অক্টোবর) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

 

ডিএমপি জানায়, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে শনিবার ভোর ৬টা থেকে রোববার ভোর ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে ১ হাজার ২৭৫ পিস ইয়াবা, ৫ কেজি ৮৮৫ গ্রাম গাঁজা, ৫০ গ্রাম হেরোইন, ১৫ বোতল ফেন্সিডিল ও ১০ গ্রাম আইস উদ্ধার করা হয়।

 গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ২৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাতের আধারে অসহায় শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ
                                  

 

 

 বিশেষ প্রতিনিধি- 

মাঘের শীতে কাঁপছে দেশ। প্রচণ্ড শীতে অসহায় দুস্থ মানুষ, শীতবস্ত্র নিয়ে এসব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে 

ইলহাম ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ 

সংগঠনের পরিচালনায় 

মোঃ আহাদুজ্জামান, কিনকন মিয়া (সুমন) কাজী হাসান মাহমুদ, আবু নাহিয়ান মিয়া, আবু রায়হান, বাবুল রাজা

ইলহাম ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে গত রাতে ঢাকা  নগরের বিভিন্ন স্থানে কম্বল বিতরন করে,, ইলহাম ফাউন্ডেশন এর সুমন মিয়া জানায় এই ফাউন্ডেশন এর মূল কাজ দরিদ্র ও নিরক্ষরতা দূরকরনের লক্ষে এটি একটি সামাজিক প্রয়স ইলহাম ফাউন্ডেশন।

রাজধানীর যে সব এলাকায় ১০ ঘণ্টা থাকবে না গ্যাস শনিবার
                                  

নিজস্ব প্রতিনিধি

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জরুরি গ্যাস পাইপ লাইন স্থানান্তরের জন্য শনিবার সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত তেজকুনিপাড়া, তেজগাঁও বালিকা বিদ্যালয় এলাকা, কারওয়ান বাজার, খ্রিস্টান পাড়া, সোনারগাঁও হোটেল, কাঁঠালবাগান, দিলু রোড, পরিবাগ, সোনারগাঁও রোডের পূর্ব পার্শ্ব, কাঁটাবন রোড এর পশ্চিম পাশের এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে এবং পার্শ্ববর্তী এলাকায় স্বল্পচাপ বিরাজ করবে। সাময়িক এ অসুবিধার জন্য গ্রাহকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছে তিতাস কর্তৃপক্ষ।

রোজিনার জামিন শুনানির আদেশ পেছাল
                                  

অনুমতি ছাড়া করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অভিযোগে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের করা অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট মামলায় দৈনিক প্রথম আলোর সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জামিন শুনানির আদেশ রোববার (২৩ মে) ধার্য করেছেন আদালত।বৃহস্পতিবার (২০ মে) বিকালে ঢাকার মহানগর হাকিম বাকী বিল্লার আদালত এ আদেশ  দেন। এরআগে শুনানি শেষ হওয়ার পর জামিন শুনানির আদেশ পরে দেওয়া হবে বলে জানান আদালত।

দুই পক্ষের বক্তব্য শুনে পরে বিচারক বলেন, ‘নথিপত্র পর্যালোচনা করে দ্রুততম সময়ে আদেশ দেওয়া হবে।’

শুনানিতে জামিনের বিরোধিতা করে রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর হেমায়েত উদ্দিন খান হিরণ বলেন, ‘আসামির কাছ থেকে আলামত উদ্ধার করা হয়েছে, তাকে জামিন দেওয়া ঠিক হবে না।’

অন্যদিকে রোজিনার আইনজীবী এহসানুল হক সমাজি বলেন, ‘এজাহারে সেরকম কোনো আলামতের বর্ণনা নেই। যে আলামতের কথা বলা হচ্ছে, তা পরে ম্যানিপুলেট করা।’তিনি বলেন, ব্রিটিশ আমলের যে  ‘অফিসিয়াল সিক্রেটস’ আইনে এ মামলা করা হয়েছে, বাংলাদেশে তার ব্যবহার অত্যন্ত কম, সাংবাদিকদের বিরুদ্ধেও এ আইন প্রয়োগের তেমন নজির নেই। ভারতে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে এ আইন ব্যবহার করতে দেখা গেছে।

রোজিনার পক্ষে শুনানিতে আরও ছিলেন আইনজীবী আশফ উল আলম, প্রশান্ত কর্মকার ও আমিনুল গণি টিটো।

ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া, ব্লাস্টের মশিউর রহমান এবং আইন ও সালিশ কেন্দ্রের মো. আবদুর রশীদও উপস্থিত ছিলেন।

গত মঙ্গলবার (১৮ মে) দুপুরে অনুমতি ছাড়া করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অভিযোগে দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের রিমান্ড আবেদন খারিজ করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) মোহাম্মদ জসিম এ নির্দেশ দেন।এর আগে রোজিনার বিরুদ্ধে করা স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের করা অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট মামলা ডিবিতে স্থানান্তর করা হয় বলে জানান ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) রমনা বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার এইচ এম আজিমুল হক।

বৃহস্পতিবার (২০ মে) সকালে সময় নিউজকে তিনি বলেন, প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মামলার তদন্তের স্বার্থে যা যা করা দরকার, তার সবই করা হবে। তিনি বলেন, মামলা তদন্ত করতে কোনো জায়গা থেকে কোনো চাপ নেই।

এদিকে গতকাল বুধবার (১৯ মে) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন করে বিভিন্ন সংগঠন। এ সময় সাংবাদিক নেতারা তার মুক্তি দাবি জানান।  

একই দাবিতে গোপালগঞ্জ, ঝিনাইদহ, ফেনী ও ময়মনসিংহসহ মানববন্ধন এবং প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন সংবাদমাধ্যম কর্মীরা। ছাড়াও প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেপ্তারের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে জাতিসংঘ। বিশ্ব সংস্থাটি বলেছে, বিষয়টির দিকে তারা নজর রাখছে এবং এটি স্পষ্টতই উদ্বেগের বিষয়।

প্রসঙ্গত, সচিবালয়ে অনুমতি ছাড়া করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিনের সরকারি নথির ছবি তোলার অভিযোগে রোজিনা ইসলামকে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রাখার পর শাহবাগ থানা পুলিশে সোপর্দ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

সোমবার (১৭ মে) রাত সাড়ে ৮টার পরে শাহবাগ থানা পুলিশের একটি টিম সচিবালয় থেকে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নিয়ে যায়। রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সিব্বির আহমেদ ওসমানী লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু
                                  

রাজধানীর উত্তরায় লেগুনার ধাক্কায় রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যুর হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০ মে) উত্তরার আজমপুর রেলগেট এলাকায় বেলা পৌনে ১১টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশুর নাম মরিয়ম (৭)। সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার সুন্দরপুর বাগডাঙ্গা গ্রামের রাজমিস্ত্রি রাকিব হোসেনের মেয়ে।
 
বর্তমানে সে উত্তরখান ফকির শাহ মাজার এলাকায় পরিবারের সঙ্গে থাকত। তিন বোন, এক ভাইয়ের মধ্যে মরিয়ম ছিল তৃতীয়।
নিহত শিশুটির বাবা রাকিব হোসেন জানান, সকালে আমার মেয়ে মরিয়মকে নিয়ে পাশের ভাড়াটিয়া হৃদয় হাসান ও তার মেয়েসহ ঘুরতে বের হয়েছিল। পরে লেগুনার ধাক্কায় রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয় মরিয়ম। তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

শিশুটির মা ডলি আরা বেগম জানান, মাঝেমধ্যে পাশের ভাড়াটিয়া হৃদয় হাসানের সঙ্গে ও তার মেয়ের সঙ্গে ঘুরতে বের হতো মেয়ে মরিয়ম।
আজ সকালে তাদের সঙ্গেই ঘুরতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে আমার মেয়ে মেয়ের মৃত্যু হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান মৃতদেহটি হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট থানাকে অবহিত করা হয়েছে।


প্রয়োজনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পর্যালোচনা করা হবে’
                                  

কোনো আইনই সম্পূর্ণ নয়, বিতর্কের ঊর্ধ্বে না। প্রয়োজনের তাগিদে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পর্যালোচনা করা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) এ কথা বলেন মন্ত্রী। 

এ সময় লেখক মুশতাকের মৃত্যু নিয়ে মন্ত্রী বলেন, মুশতাক আহমেদের মৃত্যু কাম্য নয়। তবে এটি অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু, হত্যাকাণ্ড নয় বলেও জানান মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী।

এদিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২১, ২৫, ২৮ ও ৩৫ ধারা মতপ্রকাশ ও বাকস্বাধীনতার পরিপন্থী উল্লেখ করে তা সংশোধন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক।

এত দিন পর কেন আসলেন: আল জাজিরা ইস্যুতে হাইকোর্ট
                                  

আল জাজিরায় প্রকাশিত ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার’ ম্যান প্রতিবেদনটিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের বিষয়ে মানহানিকর তথ্য প্রচার করা হয়েছে। এমন পর্যবেক্ষণ দিয়ে হাইকোর্ট বিতর্কিত প্রতিবেদনটি প্রকাশের ১০ দিন পর আদালতে আসার জন্য রিটকারী আইনজীবীকে ভৎসনা করেছেন।হাইকোর্ট রিটকারী আইনজীবীকে উদ্দেশ করে বলেন, আল জাজিরার প্রতিবেদনটি ১ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত হয়, যা গেল ৯ দিনে দেশ-বিদেশের লাখো মানুষ দেখেছে। আর আপনি ১০ দিন পর আদালতের কাছে এসেছেন ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ সব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে এটি সরিয়ে নেওয়ার আদেশ নিতে। এত দিন কী করেছেন?

শুধু তাই নয়, আল জাজিরার প্রতিবেদনের বিষয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় ও বিটিআরসি কেন কিছু করেনি সে বিষয়ে প্রশ্ন তুলেন হাইকোর্ট। বিটিআরসির পক্ষে থাকা আইনজীবী রেজা ই রাকিবকে হাইকোর্ট প্রশ্ন করেন, আপনাদের তো এ ধরনের কন্টেন্টের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুর্নিদিষ্ট আইন আছে। তাহলে আপনারা বা তথ্য মন্ত্রণালয় কেন কিছু করেনি।অতীতের বিভিন্ন সময় তো এ ধরনের ইস্যুতে আপনারা ব্যবস্থা নিয়েছিলেন, তাহলে আল জাজিরা ইস্যুতে কেন আপনারা  নিজেরা কিছু না করে আদালতের কাছে এসেছেন? 

বুধবার (১০ জানুয়ারি) সকালে বিচারপতি মো. মজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লা বাংলাদেশে আল জাজিরার সম্প্রচার বন্ধ ও অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার ম্যান প্রতিবেদনটি ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ সব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম  থেকে সরিয়ে নেওয়ার অনুমতি চেয়ে করা রিটের শুনানিতে এসব মন্তব্য করেন। 

দ্বিতীয় দিনের মতো আল জাজিরা ইস্যুতে হাইকোর্ট শুনানি শুরু করেন সকাল ১১টা ৪৮ মিনিটে। শুনানিতে বিটিআরসির আইনজীবী ব্যারিস্টার রেজাই রাকিব আদালতকে বলেন, আল জাজিরায় প্রকাশিত অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার ম্যান প্রতিবেদনটি দেশের সার্বভেৌমত্বের ওপর আঘাত। এটি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। দেশের সেনাবাহিনী, পুলিশসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের মানহানির উদ্দেশ্যই কাতারভিত্তিক বেসরকারি চ্যানেল আল জাজিরা রিপোর্টটি প্রকাশ করেছে।

অন্যদিকে রিটকারী আইনজীবী আনামুল কবীর ইমন শুনানিতে আদালতে বলেন, আল জাজিরার প্রতিবেদনের শিরোনাম থেকেই স্পষ্ট হয় এটি একটি বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছে। এ প্রতিবেদন সরকারবিরোধী এবং দেশের বিদ্যমান স্থিতিশীলতা নষ্টের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে।

আদালত এ বিষয়ে অধিকতর শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্টের ৬ জন আইনজীবীকে অ্যামিকাস কিউরি হিসেবে নিয়োগ দেন। তারা হলেন- সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, কামাল উল আলম, আব্দুল মতিন খসরু, ফিদা এম কামাল, প্রবীর নিয়োগী ও ড. শাহদীন মালিক।

আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে আল জাজিরার সম্প্রচার বন্ধ ও বিতর্কিত অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার ম্যান প্রতিবেদনটি ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ সব অনলাইন প্ল্যাটফর্ম  থেকে সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে আদালতে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

আলাউদ্দিন জিহাদীর মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল
                                  

কাউসার আহম্মেদঃ

হেফাজতে ইসলামের প্রয়াত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তির অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত মুফতি আলাউদ্দিন জিহাদীর মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত সহ বিভিন্ন ইসলামিক দলের আলেম ওলামারা।

আজ বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত হওয়া মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, আলাউদ্দিন জিহাদী একজন দেশে বরণ্যে আলেম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার এডমিনের দেওয়া একটি পোস্টের জন্য দুঃখ প্রকাশ করার পরেও তাকে অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তার ও রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। সুন্নিরা ৩ দিন ধরে শান্তিপূর্ণভাবে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল জেলা  উপজেলায় আন্দোলন করে আসছে। কোন কোন জায়গায় সড়ক মহাসড়ক অবরোধ হয়েছে। কিন্তু প্রশাসন এখনও তাকে মুক্তি না দিয়ে জেলে আটক রেখেছে। সুন্নিরা শান্তি প্রিয়, মানে এই নয় যে- তারা যে কোন অন্যায়-জুলুম মেনে নিবে। অবিলম্বে আলাউদ্দিন জিহাদীকে মুক্তি দেওয়া না হয় তাহলে সুন্নিরা যে কোন কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে।


উল্লেখ্য, আল্লামা আহমদ শফীকে কটূক্তি মামলায় ২০ সেপ্টেম্বর মাওলানা আলাউদ্দিন জিহাদীকে গ্রেপ্তারের পর তার মুক্তির দাবিতে চট্টগ্রামসহ সারাদেশ আহলে সুন্নাত, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা, ছাত্রসেনাসহ ইসলামী দলগুলো আন্দোলন করে আসছে।

ধর্ষণ মামলার বিষয়ে যা বললেন ভিপি নুর
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে রাজধানীর লালবাগ থানায় একটি মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের এক শিক্ষার্থী বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। এ মামলার বিষয়ে নিজের বক্তব্য দিয়েছেন ভিপি নুর। ভিপি নুর বলেন, মামলার বিষয়ে তেমন কিছু জানেন না এবং বাদী সেই নারীকেও তিনি চেনেন না বলে দাবি করেন ভিপি নুর। মামলাটি তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মনে করছেন ভিপি নুর।

মামলার পর এক লাইভ ভিডিওতে ভিপি নুর বলেন, লালবাগ থানায় না কোথায় মামলা হয়েছে সেটি আমি জানি না। এমনকি কোন মেয়ে মামলাটি করেছে তাকেও চিনি না। আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা তো নতুন কিছু নয়। এসব মামলা-হামলা ধারাবাহিক ষড়যন্ত্রের অংশ।

 

কোটা সংস্কার আন্দোলন থেকে উঠে আসা এই ছাত্রনেতা বলেন, আমার বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিক মামলা হয়েছে। চুরির মামলা, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের মামলাও হয়েছে।

ভিপি নুর বলেন, এসব মামলা মূলত আমাদের চরিত্র হনন করার ষড়যন্ত্র। এসব মামলায় আমরা বিচলিত নই। দেশবাসী সবকিছু বোঝেন এবং জানেন। মামলা দায়েরকারীকে আমি চিনি না।

নুর বলেন, এসব মামলা করে লাভ নেই। আমি মামলা-হামলার ভয় পাই না। জনগণকে তাদের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়ার লড়াই চলবেই। মনে রাখতে হবে- এই দিন দিন নয়, আরও দিন আছে।

মামলার বিষয়ে লালবাগ থানার ওসি কেএম আশরাফ উদ্দীন জানান, রবিবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। গত ৩ জানুয়ারি ১০৪, নবাবগঞ্জ রোডের একটি বাসায় নিয়ে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ করেছেন ওই শিক্ষার্থী। মামলার এজাহারে ৬ জনকে আসামি করা হলেও ধর্ষণকাণ্ডে ডাকসু ভিপি একাই জড়িত ছিলেন বলে দাবি ওই শিক্ষার্থীর।

 

গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

রাজধানীর গুলশানের অ্যাপেল থাই স্পা সেন্টারে অভিযান চালিয়েছে গুলশান থানা পুলিশ। এ সময় ওই স্পা সেন্টার থেকে অন্তত ১২ জন পুরুষ ও ১৬ জন নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে গুলশান-২ এর ১০৫ নম্বর রোডের একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, এই স্পা সেন্টারে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিভিন্ন বয়সী নারীদের একত্রিত করে দেহ ব্যবসা পরিচালনা, যৌন শোষণ ও নিপীড়নমূলক কাজ চলে আসছিল।

গুলশান থানা পুলিশ জানায়, রাত সাড়ে ৮টায় ওই স্পা সেন্টারে অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে স্পার নামে এই সেন্টারকে অসামাজিক কাজে ব্যবহারের প্রমাণ পাওয়া যায়।

এ সময় ১২ জন নারী ও ১৬ জন পুরুষকে আটক করা হয়। আটককৃতদের থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে প্রক্রিয়া চলছে।

ছিনতাইয়ের সময় অস্ত্রসহ ২ সন্ত্রাসী আটক
                                  

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

রাজধানীর মিরপুরে ছিনতাই করার সময় অস্ত্রসহ দুই সন্ত্রাসীকে হাতেনাতে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব- ৪ মিরপুর ক্যাম্প। আজ শনিবার ভোররাতে মিরপুর ১০ নম্বর গোলচত্বর থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলার আরিফুল ইসলাম ওরফে চাক্কু আরিফ (৩২) ও মাদারীপুর জেলার জোবায়ের হোসেন (৩০)।

র‌্যাব- ৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার জিয়াউর রহমান চৌধুরী জানান, আটক দুই সন্ত্রাসী সাভারের আমিনবাজার বেড়িবাধ ও মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় মানুষকে অস্ত্র দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছিল। এ ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ, মাদকসহ মিরপুরসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এসব ঘটনায় ভুক্তভোগীরা অতিষ্ট হয়ে দুই সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে র‌্যাব তাদেরকে ধরতে মাঠে নামে।

পরে আজ ভোররাতে মিরপুর ১০ নম্বর গোলচত্বর এলাকায় ছিনতাই করার সময় র‌্যাবের একটি দল হাতেনাতে দুই সন্ত্রাসীকে আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি ওয়ান শ্যুাটারগান, দুটি ছোরা, একটি মোটরসাইকেল, দুটি মোবাইল ফোন ও নগদ ৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

জিয়াউর রহমান চৌধুরী আরও বলেন, আটক দুই সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে সংশ্রিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করে তাদেরকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ছাড়া ভবিষ্যতে এরূপ সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী গ্রুপের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোরালো সাড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অন্যদিকে, ঢাকার ধামরাইয়ের নান্নার এলাকায় চাঁদাবাজি করার সময় দেশীয় অস্ত্রসহ এক সন্ত্রাসীকে আটক করেছে ধামরাই থানা পুলিশ।

৫ মাস পর চট্টগ্রামে লোকাল ট্রেন চালু
                                  

চট্রগ্রাম প্রতিনিধিঃ

দীর্ঘ পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর চট্টগ্রামে আজ থেকে শুরু হলো লোকাল ট্রেন চলাচল। বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকাল দশটায় চট্টগ্রাম রেলওয়ের পুরাতল রেলস্টেশন থেকে ঢাকার উদ্যেশে ছেড়ে যায় কর্ণফুলী কমিউটার নামের ট্রেনটি। আগামী ১৩ ও ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে আঞ্চলিক ট্রেন চলাচল। এদিকে, আগামী ১২ সেপ্টেম্বর কাউন্টার থেকে শুরু হবে টিকিট বিক্রি। কর্ণফুলী কমিউটার ট্রেন চালুর মধ্য দিয়ে শুরু হলো চট্টগ্রাম থেকে লোকাল ট্রেন চলাচল। দীর্ঘ পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ঢাকার উদ্যেশে ছেড়ে যায় এই ট্রেন।

দ্বিতীয় দফায় ১৩ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হবে ময়মসিংহ এক্সপ্রেস, চাঁদপুর কমিউটার ও নোয়াখালী কমিউটারসহ বেশ কিছু ট্রেন। তৃতীয় দফায় ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হবে নাজিরহাট কমিউটার, চট্টগ্রাম- দোহাজারীর ট্রেন চলাচলও।

 

আন্তঃনগর ট্রেনের মত সব ট্রেনই স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করবে বলে জানালেন সংশ্লিষ্টরা। তবে অনলাইনে টিকিট বিক্রি নিয়ে নানা অভিযোগ রয়েছে যাত্রীদের। এদিকে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর শুরু হবে কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি। গেল ৩১ আগস্ট থেকে চট্টগ্রামে শুরু হয় আন্ত:নগর ট্রেন চলাচল।


   Page 1 of 5
     নগর - মহানগর
আজ ঢাকার বাতাস ‘অতি অস্বাস্থ্যকর
.............................................................................................
মিরাজ মুগ্ধতার ম্যাচে ভারতকে সিরিজ হারাল বাংলাদেশ
.............................................................................................
চাল-ডালের বস্তায় ককটেল এসেছে, এমন খবরে অভিযান: ডিএমপি কমিশনার
.............................................................................................
ইডেন ছাত্রলীগের ১৪ জনের আগাম জামিন
.............................................................................................
রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৩৩
.............................................................................................
রাতের আধারে অসহায় শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ
.............................................................................................
রাজধানীর যে সব এলাকায় ১০ ঘণ্টা থাকবে না গ্যাস শনিবার
.............................................................................................
রোজিনার জামিন শুনানির আদেশ পেছাল
.............................................................................................
রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু
.............................................................................................
প্রয়োজনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পর্যালোচনা করা হবে’
.............................................................................................
এত দিন পর কেন আসলেন: আল জাজিরা ইস্যুতে হাইকোর্ট
.............................................................................................
আলাউদ্দিন জিহাদীর মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল
.............................................................................................
ধর্ষণ মামলার বিষয়ে যা বললেন ভিপি নুর
.............................................................................................
গুলশানে স্পা সেন্টারে অভিযান
.............................................................................................
ছিনতাইয়ের সময় অস্ত্রসহ ২ সন্ত্রাসী আটক
.............................................................................................
৫ মাস পর চট্টগ্রামে লোকাল ট্রেন চালু
.............................................................................................
নাখালপাড়া থেকে স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার
.............................................................................................
তরুণীর সামনে বিবস্ত্র হওয়া সেই কিশোর আটক
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক নারীপাচার চক্রের হোতা গ্রেপ্তার
.............................................................................................
চট্টগ্রামে মা-ছেলেকে গলা কেটে হত্যা
.............................................................................................
গ্রিনরোডের সেই নারীর হত্যা রহস্য উদঘাটন !
.............................................................................................
রিজেন্ট হাসপাতালের মিরপুর শাখাও সিলগালা
.............................................................................................
ঢাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ছিনতাইকারী নিহত
.............................................................................................
রাজধানীর যে ৪৯ এলাকায় হবে লকডাউন
.............................................................................................
পূর্ব রাজাবাজার লকডাউন, মাঠে রয়েছে সেনা সদস্যরা
.............................................................................................
উত্তরায় পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ
.............................................................................................
রাজধানীর যে ৩৮ এলাকা আংশিক লকডাউন ঘোষণা
.............................................................................................
রাজধানীতে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী মিরপুরে
.............................................................................................
ঢাকায় বন্দুকযুদ্ধে ১৩ মামলার আসামি নিহত
.............................................................................................
রাজধানীতে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ-ভাঙচুর
.............................................................................................
চালের বস্তায় ১ মণ গাঁজাসহ আটক ৪
.............................................................................................
মিরপুরে বোনাসের দাবিতে পোশাক শ্রমিকদের অবরোধ
.............................................................................................
গলা কেটে মাকে হত্যার চেষ্টা, ছেলে গ্রেপ্তার
.............................................................................................
রাজধানীতে ব্যাংকের গাড়ি থেকে টাকার বস্তা উধাও!
.............................................................................................
মোহাম্মদপুরে ফিল্মি স্টাইলে ডাকাতি
.............................................................................................
মোহাম্মদপুর থেকে করোনা সন্দেহভাজন প্রবাসীরা পালিয়েছে
.............................................................................................
খিলগাঁওয়ে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী নিহত
.............................................................................................
মিরপুরে একটি ভবন লকডাউন
.............................................................................................
করোনা আতংকে ফাঁকা হচ্ছে ঢাকা
.............................................................................................
আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৩ সদস্য গ্রেফতার
.............................................................................................
খিলগাঁওয়ে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত
.............................................................................................
আশকোনার হজ ক্যাম্পে তুমুল হট্টগোল
.............................................................................................
মিটফোর্ড থেকে নকল আইপিল ও ভায়াগ্রা উদ্ধার
.............................................................................................
রূপনগর বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রন, পুড়েছে প্রায় ৩০০ ঘর
.............................................................................................
রুপনগরে ভয়াবহ আগুন, নিয়ন্ত্রনে ১৬ ইউনিট
.............................................................................................
শনির আখড়ায় রঙের কারখানায় আগুন
.............................................................................................
দুই শিশুকে হত্যা করে মায়ের আত্মহত্যার চেষ্টা
.............................................................................................
কেরানীগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত নিহত
.............................................................................................
২ শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার পর হত্যা: দুইজনের ফাঁসি
.............................................................................................
ইস্কাটনে ভবনে আগুন, স্বামী-স্ত্রীর অবস্থা আশঙ্কাজনক
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
নির্বাহী সম্পাদক: মোহাম্মদ রাসেল মোল্লা

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু, সহ সম্পাদক: কাওসার আহমেদ । র্বাতা সম্পাদক: আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, মাসুম হাসান৷ সহকারী-বার্তা সম্পাদক লাকী আক্তার । বার্তা বিভাগ ফোন০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, রেজিস্ট্রেশন নং 134 / নিবন্ধন নং 69 মোবাইল : 01731190131,E-mail- notunbazar2015@gmail.com, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD