| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মেইন-অ্যারিজোনা জিতে বাইডেন ২৩৮, ট্রাম্প ২১৩

ঢাকা: সর্বশেষ মেইন এবং অ্যারিজোনা রাজ্যের ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন। মেইনের চারটি এবং অ্যারিজোনার ১১টি ইলেকটোরাল ভোটে বিজয়ী হয়ে বাইডেন এর এখনো পর্যন্ত সংগ্রহ ২৩৮ ইলেকটোরাল ভোট।

 

তবে এখনও ২১৩টি ইলেকটোরাল ভোট নিয়েই পড়ে আছেন রিপাবলিকান প্রার্থী এবং বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

 

বুধবার (৪ নভেম্বর) সর্বশেষ মেইন ও অ্যারিজোনা রাজ্যের ফলাফল প্রকাশ করা হয়। দু’টিতেই বিজয়ী হন জো বাইডেন। এর পাশাপাশি নেভাদা রাজ্যেও এগিয়ে আছেন জো বাইডেন। তবে পেনসিলভানিয়া এবং জর্জিয়ায় এখনও এগিয়ে আছে ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সমীকরণ ঠিকঠাক থাকলে উইসকনসিন এবং মিশিগান রাজ্য জয় করতে পারলে হোয়াইট হাউজের টিকিট পেয়ে যেতে পারেন জো বাইডেন।

এদিকে, ২১৩ ইলেকটোরাল ভোট নিয়ে থাকা ডোনাল্ড ট্রাম্প বেশ ক্ষুব্ধ। এরই মধ্যে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে নির্বাচনকে ‘জাতির সঙ্গে প্রতারণা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন তিনি। প্রয়োজনে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে যাওয়ারও হুমকি দিয়েছেন ট্রাম্প।

মেইন-অ্যারিজোনা জিতে বাইডেন ২৩৮, ট্রাম্প ২১৩
                                  

ঢাকা: সর্বশেষ মেইন এবং অ্যারিজোনা রাজ্যের ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন ডেমোক্রেট প্রার্থী জো বাইডেন। মেইনের চারটি এবং অ্যারিজোনার ১১টি ইলেকটোরাল ভোটে বিজয়ী হয়ে বাইডেন এর এখনো পর্যন্ত সংগ্রহ ২৩৮ ইলেকটোরাল ভোট।

 

তবে এখনও ২১৩টি ইলেকটোরাল ভোট নিয়েই পড়ে আছেন রিপাবলিকান প্রার্থী এবং বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

 

বুধবার (৪ নভেম্বর) সর্বশেষ মেইন ও অ্যারিজোনা রাজ্যের ফলাফল প্রকাশ করা হয়। দু’টিতেই বিজয়ী হন জো বাইডেন। এর পাশাপাশি নেভাদা রাজ্যেও এগিয়ে আছেন জো বাইডেন। তবে পেনসিলভানিয়া এবং জর্জিয়ায় এখনও এগিয়ে আছে ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সমীকরণ ঠিকঠাক থাকলে উইসকনসিন এবং মিশিগান রাজ্য জয় করতে পারলে হোয়াইট হাউজের টিকিট পেয়ে যেতে পারেন জো বাইডেন।

এদিকে, ২১৩ ইলেকটোরাল ভোট নিয়ে থাকা ডোনাল্ড ট্রাম্প বেশ ক্ষুব্ধ। এরই মধ্যে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে নির্বাচনকে ‘জাতির সঙ্গে প্রতারণা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন তিনি। প্রয়োজনে দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে যাওয়ারও হুমকি দিয়েছেন ট্রাম্প।

ইউরোপের সংক্রমণ বৃদ্ধি নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন ডব্লিউএইচও
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইউরোপে কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ বেড়ে যাওয়াটা `খুবই উদ্বেগের বিষয়`, তবে এপ্রিলের চূড়ান্ত পরিস্থিতির তুলনায় সংক্রমণ কয়েকগুণ বেশি হলেও মৃত্যু কম। বৃহস্পতিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আঞ্চলিক অফিস নতুন করে প্রকোপ নিয়ে সতর্ক করা ছাড়াও তা নিয়ন্ত্রণে ইউরোপে ফের কড়াকড়ি আরোপের আহ্বান জানিয়েছে।

ইউরোপে সংস্থাটির আঞ্চলিক পরিচালক হ্যান্স ক্লুগ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, `দৈনিক সংক্রমণের সঙ্গে দৈনিক হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যাও আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে। প্রতিদিন মৃত্যুর সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। তবে পরিস্থিতি এপ্রিলের মতো হয়নি। সংক্রমণ ঠেকাতে ফের কড়াকড়ি আরোপ করতে হবে।`

ডব্লিউএইচও`র ওই সংবাদ সম্মেলনে হ্যান্স ক্লুগ আরও বলেন, `যদিও এপ্রিলে সর্বোচ্চ সংক্রমণের চেয়ে এখন দৈনিক সংক্রমণ দুই থেকে তিনগুণ বেশি কিন্তু দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা অবশ্য পাঁচ ভাগের এক ভাগ। হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যাও বেড়েছে। আর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার সময় বেড়েছে দুই থেকে তিনগুণ বেশি।`

শীতের আগমনে করোনাভাইরাস বিস্তারের ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ায় দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃত্যু দ্রুতই বেড়ে যাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন,`ইউরোপ যদি বিধিনিষেধ শিথিলের এই নীতিতে বেশিদিন চলে তাহলে ২০২১ সালের জানুয়ারি নাগাদ দৈনিক মৃত্যু গত এপ্রিলের তুলনায় ৪ থেকে ৫ গুণ বেশি পর্যায়ে পৌঁছে যেতে পারে।`

ক্লুগের মন্তব্য, `কঠোর বিধিনিষেধের সঙ্গে মাস্ক পরা কিংবা ঘরে-বাইরে লোক সমাগম নিয়ন্ত্রণের মতো মতো সহজ পদক্ষেপ নিলে ফেব্রয়ারির মধ্যেই ইউরোপে ২ লাখ ৮১ হাজার মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব। তাই এখনই কড়াকড়ি আরোপের উপযুক্ত সময়। তবে আচমকা নয় এই কড়াকড়ি আরোপ করতে হবে ধাপে ধাপে।`

তিনি বলেন, `ছয় মাসে যেটাকে লকডাউন বলা হচ্ছিল অর্থাৎ সমাজের কিংবা অর্থনীতির সবক্ষেত্র অচল করে দেয়া, এখন সে রকম কোনো বিধিনিষেধের প্রয়োজন নেই। খুবই ধ্বংসাত্মক এসব পদক্ষেপের চেয়ে কিছু পদক্ষেপ নেয়া উচিত সরকারগুলোর। কারণ এসবের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের ক্ষতি হয়েছিল খুবই মারাত্মক।`

নারী ভোটারদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টায় ট্রাম্প
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নির্বাচন কাছে আসায় নির্দিষ্ট গ্রুপকে লক্ষ্য করে ভোট চাওয়া শুরু করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্রেটিক প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন।

ট্রাম্প নারী ভোটারদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করছেন। অন্যদিকে বয়স্কদের ভোট নিজের ঝুড়িতে পুরতে চান বাইডেন।

প্রচারণায় নিজের পক্ষে নারীদের সমর্থন চেয়ে ট্রাম্প বলেছেন, `আপনারা কি দয়া করে আমাকে পছন্দ করবেন। আমাকে ফেভার করবেন?` খবর এএফপি, ইউএসএ টুডের।

মঙ্গলবার ব্যাটল গ্রাউন্ড রাজ্য পেনসিলভানিয়ার জনসটাউন শহরতলিতে প্রচারণায় গিয়ে ট্রাম্প বলেন, `আমি আপনাদের সমস্যাসঙ্কুল এলাকাকে রক্ষা করেছি। তাই নয় কি?`

এ সময় নিজের বক্তব্য ট্রাম্প শুরু করেন প্রতিপক্ষ জো বাইডেনের সমালোচনার মধ্য দিয়ে। বাইডেন এই রাজ্যটিকে শট মেলেছেন এবং জরাজীর্ণ করে ফেলেছেন।

নিজে চীনের সঙ্গে ব্যবসা নিয়ে ঝামেলা তৈরি করে পেনসিলভানিয়ায় বেকারত্ব তৈরি করলেও একই দোষ বাইডেনের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়েছেন তিনি।

আধা ঘণ্টার বক্তব্যে সুপ্রিমকোর্টে বিচারক নিয়োগের ক্ষেত্রে নিজের প্রস্তাবিত অ্যামি কোনি ব্যারেটের প্রশংসায় অনেক কথা বলেন ট্রাম্প।

সিনেট শুনানিতে ব্যারেট তেমন কিছু না বললেও ট্রাম্প বলেন, `অ্যামি ভালো প্রভাব ফেলেছেন। তিনি মহান এক বিচারক হবেন।`

এমন একটা সময় পেনসিলভানিয়ায় প্রচারণায় গেছেন ট্রাম্প, যখন সেখানে জনমত জরিপে ট্রাম্প থেকে অন্তত ৭ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন বাইডেন।

২০১৬ সালে সামান্য ব্যবধান জয়লাভ করেছিলেন ট্রাম্প। ১৯৮৮ সালে জর্জ বুশ সিনিয়রের পর গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গরাজ্যটিতে একমাত্র রিপাবলিকান হিসেবে ট্রাম্প জয়ী হন।

ভারত অবৈধভাবে লাদাখকে নিজেদের অঞ্চল ঘোষণা করেছে: চীন
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : লাদাখকে ভারতের কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না চীন। অবৈধভাবে ভারত সেটিকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণা করেছে।

চলমান উত্তেজনার মধ্যে সীমান্ত এলাকায় ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং ৪৪ টি নতুন সেতু উদ্বোধনের বিষয়ে এমন কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে চীন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেন, প্রথমেই আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই যে চীন, লাদাখকে কেন্দ্রীয়শাসিত অঞ্চল হিসেবে স্বীকৃতি দেয় না। এটি এবং অরুণাচল প্রদেশকে ভারত অবৈধভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। আমরা সামরিক উদ্দেশ্যে সীমান্তে অবকাঠামোগত উন্নয়নের বিরোধী।

সোমবারই সীমান্তে ৪৪টি সেতুর উদ্বোধন করেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। লাদাখ, জম্মু-কাশ্মীর, অরুণাচল প্রদেশ, সিকিম, হিমাচল প্রদেশ, উত্তারখণ্ড এবং পাঞ্জাবের বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায় এসব নির্মাণ করা হয়েছে।

এসময়ে রাজনাথ বলেন, পাকিস্তান ও চীন মিলে সীমান্ত সমস্যা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। এই দুই দেশের সঙ্গে আমাদের ৭ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্ত আছে।

মঙ্গলবার চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সীমান্তে অবকাঠামোগত উন্নয়নকে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার প্রধান কারণ হিসাবে বর্ণনা করে বলেন, উভয়পক্ষেরই এমন পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত নয় যা উত্তেজনা বাড়িয়ে তোলে।

ঝাও লিজিয়ান বলেন, আমরা ভারতীয়পক্ষকে অনুরোধ করছি উভয়পক্ষের পারস্পরিক সম্মতি অনুযায়ী কাজ করতে এবং পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার মতো কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ এড়িয়ে চলতে। ভারতের উচিত সীমান্তে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া।

অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন আসছে ডিসেম্বরে
                                  

অনলাইন ডেস্ক : ডিসেম্বরের মধ্যেই অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের কোভিড ভ্যাকসিন চলে আসবে বলে মনে করছেন গবেষকরা।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় করোনা ভ্যাকসিন গবেষণার সঙ্গে যুক্ত ভারতীয় নাগরিক চন্দ্রাবলী জানান, চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই করোনা ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। এ মুহূর্তে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের শেষ পর্যায়ের কাজ চলছে। ২০২১-এর ফেব্রুয়ারি নাগাদ অনেকগুলো দেশে চলে আসবে এটি।

দেশীয় প্রযুক্ত ব্যবহার করে করোনার টিকা উৎপাদনে আশার কথা শুনিয়েছে ভারত। ভারত বায়োটেকের তৈরি `কোভ্যাক্সিন` অত্যন্ত নিরাপদ বলে জানানো হয়েছে। বিশ্বের বড় বড় দেশগুলো নিজেরা যেমন ভ্যাকসিন তৈরি করছে, তেমনি অন্যদের কাছ থেকেও মিলিয়ন মিলিয়ন ডোজ নিতে চুক্তি করে ফেলেছে। ভারত এমনই একটি দেশ। তারা নিজস্ব প্রযুক্তি ব্যবহার করে, কোভিড ভ্যাকসিন উৎপাদনে আশার আলো দেখছে। ভারত বায়োকেটের তৈরি `কোভ্যাক্সিন`-এর তৃতীয় দফার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হচ্ছে দ্রুতই। দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা বেশ ভালো ভাবেই পার করে তারা।

সংশ্লিষ্টরা জানান, করোনার ভ্যাকসিন হাতে না পাওয়া পর্যন্ত বলতে পারি না আমরা যে, এই ভাইরাসের কোনো টিকা রয়েছে। নভেম্বরের পরে বোঝা যাবে ভ্যাকসিন বাজারজাতকরণের গতিপথ। কিন্তু যত মানুষ ভারতে তাদের সবার কাছে পৌঁছাতে অনেক অনেক সময়ের ব্যাপার।

ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন জানান, ভ্যাকসিন হাতে পেলে তা দুটি ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিতরণ হবে। প্রথমত যারা পেশাগতভাবে কোভিড ঝুঁকিতে ও যারা মারাত্মক অসুস্থ তাদের।

চলতি বছরের শেষ নাগাদ ৬০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদনের ঘোষণা দিয়েছে চীন। যা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, উৎপাদিত এ-সব ডোজ পেতে ইতোমধ্যেই বেইজিংয়ের সঙ্গে যারা চুক্তি করেছে তারা সঠিক সময়ে হাতে পাবে কিনা তা নিয়ে রয়েছে সংশয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বাধীন ভ্যাকসিন সহযোগিতা উদ্যোগ কোভ্যাক্সে যোগ দেয়ায় চীনের প্রশংসা করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

এদিকে, ট্রাম্প প্রশাসনের এক কর্মকর্তা জানান, যুক্তরাষ্ট্র ২০২১ সালের জানুয়ারি নাগাদ ভ্যাকসিনের সরবরাহ পেতে শুরু করবে। তবে তার আগে শঙ্কা হলো, আসন্ন শীত মৌসুমে করোনার বড় ধাক্কা কি করে সামাল দেয় দেশটি। এদিকে টিকা উৎপাদনে যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার ও জার্মানির বায়নটেক মর্ডানার চেয়ে দ্রুত এগোচ্ছে।

করোনার টিকা নিয়ে সুখবর দিল চীন
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চলতি বছরের শেষ নাগাদ ৬০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদনের ঘোষণা দিয়েছে চীন। উৎপাদিত এসব ডোজ পেতে ইতোমধ্যেই বেইজিংয়ের সঙ্গে চুক্তি করেছে বিভিন্ন দেশ।

করোনার নিজস্ব ভ্যাকসিন তৈরির ক্ষেত্রে কোনো তাড়াহুড়া না করতে ভারত বায়োটেকের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়া। ভারত বায়োটেক করোনার সম্ভাব্য টিকা কোভ্যাকসিনের তৃতীয় দফার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরুর অনুমতি চাওয়ার পর এ কথা জানাল সরকারি প্রতিষ্ঠানটি। এর আগে দ্বিতীয় দফার পরীক্ষার ফলাফল জমা দিতে বলা হয়েছে।

করোনার চিকিৎসায় অ্যান্টিবডি তৈরি ও অতিরিক্ত এক লাখ ডোজ প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে ব্রিটিশ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে চুক্তি করেছে মার্কিন সরকার। চুক্তি অনুযায়ী কোম্পানিটেকে ৪৮ কোটি ৬০ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। খুব দ্রুত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকরা ভ্যাকসিন পাবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

২০২১ সালের শেষ নাগাদ অন্তত ২০০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন উৎপাদনের কথা জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রোস আধানোম গেব্রেয়াসুস। গুরুত্ব অনুসারে বিশ্বব্যাপী এসব ডোজ সরবরাহ করার কথাও জানান তিনি। তবে, সবার আগে অগ্রাধিকার পাবে স্বাস্থ্যকর্মীরা।

এদিকে করোনা ভাইরাসের আরও একটি ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিচ্ছে রাশিয়া। আগামী ১৫ অক্টোবর ভ্যাকসিনটির অনুমোদন দেয়ার কথা জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। প্রাথমিক ট্রায়াল শেষ হওয়া ভ্যাকসিনটি তৈরি করেছে সাইবেরিয়ার ভেক্টর রিসার্চ সেন্টার।

জাতিসংঘের অধিবেশনে ইরান-সৌদির বাকযুদ্ধ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে ইরানের বিরুদ্ধে বক্তব্য সৌদির বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ। ইরান শক্তিশালী সন্ত্রাসী নেটওয়ার্ক গড়ে পুরো মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতা তৈরি করেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। অন্যদিকে, তার এ মন্তব্যকে ’বিকারগ্রস্ত আলাপ’ আখ্যা দিয়েছে তেহরান।

সৌদি বাদশাহ সালমানের ভাষণের প্রতিক্রিয়ায় ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাইদ খতিবজাদেহ অভিযোগ করেন, এই অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদের মূল কারিগর সৌদি আরব। বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে দিনের পর দিন আর্থিকসহ প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়ে আসছে দেশটি। রিয়াদ নিজেদের সন্ত্রাসী কার্যক্রমের অপরাধের দায়ভার অন্যের উপর চাপিয়ে আসছে।

 

সুন্নী মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ সৌদি আরব এবং শিয়া অধ্যুষিত ইরান বছরের পর বছর ধরে ইয়েমেনসহ এই অঞ্চলে বেশ কয়েকটি প্রক্সি যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে। সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হাউথিদের বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে সেখানে হাউথিদের সহায়তা দিয়ে আসছে তেহরান।

সৌদির কর্মকাণ্ডে নিন্দা জানিয়ে খতিবজাদেহ আরও বলেন, সৌদি অন্যায়ভাবে কয়েক বছর ধরে ইয়েমেনের অগনিত নারী ও শিশুসহ নিরপরাধ বেসামরিক নাগরিককে হত্যা করেছে। সেখানে বিমান হামলা অব্যাহত রেখেছে। তাদেরকে দেশত্যাগ করতে বাধ্য করছে বাদশাহ আজিজের সরকার।

তিনি আরও বলেন, ইরানের উপর অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্র যে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসছে তাতে সৌদি আরব উল্লাস করে।

বিশ্বজুড়ে একদিনে ৬ হাজার মৃত্যু, শনাক্ত ৩ লাখের বেশি
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

বিশ্বব্যপি তাণ্ডব চালানো প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৬ হাজারের মতো মানুষের প্রাণ কেড়ে নিলো। মোট প্রাণহানি ৯ লাখ ৮৭ হাজারের ওপর। দ্বিতীয় দিনের মতো ৩ লাখের বেশি মানুষের শরীরে শনাক্ত হলো কোভিড নাইনটিন। সবমিলিয়ে বিশ্বে সংক্রমিত ৩ কোটি ২৪ লাখের মতো মানুষ।

বেশ কিছুদিন ধরেই, দৈনিক মৃত্যু আর সংক্রমণের শীর্ষে ভারত। ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১১শ’র বেশি মৃত্যু হয়েছে করোনায়; মোট প্রাণহানি ৯২ হাজার ছাড়ালো। আক্রান্ত সোয়া ৫৮ লাখ। এদিকে ৯২০ জনের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণহানি পেরুলো দু’লাখ ৭ হাজারের চৌকাঠ। আক্রান্ত ৭২ লাখের কাছাকাছি। বৃহস্পতিবার ব্রাজিলে করোনায় মারা গেছেন ৮ শতাধিক, মেক্সিকোয় সংখ্যাটি ৬শ’র বেশি।

 

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে উৎপত্তি হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৫টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

চীনকে হুমকি ভারতের!
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর শান্তি বজায় রাখতে দ্বিপাক্ষিক বোঝাপড়ায় বিশ্বাসযোগ্যতা ইতিমধ্যে হারিয়েছে বেইজিং। মুখে শান্তির কথা বলেও প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় স্থিতাবস্থা পরিবর্তনের লক্ষ্যে কিছু না কিছু ঘটিয়েই চলেছে শি জিনপিং প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে এবার কড়া অবস্থান নিল নয়াদিল্লিও।

নয়াদিল্লির পক্ষ থেকে বেইজিংকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হল, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় চীনা বাহিনীর বেয়াদপি বরদাস্ত করা হবে না। অতীত সমঝোতার কারণে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর দুই দেশে সেনার আগ্নেয়াস্ত্র ছাড়াই টহলদারি দেওয়ার কথা। কিন্তু নয়াদিল্লির বক্তব্য, যেভাবে কোনওরকম প্ররোচনা ছাড়াই চীনা সেনারা ভারতীয় বাহিনীর ওপর হামলা চালাচ্ছে তাতে আর হাত গুটিয়ে বসে থাকবে না সাউথ ব্লক। ভারতীয় বাহিনীকে বলে দেওয়া হয়েছে, আত্মরক্ষার জন্য তারা গুলি চালাতে পারে।

সাউথ ব্লকের এক সেনা কর্তা বলেন, দুই দেশের মধ্যে যে সমঝোতা হয়েছিল তাতে লাদাখ সীমান্তে প্রতিটি টহলদারি বাহিনীতে ১৫ থেকে ২০ জনের বেশি জওয়ান থাকার কথা নয়। কিন্তু শর্ত ভেঙে চীনা সেনারা এক সঙ্গে অনেকে মিলে চলে আসছে। তারপর ভারতীয় টহলদারি বাহিনীর ওপর হামলা চালাচ্ছে। লাঠি, পাথর, পেরেক লাগানো মুগুর দিয়ে প্রাণঘাতী হামলা চালাচ্ছে তারা। গত জুন মাসে ও পরে আগস্টের শেষে এভাবেই তারা হামলা চালিয়েছে। কিন্তু এবার তা করতে গেলে গুলি দিয়ে জবাব দেবে ভারতীয় বাহিনী।

ভারত ও চীনের সেনা কমান্ডার স্তরে ষষ্ঠ রাউন্ডের বৈঠক শেষ হয়েছে। সে ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এদিন বলেন, “আগামী দিনে শান্তি কায়েমের পথ একটাই। সংঘাত কমাতে আলোচনা চালিয়ে যাওয়া এবং লাদাখে যেসব জায়গায় দুই বাহিনীর মধ্যে সংঘাত তৈরি হয়েছে, সেখানে ধীরে ধীরে সেনা মোতায়েন কমানো।

কিন্তু ব্যাপারটা যে সেদিকে যাচ্ছে না সেই আশঙ্কা কূটনীতিক ও কৌশলগত বিশেষজ্ঞদের মধ্যে চেপে বসছে। বরং তাদের অনেকেরই ধারণা শীত পড়ার অপেক্ষা করছে বেইজিং। লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর অঞ্চলে শীতে প্রকট ঠাণ্ডা থাকে। তাপমাত্রা শূন্যের অনেক নিচে নেমে যায়। সেই সময়ে পায়ে পা দিয়ে ফের ঝগড়া বাধাতে পারে চীনা সেনাবাহিনী।

ভারতীয় সেনা গোয়েন্দাদের কাছে খবর রয়েছে যে, লাদাখ সীমান্তে অন্তত ৫০ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে চীন। সেই সঙ্গে মিসাইল সিস্টেম, ট্যাঙ্ক এবং প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র মজুত করেছে শি জিনপিংয়ের দেশ।

ভারতীয় এক কূটনীতিকের কথায়, চীন এখন বলছে যে ভারতীয় বাহিনীর হামলায় ওদের একজন কমান্ডান্ট-সহ ৬ জন সেনা সদস্য মারা গেছে। তবে প্রকাশ্যে এ কথা ওরা এখনও স্বীকার করেনি। কিন্তু দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় যখন এই প্রসঙ্গ তুলেছে, তখন বুঝতে হবে ওদের হতাহতের সংখ্যা অন্তত এর দুগুণ বা তিন গুণ। ফলে মুখে যাই বলুক ওরা সীমান্তে অস্থিরতা জিইয়ে রাখতে চাইবে বলেই মনে করা হচ্ছে। তাই আসন্ন শীতের জন্য প্রস্তুতি বাড়াচ্ছে ভারতও। লাদাখ সীমান্তে ইতিমধ্যেই পরিকাঠামো বাড়ানো হয়েছে। সেখানে রসদ সরবরাহ করতে আর অসুবিধা নেই। শীতে সংঘর্ষ বাধলে ভারতও গরম গরম জবাব দিতে প্রস্তুত থাকবে। সূত্র: দ্য ওয়াল

যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভে গুলি
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লুইভিলে কৃষ্ণাঙ্গ তরুণী ব্রেওনাকে গুলি করে মেরেছিল পুলিশ। ক্ষতিপূরণ হিসেবে ওই তরুণীর মায়ের হাতে বিপুল পরিমাণ অর্থ তুলে দিয়েছিলেন রাজ্যের মেয়র। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হলো না। ওই তরুণীর মাকে মেয়র কথা দিয়েছিলেন, দোষীদের শাস্তি হবে। কিন্তু বুধবার মার্কিন আদালত অভিযুক্ত তিন পুলিশ অফিসারের একজনকে অভিযুক্ত করেছে। দুইজনের ওপর থেকে চার্জ তুলে নেওয়া হয়েছে। অভিযোগ, যাকে অভিযুক্ত করা হয়েছে, তার বিরুদ্ধেও অভিযোগের মাত্রা কম। এরই প্রতিবাদে বুধবার লুইভিলে হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে পড়েন। অভিযোগ, বিক্ষোভকারীরা মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছেন। ঘটনায় দুই পুলিশ আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, দুই অফিসার গুলিতে আহত হয়েছেন। তবে তাদের অবস্থা স্থিতিশীল। কে বা কারা গুলি চালাল, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য, বর্ণবাদ এবং ব্রেওনা হত্যা মামলাকে কেন্দ্র করে বুধবার ফের উত্তাল হয়ে ওঠে লুইভিল। কারণ, ওই দিনই জানা যায় ব্রেওনা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত দুই পুলিশ অফিসার অভিযোগ থেকে মুক্তি পেয়েছেন। আদালতে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ প্রমাণ করা যায়নি। একজন অফিসারের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন হলেও তাতে খুব কঠিন সাজা মিলবে না।

এরই প্রতিবাদে হাজার হাজার প্রতিবাদী রাস্তায় নেমে পড়েন। ব্রেওনা হত্যার বিচার চেয়ে জায়গায় জায়গায় তারা মিছিল করেন। অভিযোগ তেমনই এক মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। তাতে দুই পুলিশ আহত হন। যদিও তাদের অবস্থা এখন স্থিতিশীল।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জ তৈরি করে পুলিশ। তারই ভিত্তিতে আদালতে তার বিচার হয়। অভিযুক্তদের বাঁচানোর জন্য লুইভিলের পুলিশ অভিযুক্তদের আড়াল করে চার্জ গঠন করেছিল। সে কারণেই আদালতে দুইজন মুক্তি পেয়েছেন।

তবে আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, স্থানীয় মেয়র কথা দিয়েছিলেন, অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবে। পুলিশ বিভাগের সংস্কার হবে। বাস্তবে তার কোনো কিছুই হয়নি। সূত্র : ডয়চে ভেলে, রয়টার্স

‘কানাডায় দ্বিতীয় পর্যায়ে করোনা সংক্রমণ চলছে’
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, দেশের কিছু কিছু অংশে ইতোমধ্যে কোভিড-১৯ দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ শুরু হয়ে গেছে। তবে কানাডিয়ানরা এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করার ক্ষমতা রাখেন।

বুধবার সন্ধ্যায় তার ওয়স্ট ব্লক অফিস থেকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় এ কথা বলেন তিনি। ট্রুডো বলেন, আমাদের চারটি বৃহত্তম প্রদেশে দ্বিতীয় পর্যায়ের সংক্রমণ সবে শুরু হচ্ছে না, এটি ইতোমধ্যে চলছে। ব্রিটিশ কলম্বিয়া, আলবার্টা, অর্ন্টারিও এবং কিউবেকের বর্তমান প্রাদুর্ভাব সম্পর্কে তিনি বলেন, আমরা একটি পতনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছি, যা বসন্তের চেয়ে আরও খারাপ হতে পারে।

তিনি বলেন, আমি জানি, এটি এমন সংবাদ নয়, যা আমরা শুনতে চেয়েছি। এবং আমরা আজকের সংখ্যা বা কালকেরও পরিবর্তন করতে পারি না।
তিনি আরও বলেন, সম্ভবত কানাডিয়ানরা থ্যাঙ্কসগিভিংয়ের জন্য জমায়েত হবে না। তবে ক্রিসমাসে আমাদের এখনও শট রয়েছে এবং একসঙ্গে এই দ্বিতীয় সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণে আনার ক্ষমতা আমাদের রয়েছে।

উল্লেখ্য, কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। সবকিছু ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হতে থাকলেও করোনা সংক্রমণ থামছে না। সর্বপ্রথম কানাডায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে ব্রিটিশ কলম্বিয়ায়। এরপর অন্যান্য প্রদেশে। পুরো কানাডায় শুরু থেকেই নানা ধরনের সতর্কতামূলক কর্মসূচি হাতে নেওয়া হলেও এর বিস্তার এখনো কমেনি। প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো তার ভাষণে সকলকে সতর্ক হবার আহ্বান জানান।

৩ দেশের নাগরিকদের ওপর সৌদির নিষেধাজ্ঞা
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ভারতসহ তিন দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সৌদি আরব। এই তিন দেশে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটি। ফলে এসব দেশের নাগরিকরা এখন সৌদিতে প্রবেশ করতে পারবেন না। সৌদির বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ভারত, ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনা এই তিন দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এর ফলে সৌদি থেকে কেউ এই দেশগুলোতে যেতে পারবেন না এবং ওই তিন দেশ থেকেও কেউ সৌদিতে প্রবেশ করতে পারবে না। খবর গালফ নিউজের।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যেকোনো ব্যক্তি সৌদি আরবে যাওয়ার ১৪ দিন আগে এই তিন দেশে ভ্রমণ করে থাকলে তারাও নতুন এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বেন বলে জানানো হয়েছে।

সম্প্রতি ধাপে ধাপে ওমরাহ চালুর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে সৌদি। মোট তিন ধাপে ওমরাহ চালু করবে দেশটির সরকার। প্রথম ধিকে শুধু দেশটির মধ্যে থাকা নাগরিকদের নিয়ে সীমিত আকারে ওমরাহ চালু হবে। তারপর কয়েক ধাপে তা বাড়ানো হবে।

গত বছরের শেষে চীনের উহান থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। ভাইরাস ছড়ানোর প্রায় দশ মাস পর এখনো এর তীব্রতা রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনার ভয়াবহ প্রভাব পড়েছে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ভারত, ব্রাজিল এবং আর্জেন্টিনায় করোনা সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

কিউবার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

কিউবার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগামী ৩ নভেম্বর ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে যখন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কঠোর নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামতে যাচ্ছেন তখন এই নিষেধাজ্ঞা দিলেন। ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে কিউবা থেকে আসা বিপুলসংখ্যক ভোটারের বসবাস রয়েছে।

বুধবার হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, `কমিউনিস্ট নির্যাতনের বিরুদ্ধে আমাদের অব্যাহত লড়াইয়ের অংশ হিসেবে আমি ঘোষণা করছি যে, আমাদের অর্থ মন্ত্রণালয় মার্কিন ভ্রমণকারীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করবে যেন তারা কিউবায় কোনো সরকারি স্থাপনায় অবস্থা না করেন।` খবর সিএনএনের।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কিউবার ওপর এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন যে কারণে তা হচ্ছে দেশটি থেকে যাতে মার্কিন নাগরিকরা সিগারেট এবং মদ আমদানি করতে না পারে। ট্রাম্প সেকথা স্পষ্ট করেই বলেছেন। তিনি বলেন, `আমি আমাদের ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানাবো যে, কিউবা থেকে যেন তারা সিগারেট এবং মদ আমদানি না করেন`।

ট্রাম্প দাবি করেন- তার এই পদক্ষেপের ফলে কিউবার কমিউনিস্ট সরকারের সঙ্গে অসহযোগিতা করা হবে এবং মার্কিন ডলার সরাসরি কিউবার সাধারণ জনগণের পকেটে যাবে।

ট্রাম্প বলেন, `ওবামা-বাইডেন প্রশাসন কিউবার স্বৈরশাসক ক্যাস্ত্রোর সঙ্গে দুর্বল, বেদনাদায়ক ও একপক্ষীয় চুক্তি করেছিল যা কিউবার নির্যাতিত জনগণের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা। এতে কিউবার কমিউনিস্ট শাসকরা সমৃদ্ধ হয়েছেন। আমি ক্যাস্ত্রো সরকারের সঙ্গে সেই চুক্তি বাতিল করেছি।`

ভারতে তেল-গ্যাস প্লান্টে ভয়াবহ বিস্ফোরণ
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

ভারতের একটি তেল-গ্যাস প্লান্টে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ভোরে সুরাতের ওয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন (ওএনজিসি) প্ল্যান্টে এই ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের পর প্লান্টে আগুন ধরে যায়। খবর এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, আগুন ধরে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই দমকলকর্মীরা সেখানে পৌঁছায়। কয়েকঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছে ওএনজিসি কর্তৃপক্ষ। তবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

কী কারণে বিস্ফোরণ তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে প্রাথমিক ভাবে জানা যাচ্ছে মুম্বাই-উড়ান পাইপলাইনে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। আগুন লাগার ফলে ওএনজিসির এই প্ল্যান্টের সমস্ত টানেলে কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে ১০কিলোমিটার দূরের এলাকা থেকেও শব্দ শোনা গিয়েছে। সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, ভোর তিনটে থেকে তিনটে বেজে পাঁচ মিনিটের মধ্যে তিনটি বিস্ফোরণ ঘটে।

সুরাতের জেলা প্রশাসন ও পুলিশ কর্তারা ঘটনার খবর পেয়েই চলে যান ওএনজিসি প্ল্যান্টে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কী কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হবে। তবে বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকে সুরাতের ওএনজিসি প্ল্যান্টে আংশিক ভাবে কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

 

করোনায় মারা গেলেন ভারতের রেল প্রতিমন্ত্রী
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ভারতের কেন্দ্রীয় রেল প্রতিমন্ত্রী সুরেশ অঙ্গাদি। চলতি মাসের শুরুতে তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। পরে তিনি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। গতকাল বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টায় তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। সুরেশ অঙ্গাদির মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

গত ১১ সেপ্টেম্বর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে সুরেশ অঙ্গাদির। প্রথম দিকে তার কোন উপসর্গ ছিল না। পরে সুরেশ অঙ্গাদিকে ভর্তি করা হয় দিল্লির এইমসের কোভিড ইউনিটে। সেখানেই মারা যান তিনি। সুরেশ অঙ্গাদির মৃত্যুতে টুইট করে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি টুইটে লিখেছেন, ‘সুরেশ অঙ্গাদি অতুলনীয় কর্মী ছিলেন। কর্ণাটকে দলকে শক্তিশালী করতে পরিশ্রম করেছেন। দায়বদ্ধ এমপি ও দায়িত্বশীল মন্ত্রী ছিলেন। তার মৃত্যুতে আমি শোকাহত। এমন শোকের মুহূর্তে পরিবার ও বন্ধুদের জানাই সমবেদনা ও শান্তি।’ কর্ণাটকের বেলগাভি কেন্দ্রের চারবারের এমপি সুরেশ অঙ্গাদি। তার জন্ম বেলগাভির কোপ্পা গ্রামে। জেলার রাজা লখমগৌড়া ল কলেজ থেকে আইনের ডিগ্রি পেয়েছেন সুরেশ অঙ্গাদি।

বিশ্বে একদিনে করোনায় আরও ৬ হাজার ৩০০ মৃত্যু
                                  

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে একদিনে আরও ৬ হাজার ৩০০ মানুষ মারা গেছে। নতুন সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৩ লাখ ১৪ হাজারের বেশি। এ নিয়ে সারাবিশ্বে কোভিড নাইনটিনে মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ৯ লাখ ৮১ হাজার। মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ২১ লাখ মানুষ।

বুধবারও সংক্রমণ ও মৃত্যুর শীর্ষে ছিল আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারত। ২৪ ঘণ্টায় সাড়ে ১১শ’র বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে দেশটিতে। নতুন করে আরও ৯০ হাজার মানুষের শরীরে পাওয়া গেছে কোভিড নাইনটিন। ফলে প্রাণহানি ৯১ হাজার ছাড়িয়েছে ভারতে। আক্রান্ত সাড়ে ৫৭ লাখের মতো মানুষ।

 

যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণ গেছে আরও ১১শ’ মানুষের। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ২ লাখ সাড়ে ৬ হাজারের বেশি। আক্রান্ত প্রায় সাড়ে ৭১ লাখ। এদিন ৯ শতাধিক মৃত্যুতে, ব্রাজিলে প্রাণহানি ছাড়িয়েছে ১ লাখ ৩৯ হাজার। আক্রান্ত সোয়া ৪৬ লাখ। এ পর্যন্ত পৌনে ১ লাখের বেশি মৃত্যু দেখেছে মেক্সিকো।


   Page 1 of 47
     আন্তর্জাতিক
মেইন-অ্যারিজোনা জিতে বাইডেন ২৩৮, ট্রাম্প ২১৩
.............................................................................................
ইউরোপের সংক্রমণ বৃদ্ধি নিয়ে খুবই উদ্বিগ্ন ডব্লিউএইচও
.............................................................................................
নারী ভোটারদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টায় ট্রাম্প
.............................................................................................
ভারত অবৈধভাবে লাদাখকে নিজেদের অঞ্চল ঘোষণা করেছে: চীন
.............................................................................................
অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন আসছে ডিসেম্বরে
.............................................................................................
করোনার টিকা নিয়ে সুখবর দিল চীন
.............................................................................................
জাতিসংঘের অধিবেশনে ইরান-সৌদির বাকযুদ্ধ
.............................................................................................
বিশ্বজুড়ে একদিনে ৬ হাজার মৃত্যু, শনাক্ত ৩ লাখের বেশি
.............................................................................................
চীনকে হুমকি ভারতের!
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভে গুলি
.............................................................................................
‘কানাডায় দ্বিতীয় পর্যায়ে করোনা সংক্রমণ চলছে’
.............................................................................................
৩ দেশের নাগরিকদের ওপর সৌদির নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
কিউবার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
ভারতে তেল-গ্যাস প্লান্টে ভয়াবহ বিস্ফোরণ
.............................................................................................
করোনায় মারা গেলেন ভারতের রেল প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
বিশ্বে একদিনে করোনায় আরও ৬ হাজার ৩০০ মৃত্যু
.............................................................................................
জাতিসংঘ অধিবেশনে চীন-যুক্তরাষ্ট্র উত্তেজনা
.............................................................................................
বিশ্বে ২ লাখ ৭২ হাজারের বেশি মানুষ করোনাক্রান্ত
.............................................................................................
৪ অক্টোবর থেকে চার ধাপে চালু হচ্ছে পবিত্র ওমরা
.............................................................................................
করোনায় ভারাক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন
.............................................................................................
প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত মুম্বাই
.............................................................................................
ইমরান খানের পতনের ডাক দিয়ে নতুন জোট গঠন
.............................................................................................
মার্কিন ঘাঁটিতে চীনের ডামি হামলা
.............................................................................................
এবার দেশের ভেতরই চ্যালেঞ্জের মুখে সু চি
.............................................................................................
ইরান ইস্যুতে বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন আমেরিকা
.............................................................................................
মুম্বাইয়ে ভবন ধসে নিহত ১০, আটকা পড়েছে অনেক মানুষ
.............................................................................................
একদিনে করোনায় আক্রান্ত প্রায় আড়াই লাখ, মৃত ৩৮৯১
.............................................................................................
আফগানিস্তানে বিমান হামলায় ৪০ তালেবান নিহত
.............................................................................................
বড় যুদ্ধের প্রস্তুতি ইরানের আছে
.............................................................................................
ভারত মহাসাগরে চীনা জাহাজ, উত্তেজনা
.............................................................................................
ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো জাপান
.............................................................................................
‘কেলেঙ্কারি’ ট্রাম্পের পিছু ছাড়ছে না
.............................................................................................
একদিনে করোনায় আক্রান্ত ৩ লক্ষাধিক, মৃত্যু ৫৬৮৩
.............................................................................................
ক্রমেই যুদ্ধের দিকে এগোচ্ছে ভারত-চীন?
.............................................................................................
এবার ইসরায়েল-বাহরাইন ‘শান্তি চুক্তি’
.............................................................................................
কঙ্গোতে ৫৮ গ্রামবাসীকে হত্যা
.............................................................................................
বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্ত প্রায় ৩ কোটি মানুষ
.............................................................................................
‘সাখারভ প্রাইজ কমিউনিটি’ থেকে বাদ পড়লেন সুচি
.............................................................................................
সৌদি আরবে একাধিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
.............................................................................................
বৈরুত বন্দরে এবার ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
.............................................................................................
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি কতোটা পূরণ করেছেন?
.............................................................................................
জ্বলছে ক্যালিফোর্নিয়ার বনাঞ্চল, মৃত ১১
.............................................................................................
পদত্যাগ করলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
বিশ্বে একদিনে ৬ হাজার মৃত্যু, আক্রান্ত প্রায় ৩ লাখ
.............................................................................................
ভারতে একদিনে শনাক্ত ৭৮ হাজার
.............................................................................................
‘উত্তাল বেলারুশে প্রস্তুত রুশ রিজার্ভ ফোর্স’
.............................................................................................
লরা`র তাণ্ডবে লন্ডভন্ড লুইজিয়ানা, মৃত ৪
.............................................................................................
ভারতে ২৪ ঘণ্টায় হাজারের বেশি মৃত্যু
.............................................................................................
করোনায় আক্রান্ত ২ কোটি ৪০ লাখ, মৃত্যু ৮ লাখ ২৩ হাজার
.............................................................................................
ট্রাম্পের ট্রামকার্ড করোনার টিকা!
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ হাজী মোবারক হোসেন।। সহ-সম্পাদক : কাউসার আহম্মেদ।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু।

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, mannan2015news@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- mannan dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop