| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
অন্তঃসত্ত্বা বোনের মাথা কেটে মাসহ ভাই এর সেলফি!

পরিবারের মতের বিরুদ্ধে বিয়ে করার জেরে নিজের অন্তঃসত্ত্বা বোনকে মাথা কেটে হত্যা করে এক কিশোর। আর তাকে এই কাজে সহযোগিতা করে তাদের মা৷ রোববার (৫ ডিসেম্বর) মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদ ভাইজাপুর এলাকার এ ঘটনা 

স্থানীয়রা জানান, হত্যার পর বোনের কাটা মাথা নিয়ে প্রতিবেশীদের দেখায় এবং এর সঙ্গে মাকে নিয়ে সেলফি তোলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের জুনে পরিবারের অমতে বাড়ি থেকে পালিয়ে বিয়ে করেন ১৯ বছরের ওই কিশোরী৷ তখন থেকে নিজের স্বামীর সঙ্গেই থাকছিলেন তিনি৷ গত সপ্তাহে মেয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে তার সঙ্গে দেখা করার কথা বলেন ওই কিশোরীর মা৷ রোববার নিজের ছেলেকে নিয়ে ওই মেয়ের বাড়িতে যান মা৷ সে সময় ওই কিশোরীর স্বামী অসুস্থ অবস্থায় অন্য একটি ঘরে শুয়েছিলেন৷ বোন যখন চা বানাতে ব্যস্ত, তখনই তার ওপরে হঠাৎ হামলা চালায় নিজের ভাই৷ নিজের মেয়ের পা চেপে ধরে তার মা৷ এরপর ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বোনের মাথা দেহ থেকে আলাদা করে দেয় ওই কিশোর৷ এরপর প্রতিবেশীদের নিজের বোনের কাটা মাথা দেখায় সে৷ পরে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে ওই কিশোর৷অভিযুক্ত কিশোর এবং তার মাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

অন্তঃসত্ত্বা বোনের মাথা কেটে মাসহ ভাই এর সেলফি!
                                  

পরিবারের মতের বিরুদ্ধে বিয়ে করার জেরে নিজের অন্তঃসত্ত্বা বোনকে মাথা কেটে হত্যা করে এক কিশোর। আর তাকে এই কাজে সহযোগিতা করে তাদের মা৷ রোববার (৫ ডিসেম্বর) মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদ ভাইজাপুর এলাকার এ ঘটনা 

স্থানীয়রা জানান, হত্যার পর বোনের কাটা মাথা নিয়ে প্রতিবেশীদের দেখায় এবং এর সঙ্গে মাকে নিয়ে সেলফি তোলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের জুনে পরিবারের অমতে বাড়ি থেকে পালিয়ে বিয়ে করেন ১৯ বছরের ওই কিশোরী৷ তখন থেকে নিজের স্বামীর সঙ্গেই থাকছিলেন তিনি৷ গত সপ্তাহে মেয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে তার সঙ্গে দেখা করার কথা বলেন ওই কিশোরীর মা৷ রোববার নিজের ছেলেকে নিয়ে ওই মেয়ের বাড়িতে যান মা৷ সে সময় ওই কিশোরীর স্বামী অসুস্থ অবস্থায় অন্য একটি ঘরে শুয়েছিলেন৷ বোন যখন চা বানাতে ব্যস্ত, তখনই তার ওপরে হঠাৎ হামলা চালায় নিজের ভাই৷ নিজের মেয়ের পা চেপে ধরে তার মা৷ এরপর ধারাল অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে বোনের মাথা দেহ থেকে আলাদা করে দেয় ওই কিশোর৷ এরপর প্রতিবেশীদের নিজের বোনের কাটা মাথা দেখায় সে৷ পরে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে ওই কিশোর৷অভিযুক্ত কিশোর এবং তার মাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নেশার ওষুধ খাইয়ে দশম শ্রেণির ১৭ জন ছাত্রীকে যৌন হেনস্তা করল শিক্ষক
                                  

এক নজিরবিহীন ঘৃণ্য ঘটনার সাক্ষী হলো ভারতের উত্তরপ্রদেশ। অভিযোগ, মুজফফরনগরে নেশার ওষুধ খাইয়ে দশম শ্রেণির ১৭ জন ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করেছেন স্কুলেরই এক শিক্ষক! ইতোমধ্যে অভিযুক্ত শিক্ষক ও স্কুলের মালিকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। শুরু হয়েছে তদন্ত। একজন শিক্ষক কী করে এমন কাজ করতে পারলেন ভেবে পাচ্ছেন না এলাকার বাসিন্দারা।

 

 

 

জানা গেছে, সিবিএসই প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষার অজুহাত দেখিয়ে পুরকাজি এলাকার ওই ছাত্রীদের রাতে স্কুলে ডেকে পাঠান অভিযুক্ত শিক্ষক। তাদের রাতে স্কুলেই থাকতে বলেন তিনি। পরে তাদের সকলকে রাতের খাবার দেওয়া হয়। তাতে মাদক মেশানো ছিল। খাবার খেয়ে ওই ছাত্রীরা অচেতন হয়ে পড়লে তাদের যৌন হেনস্তা করেন অভিযুক্ত। পরের দিন সকালে তারা বাড়ি ফেরে। সেই সময় সকলকে হুমকি দেন ওই শিক্ষক। বলা হয়, মুখ খুললে তাদের পরিবারের সদস্যদের খুন করা হবে। জানা গেছে, নিগৃহীতরা সকলেই গরিব পরিবারের সন্তান।

ঘটনাটি ঘটেছিল গত ১৭ নভেম্বর। শিক্ষকের হুমকি পেয়ে ভয়ে এতদিন চুপ করেছিল ওই ছাত্রী ও তাদের পরিবার। তবে শেষ পর্যন্ত দুই ছাত্রীর পরিবার দ্বারস্থ হয় এলাকার বিধায়ক প্রমোদ আটওয়ালের। তিনিই পুলিশের সিনিয়র সুপারিন্টেনডেন্ট অভিষেক যাদবকে বিষয়টি জানান। এরপরই দায়ের হয় এফআইআর।

 

 

 

ছাত্রীদের পরিবারগুলোর দাবি, প্রথমে অভিযোগ নিতে চায়নি পুলিশ। পরে বিধায়কের হস্তক্ষেপেই অভিযোগ দায়ের করা হয়। যদিও এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। এ ছাড়াও অভিযোগ, পুরকাজি থানার হাউজ অফিসার বিনোদকুমার সিংয়ের দ্বারস্থ হয়েছিল ছাত্রীদের পরিবার। কিন্তু তিনি বিষয়টিকে পাত্তাই দিতে চাননি। ওই অফিসারের বিরুদ্ধেও তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মালদ্বীপে দূতাবাসে সংবাদ সম্মেলন
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধি, 
 

মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ নাজমুল হাসান 

 
০৪ ডিসেম্বর সন্ধ্যায়   বাংলাদেশ থেকে আগত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রায় অর্ধ শতাধিক সংবাদকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। 
 
এসময় তিনি হাইকমিশনের বিভিন্ন  কার্যক্রম ও বাংলাদেশ-মালদ্বীপ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন।
 
 উল্লেখ করা যায় যে, ইউ এস বাংলা এয়ারলাইনস এর ব্যবস্থাপনায় সংবাদমাধ্যম এর উক্ত কর্মীগণ ৩ দিনের সফরে মালদ্বীপে এসেছেন।
মালদ্বীপে বাংলাদেশের ব্যাংকের শাখা চালু হচ্ছে।
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধি 
 
ব্যাংকের শাখা খোলার বিষয়ে আলোচনার জন্য বাংলাদেশ থেকে আগত আল আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংক-এর  চেয়ারম্যান এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক মালদ্বীপের মাননীয় অর্থ মন্ত্রী এবং মালদ্বীপ মনিটারি অথোরিটির গভর্নর মহোদয় এর সঙ্গে 
২৫ নভেম্বর বৈঠকে মিলিত হন।
 
 
 
উক্ত বৈঠক সমূহে মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত  মোহাম্মদ নাজমুল হাসান উপস্থিত ছিলেন। এরপর উক্ত ব্যাংকের কর্মকর্তাবৃন্দ  রাষ্ট্রদূত  এর সাথে পৃথকভাবে বৈঠক করেন।
 
উল্লেখ্য, মালদ্বীপে একটি বাংলাদেশী ব্যাংক-এর শাখা খোলা হলে প্রবাসী বাংলাদেশীগণ সহজে, সাশ্রয়ে এবং বৈধ পথে দেশে রেমিটেন্স পাঠাতে পারবেন বলে আশা করা যায়।
 
 
যেনে রাখা ভালো,,মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ নাজমুল হাসান মালদ্বীপের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর আলী হাশিমের সঙ্গে গত ১৪ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে এক বৈঠকে মিলিত হন।
 
এসময় হাই কমিশনার মালদ্বীপে বাংলাদেশের একটি ব্যাংকের শাখা খোলার বিষয়ে গভর্নরকে অনুরোধ করেন। একই সঙ্গে ডলারের পরিবর্তে এমভিআর-এ প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিজ দেশে অর্থ পাঠানোর বিষয়ে সহযোগিতা চান।
বৈঠকে ভ্রাতৃপ্রতিম দুই দেশের ব্যাংকিং সেক্টরে সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়।
 
আলোচনায় মালদ্বীপে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো গুরুত্ব দেওয়া হয়।
মালদ্বীপের ব্যাংক গভর্নর জানান, বাংলাদেশি কর্মীরা নিজ দেশে অর্থ পাঠাতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার বিষয়টি তিনি অবহিত।
 
 
যুক্তরাষ্ট্র-চীনের যৌথ প্রচেষ্টায় কমেছে জ্বালানি তেলের দাম
                                  

গত ছয় সপ্তাহের মধ্যে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম এখন সবচেয়ে কম। দাম কমার পেছনে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের যৌথ প্রচেষ্টা রয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

১৮ নভেম্বর এক প্রতিবেদনে সিএনএন জানায়, বিশ্ববাজারে গত দেড় মাস ধরে বাড়ছিল তেলের দাম। এতে উৎপাদনকারী এবং ব্যবসায়ীরা লাভ করলেও সাধারণ ভোক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিল। তেলের দাম নিয়ে অস্থিরতার পর অবশেষে জ্বালানি তেলের দাম কমলো।

ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) ও ব্রেন্ট অপরিশোধিত তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি ৮০ ডলারের নিচে নেমে গেছে। যা গত ছয় সপ্তাহের মধ্যে এখন সবচেয়ে কম।রিস্ট্যাড এনার্জির হেড অফ অয়েল মার্কেট বোর্নার টনহউজেন বলেন, এখন জ্বালানি তেলের দাম কমার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখছে যুক্তরাষ্ট্র ও চীন। এই দুই দেশের সংরক্ষিত (রিজার্ভ) তেল বাজারে ছেড়ে দেওয়ায় দাম কমাতে সহায়তা করছে।

তিনি আরও বলেন, আগামী মাসে ২০ থেকে ৩০ মিলিয়ন ব্যারেল তেল অনলাইনে আসার ব্যাপারে আশা করছেন বিনিয়োগকারীরা। এটা যুক্তরাষ্ট্র ও চীন থেকে আসতে পারে। কিংবা আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থার বৃহত্তর সমন্বিত পদক্ষেপের মাধ্যমেও আসতে পারে।

হোয়াইট হাউজের বরাত দিয়ে সিএনএন জানায়, কয়েকদিন আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যে এক ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এই বৈঠকে বৈশ্বিক জ্বালানী তেল সরবরাহের বিষয়ে আলোচনা করেন তারা। এরই ধারাবাহিকতায় দুই দেশের সমন্বিত পদক্ষেপে লক্ষাধিক ব্যারেল তেল বাজারে আসে।

তবে এই পদক্ষেপ দীর্ঘমেয়াদী কোন পরিবর্তন বয়ে আনবে না বলেও মনে করেন বোর্নার টনহউজেন।

২৪ ঘন্টায় মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত ১২৭।
                                  
মাহামুদুল মালদ্বীপ  প্রতিনিধি।
 
মালদ্বীপে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১২৭ জন, করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে রাজধানীতে মালেতে আক্রান্ত ২৫ জন।
 
আজ (১৪ নভেম্বর ) নিয়মিত সংবাদ বুলেটিন এর মাধ্যমে মালদ্বীপের সাস্থ্য সুরক্ষা সংস্থা এইচপিএ এই তথ্য জানিয়েছে।
 
এখন পর্যন্ত মালদ্বীপে মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৯ হাজার ৮৪০ জন।
 
গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সুস্থ হয়েছে ১৫৯ জন। এখন পর্যন্ত মালদ্বীপে করোনা থেকে সুস্থ ৮৭ হাজার ৩৮৪ জন।
 
সংবাদ সম্মেলন আরও জানানো হয়েছে,আক্রান্ত রোগী আছে ২ হাজার ১৯৬ জন, তাদের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি আছে ৮ জন।
 
করোনা শুরু থেকে এখন পর্যন্ত মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ২৪৭ জন।
 
বাইডেনের গণতন্ত্র সম্মেলন আমন্ত্রণের চূড়ান্ত তালিকায় নাম নেই বাংলাদেশের
                                  

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আগামী ৯ ও ১০ ডিসেম্বর গণতন্ত্র সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছেন। ভার্চুয়াল সম্মেলনে বিশ্বের ১০০টির বেশি দেশের নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। যদিও আমন্ত্রিত দেশগুলোর তালিকা গোপন রাখা হয়েছে। তবে পলিটিকো ম্যাগাজিন একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। এতে আমন্ত্রিত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই। পলিটিকোর তালিকা চূড়ান্ত কিনা তা নিশ্চিত নয় ঢাকা। তাই বাংলাদেশের তরফে চূড়ান্ত তালিকার খোঁজ করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর বাইডেন পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ে তার প্রথম ভাষণে গণতন্ত্র সম্মেলন আয়োজনের অঙ্গীকার করেন। বিশ্বব্যাপী রাশিয়া ও চীনসহ গোটা বিশ্বে কর্তৃত্ববাদী শাসনের বিস্তার ঘটার পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট সম্মেলনের আয়োজন করছেন।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে আমন্ত্রিত দেশগুলোর নেতারা গণতন্ত্র, ব্যক্তিগত ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, মানবাধিকার বিষয়ে তাদের অঙ্গীকার ব্যক্ত করবেন। এক বছর পর ২০২২ সালের ডিসেম্বরে এসব ক্ষেত্রে অগ্রগতি যাচাই করতে আরেকটি ফলোআপ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি হলে দেশগুলোর নেতাদের সশরীরে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

জানতে চাইলে ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা বুধবার যুগান্তরকে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র আমন্ত্রিত দেশগুলোর তালিকা প্রকাশ করেনি। পলিটিকোর তালিকা সঠিক কিনা তা নিশ্চিত নয়। ভার্চুয়াল সম্মেলনের তালিকা এক সপ্তাহ আগে পর্যন্ত পরিবর্তন হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রে আমাদের দূতাবাস চূড়ান্ত তালিকা জানার চেষ্টা করছে।’

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘চলতি বছরের ডিসেম্বরে ভার্চুয়াল সম্মেলনে সব দেশকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে না। ফলে আগামী বছরের সশরীরে উপস্থিত সম্মেলনে এবার বাদ পড়া দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানাতেও পারে। এসব বিষয়ে বিস্তারিত আমরা এখনো জানি না।’

ডোনাল্ড ট্রাম্প বৈদেশিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে গণতন্ত্র ও মানবাধিকার নিয়ে আগ্রহী ছিলেন না। এ কারণে বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে। বাইডেনের সম্মেলনে আমন্ত্রণ তালিকা নিয়ে বিতর্ক হচ্ছে। ফ্রান্স, সুইডেনের মতো পরিপক্ব গণতন্ত্রের দেশ যেমন আমন্ত্রণ পেয়েছে; ফিলিপাইন, পোল্যান্ডের মতো দেশ যেখানে গণতন্ত্র হুমকির মধ্যে পড়েছে তারাও আমন্ত্রিত হয়েছে। এশিয়ায় জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া আমন্ত্রিত হলেও থাইল্যান্ডকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগী মিসর আমন্ত্রণ পায়নি। আমন্ত্রণ পায়নি ন্যাটোভুক্ত তুরস্ক।

আমন্ত্রিত দেশের তালিকা কীসের ভিত্তিতে করা হচ্ছে সেটা স্পষ্ট নয়। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের সূত্রের বরাতে বলা হচ্ছে, আমন্ত্রণের তালিকা গণতন্ত্রের মানদণ্ড নয়। বিশ্বের ভৌগোলিক অঞ্চলের মধ্যে সুষম এবং বৈচিত্র্যের বিবেচনায় তালিকা করা হচ্ছে। কোন দেশ কীভাবে গণতন্ত্রের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছে সেই অভিজ্ঞতা জানা সম্মেলনের অন্যতম উদ্দেশ্য। কেউ কেউ আবার যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করছে। তাদের ভাষায়, ট্রাম্প গত নিবূাচনের ফলাফল মানেননি। এতে যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্রও প্রশ্নাতীত নয়।

 

মালদ্বীপে যুবলীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত।
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধিঃ
 

মালদ্বীপে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের গৌরব, ঐতিহ্য ও সংগ্রামের ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়েছে। 

 
এ উপলক্ষে ১১ নভেম্বর ২০২১ সোমবার স্থানীয় সময় রাত ১১ ঘটিকায় মালদ্বীপের রাজধানী মালে একটি  রেস্টুরেন্টে মালদ্বীপ আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও কেক কাটার আয়োজন করা হয়।
 
মালদ্বীপ আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক সেলিম ফরাজীর সভাপতিত্বে, যুগ্ম আহবায়ক   বিল্লাল হোসেন, এর  সঞ্চালনায় । 
 
অনুষ্ঠানে প্রধান  অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব দুলাল মাদবর। 
 
 বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  দুলাল হোসেন সিনিয়র সহ-সভাপতি মালদ্বীপ আওয়ামী লীগ, মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের নেতা নূরে আলম রিন্টু , মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজালাল সিকদার, 
 
অনুষ্ঠানে বিশেষ  আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মালদ্বীপ যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক, রাসেল আহমেদ সাগর, 
 
 
 
এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সদস্য, গাজী জাহিদ, এনামুল হক জাকির,নুরে আলম ভুইয়া , মো: রফিক, প্রমুখ।
এবং মালদ্বীপ যুবলীগের  ও আন্তার্জাতিক বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের  নেতাকর্মীরা,
 করোনা  মহামারী এর জন্য  সরকারের বিধিনিষেধের কারণ কিছু  সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশিরা।
 
অনুষ্ঠানে কোরআন তেলোয়াত দোয়া, ও মোনাজাত পরিচালনা করেন মালদ্বীপ মদিনা জামাতের আহবায়ক মাওলানা মোহাম্মদ আলামিন। 
আমন্ত্রণের চূড়ান্ত তালিকার খোঁজ নিচ্ছে বাংলাদেশ বাইডেনের
                                  

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আগামী ৯ ও ১০ ডিসেম্বর গণতন্ত্র সম্মেলন আয়োজন করতে যাচ্ছেন। ভার্চুয়াল সম্মেলনে বিশ্বের ১০০টির বেশি দেশের নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। যদিও আমন্ত্রিত দেশগুলোর তালিকা গোপন রাখা হয়েছে। তবে পলিটিকো ম্যাগাজিন একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। এতে আমন্ত্রিত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের নাম নেই। পলিটিকোর তালিকা চূড়ান্ত কিনা তা নিশ্চিত নয় ঢাকা। তাই বাংলাদেশের তরফে চূড়ান্ত তালিকার খোঁজ করা হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর বাইডেন পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ে তার প্রথম ভাষণে গণতন্ত্র সম্মেলন আয়োজনের অঙ্গীকার করেন। বিশ্বব্যাপী রাশিয়া ও চীনসহ গোটা বিশ্বে কর্তৃত্ববাদী শাসনের বিস্তার ঘটার পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট সম্মেলনের আয়োজন করছেন।

 

চলতি বছরের ডিসেম্বরে আমন্ত্রিত দেশগুলোর নেতারা গণতন্ত্র, ব্যক্তিগত ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা, মানবাধিকার বিষয়ে তাদের অঙ্গীকার ব্যক্ত করবেন। এক বছর পর ২০২২ সালের ডিসেম্বরে এসব ক্ষেত্রে অগ্রগতি যাচাই করতে আরেকটি ফলোআপ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি হলে দেশগুলোর নেতাদের সশরীরে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

জানতে চাইলে ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা বুধবার যুগান্তরকে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র আমন্ত্রিত দেশগুলোর তালিকা প্রকাশ করেনি। পলিটিকোর তালিকা সঠিক কিনা তা নিশ্চিত নয়। ভার্চুয়াল সম্মেলনের তালিকা এক সপ্তাহ আগে পর্যন্ত পরিবর্তন হতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রে আমাদের দূতাবাস চূড়ান্ত তালিকা জানার চেষ্টা করছে।’

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, ‘চলতি বছরের ডিসেম্বরে ভার্চুয়াল সম্মেলনে সব দেশকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে না। ফলে আগামী বছরের সশরীরে উপস্থিত সম্মেলনে এবার বাদ পড়া দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানাতেও পারে। এসব বিষয়ে বিস্তারিত আমরা এখনো জানি না।’

ডোনাল্ড ট্রাম্প বৈদেশিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে গণতন্ত্র ও মানবাধিকার নিয়ে আগ্রহী ছিলেন না। এ কারণে বিশ্বে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্ব হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে। বাইডেনের সম্মেলনে আমন্ত্রণ তালিকা নিয়ে বিতর্ক হচ্ছে। ফ্রান্স, সুইডেনের মতো পরিপক্ব গণতন্ত্রের দেশ যেমন আমন্ত্রণ পেয়েছে; ফিলিপাইন, পোল্যান্ডের মতো দেশ যেখানে গণতন্ত্র হুমকির মধ্যে পড়েছে তারাও আমন্ত্রিত হয়েছে। এশিয়ায় জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া আমন্ত্রিত হলেও থাইল্যান্ডকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগী মিসর আমন্ত্রণ পায়নি। আমন্ত্রণ পায়নি ন্যাটোভুক্ত তুরস্ক।

আমন্ত্রিত দেশের তালিকা কীসের ভিত্তিতে করা হচ্ছে সেটা স্পষ্ট নয়। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের সূত্রের বরাতে বলা হচ্ছে, আমন্ত্রণের তালিকা গণতন্ত্রের মানদণ্ড নয়। বিশ্বের ভৌগোলিক অঞ্চলের মধ্যে সুষম এবং বৈচিত্র্যের বিবেচনায় তালিকা করা হচ্ছে। কোন দেশ কীভাবে গণতন্ত্রের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করছে সেই অভিজ্ঞতা জানা সম্মেলনের অন্যতম উদ্দেশ্য। কেউ কেউ আবার যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করছে। তাদের ভাষায়, ট্রাম্প গত নিবূাচনের ফলাফল মানেননি। এতে যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্রও প্রশ্নাতীত নয়।

সুই না ফুটিয়েই টিকা দেবে রোবট
                                  

ইনজেকশনের সুই দেখলেই ভয়ে গায়ে জ্বর চলে আসে অনেকের। তাই এসব মানুষ সব সময়ই চেষ্টা করেন যাতে কোনো কারণে তাদের শরীরে সুই ফোটাতে না হয়। ইনজেকশনের ভয়ে করোনার টিকা নেননি এমন মানুষও আছেন। তাদের জন্য সুখবর। এবার বিজ্ঞানীরা এমন একটি পদ্ধতি বের করেছেন যাতে রোবটের সাহায্যে সুচ ছাড়াই দেওয়া যাবে টিকা।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম আরও সহজ করতে তুলতে একটি রোবট উদ্ভাবন করেছে কানাডার প্রতিষ্ঠান কোবিনিক্স। এর মাধ্যমে সুচ ছাড়াই সহজে মাংসপেশীতে টিকা দেওয়া যাবে। ইতিমধ্যে সফলভাবে প্রথম টিকা প্রয়োগও করেছে রোবটটি।

 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলিমেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়, রোবটটির নাম কোবি। এর নকশা তৈরি করা হয়েছে অন্টারিওর ওয়াটার লু বিশ্ববিদ্যালয়ে। এলআইডিএআর সেন্সর ব্যবহার করে কোবি মানুষের শরীরের একটি মডেল তৈরি করে। এর অন্যান্য সফটওয়্যারগুলো ইনজেকশন দেওয়ার স্থান নির্ণয় করে। এই সেন্সর রাস্তা পরিমাপে সয়ংক্রিয় যন্ত্রের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়।

কোবিনিক্সের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী টিম ল্যাসওয়েল বলেন, ‘আমরা সুচবিহীন ইনজেকশন প্রযুক্তি ব্যবহার করেছি। কোবি রোবটের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবাকর্মী বা পেশাদার কাউকে ছাড়াই সুচবিহীনভাবে মানুষের শরীরে ভ্যাকসিন দেওয়া যাবে।’

কোবির মাধ্যমে ভ্যাকসিন পেতে একজন রোগী অনলাইনে নিবন্ধন করবেন এবং একটি ক্লিনিক বা ফার্মেসিতে যাবেন। সেখানে রোবটের টাচস্ক্রিন ইন্টারফেস ক্যামেরায় নিজেদের আইডি দেখাবেন। এ সময় থ্রি-ডি ক্যামেরা রোগীর উপস্থিতি শনাক্ত করবে এবং ভ্যাকসিনের ভায়াল সংগ্রহ করবে। তারপর ইনজেকশন দেওয়ার আগে এলআইডিএআর সেন্সরের মাধ্যমে রোগীর একটি মডেল তৈরি করবে।

এই রোবট স্বাস্থ্যসেবা কর্মীদের সুরক্ষা দিতে পারবে। এ ছাড়া খরচ কমিয়ে উন্নত সেবা দিতে পারবে বলে জানিয়েছেন কোবনিক্সের সহ-প্রতিষ্ঠাতা নিমা জামানি।

ইসরায়েল-সৌদি সম্পর্কের নেপথ্যে
                                  

যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে এগিয়ে এসেছে বেশ কয়েকটি দেশ। এর মধ্যে আরব দেশ বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতও রয়েছে।

 

 

ইসরায়েল থেকে প্রকাশিত আরবি দৈনিক গ্লোবস্‌ এক প্রতিবেদনে জানায়, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যস্থতায় ইসরায়েল ও সৌদি আরবের মধ্যে বেশ কয়েকটি বাণিজ্য চুক্তি সই হয়েছে।

২০২০ সাল থেকে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শাসনামলে আরব দেশগুলোর সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়া শুরু হয়। এ পর্যন্ত চারটি দেশ অর্থাৎ বাহরাইন, আমিরাত, মরক্কো ও সুদান ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেছে।  

ট্রাম্পের শাসনামলের শেষের দিকে সৌদি আরবের সঙ্গেও ইসরায়েলের সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়ে ব্যাপক গুঞ্জন শোনা যায়। এ নিয়ে বিভিন্ন খবর প্রকাশিত হলেও শেষ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন হয়নি।  

পার্স টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়, সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিরোধী ছিলেন। তবে সম্প্রতি ইরানের সঙ্গে সৌদি আরবের মধ্যে যে কয়েক দফা আলোচনা হয়েছে, তাতে এ ধারণাই শক্তিশালী হয়েছিল যে, ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের ইচ্ছা হয়তো রিয়াদের নেই।  

তবে গত এক সপ্তাহের ঘটনাবলীতে প্রমাণিত হয়েছে, সৌদি আরব শুধু ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে তাই নয়, একইসঙ্গে আরও বহুমাত্রিক সহযোগিতা গড়ে তুলছে। এরই অংশ হিসেবে ১ নভেম্বর সৌদি আরবের প্রথম বিমান ইসরায়েলে গেছে। এর পরের দিন ইসরায়েলের একটি বিমান রিয়াদ বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।

এ ঘটনার পর সৌদি আরবের বাজারে ইসরায়েলি পণ্য প্রবেশের দরজা খুলে গেছে বলে উল্লেখ করা হয় দৈনিক গ্লোবস্‌ পত্রিকায়।  

রিয়াদে হচ্ছে ইহুদিদের প্রথম উপাসনালয়
প্রতিবেদনে বলা হয়, এর ফলে ইসরায়েলি কোম্পানি ও ব্যবসায়ীদের সামনে বিরাট সম্ভাবনার দরজা খুলে গেল এবং তাদের গুরুত্ব বহুগুণে বেড়ে গেল। এমনকি রাজধানী রিয়াদে ইহুদিদের প্রথম উপাসনালয় উদ্বোধনের প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গেছে। রিয়াদের ওই স্থানটিকে ইহুদিদের সমস্ত ধর্মীয় কর্মকাণ্ড ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা হবে।  

সৌদি আরব-ইসরায়েল সম্পর্কের পেছনে যারা
ধারণা করা হচ্ছে, এ ক্ষেত্রে মার্কিন সরকারের বিরাট ভূমিকা রয়েছে। ঠিক যেমনটি ট্রাম্পের শাসনামলে তিনি চারটি আরব দেশের সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক স্থাপনে ভূমিকা রেখেছিলেন।  

হিব্রু ভাষায় প্রকাশিত ওয়েব সাইট বালো’র প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সালিভান চলতি বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর রিয়াদে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় রিয়াদ ও তেলাআবিবের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়ে আলোচনা করেছিলেন। সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফয়সাল বিন ফারহানও সম্প্রতি বলেছেন, ইসরায়েল এ অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় সাহায্য করবে।

ইসরায়েল-সৌদি ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক স্থাপনে বাহরাইন ও আমিরাতের ভূমিকা। এর আগে সৌদি আরবের মধ্যস্থতায় বাহরাইন ও আমিরাত ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করেছিল। আর এখন ওই দুই দেশই সৌদি-ইসরায়েল সম্পর্ক স্থাপনে মধ্যস্থতা করছে। যদিও ইসরায়েল-সৌদি সম্পর্ক ও বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাদের সহযোগিতা অনেক আগে থেকে গোপনে বজায় রয়েছে। কিন্তু মানামা ও আবুধাবি এখন বিষয়টি প্রকাশ্যে আনার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করছে।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর তার সমর্থন লাভের জন্য চেষ্টা করছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। এমনকি সৌদি বাদশার পদে যুবরাজ সালমানের অধিষ্ঠিত হওয়ার ব্যাপারেও বাইডেন প্রশাসনের সমর্থন রয়েছে।  
 
তাই সৌদি যুবরাজ বিন সালমান বাইডেনের সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের উদ্যোগ নিতে যাচ্ছেন বলে অনেকে মনে করছেন। এতে সৌদি বাদশার পদে অধিষ্ঠিত হওয়ার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের সমর্থন পেতে যুক্তরাষ্ট্রের ইহুদিবাদী লবিং গ্রুপেরও সমর্থন পাওয়া যাবে।

অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী
                                  

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাদিমির বাগদাদের বাসভবনে ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে। ড্রোনটি বিস্ফোরকে ভর্তি ছিল।

 

 

আল-জাজিরা ও রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, স্থানীয় সময় রোববার ভোরে ইরাকের প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে ওই হামলা করা হয়। তবে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছেন তিনি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই হামলায় মুস্তাফা আল-কাদিমির ব্যক্তিগত দেহরক্ষী দলের কয়েকজন আহত হয়েছেন।  

ওই হামলার পর সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে টুইট করেছেন মুস্তাফা আল-কাদিমি। তিনি বলেন, আমি ভালো আছি। ইরাকের ভালোর জন্য সবাইকে শান্ত ও সংযত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, দেশদ্রোহীদের এই হামলা নিরাপত্তা বাহিনীর বীর সৈনিকদের দৃঢ়তাকে একটুও নাড়া দিতে পারবে না।  

১০ অক্টোবর ইরাকে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনের ফলাফল ঘিরে বাগদাদে সহিংস বিক্ষোভের পরই এমন হামলা হলো।

যুক্তরাষ্ট্র থেকে অস্ত্রের বড় চালান পাচ্ছে সৌদি
                                  

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম আমেরিকা থেকে অস্ত্রের বড় চালান পেতে যাচ্ছে সৌদি আরব। এরমধ্যেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট অস্ত্র বিক্রির বিষয়ে অনুমোদন দিয়েছেন।

 

প্রায় ৬৫ কোটি ৫০ লাখ ডলারের ক্ষেপণাস্ত্র পাবে সৌদি আরব।

বৃহস্পতিবার (০৪ নভেম্বর) মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগন কংগ্রেসকে নোটিশ করার পর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত ২৬ অক্টোবর বিষয়টিতে অনুমোদন দেয়।

আমেরিকা সৌদি আরবের কাছে যে অস্ত্র বিক্রি করবে তার মধ্যে রেইথন টেকনোলজিস কর্পোরেশনের তৈরি ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে, যার পাল্লা ২০ কিলোমিটার। এই ক্ষেপণাস্ত্র আকাশ থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য। এছাড়াও বিমানের পাইলটের দৃষ্টিগোচর হওয়ার আগেই ক্ষেপণাস্ত্রটি বিমানে আঘাত হানতে পারে।

১৯৯১ সালে এই ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করে আমেরিকা। এরমধ্যে কাতার, কুয়েত ও জর্দানের মতো আমেরিকার মিত্র দেশগুলো ক্ষেপণাস্ত্রটি কিনেছে।

২৮০টি এআইএম-১২০সি-৭ অ্যাডভ্যান্সড মিডিয়াম রেঞ্জের ক্ষেপণাস্ত্রের পাশাপাশি ৫৯৬টি এলএইউ-১২৮ মিসাইল রেইল লাঞ্চার এবং কন্টেইরান ও সাপোর্ট ইক্যুইপমেন্ট এবং যন্ত্রাংশ সরবরাহ করা হবে। এসব প্রযুক্তি ব্যবহার উপযোগী করে তোলার জন্য মার্কিন সরকার ইঞ্জিনিয়ার ও ঠিকাদার সরবরাহ করবে।

প্রসঙ্গত, দারিদ্রপীড়িত ইয়েমেনের ওপর ছয় বছরের বেশি সময় ধরে সামরিক আগ্রাসন চালাচ্ছে সৌদি আরব। দেশটির ওপর সব ধরনের অবরোধও চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ সময় আমেরিকা সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রির পদক্ষেপ নিল।

মুক্তি পেলেন সুদানের ৪ মন্ত্রী
                                  

সুদানে সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখলের পর থেকেই চাপ দিয়ে আসছে জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ফেরানোর দাবি তাদের।

 

সেই চাপে হয়তো কিছুটা কাজ হলো।  

জার্মানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়, আটক চার মন্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন সুদানের সেনাপ্রধান জেনারেল আব্দেল ফাত্তাহ আল-বুরহান। তিনি বলেন, নতুন সরকারের দায়িত্বভার নেওয়া সময়ের অপেক্ষা।  

সুদান টিভি জানিয়েছে, টেলি-যোগাযোগমন্ত্রী হাসেম হাসালবালরাসোল, বাণিজ্যমন্ত্রী আলি গেড্ডো, তথ্যমন্ত্রী হামজা বালউল, যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী ইউসুফ অ্যাডমকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

আর-বুরহানের মিডিয়া উপদেষ্টা বলেন, আমরা জতীয় স্বার্থে অভ্যন্তরীণ ও বাইরের সব উদ্যোগকেই খতিয়ে দেখছি।

এর আগে জাতিসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল গুতেরেস বলেন, সুদানের উচিত গণতান্ত্রিক পথেই চলা।

এর আগে ২৫ অক্টোবর সুদানের সরকার ভেঙে দিয়ে ক্ষমতা দখল করে সামরিক বাহিনী। পরে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। 

জেল হত্যা দিবস পালন করেছে মালদ্বীপ আওয়ামীলীগ
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধিঃ
 
 
 জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে মালদ্বীপ আওয়ামী লীগ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের  আয়োজন করে।  ৩ নভেম্বর বুধবার স্থানীয় সময়   রাতে দেশটির রাজধানী মালের একটি রেস্টুরেন্টে  এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
 
 
 
পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। কোরআন ও দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা মোহাম্মদ আলামিন । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও জাতীয় চার নেতা সহ মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দেশ-জাতি ‍ও প্রবাসীদের কল্যাণে দোয়া করা হয়।
 
 
 
মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ দুলাল মাদবরের সভাপতিত্বে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজালাল শিকাদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের প্রধান উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ কমিউনিটি ওয়ালফেপার এর  প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মীর সাইফুল ইসলাম।
 
 
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  উপদেষ্টা মফিজুল ইসলাম,উপদেষ্টা কাওসার আহমেদ,মালদ্বীপ আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ভিও কনস্ট্রাকশন এর চেয়ারম্যান মোঃদুলাল হোসেন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও আওয়ামী লীগ নেতা মজিবুর রহমান, ও বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী মনির হোসেন,
 
 
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন,আওয়ামী লীগ নেতা ও বিশিষ্ট ব্যাবসী নুরে আলম রিন্টু,
মালদ্বীপ আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক বিল্লাল হোসেন।
 
 
অনুষ্ঠানে  উপস্থিত ছিলেন,আন্তর্জাতিক  বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি, এম আর কামাল, ও আনোয়ার হোসেন রাজু, নুরে আলম ভুইয়া,রফিকুল ইসলাম,গাজী জাহিদ,এনামুল হক জাকির,সোহাগ সরদার, সোলেমান অলিউল্লাহ ,শরিফুল ইসলাম সহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশীরা।
৫ প্রভাব বিস্তারকারীর তালিকায় শেখ হাসিনা
                                  

স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোতে শুরু হয়েছে ‘কপ২৬’ জলবায়ু সম্মেলন।

বহুল প্রতীক্ষিত এই সম্মেলনের ফলাফলে প্রভাব ফেলবেন—এমন শীর্ষ পাঁচজন বিশ্বনেতাকে ‘ডিলমেকারস’ হিসেবে উল্লেখ করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

 

বিবিসির বেছে নেওয়া এই তালিকায় রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিবেদনে তাকে ‘ঝুঁকিপূর্ণদের কণ্ঠস্বর’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সবচেয়ে বেশি হুমকির মুখোমুখি হওয়া ৪৮টি দেশের গ্রুপ ‘ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরাম’-এর পক্ষে কথা বলেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা একজন অভিজ্ঞ এবং স্পষ্টভাষী রাজনীতিবিদ উল্লেখ করে বিবিসি জানায়, গত বছর বাংলাদেশের প্রায় এক-চতুর্থাংশ পানির নিচে তলিয়ে গিয়েছিল। সেই সময় দেশটিতে বন্যার কারণে ১০ লাখ বাড়ি-ঘর হুমকির মুখে পড়ে। কাজেই তিনি জলবায়ু পরিবর্তনের অভিজ্ঞতা ‘কপ২৬’ সম্মেলনে তুলে ধরবেন।

শেখ হাসিনা ছাড়াও বিবিসির এই তালিকায় রয়েছেন চীনের জলবায়ুবিষয়ক বিশেষ দূত শি ঝেংহুয়া, সৌদি আরবের আয়মান শাসলি, যুক্তরাজ্যের পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী ও ‘কপ২৬’ সম্মেলনের প্রেসিডেন্ট অলোক শর্মা এবং স্পেনের বাস্তুসংস্থান রূপান্তর মন্ত্রী তেরেসা রিবেরা।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, পরিবেশ আন্দোলনকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ, স্যার ডেভিড অ্যাটেনবোরো ও বিশ্ব নেতারা যখন বেশিরভাগ গণমাধ্যমের দৃষ্টি কেড়ে নেবেন, তখন ১৯৭টি দেশকে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতিতে আবদ্ধ করার কাজটি পড়বে তুলনামূলক কম পরিচিত কূটনীতিক, মন্ত্রী এবং আলোচকদের ওপর।


   Page 1 of 55
     আন্তর্জাতিক
অন্তঃসত্ত্বা বোনের মাথা কেটে মাসহ ভাই এর সেলফি!
.............................................................................................
নেশার ওষুধ খাইয়ে দশম শ্রেণির ১৭ জন ছাত্রীকে যৌন হেনস্তা করল শিক্ষক
.............................................................................................
মালদ্বীপে দূতাবাসে সংবাদ সম্মেলন
.............................................................................................
মালদ্বীপে বাংলাদেশের ব্যাংকের শাখা চালু হচ্ছে।
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্র-চীনের যৌথ প্রচেষ্টায় কমেছে জ্বালানি তেলের দাম
.............................................................................................
২৪ ঘন্টায় মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত ১২৭।
.............................................................................................
বাইডেনের গণতন্ত্র সম্মেলন আমন্ত্রণের চূড়ান্ত তালিকায় নাম নেই বাংলাদেশের
.............................................................................................
মালদ্বীপে যুবলীগের ৪৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত।
.............................................................................................
আমন্ত্রণের চূড়ান্ত তালিকার খোঁজ নিচ্ছে বাংলাদেশ বাইডেনের
.............................................................................................
সুই না ফুটিয়েই টিকা দেবে রোবট
.............................................................................................
ইসরায়েল-সৌদি সম্পর্কের নেপথ্যে
.............................................................................................
অল্পের জন্য বেঁচে গেলেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্র থেকে অস্ত্রের বড় চালান পাচ্ছে সৌদি
.............................................................................................
মুক্তি পেলেন সুদানের ৪ মন্ত্রী
.............................................................................................
জেল হত্যা দিবস পালন করেছে মালদ্বীপ আওয়ামীলীগ
.............................................................................................
৫ প্রভাব বিস্তারকারীর তালিকায় শেখ হাসিনা
.............................................................................................
মাস্কহীন আলিঙ্গন!
.............................................................................................
কাবুলের সামরিক হাসপাতালে হামলা, দায়েশের দায় স্বীকার
.............................................................................................
জলবায়ু সম্মেলনে ঘুমালেন বাইডেন
.............................................................................................
৬৩ দেশের জন্য ভ্রমণের দরজা খুলল থাইল্যান্ড
.............................................................................................
মালদ্বীপের মাফুসি কারাগার পরিদর্শন করেন,রাষ্ট্রদূত,
.............................................................................................
রাস্তায় কেনা পাথর আসলে ২৩ কোটির হীরা!
.............................................................................................
প্রথমবার ক্যামেরার সামনে মোল্লা ওমরের ছেলে
.............................................................................................
বিশ্বসভায় যেতে চায় বাংলাদেশ
.............................................................................................
ধনী দেশগুলোর টিকানীতির কৌশল অনৈতিক: গুতেরেস
.............................................................................................
ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুর পৌর বিএনপি নেতাকে কুপিয়ে জখম করার প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন।
.............................................................................................
মালদ্বীপ সরকার ২ লাখ ডোজ করোনা টিকা উপহার দিল বাংলাদেশকে,
.............................................................................................
মালদ্বীপে টিকেট পাচ্ছেনা প্রবাসী বাংলাদেশীরা ,ভিডিও সহ,কালোবাজারে টিকেট বিক্রি।
.............................................................................................
সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন মালদ্বীপে
.............................................................................................
নিউইয়র্কে আ.লীগ-বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা
.............................................................................................
মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট এর সাথে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এর সৌজন্য সাক্ষাৎ
.............................................................................................
জাতিসংঘে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের চিঠি
.............................................................................................
কমিশনার অব প্রিজন আহমেদ ফুলহুর সাথে রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ।
.............................................................................................
মালদ্বীপে করোনায় নতুন আক্রান্ত ১৬২,সুস্থ ১৪০ জন,
.............................................................................................
ফিনল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
এক মাস পর কেমন চলছে আফগান জনজীবন?
.............................................................................................
মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে পাসপোর্ট ও ভিসা সেবা কার্যক্রম পুনরায় শুরু হয়েছে।
.............................................................................................
পুলিশ সাংবাদিকতা করলে বুঝতে হবে সব শেষ: ফখরুল
.............................................................................................
আরও একটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশে বাধা কাটল
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মালদ্বীপের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প সম্পুর্ন
.............................................................................................
৪ বছরে ৮ স্বামী, এইডসে আক্রান্ত নারী
.............................................................................................
মালদ্বীপের সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি,
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রের উপহারের ১০ লাখ টিকা আসার তারিখ পরিবর্তন
.............................................................................................
করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত, বিজ্ঞানীরা দিলেন ভয়ংকর তথ্য
.............................................................................................
কাবুল বিমানবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে শিশুসহ নিহত ১৩
.............................................................................................
তালেবানের সঙ্গে মেসিকে জড়িয়ে ফের বিতর্কে শার্লি হেবদো
.............................................................................................
প্রথম সংবাদ সম্মেলনে যে বার্তা দিল তালেবান
.............................................................................................
মালদ্বীপে রেমিট্যান্স যোদ্ধা অসুস্থ প্রবাসীকে বিমান টিকিট হস্তান্তর
.............................................................................................
মালদ্বীপ বাংলাদেশ দূতাবাসে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি আয়োজন।
.............................................................................................
হামাসের নেতৃত্বে আবারও ইসমাইল হানিয়া
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু, সহ সম্পাদক কাওসার আহমেদ র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, সহকারী বার্তা সম্পাদক শারমিন আক্তার । বার্তা বিভাগ ফোন০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, রেজিস্ট্রেশন নং 134 / নিবন্ধন নং 69 মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop