| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   আন্তর্জাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
জাতিসংঘে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের চিঠি

বঙ্গোপসাগরের মহীসোপানে ভারতের কিছু দাবির বিরুদ্ধে আপত্তি জানিয়েছে বাংলাদেশ। এ ঘটনায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের মহসচিবের কাছে বাংলাদেশ একটি চিঠিও পাঠিয়েছে। জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে যা প্রকাশ করা হয়েছে।গত এপ্রিলে বাংলাদেশের দাবিতে আপত্তি জানিয়ে জাতিসংঘে চিঠি পাঠায় ভারত। এতে নিজেদের কিছু দাবি তুলে ধরেছে প্রতিবেশী দেশটি। বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলেন, এবারের চিঠিতে ভারতের সেই দাবি নিয়ে আপত্তির কথা বলা হয়েছে। বিবিসি বাংলা এমন খবর দিয়েছে।

জাতিসংঘের মহীসোপান নির্ধারণ কমিশনে (সিএলসিএস) ভারতের দাবি ছিল, বাংলাদেশ যেই মহীসোপান নিজেদের বলে দাবি করছে—তা ভারতের অংশ। তখন বাংলাদেশ বলেছে, ভারতের ওই আপত্তির আইনগত ভিত্তি নেই। এ বিষয়ে কমিশনের সামনে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরেছে বাংলাদেশ।

২০০৯ সালে দুদেশের মধ্যে মহীসোপান নিয়ে বিতর্কের শুরু। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স বিভাগের সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল খুরশিদ আলম বলেন, তখন ভারত তাদের সমুদ্রসীমা নির্ধারণের জন্য যে ভিত্তিরেখা নির্ধারণ করে, তার দুটি ভিত্তিরেখা নিয়ে বাংলাদেশের আপত্তি।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে ভারতের সমুদ্রসীমা নির্ধারণে একটি ভিত্তিরেখা ছিল বাংলাদেশের জলসীমার মধ্যে। আরেকটি সাড়ে ১০ নটিক্যাল মাইল সমুদ্রের ভিতরে।
 

সমুদ্রের পানির নিম্নস্তর থেকে বেইজলাইন নির্ধারণ করার কথা থাকলেও দুটি ভিত্তিরেখা সেই নিয়ম মানা হয়নি বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ। সে সময় ভারতের এই বেইজলাইন নির্ধারণের ভুল নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তা সংশোধনের অনুরোধও করা হয়েছে।

এরপর ২০১১ সালে বাংলাদেশ নিজেদের সমুদ্রসীমা নির্ধারণ করে জাতিসংঘের মহীসোপান নির্ধারণ কমিশনে (সিএলসিএস) আবেদন করেছে।

পরে ২০১৪ সালে সমুদ্রসীমা নির্ধারণ বিষয়ে ভারতের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক আদালতের মামলায় বাংলাদেশ জয় পায়। এরপর আদালত বাংলাদেশকে নিজেদের সংশোধিত সমুদ্রসীমা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

খুরশিদ আলম বলেন, ২০২০ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ সংশোধিত সমুদ্রসীমা জমা দেয়। কিন্তু আদালত সীমানা নিার্ধারণ করে দেওয়া সত্ত্বেও ভারত এ বছরের এপ্রিলে বাংলাদেশের দাবি করা মহীসোপান নিয়ে আপত্তি জানায় সিএলসিএসে।

ওই আপত্তিতে ভারতের দাবি ছিল, বাংলাদেশ সমুদ্রপৃষ্ঠে যে বেইজলাইন ধরে নিজেদের মহীসোপান নির্ধারণ করেছে, তা ভারতের মহীসোপানের অংশ।

তিনি বলেন, আদালত যখন সমাধান করে সীমানা নির্ধারণ করে দিল, তখন তো মহীসোপান নিয়ে ভারতের সঙ্গে আমাদের আর কোনো দ্বন্দ্ব থাকল না। কিন্তু ভারত তারপরও আপত্তি প্রকাশ করে আসছে। এবার চিঠি দিয়ে আমরা জাতিসংঘকে মূলত এটাই জানাই যে ভারতের সঙ্গে আমাদের মহীসোপান নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই। কাজেই তারা যেন বিষয়টি বিবেচনা না করে।

তবে আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ভারত আনুষ্ঠানিক কোনো আবেদন করেনি, তাই মহীসোপান সংক্রান্ত তাদের দাবি আইনের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয় বলে মনে করেন খুরশিদ আলম। তিনি বলেন, সমুদ্রসীমা নিয়ে যেই দ্বন্দ্ব ছিল তা মিটে গেছে আদালতের সিদ্ধান্তের মাধ্যমে, সেই ২০১৪ সালে। এরপর তারা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে আদালতে কোনো আবেদন করেনি।

এছাড়া মহীসোপান বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন কমিশন অন দ্য লিমিটস অব কন্টিনেন্টাল শেলফের এই ধরনের দ্বন্দ্ব সমাধানের এখতিয়ার নেই বলেও মন্তব্য করেন খুরশীদ আলম।

তার মতে, আদালতের সিদ্ধান্তের পর মহীসোপান নির্ধারণের শেষে তারাও প্রজ্ঞাপন করেছে, আমরাও প্রজ্ঞাপন করেছি। কাজেই আমার মনে হয় তাদের এই আপত্তি আইনের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ।
 
জাতিসংঘে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের চিঠি
                                  

বঙ্গোপসাগরের মহীসোপানে ভারতের কিছু দাবির বিরুদ্ধে আপত্তি জানিয়েছে বাংলাদেশ। এ ঘটনায় গত ১৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের মহসচিবের কাছে বাংলাদেশ একটি চিঠিও পাঠিয়েছে। জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে যা প্রকাশ করা হয়েছে।গত এপ্রিলে বাংলাদেশের দাবিতে আপত্তি জানিয়ে জাতিসংঘে চিঠি পাঠায় ভারত। এতে নিজেদের কিছু দাবি তুলে ধরেছে প্রতিবেশী দেশটি। বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলেন, এবারের চিঠিতে ভারতের সেই দাবি নিয়ে আপত্তির কথা বলা হয়েছে। বিবিসি বাংলা এমন খবর দিয়েছে।

জাতিসংঘের মহীসোপান নির্ধারণ কমিশনে (সিএলসিএস) ভারতের দাবি ছিল, বাংলাদেশ যেই মহীসোপান নিজেদের বলে দাবি করছে—তা ভারতের অংশ। তখন বাংলাদেশ বলেছে, ভারতের ওই আপত্তির আইনগত ভিত্তি নেই। এ বিষয়ে কমিশনের সামনে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরেছে বাংলাদেশ।

২০০৯ সালে দুদেশের মধ্যে মহীসোপান নিয়ে বিতর্কের শুরু। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম অ্যাফেয়ার্স বিভাগের সচিব রিয়ার অ্যাডমিরাল খুরশিদ আলম বলেন, তখন ভারত তাদের সমুদ্রসীমা নির্ধারণের জন্য যে ভিত্তিরেখা নির্ধারণ করে, তার দুটি ভিত্তিরেখা নিয়ে বাংলাদেশের আপত্তি।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে ভারতের সমুদ্রসীমা নির্ধারণে একটি ভিত্তিরেখা ছিল বাংলাদেশের জলসীমার মধ্যে। আরেকটি সাড়ে ১০ নটিক্যাল মাইল সমুদ্রের ভিতরে।
 

সমুদ্রের পানির নিম্নস্তর থেকে বেইজলাইন নির্ধারণ করার কথা থাকলেও দুটি ভিত্তিরেখা সেই নিয়ম মানা হয়নি বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ। সে সময় ভারতের এই বেইজলাইন নির্ধারণের ভুল নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তা সংশোধনের অনুরোধও করা হয়েছে।

এরপর ২০১১ সালে বাংলাদেশ নিজেদের সমুদ্রসীমা নির্ধারণ করে জাতিসংঘের মহীসোপান নির্ধারণ কমিশনে (সিএলসিএস) আবেদন করেছে।

পরে ২০১৪ সালে সমুদ্রসীমা নির্ধারণ বিষয়ে ভারতের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক আদালতের মামলায় বাংলাদেশ জয় পায়। এরপর আদালত বাংলাদেশকে নিজেদের সংশোধিত সমুদ্রসীমা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়।

খুরশিদ আলম বলেন, ২০২০ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ সংশোধিত সমুদ্রসীমা জমা দেয়। কিন্তু আদালত সীমানা নিার্ধারণ করে দেওয়া সত্ত্বেও ভারত এ বছরের এপ্রিলে বাংলাদেশের দাবি করা মহীসোপান নিয়ে আপত্তি জানায় সিএলসিএসে।

ওই আপত্তিতে ভারতের দাবি ছিল, বাংলাদেশ সমুদ্রপৃষ্ঠে যে বেইজলাইন ধরে নিজেদের মহীসোপান নির্ধারণ করেছে, তা ভারতের মহীসোপানের অংশ।

তিনি বলেন, আদালত যখন সমাধান করে সীমানা নির্ধারণ করে দিল, তখন তো মহীসোপান নিয়ে ভারতের সঙ্গে আমাদের আর কোনো দ্বন্দ্ব থাকল না। কিন্তু ভারত তারপরও আপত্তি প্রকাশ করে আসছে। এবার চিঠি দিয়ে আমরা জাতিসংঘকে মূলত এটাই জানাই যে ভারতের সঙ্গে আমাদের মহীসোপান নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই। কাজেই তারা যেন বিষয়টি বিবেচনা না করে।

তবে আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ভারত আনুষ্ঠানিক কোনো আবেদন করেনি, তাই মহীসোপান সংক্রান্ত তাদের দাবি আইনের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয় বলে মনে করেন খুরশিদ আলম। তিনি বলেন, সমুদ্রসীমা নিয়ে যেই দ্বন্দ্ব ছিল তা মিটে গেছে আদালতের সিদ্ধান্তের মাধ্যমে, সেই ২০১৪ সালে। এরপর তারা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে আদালতে কোনো আবেদন করেনি।

এছাড়া মহীসোপান বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন কমিশন অন দ্য লিমিটস অব কন্টিনেন্টাল শেলফের এই ধরনের দ্বন্দ্ব সমাধানের এখতিয়ার নেই বলেও মন্তব্য করেন খুরশীদ আলম।

তার মতে, আদালতের সিদ্ধান্তের পর মহীসোপান নির্ধারণের শেষে তারাও প্রজ্ঞাপন করেছে, আমরাও প্রজ্ঞাপন করেছি। কাজেই আমার মনে হয় তাদের এই আপত্তি আইনের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ।
 
কমিশনার অব প্রিজন আহমেদ ফুলহুর সাথে রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ।
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধিঃ
 
 
মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান  দেশটির মালদ্বীপের কমিশনার অব প্রিজন আহমেদ মোহাম্মদ ফুলহু এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। 
 
সাক্ষাৎকালে মালদ্বীপের বিভিন্ন কারাগারে আটক বাংলাদেশের নাগরিকদের অধিকার ও সুযোগ সুবিধা, দ্রুত বিচার কার্যক্রম সম্পন্ন করা, রাষ্ট্রপতি কতৃক ক্ষমা ঘোষণা ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা হয়। 
 
এসময় হাইকমিশনের প্রথম সচিব জনাব মোঃ সোহেল পারভেজ ও মালদ্বীপের কারা সার্ভিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।
মালদ্বীপে করোনায় নতুন আক্রান্ত ১৬২,সুস্থ ১৪০ জন,
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ মালে প্রতিনিধি ঃ
মালদ্বীপে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ১৬২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।
এদের মধ্যে রাজধানীতে আক্রান্ত ৪৯ জন,
এখন পর্যন্ত মালদ্বীপে মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছে, ৮৩৪৯৪ জন।
 
এবং গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে সুস্থ হয়েছে ১৪০ জন।
এখন পর্যন্ত মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছে ৮১৫৪৪জন।
 
আজ ১৮ ই সেপ্টেম্বর ২০২১ সন্ধ্যায় ছয়টা নিয়মিত সংবাদ বুলেটিনের মাধ্যমে মালদ্বীপের সাস্থ্য সুরক্ষা সংস্থা এইচপিএ এই তথ্য জানিয়েছে।
 
সংবাদ সম্মেলন আরও জানানো হয়েছে করোনা শুরু থেকে এই পর্যন্ত মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ২২৯ জন।
 
 
 
 
ফিনল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
                                  

ফিনল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্ক যাওয়ার পথে ফিনল্যান্ডে যাত্রা বিরতি করছেন প্রধানমন্ত্রী।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল ৩টা ৩৭ মিনিটে হেলসিঙ্কির ভানতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি।


এর আগে শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টা ২৩ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি চাটার্ড ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে হেলসিঙ্কির উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল ৪ টায় (হেলসিঙ্কি সময়) হেলসিঙ্কি থেকে নিউইয়র্কের উদ্দেশে রওয়ানা হবেন তিনি। একই দিন স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইতালি সফরের দেড় বছর পর এটি প্রধানমন্ত্রীর প্রথম বিদেশ সফর।  

প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন এবং সেখানে বেশ কয়েকটি উচ্চ পর্যায়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য সরকারি সফরের অংশ হিসেবে ১৯ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে অবস্থান করবেন।
নিউইয়র্কে অবস্থানকালে শেখ হাসিনা ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সদর দপ্তরে সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে ভাষণ দেবেন।

১৯৭৪ সালে জাতিসংঘে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণের অনুসরণ করে প্রধানমন্ত্রী বিগত বছরগুলোর মতো এবারও বাংলায় ভাষণ দেবেন।
আগামী ২০ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এবং জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের আহবানে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের একটি ছোট দলের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা।

পরে, তিনি একটি গাছের চারা রোপণ করবেন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর সম্মানে জাতিসংঘ সদর দপ্তরের উত্তর লনে ইউএন গার্ডেনে একটি বেঞ্চ উৎসর্গ করবেন।

বিকেলে প্রধানমন্ত্রী ‘সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট সলিউশন নেটওয়ার্ক’ শীর্ষক একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

২১ সেপ্টেম্বর শেখ হাসিনা জাতিসংঘ সদর দপ্তরে সাধারণ বিতর্কের উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগ দেবেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কর্তৃক আয়োজিত ‘বিজনেস গোলটেবিল: ইউএস-বাংলাদেশ বিজনেস কাউন্সিল’-অনুষ্ঠানেও যোগ দেবেন।

২২ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী ডারবান ডিক্লারেশন অ্যান্ড প্রোগ্রাম অব অ্যাকশন গ্রহণের ২০তম বার্ষিকী উপলক্ষে সাধারণ পরিষদের একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে যোগ দেবেন।

এছাড়া, তিনি ‘হোয়াইট হাউস বৈশ্বিক কভিড-১৯ শীর্ষ সম্মেলন: মহামারির সমাপ্তি এবং আরও ভাল অবস্থা গড়ে তোলা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন এবং বক্তৃতা দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

সেদিন বিকেলে শেখ হাসিনা ‘রোহিঙ্গা সংকট: একটি টেকসই সমাধানের জন্য করণীয়’ শীর্ষক একটি উচ্চ পর্যায়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন এবং সেখানে পূর্বে-রেকর্ড করা বক্তৃতা দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

২৩ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের সুইডিশ মিশন আয়োজিত ‘জাতিসংঘের সাধারণ কর্মসূচি: সমতা ও অন্তর্ভুক্তি অর্জনের পদক্ষেপ’ শীর্ষক নেতাদের নেটওয়ার্কের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন।

তিনি জাতিসংঘ সদর দপ্তরে জাতিসংঘ মহাসচিব কর্তৃক আহ্বানে ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দশক কর্মসূচির অংশ হিসেবে খাদ্য ব্যবস্থা শীষর্ক সম্মেলনে যোগ দেবেন।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের সাইডলাইনে শেখ হাসিনা বেশ কয়েকজন বিশ্বনেতার সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠক করবেন।

তাদের মধ্যে রয়েছেন ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেট ফ্রেডেরিকসেন, বার্বাডোসের প্রধানমন্ত্রী মিজ মিয়া আমোর মোটলি কিউসি, নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট, নেদারল্যান্ডের রানী ম্যাক্সিমা, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সালিহ এবং ভিয়েতনামের প্রেসিডেন্ট এনগুয়েন জুয়ান ফাইক।

এছাড়া, তিনি জাতিসংঘ মহাসচিব আন্থোনিও গুতেরেস এবং ইইউ কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট চার্লস মিশেলের সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক আলোচনা করবেন।

জাতিসংঘ অধিবেশন এবং নিউইয়র্কে অন্যান্য অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণের পর প্রধানমন্ত্রীর ২৫-৩০ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন ডিসি সফরের কথা রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে শেখ হাসিনা ৩০ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন এবং হেলসিঙ্কিতে যাত্রা বিরতির পর ১ অক্টোবর দেশে ফিরবেন। 

 

 
এক মাস পর কেমন চলছে আফগান জনজীবন?
                                  

আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের গ্রহণের এক মাস পূর্ণ হয়েছে। এ সময়ে নগদ অর্থ সরবরাহ কমে গিয়ে দেশটির অর্থনীতির সংকট আরও গভীরতর হয়েছে। একই সাথে জীবনের নানা ক্ষেত্রেও প্রভাব দৃশ্যমান হতে শুরু করেছে সেখানে। আফগানিস্তান-উজবেকিস্তান সীমান্ত দিয়ে একটি সেতু পেরিয়ে নতুন "ইসলামিক আমিরাতে" ঢুকছিলো একটি মালবাহী কার্গো ট্রেন। সীমান্তে উজবেকদের উল্টো দিকে তালেবানের সাদা কালো পতাকা উড়ছিলো। কিছু ব্যবসায়ী তালেবানের ক্ষমতায় ফিরে আসাকে স্বাগত জানিয়েছে। গম বোঝাই একটি ট্রাকের চালক বিবিসি সংবাদদাতাকে বলেন, যে এর আগে চেকপয়েন্ট পার হওয়ার সময় দুর্নীতিবাজ পুলিশ কর্মকর্তাদের ঘুষ দিতে হতো। "এখন আর সেটি নেই। আমি কাবুলের পথে ড্রাইভ করে যেতে পারি কোন পয়সা না দিয়েই," বলে জানান তিনি। গত পনেরই অগাস্ট আফগানিস্তানের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। দেশটিতে এখন নগদ টাকার সংকট। অর্থনীতিও গভীর সংকটে। ব্যবসায়ী সম্প্রদায় জানিয়েছে বাণিজ্য কমেছে ব্যাপকভাবে, কারণ আফগান আমদানিকারকরা অর্থ দিতে পারছে না। হাইরাতান বন্দরে তালেবানের হেড অফ কাস্টমস মৌলভী সাইদ বলছেন, বাণিজ্য বাড়াতে তারা শুল্ক কমিয়ে দিচ্ছেন এবং সম্পদশালী ব্যবসায়ীরা দেশে ফিরুক, সেটিকে তারা উৎসাহিত করতে চান। "এটি কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়াবে। আর পরবর্তী জীবনে ব্যবসায়ীরা পুরস্কৃত হবেন," বলছিলেন তিনি। দেশটির চতুর্থ বৃহত্তম শহর মাজার ই শরীফ থেকে এক ঘণ্টা ড্রাইভ দূরত্বে মানুষের জীবনযাত্রা মনে হল স্বাভাবিক, যদিও অনেকে অর্থনৈতিক সংকটে ভুগছেন। শহরের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের প্রাণকেন্দ্র ব্লু মসজিদ চত্বরে আগের মত আর তরুণ নারী পুরুষের দেখা মিলে না। এখন তালেবান লিঙ্গভেদে আলাদা সময়সূচী ঠিক করে দিয়েছে: নারীরা সকালে আসবেন আর পুরুষরা দিনের বাকী সময়। ব্লু মসজিদ চত্বরে এক নারী বলেন, সব ঠিক আছে। তবে হয়তো নতুন সরকারের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে মানুষের বেশ কিছুটা সময় লাগবে। স্থানীয় প্রভাবশালী তালেবান নেতা হাজী হেকমতের কাছে প্রশ্ন ছিলো যে `আপনারা হয়তো নিরাপত্তা দিচ্ছেন কিন্তু সমালোচকরা বলছে আপনার এখানকার সংস্কৃতিকে হত্যা করছেন"।

 তিনি উত্তর দেন: "না"।

"গত বিশ বছরে এখানে পশ্চিমা প্রভাব ছিল। চল্লিশ বছর আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ এক বিদেশী থেকে আরেক বিদেশীর কাছে গেছে। আমরা আমাদের নিজস্ব ঐতিহ্য ও মূল্যবোধকে হারিয়েছি। এখন আমরা আমাদের সংস্কৃতিকে ফিরিয়ে আনছি," বলছিলেন হেকমত। তার মতে, ইসলামে নারী পুরুষের মেলামেশা নিষিদ্ধ। হেকমতকে মনে হল, মানুষের সমর্থনও উপভোগ করছেন। তবে কাছেই একজন বলছিলেন, "এরা ভালো লোক নয়"। হয়তো তালেবানের ইসলাম সম্পর্কিত ব্যাখ্যা দেশটির রক্ষণশীল সমাজের সাথে খুব একটা আলাদা নয়। তবে বড় শহরগুলোতে এখনো তালেবানদের নিয়ে বিরাজ করছে গভীর সন্দেহ। হাজী হেকমতের মতে, এটি বছরের পর বছর ধরে তালেবান বিরোধী প্রোপাগান্ডার ফল। কিন্তু আত্মঘাতী বোমা হামলা কিংবা `টার্গেটেড কিলিং` এর ইতিহাসও এজন্য কম দায়ী নয়। ব্লু মসজিদ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় এক জায়গায় বড় একটি জটলা দেখা গেলো। সেখানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় চারটি মৃতদেহ শুইয়ে রাখা হয়েছিল। একজনের পরিচয় হিসেবে লিখে রাখা হয়েছিল `অপহরণকারী` আর সতর্কতা ছিলো অন্য অপরাধীদের প্রতি যে শাস্তি হবে এমন। লোকজন সেখানে ফটো তুলছিল এবং নিজেদের অতীত ভুলে সামনের দিকে তাকানোর চেষ্টা ছিল তাতে। আফগানিস্তানের বড় শহরগুলোতে সহিংস অপরাধ দীর্ঘকালের সমস্যা। এখন তালেবানের সমালোচকরাও বলছেন, নিরাপত্তা বেড়েছে। একজন বলছিলেন, "এরা অপহরণকারী হলে ঠিক শাস্তিই হয়েছে। অন্যদের জন্য এটি বড় শিক্ষা হবে।" তবে শহরের অনেকেই আবার নিরাপদ বোধ করে না। আইনের ছাত্রী ফারজানা বলছিলেন, "যখনই ঘরের বাইরে যাই, তালেবানদের দেখি, ভয় লাগে।" বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলা। কিন্তু সরকারিগুলো এখনো বন্ধ। তালেবানদের নতুন নিয়ম অনুযায়ী, শ্রেণীকক্ষে ছেলে ও মেয়েদের এখন থেকে মাঝখানে পর্দা দিয়ে আলাদা বসতে হবে। ফারজানার কাছে এটি ততটা গুরুত্বপূর্ণ না হলেও তার ধারণা তালেবান শেষ পর্যন্ত মেয়েদের কাজের অনুমতি দিবে না। এ মূহুর্তে যদিও শিক্ষা ও চিকিৎসার প্রয়োজন ছাড়া নারীদের নিরাপত্তার জন্য ঘরে থাকতে বলা হয়েছে। "এ মূহুর্তে আশাহত লাগছে নিজেকে, কিন্তু ভবিষ্যতের জন্য আশাবাদী হতে আমি আমার সর্বোচ্চটাই করে যাবো," বলছিলেন ফারজানা। এর আগেরবার যখন তালেবান ক্ষমতায় ছিল, তখন নিয়ননীতি আরও কঠোর ছিল। মেয়েরা তখন পুরুষ সঙ্গী ছাড়া বাইরে বের হতে পারতো না। আফগান শহরগুলো এখন সেই ভীতিই তৈরি হয়েছে যে পরিস্থিতি আস্তে আস্তে ওই রকমই হবে। দেশটির উপর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ থাকলেও বহু মানুষের হৃদয় জয় করা থেকে অনেক দূরেই আছে তারা।

 

হাজী হেকমত বলছিলেন, "সামরিকভাবে দেশের নিয়ন্ত্রণ নেয়া ছিল কঠিন। কিন্তু আইনের শাসন বাস্তবায়ন করা ও একে সুরক্ষা দেয়া আরও কঠিন।" সূত্র- বিবিসি বাংলা

মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে পাসপোর্ট ও ভিসা সেবা কার্যক্রম পুনরায় শুরু হয়েছে।
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ থেকে,
 
মালদ্বীপে অবস্থান রত সকল প্রবাসী বাংলাদেশিদের  অবগতির জন্য জানানাে যাচ্ছে যে , মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসের  পাসপাের্ট সার্ভার মেরামত সম্পন্ন হয়েছে ।
 
এপ্রেক্ষিতে আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখ হতে পাসপাের্ট ও ভিসা সংক্রান্ত কার্যক্রম পুনরায় চালু করা হবে । 
 
 আজ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ রোজ বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।
 
 
বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, করােনা পরিস্থিতি বিবেচনায় অধিক লােক সমাগম এড়াতে আবেদনপত্র জমাদানের ক্ষেত্রে আবশ্যিকভাবে
দূতাবাসের  ফেসবুক পেজের মাধ্যমে এপয়েনমেন্ট নিয়ে আসার জন্য  সকলের প্রতি অনুরােধ করা হয়েছে ।
 
 
পুলিশ সাংবাদিকতা করলে বুঝতে হবে সব শেষ: ফখরুল
                                  

পুলিশের আইজি বেনজীর আহমেদের এক বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, যখন পুলিশ সাংবাদিকতা করে তখন বুঝতে হবে সব শেষ। কারণ তারাই বলে, বাতির রাজা ফিলিপস, মাছের রাজা ইলিশ আর দেশের রাজা পুলিশ। এদের কাছেই এখন সব ক্ষমতা।

শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবে উত্তরাঞ্চল ছাত্র ফোরাম ও বাংলাদেশ ছাত্র ফোরাম আয়োজিত ‘তারেক রহমানের ১৪তম কারামুক্তি দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি।


বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি বাংলাদেশ পুলিশের একটি গ্রুপ সাংবাদিকতাও করবে। যারা পুলিশের বিভিন্ন অর্জন ও বাংলাদেশের ইতিবাচক সংবাদ মানুষের সামনে তুলে ধরবেন। এজন্য বাংলাদেশ পুলিশের একটি নিউজ পোর্টাল যাত্রা শুরু করেছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ যখন চোর ডাকাত ধরা বাদ দিয়ে এই কাজ করবে, তখন তার কাছে কী আশা করা যাবে? চারদিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যর্থ হচ্ছে। চাঁদা আদায় করছে গরিব মানুষকে আটকে রেখে। আর এর মধ্যে তারা আবার নতুন কাজ শুরু করেছে। পুলিশ সাংবাদিকতা করবে। এটা কিন্তু সুদূরপ্রসারী।
আমলাদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আপনি জেলায় ডিসি অফিসে যান দেখবেন ওখানে কোনো প্রোগ্রামে আওয়ামী লীগের চেয়ে তারাই বেশি আওয়ামী লীগের দায়িত্ব পালন করে। আওয়ামী লীগ নাই তো এখন। এখন সব আমলালীগ।
আরও একটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশে বাধা কাটল
                                  

করোনা মহামারি প্রতিরোধে বিধিনিষেধের পর ১০টি দেশ থেকে ভ্রমণকারীরা ফিলিপিন্সে প্রবেশ করতে পারবেন। আগামী সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) থেকে এই নতুন নির্দেশনা কার্যকর হতে যাচ্ছে।দেশগুলো হল—বাংলাদেশ, ভারত, সংযুক্ত আরব আমিরাত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, নেপাল, ওমান, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া। শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তের মুখপাত্র হ্যারি রোক এমন খবর দিয়েছেন।-খবর হিন্দুস্থান টাইমস ও এনডিটিভির

তিনি বলেন, গত এপ্রিলে যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল—পরবর্তীতে জুলাইয়ে যা আরও সম্প্রসারিত করা হয়েছিল—সোমবার থেকে তা তুলে নেওয়া হবে। করোনাভাইরাসের অতিসংক্রামক ডেল্টা ধরন প্রতিরোধে জারি করা হয়েছিল এই বিধিনিষেধ।

বর্তমানে যে ১০টি দেশের ওপর করোনার কারণে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে, তা তুলে নিতে আন্তঃসংস্থার কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সুপারিশে অনুমোদন দিয়েছেন দুতার্তে।হ্যারি রোক বলেন, এসব দেশের ভ্রমণকারীরা ফিলিপিন্সে আসার পর অন্তত ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। উল্লিখিত দেশগুলোর আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারীদের যথাযথ প্রবেশ, করোনা পরীক্ষা ও কোয়ারেন্টিন নীতিমালা মেনে চলতে হবে।

এমন এক সময় এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হচ্ছে, যখন দেশটিতে রেকর্ডসংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার ২০ হাজার ৩১০ জনের করোনা সংক্রমণ পজিটিভ এসেছে। এ নিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ লাখে।

তবে ফিলিপিন্সে বিদেশি পর্যটকদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠছে না। কূটনীতিক ও ফিলিপিনো নাগরিকদের বিদেশি স্বামী কিংবা স্ত্রী—এ রকম বিশেষ ভিসাধারীরা এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নিশ্চিত করেছে, ফিলিপিন্সে করোনার ডেল্টা ধরনের কমিউনিটি ট্রান্সমিশন বা সংক্রমণ হচ্ছে। দেশটিতে করোনার এই ধরনেই সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মারিয়া রোসারিও ভেরগেইরি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, ডেল্টার কারণে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি অব্যাহত থাকবে। পৌর এলাকাগুলোতে লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় সরকারগুলো। দক্ষিণপূর্ব এশীয় দেশগুলোর মধ্যে ইন্দোনেশিয়ার পরে ফিলিপিন্সেই সবচেয়ে বেশি মানুষের সংক্রমণ ঘটেছে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মালদ্বীপের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প সম্পুর্ন
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধি। 
 
 
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে প্রবাসী বাংলাদেশী চিকিৎসকদের সহযোগিতায় মালদ্বীপস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন কর্তৃক ২০, ২৭ আগষ্ট ও ৩ সেপ্টেম্বর তারিখে ধামানাভাসি মালে হাসপাতাল প্রাঙ্গণে "ফ্রি  ফ্রাইডে ক্লিনিক" আয়োজন করা হয়।
উক্ত ক্লিনিক সমূহে তিন দিনে মোট ২৩৭ জন প্রবাসী বাংলাদেশীকে বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ঔষধ প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের বায়ো ফার্মা এবং মালদ্বীপের লাইফ সাপোর্ট ফ্রি ফ্রাইডে  উপলক্ষে বিনামূল্যে ঔষধ সরবরাহ করে।
 
এদিকে, বিনামূল্যে মানসম্মত চিকিৎসা ও ওষুধ পেয়ে খুশী।
 
এই সময়ে "ফ্রি ফ্রাইডে ক্লিনিক" উপস্থিত থেকে 
 সর্ববিষয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন দূতাবাসের প্রথম সচিব মোহাম্মদ সোহেল পারভেজ তৃতীয় সচিব  মিজানুর রহমান ভূঁইয়া  এবং 
 
দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এই সময়  উপস্থিত ছিলেন।
৪ বছরে ৮ স্বামী, এইডসে আক্রান্ত নারী
                                  

কিছুদিন পরপরই বিয়ে করার অভ্যাস তার। বিয়ে করে সংসার করতেন ১০ থেকে ১৫ দিন। এরপর স্বামীর দেওয়া গয়না, টাকা পয়সা নিয়ে উধাও হয়ে যেতেন। কিছুদিন বিরতির পর আবার বিয়ে বসতেন নতুন কারো কাছে। আবারো পালিয়ে যেতেন সব নিয়ে। এভাবে গত চার বছরে ৮ জনকে বিয়ে করেছেন এক নারী।

সম্প্রতি পুলিশ তাকে গ্রেগতার করেছে। মেডিকেল টেস্ট করে জানা গেলো তিনি এইচআইভি এইডসে আক্রান্ত। তবে কতদিন আগে থেকে এই রোগ তার শরীরে বাসা বেধেছে তা স্পষ্ট নয়। পুলিশ তাই ওই মহিলার প্রাক্তন স্বামীদের সঙ্গেও এখন যোগাযোগ করছে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে তাদের সবাইকেও মেডিক্যাল পরীক্ষা করাতে বলা হয়েছে।

 
 
বিয়ের আড়ালে এমন প্রতারণার ঘটনা অবশ্য ভারতে নতুন নয়। তবে যেটা প্রথম শোনা গেল, তা হল ওই নারী বিয়ে করে সব নিয়ে পালিয়ে প্রাক্তন স্বামীদের যেমন আর্থিক ক্ষতি করেছেন ঠিক তেমনি সবাইকে ফেলেছেন শারীরিক ক্ষতির মুখেও।
 
 
 
জানা গেছে, ওই মহিলার বাড়ি পাঞ্জাবে। বয়স ৩০। তিনি দুই সন্তানের মা। বিয়ে করে প্রতারণার ব্যবসা ফেঁদে বসেছিলেন গত চার বছর ধরে। এ কাজে তার আরও তিন সহযোগীও ছিলেন। পুলিশ সেই সঙ্গীদের গ্রেফতার করেছে। পুলিশের কাছে অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন ওই মহিলাও।
 
পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, কীভাবে মাত্র ১৫ দিনের মধ্যে বিয়ে করে সেই বিয়ে থেকে বেরিয়েও আসতেন তিনি। অধিকাংশ ক্ষেত্রে যৌতুকের হুমকি দিতেন তিনি। আর তাতে কাজ না হলে শ্বশুরবাড়ির সদস্যদের অচেতন করে টাকা-গয়না নিয়ে পালাতেন।
 
 
সাধারণত স্বামী কতটা অবস্থাপন্ন তার উপর নির্ভর করত তিনি শ্বশুরবাড়িতে কতদিন থাকবেন। ধনী হলে ১৫ দিন। তুলনায় কম অবস্থাপন্ন হলে ১০ দিনের মধ্যেই কাজ শেষ করতেন।
 
 
পুলিশ জানিয়েছে, চার বছর আগে ওই মহিলাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন তার স্বামী। তারপরই তিনি এই ব্যবসা খুলে বসেন।
সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

 

 
মালদ্বীপের সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি,
                                  
মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধি। 
মালদ্বীপে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে করোনায় শনাক্ত হয়েছে ১৫২ জন,তাদের মধ্যে রাজধানী মালে আক্রান্ত হয়েছে ২৬ জন ।
এই নিয়ে মালদ্বীপে মোট করোনায় আক্রান্ত
হয়েছে,মোট ৮১ হাজার ১১২ জন,
গত ২৪ ঘন্টায় মালদ্বীপে  সুস্থ হয়েছে ১৩১ জন
 
এই পর্যন্ত মালদ্বীপে করোনা আক্রান্ত রোগীর সুস্থ হয়েছে, মোট ৭৯ হাজার ১৪৩ জন,
 
এখন পর্যন্ত মালদ্বীপে করোনয় মৃত্যুবরণ করেছে মোট, ২২৬ জন
 
 
যুক্তরাষ্ট্রের উপহারের ১০ লাখ টিকা আসার তারিখ পরিবর্তন
                                  

কোভিড-১৯ মহামারি থেকে সুরক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের উপহারের ১০ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা আজ সোমবার (৩০ আগস্ট) সন্ধ্যায় আসার কথা থাকলেও এই চালান আজ আসছে না।তবে আগামী বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) একই সময়ে কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে টিকাগুলো রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসার কথা রয়েছে। এছাড়া চীনের ২০ লাখ টিকাও আজ আসবে কিনা নিশ্চিত নয়।

সোমবার (৩০ আগস্ট) স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাইদুল ইসলাম প্রধান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ফাইজারের টিকা আসার সময় কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। আজ সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে আমেরিকা থেকে কোভ্যাক্স ফ্যাসিলিটিজের আওতায় ফাইজারের যে ১০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন আসার কথা ছিল, তা আজ না এসে বুধবার দেশে পৌঁছাবে।

এ ছাড়া আজ রাত আড়াইটায় বাংলাদেশ বিমানের আরেকটি ফ্লাইটে চীন থেকে সিনোফার্মের আরও ২০ লাখ ডোজ টিকা দেশে এসে পৌঁছবে কিনা সেটিও পরে জানানো হবে।এর আগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গত সোমবার যুক্তরাষ্ট্র থেকে উপহারের ১০ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা আসার কথা জানিয়েছিল। এমনকি টিকাগুলো বিমানবন্দরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার গ্রহণ করবেন বলেও জানানো হয়েছিল।

এটি যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশের জন্য পাঠানো ফাইজারের দ্বিতীয় চালান। এর আগে গত ৩১ মে প্রথম এক লাখ ৬২০ ডোজ ফাইজারের টিকা দেশে আসে।

গত ২৩ আগস্ট মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সচিবালয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, সেপ্টেম্বরের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আরও ৬০ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা পাওয়া যাবে। সেই ৬০ লাখ ডোজ টিকার প্রথম চালান হিসেবে ১০ লাখ ডোজ আসছে।

ফাইজার ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র থেকে কোভ্যাক্সের আওতায় দুই দফায় মর্ডানার টিকা পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম দফায় জুলাই মাসের প্রথম দিকে যুক্তরাষ্ট্র থেকে মডার্নার ১২ লাখ ৬৭ হাজার ২০০ ডোজ টিকা দেশে আসে।

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত, বিজ্ঞানীরা দিলেন ভয়ংকর তথ্য
                                  

দক্ষিণ আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা জানিয়েছে মহামারি করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট তারা শনাক্ত করেছে।

সংবাদ মাধ্যম ব্লুমবার্গ জানায়, যেটি এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মিউটেশন হয়েছে বলে জানিয়েছে আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা।  এছাড়া এর বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন কার্যকর নাও হতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে।

সি.১.২ নামের করোনার এই ভ্যারিয়েন্ট প্রথম শনাক্ত হয় মে মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার এমপুমালাঙ্গা এবং গুটাং প্রদেশে। এদিকে ১৩ আগস্ট বিজ্ঞানীদের এক গবেষণাপত্রে পাওয়া গেছে এই ভ্যারিয়েন্ট দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গ প্রিটোরিয়াসহ ৬ প্রদেশ এবং কঙ্গো,মৌরিতাস,পর্তুগাল,নিউজিল্যান্ড এবং সুজারল্যান্ডেও শনাক্ত হয়েছে।দক্ষিণ আফ্রিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর কমিউনিক্যাবল ডিজিস এবং কোয়াজুলু-নাটাল রিসার্চ ইনোভেশন অ্যান্ড সিকোয়েন্সিং প্লাটফর্মের নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। তবে গবেষণাটি এখনও প্রিপ্রিন্ট পর্যায়ে রয়েছে। এটি পিয়ার রিভিউর অপেক্ষায় রয়েছে।  বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই ভ্যারিয়েন্ট অত্যাধিক সংক্রমণ ঘটাতে সক্ষম হচ্ছে। সেই সঙ্গে ভ্যাকসিনের অ্যান্টিবডি এড়িয়ে যাওয়ার প্রবল ক্ষমতা এদের রয়েছে।


মহামারি করোনা ভাইরাস চীনের উহান থেকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ার পর এর নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্টে বিপর্যস্ত হয়ে উঠছে পৃথিবী। সব ভাইরাসই সময়ের সঙ্গে স্বভাবতই বদলাতে থাকে, সার্স-কোভিড-২ এক্ষেত্রে কোন ব্যতিক্রম নয়। ২০২০ সালের শুরুর দিকে যখন এই ভাইরাসটি প্রথম চিহ্নিত হয়, তারপর এটির হাজার হাজার মিউটেশন হয়েছে।
মিউটেশনের মাধ্যমে এভাবে যে পরিবর্তিত ভাইরাস তৈরি হয়, তাকে বলা হয় ভ্যারিয়েন্ট। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, বেশিরভাগ মিউটেশনের ফলে ভাইরাসটির মূল গঠনের ওপর খুব কম বা একেবারে কোন প্রভাবই আসলে পড়ে না। সময়ের সঙ্গে এটি বিলুপ্তও হয়ে যায়। কিন্তু কোন কোন মিউটেশন এমনভাবে ঘটে, যা ভাইরাসটিকে টিকে থাকতে এবং বংশবৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

এর আগে ভারতে প্রথম শনাক্ত হওয়া ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট হুমকি বলে মনে করা হচ্ছিল। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণেই ভারতে এপ্রিল এবং মে মাসে করোনাভাইরাসের মারাত্মক দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হেনেছিল। এরপর এটি এখন যুক্তরাজ্যেও সবচেয়ে প্রাধান্য বিস্তার করেছে।
বিশ্বের ৯০টির বেশি দেশে এই ভ্যারিয়েন্ট ধরা পড়েছে। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, আফ্রিকা, স্ক্যান্ডিনেভিয়া এবং প্যাসিফিক অঞ্চলের দেশগুলোতে। যুক্তরাজ্য থেকে পাওয়া তথ্যে দেখা যাচ্ছে, যারা টিকা নেয়নি, তারা এই ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হলে, তাদের মারাত্মক অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার হার আলফা ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি। এদিকে এবার বিজ্ঞানীরা বলছেন দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া এই সি.১.২ নামের করোনা ভ্যারিয়েন্ট সবচেয়ে বেশি মিউটেশন হয়েছে।
কাবুল বিমানবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে শিশুসহ নিহত ১৩
                                  

কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে দুটি বিস্ফোরণ ঘটেছে। এতে এখন পর্যন্ত ১৩ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। নিহতদের মধ্যে বিদেশি নাগরিক ও শিশুরাও রয়েছে।বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও পেন্টাগন হামলার খবর নিশ্চিত করেছে। আল-জাজিরার প্রতিবেদক আলী এম. লাতিফি বলেন, আফগানিস্তানে তালেবানের হাতে ক্ষমতা চলে যাওয়ার পর প্রথম কোনো বিস্ফোরণের খবর এসেছে।

আত্মঘাতী এই হামলায় অর্ধশত আহত হয়েছেন। তাদের অধিকাংশই নারী ও শিশু। এক মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, তাদের পাঁচ সেনাও আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে তালেবান সদস্যরাও রয়েছেন।

লোকজনকে সরিয়ে নিতে ব্যাপক কর্মযজ্ঞের মধ্যেই সম্ভাব্য হামলার সতর্কতা জারি করেছিল পশ্চিমা দেশগুলো। বিমানবন্দর এড়িয়ে চলতে নাগরিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে বেশ কয়েকটি দেশ। এক কর্মকর্তা বলেন, সেখানে আত্মঘাতী হামলার ঝুঁকি রয়েছে।পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে একটি একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে বলে আমি নিশ্চিত করে বলতি পারি। এখন পর্যন্ত হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে বিস্তারিত তথ্য জানানো হবে।

এর আগে কাবুল বিমানবন্দরে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় সেখানে না যেতে নাগরিকদের প্রতি সতর্কতা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ তাদের মিত্রদেশগুলো। জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট হামলা চালানোর হুমকি দেয়ায় এই সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

এরমধ্যেই কাবুল বিমানবন্দরে দেশ ত্যাগে আফগানদের হিড়িক বেড়েই চলেছে। এখনো দশ হাজারের বেশি আফগান বিমানবন্দরে দেশ ত্যাগের অপেক্ষায় রয়েছেন।

৩১ আগস্টের আগে বিদেশি ও আফগান নাগরিকদের কাবুল বিমানবন্দর ত্যাগে তালেবান কোনো বাঁধা না দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বলে দাবি যুক্তরাষ্ট্রের। এদিকে তালেবানকে রুখতে পাঞ্জশিরে একাট্টা হয়েছে সরকারি বাহিনী ও স্থানীয় সশস্ত্রগোষ্ঠীগুলো।

কোনভাবেই থামছে না দেশ ত্যাগে মরিয়া আফগানদের ভিড়। বুধবারও কাবুল বিমান বন্দরে বিদেশি ও সাধারণ আফগানদের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের হিসাব মতে, ১৪ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত ৮২ হাজারের বেশি মার্কিন ও আফগান নাগরিক কাবুল ছাড়তে সক্ষম হয়েছে। এখনো আফগানিস্তান ছাড়ার অপেক্ষায় আছেন দশ হাজারের বেশি মানুষ। যতই দিন গড়াচ্ছে ততই আফগানদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে। উত্তাল আফগানিস্তান থেকে নিজেদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নেয়া অব্যাহত রেখেছে মেক্সিকো, লিথুয়ানিয়াসহ বিভিন্ন দেশ।

কাবুল বিমান বন্দরে মানবেতর পরিস্থিতি তৈরি হলেও তালেবানের হাতেই নিজেদের সপে দিতে শুরু করেছেন অনেক আফগান নাগরিক। তালেবানের হাতে আফগানিস্তান চলে যাওয়ার দুসপ্তাহ হতে চলেছে। নতুন পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়ার চেষ্টা করছেন তারা। তবে দশদিন ধরে ব্যাংক বন্ধ থাকায় অর্থনৈতিক মন্দার পাশাপাশি খাদ্য সঙ্কট চরমে পৌঁছেছে।

তালেবানের হাতে শাসনভার চলে গেলেও তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করছেন কাবুলের উত্তরাঞ্চলের পাহাড়ী এলাকা পাঞ্জশিরের মানুষ। এরইমধ্যে সরকারি বাহিনীর অবশিষ্ট সদস্যদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে অঞ্চলটির তালেবানবিরোধী সশস্ত্রগোষ্ঠীগুলো। পাঞ্জশিরে তালেবানের বিরুদ্ধে তারা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

বর্তমানে আমরা পাঞ্জশিরের সম্মুখভাগে রয়েছি। আমরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত। আমরা যে কোনো মূল্যে তালেবানকে প্রতিহত করবো।

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের মেয়াদ শেষ হলে আফগান ছাড়তে ইচ্ছুক নাগরিকদের ভবিষ্যত কী হবে তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। এ বিষয়ে জো বাইডেন প্রশাসন বিকল্প পথ খুঁজছে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস।

তবে মার্কিন সেনাদের আফগান ত্যাগের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আফগানিস্তান ছাড়তে ইচ্ছুক কাউকেই তালেবান সদস্যরা কোনো ধরনের বাধা না দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্টনি ব্লিঙ্কেন। ৩১শে আগস্টের পরও আফগানদের দেশ ত্যাগে সুযোগ দিতে তালেবানকে চাপ দেয়ার পক্ষে মত দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোও।
 
তালেবানের সঙ্গে মেসিকে জড়িয়ে ফের বিতর্কে শার্লি হেবদো
                                  

তালেবানকে নিয়ে ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুনে ফুটবল কিংবদন্তি লিওনেল মেসিকে জড়িয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছে বিতর্কিত ফরাসি সাময়িকী শার্লি হেবদো।

বোরকা পরা তিন আফগান নারীকে নিয়ে বানানো কার্টুনের ক্যাপশনে বলা হয়েছে, যতটা ভাবা হয়, তার থেকেও জঘন্য তালিবান!

কার্টুনের ওই তিন নারীর পিঠে লেখা লেখা ‘মেসি ৩০’। সম্প্রতি প্যারিস সেন্ট-জার্মেই ফুটবল ক্লাবের সঙ্গে বোনাস সুবিধাসহ সাড়ে তিন কোটি ইউরোর বিনিময়ে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন মেসি। গত সপ্তাহে তিনি প্যারিসে পা রেখেছেন। ৯ বারের লিগ ওয়ান বিজয়ী ক্লাবটিতে তার নতুন জীবন শুরু হতে যাচ্ছে।
দুবছরের চুক্তিতে বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকার ১০ নম্বর জার্সিটা আর থাকছে না। যে কারণে ৩০ নম্বর জার্সি পেয়েছেন তিনি। কয়েক দিনের মধ্যেই হয়তো ফরাসি টিমের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে পড়বেন তিনি। তার আগেই মেসিকে নিয়ে হইচই।
গত রোববার আফগানিস্তানের রাজধানী তালেবানের নিয়ন্ত্রণে আসার পরই শার্লি হেবদোর সাম্প্রতিকতম সংখ্যাটি প্রকাশিত হয়েছে। আর তারই প্রচ্ছদ করা হয়েছে মেসির জার্সি।
এদিকে আফগানিস্তানে গেল দুদশকের যুদ্ধে ন্যাটো ও মার্কিন বাহিনীকে সহায়তা করা লোকজনকে খুঁজে বের করতে অভিযান জোরদার করেছে তালেবান। জাতিসংঘের একটি নথির বরাতে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি এমন খবর দিয়েছে।
 
নরওয়েজিয়ান সেন্টার ফর গ্লোবাল অ্যানালাইসিসের সরবরাহ করা গোপন নথিতে গোয়েন্দা তথ্যও যুক্ত করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, মার্কিন বাহিনীকে সহায়তা করা লোকজন আত্মসমর্পণ না করলে তাদের হত্যা ও গ্রেপ্তারের হুমকি দিচ্ছে তালেবান। তাদের পরিবারের সদস্যদেরও ছাড় দেওয়া হচ্ছে না।
নিজে থেকে ধরা না দিলে পরিবারের সদস্যদের গ্রেপ্তার করা হবে। এমনকি তালেবানের পক্ষ থেকে অনেকে হত্যার হুমকিও পেয়েছেন।
সামরিক বাহিনী, পুলিশ ও তদন্ত ইউনিটের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করা লোকজন বিশেষভাবে ঝুঁকিতে রয়েছেন। নথিতে বলা হয়, বড় বড় শহরগুলো নিয়ন্ত্রণের আগেই ওইসব লোকদের আগাম তালিকা তৈরি করে রেখেছিল তালেবান।
এমনকি দেশ ছাড়ার উদ্দেশে রাজধানী কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের জড়ো হওয়া মানুষের মধ্যেও বিদেশি সহায়তাকারীদের খোঁজা হচ্ছে।
প্রথম সংবাদ সম্মেলনে যে বার্তা দিল তালেবান
                                  

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দুই দিন পর মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) প্রথমবারের মতো সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছে তালেবান।কাবুলে এ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন তালেবানের মুখপাত্র জবিউল্লাহ মুজাহিদ। সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব ও নিজের দেশের নাগরিকদের জন্য বিভিন্ন বার্তা নিয়ে হাজির হন তিনি।

মুজাহিদ বলেন, ‌‘২০ বছরের সংগ্রামের পর আমরা দেশকে মুক্ত করেছি এবং বিদেশিদের তাড়িয়ে দিয়েছি। এটা পুরো জাতির জন্য গর্বের মুহূর্ত।’

মুখপাত্র বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে আফগানিস্তান আর সংঘাতের যুদ্ধক্ষেত্র নয়। যারা আমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছে তাদের সবাইকে আমরা ক্ষমা করে দিয়েছি। শত্রুতা শেষ হয়ে গেছে।`

তিনি বলেন, ‘আমরা দেশের বাইরে বা অভ্যন্তরীণ কোনো শত্রু চাই না।’

মুখপাত্র বলেন, আমরা কাবুলে বিশৃঙ্খলা দেখতে চাইনি। আমাদের পরিকল্পনা ছিল কাবুলের গেটে থামার, যাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রক্রিয়াটি ভালোভাবে সম্পন্ন করা যায়।

‘কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত, আগের সরকার এতটাই অযোগ্য ছিল ... তাদের নিরাপত্তা বাহিনী নিরাপত্তা নিশ্চিতে কিছুই করতে পারেনি। আমাদেরই করতে হয়েছে। আমাদের বাসিন্দাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাবুলে প্রবেশ করতে হয়েছিল,’ বলেন মুজাহিদ।

তিনি বলেন, আফগানিস্তানে শরিয়া অনুযায়ী নারীদের অধিকার দেওয়া হবে। আমি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করতে চাই যে, কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।

তালেবান মুখপাত্র আরও বলেন, ‘আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাথে কোনো সমস্যায় জড়াতে চাই না।’

তিনি বলেন, আমাদের ধর্মীয় নীতি অনুযায়ী কাজ করার অধিকার আমাদের আছে। অন্যান্য দেশের বিভিন্ন পন্থা, নিয়ম ও প্রবিধান আছে ... আমাদের মূল্যবোধ অনুযায়ী নিজস্ব নীতি ও বিধি থাকার অধিকার আছে।

মুজাহিদ বলেন, আমরা শরিয়া ব্যবস্থার অধীনে নারীর অধিকারের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তারা আমাদের কাঁধে কাঁধ রেখে কাজে যাবে। আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে নিশ্চয়তা দিতে চাই যে, এখানে কোনো ধরনের বৈষম্য হবে না।

মুখপাত্র বলেন, আমরা আমাদের সাংস্কৃতিক কাঠামোর মধ্যে মিডিয়ার প্রতি অঙ্গীকারাবদ্ধ। গণমাধ্যমের কাজের ক্ষেত্রে কোনো কিছুই ইসলামী মূল্যবোধের বিরুদ্ধে হওয়া উচিত নয়। মিডিয়ার উচিত আমাদের ত্রুটির দিকে মনোযোগ দেওয়া, যাতে আমরা জাতির সেবা করতে পারি।

তিনি আরও বলেন, মিডিয়ার আমাদের বিরুদ্ধে কাজ করা উচিত নয়। তাদের জাতির ঐক্যের জন্য কাজ করা উচিত।

তালেবান মুখপাত্র নারীর অধিকার নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘আমরা নারীদেরকে কাঠামোর মধ্যে কাজ ও পড়াশোনার অনুমতি দিতে যাচ্ছি।’

‘আমাদের সমাজে, আমাদের কাঠামোর মধ্যে নারীরা খুব সক্রিয় হতে চলেছে,’ তিনি বলেন।

তালেবান মুখপাত্র পুনর্ব্যক্ত করেছেন যে বেসরকারি মিডিয়া তাদের নিয়মানুযায়ী চলবে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, মুজাহিদ বলেন, ‘আমি গণমাধ্যমকে আশ্বস্ত করতে চাই যে আমরা আমাদের সাংস্কৃতিক কাঠামোর মধ্যে মিডিয়ার প্রতি অঙ্গীকারাবদ্ধ।’

মুজাহিদ বলেছেন, ‘আমরা আফগানিস্তানে স্থিতিশীলতা বা শান্তির জন্য সবাইকে ক্ষমা করে দিয়েছি। শত্রুর সাথে লড়াইয়ের ফলে যাদের জীবন নষ্ট হয়েছে, এটা তাদেরই দোষ ছিল। আমরা কয়েকদিনের মধ্যে পুরো দেশ জয় করেছি। সরকার গঠনের পর সবকিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে।’

তালেবান মুখপাত্র বলেন, সরকার গঠনের পর আমরা জাতির সামনে কোন আইন উপস্থাপন করা হবে তা নির্ধারণ করতে যাচ্ছি। আমার একটা কথা বলা দরকার; আমরা সরকার গঠনে গুরুত্ব সহকারে কাজ করছি। এটি গঠনের পরে ঘোষণা করা হবে।

তিনি বলেন, পুরো সীমানা আমাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তানের পুনর্দখল নিয়েছে তালেবান। আফগান জনগণের সমর্থন ও বৈশ্বিক সম্প্রীতির বন্ধনে জড়িয়ে দেশটি শাসন করতে চায় সংগঠনটি।

রোববার (১৫ আগস্ট) আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল দখল করে দেশটির ক্ষমতা নিয়েছে তালেবান। ফলে পতন ঘটেছে পাশ্চাত্য সমর্থিত আফগান সরকারের। তবে ক্ষমতায় গেলেও তালেবানরা বহির্বিশ্বের সমর্থন পাবে কি না, এ প্রশ্ন রয়েই গেছে। তবে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তালেবানকে আফগানিস্তানের ‘বৈধ সরকার’ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম `ইউএস নিউজ অ্যান্ড ওয়ার্ল্ড`-এর এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও বিদেশি গোয়েন্দা সূত্রগুলো বলছে, চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির নেতারা ইসলামপন্থী এই সশস্ত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

 বেইজিং এমন সময়ে তালেবানকে স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে যখন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চাপ প্রয়োগ করে তালেবানকে আলোচনার টেবিলে বসাতে চাচ্ছেন। ফলে বাইডেনের সেই প্রচেষ্টা মারাত্মকভাবে ব্যহত হওয়ার শঙ্কা তৈরি হচ্ছে। আর এই শঙ্কার আগুনে ঘি ঢালছে পাকিস্তানও। ইমরান খান এরই মধ্যে তালেবানদের ক্ষমতা দখলকে সমর্থন করে বিবৃতি দিয়েছেন।


   Page 1 of 53
     আন্তর্জাতিক
জাতিসংঘে ভারতের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের চিঠি
.............................................................................................
কমিশনার অব প্রিজন আহমেদ ফুলহুর সাথে রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ।
.............................................................................................
মালদ্বীপে করোনায় নতুন আক্রান্ত ১৬২,সুস্থ ১৪০ জন,
.............................................................................................
ফিনল্যান্ড পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
এক মাস পর কেমন চলছে আফগান জনজীবন?
.............................................................................................
মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে পাসপোর্ট ও ভিসা সেবা কার্যক্রম পুনরায় শুরু হয়েছে।
.............................................................................................
পুলিশ সাংবাদিকতা করলে বুঝতে হবে সব শেষ: ফখরুল
.............................................................................................
আরও একটি দেশে বাংলাদেশিদের প্রবেশে বাধা কাটল
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মালদ্বীপের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প সম্পুর্ন
.............................................................................................
৪ বছরে ৮ স্বামী, এইডসে আক্রান্ত নারী
.............................................................................................
মালদ্বীপের সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি,
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রের উপহারের ১০ লাখ টিকা আসার তারিখ পরিবর্তন
.............................................................................................
করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত, বিজ্ঞানীরা দিলেন ভয়ংকর তথ্য
.............................................................................................
কাবুল বিমানবন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে শিশুসহ নিহত ১৩
.............................................................................................
তালেবানের সঙ্গে মেসিকে জড়িয়ে ফের বিতর্কে শার্লি হেবদো
.............................................................................................
প্রথম সংবাদ সম্মেলনে যে বার্তা দিল তালেবান
.............................................................................................
মালদ্বীপে রেমিট্যান্স যোদ্ধা অসুস্থ প্রবাসীকে বিমান টিকিট হস্তান্তর
.............................................................................................
মালদ্বীপ বাংলাদেশ দূতাবাসে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি আয়োজন।
.............................................................................................
হামাসের নেতৃত্বে আবারও ইসমাইল হানিয়া
.............................................................................................
মালদ্বীপের ইকনমিক্স মন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশের হাইকমিশনারের সৌজন্য সাক্ষাৎ
.............................................................................................
তালেবানের আক্রমণে দিশেহারা আফগান সেনাবাহিনী
.............................................................................................
মালদ্বীপের সর্বশেষ করোনা আপডেট ,
.............................................................................................
ট্রাম্প ফেসবুকে ২ বছর নিষিদ্ধ থাকছেন
.............................................................................................
সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এখন মালদ্বীপ।
.............................................................................................
ক্ষমতা হারাতে যাচ্ছেন নেতানিয়াহু
.............................................................................................
মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে ৩০ মে হতে ৩ জুন পর্যন্ত সকল কাজকর্ম বন্ধ থাকবে।
.............................................................................................
চীনাদের কাছে ক্ষমা চাইলেন ফাস্ট অ্যান্ড দৈনিক নতুন বাজার
.............................................................................................
সৌদির হামলায় হিজবুল্লাহর সামরিক বিশেষজ্ঞ নিহত দৈনিক নতুন বাজার
.............................................................................................
আমি জন্মগতভাবে বেয়াদব :
.............................................................................................
ভোটে হেরেও যেভাবে নেপালের প্রধানমন্ত্রী হলেন কেপি শর্মা
.............................................................................................
সংবাদমাধ্যমের কার্যালয়ে হামলা, যা বলল হোয়াইট হাউস
.............................................................................................
ইসরায়েলকে জবাবদিহিতায় আনতে সব চেষ্টা করবে আল-জাজিরা
.............................................................................................
মালদ্বীপের সর্বশেষ করোনা আপডেট ,
.............................................................................................
পঞ্চগড় জেলা পরিষদের অর্থায়নে খাটিয়া প্রদান
.............................................................................................
মালদ্বীপে করোনায় আক্রান্তের রেকর্ড ১০৯১
.............................................................................................
বিয়ের পর ভার্জিনিটি টেস্টে ফেল বউ, মারধর করে পণ-বিবাহ বিচ্ছেদ চাইল স্বামী
.............................................................................................
ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে আমায় চুপ করাতে চাইছে রাক্ষসী মমতা:
.............................................................................................
মালদ্বীপে ১দিনে আক্রান্তের রেকর্ড, কারফিউ ঘোষণা।
.............................................................................................
স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর গাড়িতে হামলা, যা বললেন মমতা
.............................................................................................
করোনার সব ধরনের ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে ‘কার্যকর’ টিকা আনল রাশিয়া
.............................................................................................
করোনা মহামারিতে শরীরে যেভাবে বাড়াবেন অক্সিজেন
.............................................................................................
করোনা আক্রান্ত বাবার হৃদয়বিদারক ভিডিও ভাইরাল
.............................................................................................
মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূতের সাথে ডব্লিউএইচওর প্রতিনিধি ডাঃ নাজনীন এর সৌজন্য সাক্ষাৎ।
.............................................................................................
কোটচাঁদপুর পৌর ৩নং ওয়ার্ডে বয়স্ক ভাতার কার্ড বিতরণ করলেন কাউন্সিলর জাহিদ হোসেন।
.............................................................................................
মালদ্বীপের চীফ জাস্টিস এর সাথে। বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ।
.............................................................................................
মমতাকে অভিনন্দন জানালেন মোদি
.............................................................................................
নন্দীগ্রামে হার, মমতার মুখ্যমন্ত্রী হওয়া নিয়ে জল্পনা-কল্পনা
.............................................................................................
মোদির পদত্যাগ চাওয়া হাজার হাজার পোস্ট আটকে দিল ফেসবুক
.............................................................................................
মালদ্বীপে ভবন থেকে পড়ে বাংলাদেশী রেমিট্যান্স যোদ্ধার মৃত্যু।
.............................................................................................
৭২ ঘণ্টার মধ্যে সাবমেরিন উদ্ধার করতে হবে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশকঃ এম.এ মান্নান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ খন্দকার আজমল হোসেন বাবু। র্বাতা সম্পাদক আবু ইউসুফ আলী মন্ডল, ফোন ০১৬১৮৮৬৮৬৮২

ঠিকানাঃ বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়- নারায়ণগঞ্জ, সম্পাদকীয় কার্যালয়- জাকের ভিলা, হাজী মিয়াজ উদ্দিন স্কয়ার মামুদপুর, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ। শাখা অফিস : নিজস্ব ভবন, সুলপান্দী, পোঃ বালিয়াপাড়া, আড়াইহাজার, নারায়ণগঞ্জ-১৪৬০, রেজিস্ট্রেশন নং 134 / নিবন্ধন নং 69 মোবাইল : 01731190131, 01930226862, E-mail : mannannews0@gmail.com, web: notunbazar71.com, facebook- notunbazar / সম্পাদক dhaka club
    2015 @ All Right Reserved By notunbazar71.com

Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop